20201002104319.jpg
বাইডেন বনাম ট্রাম্প: কাকে এগিয়ে রাখছেন ভোক্তারা?

বাইডেন বনাম ট্রাম্প: কাকে এগিয়ে রাখছেন ভোক্তারা?

সব ঠিকঠাক থাকলে এ বছরের ৩ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোট। এ নির্বাচনে আমেরিকান ভোক্তারা রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ডনাল্ড ট্রাম্প নাকি ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী জো বাইডেনকে এগিয়ে রাখছেন, তা নিয়ে জরিপ চালিয়েছে মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়।
 
এতে বিভিন্ন সূচকে দুই প্রার্থীর পক্ষেই ভোট দিয়েছেন অংশগ্রহণকারীরা।
 
আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, জরিপে অংশগ্রহণকারীদের ৪৮ শতাংশ মনে করছেন, প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হবেন বাইডেন। অন্যদিকে, ৪৭ শতাংশ অংশগ্রহণকারী ট্রাম্প নির্বাচিত হতে পারেন বলে মত দিয়েছেন।
 
অর্থনীতির জন্য কে ভালো হবেন এমন প্রশ্নে ৩৮ শতাংশ উত্তরদাতা ট্রাম্পকে বেছে নিয়েছেন। বাইডেন ভালো হবেন বলে মনে করেন ৩৩ শতাংশ উত্তরদাতা।
 
অন্যদিকে অংশগ্রহণকারীদের ৪০ শতাংশ মনে করেন, নির্বাচনে যেই জিতুক না কেন তাদের ব্যক্তিগত অর্থনৈতিক অবস্থায় তেমন কোনো পরিবর্তন আসবে না।
 
প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ১৯৭৬ সাল থেকে এই জরিপটি চালাচ্ছে মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়। নির্বাচনে কে জিতবে, সে প্রশ্ন করা হয় জরিপে অংশগ্রহণকারীদের।
 
একটি নির্বাচন ছাড়া অন্য সব নির্বাচনে অনুমান ঠিক হয়েছিল জরিপে অংশ নেওয়া আমেরিকান ভোক্তাদের।
২০১৬ সালে দুই-তৃতীয়াংশ ভোক্তা হিলারি ক্লিনটন প্রেসিডেন্ট হবেন বলে মত দিয়েছিলেন।
 
গত জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জরিপের জন্য তথ্য সংগ্রহ করা হয়। প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, এ নির্বাচনে ভোক্তারা বাইডেন ও ট্রাম্পের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আশা করছেন।
 
জরিপ প্রতিবেদনে বলা হয়, সেপ্টেম্বর মাসে ভোক্তা সংবেদনশীলতা চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছায়। যদিও ফেব্রুয়ারিতে করোনা মহামারী শুরুর পর সংবেদনশীলতা আরও ২২ শতাংশ বেশি ছিল।
 
এই জরিপ থেকে বোঝা যায়, ভোক্তাদের মনোভাব তৈরিতে আমেরিকান নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।
সেপ্টেম্বর মাসে প্রাপ্ত তথ্য বলছে, অর্থনীতি নিয়ে ডেমোক্র্যাটদের মধ্যে আশা বাড়ছে। অন্যদিকে রিপাবলিকানদের মধ্যে এই আশাবাদ দুর্বল হচ্ছে।
 
করোনার প্রভাবে বিপুলসংখ্যক মানুষ কাজ হারাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রে। গত সপ্তাহে প্রায় সাড়ে ৮ লাখের বেশি মানুষ বেকার ভাতার জন্য আবেদন করেছে।আগস্টের শেষের দিকে প্রায় তিন কোটি মানুষ কেন্দ্রীয় সরকার ও স্থানীয় পর্যায়ে বেকারদের জন্য বরাদ্দকৃত সুযোগ-সুবিধা নিয়েছেন।

শেয়ার করুন