× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

স্বাস্থ্য
2 more deaths due to dengue
google_news print-icon

ডেঙ্গুতে আরও ২ মৃত্যু

ডেঙ্গুতে-আরও-২-মৃত্যু
ফাইল ছবি
সাধারণত অক্টোবরে ডেঙ্গুর প্রকোপ কমতে থাকে দেশে। সে হিসেবে ডিসেম্বরে ডেঙ্গুতে মৃত্যু অনেকটা অস্বাভাবিক। তবে এবার জানুয়ারি শেষ হতে চললেও একেবারে নিয়ন্ত্রণে আসেনি ডেঙ্গু।

এডিস মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গুতে দেশে আরও দুজনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন করে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন আরও ১৪ জন।

বুধবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম থেকে পাঠানো বিবৃতিতে গত ২৪ ঘণ্টার এ তথ্য জানানো হয়।

সাধারণত অক্টোবরে ডেঙ্গুর প্রকোপ কমতে থাকে দেশে। সে হিসেবে ডিসেম্বরে ডেঙ্গুতে মৃত্যু অনেকটা অস্বাভাবিক। তবে এবার জানুয়ারি শেষ হতে চললেও একেবারে নিয়ন্ত্রণে আসেনি ডেঙ্গু।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, চলতি বছর প্রথম মাসেই ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর সর্বশেষ ডেঙ্গু আক্রান্তদের মধ্যে ঢাকায় আট ও ঢাকার বাইরে ছয়জন রোগী আছেন।

এ নিয়ে বর্তমানে দেশে ৮০ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি আছেন। এদের মধ্যে ঢাকার ৫৩টি হাসপাতালে ৩৯ জন ও ঢাকার বাইরে ৩৯ জন রোগী রয়েছেন।

বছরের শুরু থেকে শেষ দিন ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ৪৩৮ ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২০৯ জন এবং ঢাকার বাইরে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ২২৯।

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হওয়ার পর হাসপাতাল থেকে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৫৩ জন। তাদের মধ্যে ঢাকায় ১৬৮ ঢাকার বাইরে ১৮৫ জন রয়েছেন।

আরও পড়ুন:
ডেঙ্গুতে মৃত্যুহীন দিনে হাসপাতালে আরও ১৪ রোগী
মৃত্যুহীন দিনে হাসপাতালে ৬৫ ডেঙ্গু রোগী
ডেঙ্গুতে ৬৭ জন হাসপাতালে

মন্তব্য

আরও পড়ুন

স্বাস্থ্য
Sleiman who transplanted pig kidneys has died

শূকরের কিডনি নেয়া স্লেম্যান মারা গেছেন

শূকরের কিডনি নেয়া স্লেম্যান মারা গেছেন বিশ্বে প্রথমবারের মতো শূকরের কিডনি প্রতিস্থাপনকারী রিচার্ড স্লেম্যান। ছবি: সংগৃহীত
যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতালে গত মার্চে রিচার্ড স্লেম্যানের দেহে শূকরের কিডনি প্রতিস্থাপন করা হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি, তার মৃত্যুর সঙ্গে কিডনি ট্রান্সপ্লান্টের কোনো সম্পর্ক নেই।

বিশ্বে প্রথমবারের মতো শূকরের কিডনি নেয়া ৬২ বছর বয়সী রিচার্ড স্লেম্যান মারা গেছেন। পরিবারের পক্ষ থেকে শনিবার এ খবর জানানো হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতালে গত মার্চ মাসে চার ঘণ্টার অস্ত্রপাচারের মাধ্যমে রিচার্ড স্লেম্যানের দেহে শূকরের কিডনি প্রতিস্থাপন করা হয়। অস্ত্রপাচারের দুই সপ্তাহ পর ২ এপ্রিল হাসপাতাল থেকে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দাবি করেছে, স্লেম্যানের আকস্মিকভাবে চলে যাওয়ার সঙ্গে কিডনি ট্রান্সপ্লান্টের কোনো সম্পর্ক নেই।

ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতাল এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘ম্যাস জেনারেল ট্রান্সপ্লান্ট দল স্লেম্যানের আকস্মিক মৃত্যুতে গভীরভাবে শোকাহত। সাম্প্রতিক ট্রান্সপ্লান্টের ফল তার মৃত্যুর জন্য দায়ী এমন কোনো প্রমাণ আমাদের কাছে নেই।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, স্লেম্যানকে বিশ্বব্যাপী অগণিত কিডনি প্রতিস্থাপন রোগীদের জন্য আশার আলোকবর্তিকা হিসেবে দেখা হবে। জেনোট্রান্সপ্লান্টেশনের জন্য তার আস্থা ও ইচ্ছার প্রতি আমরা গভীরভাবে কৃতজ্ঞ। আমরা স্লেম্যানের পরিবার ও তাদের প্রিয়জনদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানাই। আমরা একজন অসাধারণ ব্যক্তিকে স্মরণ করছি যার উদারতা সবাইকে স্পর্শ করেছে।’

স্লেম্যানের পরিবার এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘আমাদের পরিবার আমাদের প্রিয় রিক-এর আকস্মিক মৃত্যুতে গভীরভাবে শোকাহত। কিন্তু তিনি অনেককে অনুপ্রাণিত করেছেন ভেবে আমরা সান্ত্বনা পাই। বিশ্বব্যাপী কয়েক মিলিয়ন মানুষ রিক-এর গল্প জানতে পেরেছে। রিক কিডনি প্রতিস্থাপনের অপেক্ষায় থাকা রোগীদের আশাবাদী করে তুলেছেন।’

ম্যাস জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক ও তার পরিচর্যা দলকে ধন্যবাদ জানিয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘আমরা ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতাল ও তার পরিচর্যাকারী দলের প্রতি অত্যন্ত কৃতজ্ঞ। চিকিৎসক দল রিককে দ্বিতীয় সুযোগ দেয়ার জন্য যথাসাধ্য সাহায্য করেছেন। ‘জেনোট্রান্সপ্ল্যান্ট আমাদের পরিবারকে রিকের সঙ্গে আরও সাত সপ্তাহ থাকার সুযোগ দিয়েছে। এ সময়ের মধ্যে তার সঙ্গে তৈরি হওয়া স্মৃতিগুলো আমাদের হৃদয়ে থাকবে।’

বোস্টনের ওয়েইমাউথের বাসিন্দা স্লেম্যান অনেক বছর ধরে টাইপ টু ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায় ভুগছিলেন। এছাড়া তিনি বেশ কয়েক বছর ধরে ডায়ালাইসিসে ছিলেন। ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতাল ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে একজন মৃত ব্যক্তির কিডনি স্লেম্যানের দেহে প্রতিস্থাপন করেন।

তবে প্রায় পাঁচ বছর পর সেই কিডনি অকার্যকর হতে শুরু করে এবং স্লেম্যান ২০২৩ সালের মে মাস থেকে পুনরায় ডায়ালাইসিস শুরু করেন।

পরবর্তীতে বিশ্বের প্রথম মানব হিসেবে তিনি নিজ দেহে শূকরের কিডনি প্রতিস্থাপন করেন। শূকরের কিডনি সরবরাহ করে কেমব্রিজের ইজেনেসিস ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি। সিআরআইএসপিআর-সিএএসনাইন প্রযুক্তির সহায়তায় জিনগত সম্পাদনার মাধ্যমে শূকরের কিডনিটি সরবরাহ করা হয়। হাসপাতালের দেয়া তথ্যমতে, স্লেম্যানের দেহে প্রতিস্থাপনের আগে শূকরের ক্ষতিকারক জিনগুলো সরিয়ে মানুষের সঙ্গে এর সামঞ্জস্য করার জন্য কিছু মানব জিন যুক্ত করা হয়।

আরও পড়ুন:
দেড় হাজার কিডনি প্রতিস্থাপন, বাংলাদেশি চিকিৎসকের রেকর্ড
‘৬৫ ভাগ রোগী জানেন না তাদের কিডনি বিকল’ 
দেশে প্রথমবারের মতো ‘ব্রেন ডেড’ রোগীর কিডনি প্রতিস্থাপন
‘ঋণ শোধে ব্যর্থ হলেই’ কিডনি বিক্রি, ৭ দালাল গ্রেপ্তার
কলকাতায় কিডনি প্রতিস্থাপন করছে রোবট

মন্তব্য

স্বাস্থ্য
Zahid Malek in Times 100 most influential list

টাইমের ১০০ প্রভাবশালীর তালিকায় জাহিদ মালেক

টাইমের ১০০ প্রভাবশালীর তালিকায় জাহিদ মালেক সাবেক স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। ছবি: সংগৃহীত
টাইম ম্যাগাজিনের প্রতিবেদনে বলা হয়, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী হিসেবে জাহিদ মালেক পাঁচ বছর বিতর্কমুক্ত ছিলেন না। তবে তিনি কার্যকর টিকাদান কর্মসূচি সম্পাদন করেন, যার ফলে বাংলাদেশে মাথাপিছু মৃত্যু প্রতিবেশী ভারতের তুলনায় অর্ধেকেরও কম ছিল।

বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য খাতে বিশেষ অবদান রাখা ১০০ জন প্রভাবশালী ব্যক্তির তালিকা প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের জনপ্রিয় পত্রিকা টাইম ম্যাগাজিন।

২ মে এই প্রকাশ করা এই তালিকায় স্থান পেয়েছেন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বর্তমানে তিনি মানিকগঞ্জ-৩ (সদর ও সাটুরিয়া) আসনের সংসদ সদস্য।

প্রতিবেদনে জাহিদ মালেককে নিয়ে বলা হয়, ‘বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সোচ্চার সমর্থক হিসেবে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী হিসেবে জাহিদ মালেক পাঁচ বছর বিতর্কমুক্ত ছিলেন না। তিনি দুর্নীতির অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছিলেন এবং তার প্রারম্ভিক মহামারি প্রতিক্রিয়ার জন্য তীব্র সমালোচনার সম্মুখীন হন।

‘তবে এরপর তিনি একটি কার্যকর টিকাদান কর্মসূচি সম্পাদন করেন, যার ফলে ঘনবসতিপূর্ণ দক্ষিণ এশীয় দেশটিতে মাথাপিছু মৃত্যুর সংখ্যা প্রতিবেশী দেশ ভারতের তুলনায় অর্ধেকেরও কম ছিল। জানুয়ারিতে পদত্যাগ করা সত্ত্বেও মালেক তার সাড়ে ১৭ কোটি দেশবাসীর উন্নতির জন্য প্রশংসিত হচ্ছেন।’

কালাজ্বর (ভিসারাল লেশম্যানিয়াসিস) নির্মূলের জন্য বাংলাদেশ ২০২৩ সালে ইতিহাস তৈরি করেছিল। এটি মাছি দ্বারা সংক্রমিত একটি রোগ যার চিকিৎসা না করা হলে ৯৫ শতাংশ ক্ষেত্রে মৃত্যু হয়।

এ ছাড়া গত বছর বাংলাদেশ (লিম্ফ্যাটিক ফাইলেরিয়াসিস) মশা দ্বারা সংক্রমিত একটি দুর্বল পরজীবী রোগ নির্মূল করতে সফল হয়েছে। এই জোড়া সাফল্যের মাধ্যমে ইতিহাসের প্রথম জাতি হিসেবে বাংলাদেশ এক বছরে দুটি অসংক্রামক রোগ নির্মূল করেছে।

শিশুমৃত্যুর হার ব্যাপকভাবে কমানোর জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) এর আগে জাহিদ মালেককে সম্মানিত করে। মালেক বাংলাদেশে হলুদের মধ্যে সীসার উপাদান কমিয়ে আনার উদ্যোগে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। এই সংসদ সদস্য বর্তমান সরকারের মন্ত্রিপরিষদে নেই।

মন্তব্য

স্বাস্থ্য
16 people lost their lives due to heat stroke in 15 days Department of Health

হিট স্ট্রোকে ১৫ দিনে প্রাণ হারিয়েছে ১৬ জন: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

হিট স্ট্রোকে ১৫ দিনে প্রাণ হারিয়েছে ১৬ জন: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর প্রতীকী ছবি।
এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহ থেকে প্রায় এক মাস ধরে দেশে মৃদু থেকে অতি তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যায়। এই সময়কালে দেশের বিভিন্ন স্থানে গরমে অসুস্থ হয়ে মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। তবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ২২ এপ্রিল থেকে হিট স্ট্রোকে মৃত্যুর রেকর্ড রাখা শুরু করেছে।

দেশজুড়ে দীর্ঘ সময় ধরে তাপপ্রবাহ চলাকালে হিট স্ট্রোকে ১৬ জন প্রাণ হারিয়েছেন। তাদের মধ্যে রোববার পর্যন্ত ১৪ দিনে হিট স্ট্রোকে মারা গেছেন কমপক্ষে ১৫ জন। সোমবার সকাল পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন আরও একজন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার অ্যান্ড কন্ট্রোল রুম (এইচইওসি/সিআর) সোমবার এ তথ্য জানিয়েছে।

এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহ থেকে প্রায় এক মাস ধরে দেশে মৃদু থেকে অতি তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যায়। চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে বৃষ্টি হওয়ায় সারাদেশে তাপমাত্রা কমতে শুরু করে। তাপপ্রবাহের এই সময়কালে দেশের বিভিন্ন স্থানে গরমে অসুস্থ হয়ে মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

তবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ২২ এপ্রিল থেকে হিট স্ট্রোকের কারণে মৃত্যুর রেকর্ড রাখা শুরু করেছে।

তাপপ্রবাহের কারণে ২ মে পর্যন্ত প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুল, কলেজ এবং মাদ্রাসা বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। রোববার থেকে তা পুনরায় শুরু হয়েছে।

আরও পড়ুন:
তিন জেলায় ‘হিট স্ট্রোকে’ ৯ জনের মৃত্যুর খবর
হিটস্ট্রোকে মাদারীপুরে ভাঙারি ব্যবসায়ী ও কৃষকের মৃত্যু
মুন্সীগঞ্জে হিটস্ট্রোকে প্রাণ গেল প্রাণ-আরএফএলের মাঠকর্মীর

মন্তব্য

স্বাস্থ্য
National guidelines to avoid heat related health risks are being launched on Sunday

তাপজনিত স্বাস্থ্য ঝুঁকি এড়াতে জাতীয় নির্দেশিকা আসছে

তাপজনিত স্বাস্থ্য ঝুঁকি এড়াতে জাতীয় নির্দেশিকা আসছে ফাইল ছবি।
স্বাস্থ্য ও অন্যান্য খাতের বিশেষজ্ঞদের সহযোগিতায় তৈরি জাতীয় নির্দেশিকায় তাপ-সম্পর্কিত স্বাস্থ্য ঝুঁকি কার্যকরভাবে মোকাবিলা করতে বিস্তৃত নির্দেশনা থাকবে।

অন্তঃসত্ত্বা নারীসহ শিশু ও ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীকে তাপজনিত স্বাস্থ্য ঝুঁকি থেকে রক্ষায় জাতীয় নির্দেশিকা চালু হচ্ছে। রোববার (৫ মে) আনুষ্ঠানিকভাবে এই নির্দেশিকা উদ্বোধন করা হবে।

ইউনিসেফের সহায়তায় বাংলাদেশের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর (ডিজিএইচএস) এই জাতীয় গাইডলাইন চালু করছে।

স্বাস্থ্য ও অন্যান্য খাতের বিশেষজ্ঞদের সহযোগিতায় তৈরি জাতীয় নির্দেশিকায় তাপ-সম্পর্কিত স্বাস্থ্য ঝুঁকি কার্যকরভাবে মোকাবিলা করতে বিস্তৃত নির্দেশনা থাকবে।

এই গাইডলাইনের উন্নয়ন এবং হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে স্বাস্থ্যসেবা কর্মীদের প্রশিক্ষণ নিশ্চিত করতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছে ইউনিসেফ।

শনিবার ইউনিসেফ জানায়, সর্বজনীন স্বাস্থ্য কর্মসূচি অর্জন এবং নাগরিকদের বিশেষ করে শিশু, গর্ভবতী নারী ও গর্ভের সন্তানের কল্যাণ নিশ্চিত করতে এই আয়োজন গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক।

তাপজনিত অসুস্থতাবিষয়ক জাতীয় নির্দেশিকার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. রোকেয়া সুলতানা।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে যোগ দেবেন স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব জাহাঙ্গীর আলম, ইউনিসেফ বাংলাদেশের প্রতিনিধি এমা ব্রিগহাম এবং অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম।

আরও পড়ুন:
যশোরে রেকর্ড সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪৩ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস
ঢাকার তাপমাত্রা উঠেছে ৪০.৫ ডিগ্রিতে, মঙ্গলবার আরও বাড়বে
গরমে ডাবের দামে পিপাসা আরও বাড়ছে
ট্রাফিক পুলিশের তৎপরতায় রক্ষা পেল রিকশাচালকের প্রাণ
দেশে উচ্চ তাপমাত্রার নতুন রেকর্ড হতে পারে মে মাসে

মন্তব্য

স্বাস্থ্য
3 more deaths due to dengue 9 people admitted to hospital

ডেঙ্গুতে আরও ৩ মৃত্যু, হাসপাতালে ভর্তি ৯ জন

ডেঙ্গুতে আরও ৩ মৃত্যু, হাসপাতালে ভর্তি ৯ জন ডেঙ্গু রোগের বাহক এডিস মশা। ফাইল ছবি
সবশেষ তিনজনসহ চলতি বছরের প্রথম চার মাসে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মোট ২৭ জন মারা গেলেন। তাদের মধ্যে পুরুষ ১৩ ও নারী ১৪ জন।

এডিস মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে দেশে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে এই সময়ের মধ্যে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন আরও ৯ জন।

সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় ঢাকার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৩ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী। আর ঢাকার বাইরের হাসপাতালে নতুন করে ভর্তি হয়েছেন ৬ জন রোগী।

সবশেষ তিনজনসহ চলতি বছরের প্রথম চার মাসে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মোট ২৭ জন মারা গেলেন। তাদের মধ্যে পুরুষ ১৩ ও নারী ১৪ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম শুক্রবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায়।

সরকারি প্রতিবেদন অনুযায়ী, চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ৩ মে পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন মোট দু’হাজার ২৪৮ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ১ হাজার ৩৭৮ ও নারী ৮৭০ জন।

আরও পড়ুন:
ডেঙ্গু রোধে ডাবের খোসা-চিপসের প্যাকেট কিনে নেবে ডিএনসিসি
২৩ বছরে মোট রোগীর চেয়ে ২০২৩ সালে ডেঙ্গু রোগী বেশি ছিল
ডেঙ্গুতে আরও দুজনের মৃত্যু
২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গুতে ২ মৃত্যু

মন্তব্য

স্বাস্থ্য
Prime Minister received eye treatment at NIO as a general patient

সাধারণ রোগী হিসেবে এনআইও-তে চোখের চিকিৎসা নিলেন প্রধানমন্ত্রী

সাধারণ রোগী হিসেবে এনআইও-তে চোখের চিকিৎসা নিলেন প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শুক্রবার সকালে এনআইও হাসপাতালে সাধারণ রোগীর মতো বহির্বিভাগে লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট কেনেন। ছবি: পিআইডি
প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইংয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে শুক্রবার জানানো হয়, সরকার প্রধান শুক্রবার সকালে এনআইও হাসপাতালে যান এবং সাধারণ রোগীর মতো বহির্বিভাগে লাইনে দাঁড়িয়ে ১০ টাকার টিকিট কেনেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে (এনআইও) চোখের চিকিৎসা নিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইংয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে শুক্রবার এ তথ্য জানানো হয়।

সাধারণ রোগী হিসেবে এনআইও-তে চোখের চিকিৎসা নিলেন প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুক্রবার টিকিট কেটে এনআইও হাসপাতালে চোখের চিকিৎসা নেন। ছবি: পিআইডি

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সরকার প্রধান এদিন সকালে এনআইও হাসপাতালে যান এবং সাধারণ রোগীর মতো বহির্বিভাগে লাইনে দাঁড়িয়ে ১০ টাকার টিকিট কেনেন।

এর আগেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিয়মিত এই হাসপাতাল থেকে চোখের চিকিৎসা নিয়েছেন।

আরও পড়ুন:
কর্মীদের মূল্যায়ন করা উচিত: শেখ হাসিনা
যুক্তরাষ্ট্রের নিজস্ব মানবাধিকার পরিস্থিতির ওপর নজর দেয়া উচিত: প্রধানমন্ত্রী
আমার পরে কে: প্রধানমন্ত্রী
‘পঁচাত্তরের পর সবচেয়ে সুষ্ঠু নির্বাচন ২০২৪ সালে’
থাইল্যান্ড সফর নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী

মন্তব্য

স্বাস্থ্য
No one except BMDC has right to say wrong treatment Health Minister

ভুল চিকিৎসা বলার অধিকার বিএমডিসি ছাড়া কারও নেই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ভুল চিকিৎসা বলার অধিকার বিএমডিসি ছাড়া কারও নেই: স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন বুধবার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ নিউরো সায়েন্সে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় বক্তব্য দেন। ছবি: নিউজবাংলা
সামন্ত লাল সেন বলেন, ‘ভুল চিকিৎসার অজুহাতে চিকিৎসকদের ওপর যে আক্রমণ হয় তা অত্যন্ত ন্যক্কারজনক। ভুল চিকিৎসার নাম করে চিকিৎসকদের মারধর, বিশেষ করে নারী চিকিৎসকদের ওপর আক্রমণ মেনে নেয়া যায় না।’

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন বলেছেন, ‘ভুল চিকিৎসা বলার অধিকার আপনার বা আমার কারও নেই। এটা বলার অধিকার রাখে শুধু বিএমডিসি (বাংলাদেশ মেডিক্যাল ডেন্টাল কাউন্সিল)।’

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ নিউরো সায়েন্সে বুধবার অনুষ্ঠিত ১২তম আন্তর্জাতিক এবং দ্বিতীয় এসিএনএস-বিএসএনএস হাইব্রিড কনফারেন্স ও ক্যাডাভেরিক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

সামন্ত লাল সেন বলেন, ‘ভুল চিকিৎসার অজুহাতে চিকিৎসকদের ওপর যে আক্রমণ হয় তা অত্যন্ত ন্যক্কারজনক। ভুল চিকিৎসার নাম করে চিকিৎসকদের মারধর, বিশেষ করে নারী চিকিৎসকদের ওপর আক্রমণ মেনে নেয়া যায় না।’

বাংলাদেশের চিকিৎসকদের সক্ষমতার উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘আমি মনেপ্রাণে বিশ্বাস করি, আমাদের চিকিৎসকদের মেধা ও দক্ষতা বিশ্বের যে কোনো দেশের চিকিৎসকদের চেয়ে কম না।’ জোড়া মাথার জমজ শিশু রোকেয়া-রাবেয়ার অপারেশনের উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, ‘যদিও ওই অপারেশনে হাঙ্গেরির চিকিৎসকরা ছিলেন, তবে আমাদের দেশের নিউরোসার্জনরাই সেখানে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রেখেছেন।’

সামন্ত লাল সেন বলেন, ‘প্রথম যখন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে বাচ্চা দুটির এন্ড্রোভাস্কুলার সেপারেশন হয়, সেই রাতের ৩টা-৪টা পর্যন্ত আমি নিজের চোখে আমাদের এনেস্থেটিক ও নিউরোসার্জনদের ইচ্ছা, দক্ষতা ও সামর্থ্য দেখেছি যা আমাকে বিস্মিত করেছে।

তরুণ চিকিৎসকদের প্রতি মেধা ও মনোযোগ দিয়ে সর্বোচ্চ সেবা দেয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশকে আমরা এমন এক জায়গায় নিয়ে যেতে চাই, যেখানে দেশের মানুষ চিকিৎসক সমাজকে সম্মান করে।

‘আমরা যদি সকাল ৮ থেকে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত মনোযোগ দিয়ে সার্ভিস দিই, রোগীদের সেবা দিই, তাহলে মানুষ সম্মান করবে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের কোনো কিছুর অভাব নেই। আমাদের মেধা আছে। সেই মেধা দিয়ে তোমরা সর্বোচ্চ সেবা দাও, তোমাদের সুরক্ষা আমি দেব। ডাক্তার হিসেবে তোমাদের প্রতি এটাই আমার প্রতিশ্রুতি।’

বাংলাদেশ সোসাইটি অফ নিউরোসার্জন্স-এর প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ হোসাইনের সভাপতিত্বে আয়োজিত কর্মশালায় সম্মানিত অতিথি ছিলেন বিএমএ’র মহাসচিব ডা. ইহতেশামুল হক চৌধুরী, নিনস্-এর যুগ্ম পরিচালক অধ্যাপক ডা. বদরুল আলম প্রমুখ।

আরও পড়ুন:
ঈদের দিন আকস্মিক তিন হাসপাতাল পরিদর্শনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী
ঈদের ছুটিতে দুই হাসপাতাল পরিদর্শন স্বাস্থ্যমন্ত্রীর
ঈদের ছুটিতে কখন কোন হাসপাতালে যাব বলব না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
শিশুদের স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়নে আগ্রহী ইউনিসেফ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
চিকিৎসা সহজলভ্য করতে সব করব: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মন্তব্য

p
উপরে