20201002104319.jpg
বিচারক পদে ব্যারেটকে মনোনয়ন দিলেন ট্রাম্প

বিচারক পদে ব্যারেটকে মনোনয়ন দিলেন ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টের বিচারক রুথ ব্যাডের গিন্সবার্গের মৃত্যুতে খালি হওয়া পদে দলীয় প্রার্থী অ্যামি কনি ব্যারেটকে মনোনয়ন দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। 

স্থানীয় সময় শনিবার হোয়াইট হাউজের রোজ গার্ডেনে তিনি এ ঘোষণা দেন।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, সিনেটে সমর্থন পেলে উদারপন্থী বিচারক গিন্সবার্গের স্থলাভিষিক্ত হবেন ব্যারেট।

গত ১৮ সেপ্টেম্বর অগ্ন্যাশয়ের ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় ৮৭ বছর বয়সী গিন্সবার্গের।

মনোনয়ন ঘোষণার সময় ট্রাম্প বলেন, ব্যারেট মেধাবী ও সফল বিচারক। সংবিধানের প্রতি অবিচল আনুগত্য রয়েছে তার।

এদিকে ট্রাম্প মনোনীত ব্যারেটকে সমর্থন না দিতে সিনেটরদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জো বাইডেন।  

তিনি বলেন, ৩ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে পরবর্তী প্রেসিডেন্ট কে হবেন ও কংগ্রেস কেমন হবে, তা নির্ধারিত হওয়ার পরই সুপ্রিম কোর্টের বিচারক নিয়োগ দেওয়া উচিত। এর আগে বিচারক পদে কাউকে নিয়োগ করা ঠিক হবে না।

বাইডেন বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধান এমনভাবে প্রণয়ন করা হয়েছে, যাতে বিচারক নিয়োগের ক্ষেত্রে ভোটারদের মতামত প্রতিফলিত হয়। সে মুহূর্তটি এসেছে এবং জনগণের মতামতের গুরুত্ব পাওয়া উচিত। 

ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যের নটরডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের ল' স্কুল থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেন ব্যারেট। ২০১৭ সালে তাকে শিকাগোভিত্তিক সপ্তম আপিল বিভাগের সার্কিট কোর্টে বিচারক পদে নিয়োগ দেন ট্রাম্প।

সার্কিট কোর্টের বিচারক থাকাকালীন ট্রাম্পের কঠোর অভিবাসন নীতির পক্ষে রায় দেন ব্যারেট। অস্ত্র রাখার সম্প্রসারিত অধিকারের পক্ষেও মতামত দেন তিনি।  

রিপাবলিকান পার্টির আশা, মনোনীত হলে সাবেক ডেমোক্র্যাটিক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার স্বাস্থ্য বিমা আইন বাতিল করবেন ব্যারেট। 

'ওবামাকেয়ার' হিসেবে পরিচিত ওই আইন বাতিল  হলে যুক্তরাষ্ট্রের দুই কোটি জনগণ বিমা সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবেন।

এ বিষয়ে সিনেট সদস্যদের সতর্ক করে  ডেমোক্র্যাটিক পার্টির সিনেটর চাক শুমার বলেন, ‘ব্যারেটের পক্ষে একটি ভোট যুক্তরাষ্ট্রের লাখ লাখ জনগণের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিহ্ন করবে।’

গিন্সবার্গের মৃত্যুর পরই নতুন বিচারক নিয়োগে তোড়জোর শুরু করে রিপাবলিকানরা। তাদের এ মনোভাবকে ভণ্ডামি হিসেবে দেখছেন বিশ্লেষকরা।

শেয়ার করুন