× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

স্বাস্থ্য
Why and how to overcome postpartum depression
hear-news
player
google_news print-icon

প্রসব-পরবর্তী বিষণ্নতা কেন, কাটবে কীভাবে

প্রসব-পরবর্তী-বিষণ্নতা-কেন-কাটবে-কীভাবে
ছবি: সংগৃহীত
সন্তান জন্মদানের চার সপ্তাহের মধ্যে শুরু হয়। যদিও এটির কোনো নির্দিষ্ট সময়সীমা নেই। বরং বিষণ্নতার তীব্রতার ওপর নির্ভর করে। তবে এটি নিয়ে চিন্তিত হওয়ার কারণ নেই। ধরন অনুযায়ী এর চিকিৎসা রয়েছে।

সন্তান জন্মের পর নারীদের শারীরিক ও মানসিক কিছু পরিবর্তন ঘটে। এতে তাদের মধ্যে দেখা দেয় হতাশা, মন খারাপ। অনেক নারীই সদ্যোজাত সন্তানকে নিয়ে দিকশূন্য হয়ে পড়েন। পরিবারের সবাই যখন নতুন অতিথিকে নিয়ে ব্যস্ত, তখন মেয়ের দিকে যেন কারও খেয়ালই নেই। এমন অবস্থায় সন্তান সামলানো, অসহায়ত্ব থেকে ভেঙে পড়েন অনেকে। এটি হতাশা থেকে হতে পারে তীব্র মানসিক সমস্যা। একে মেডিক্যালের ভাষার পোস্টপার্টাম ডিপ্রেশন বা প্রসব-পরবর্তী বিষণ্নতা বলা হয়। সন্তান জন্মের পর এটি বেশির ভাগ নারীর মধ্যে দেখা দেয়।

ওয়েবএমডির একটি প্রতিবেদন বলছে, এটি সন্তান জন্মদানের চার সপ্তাহের মধ্যে শুরু হয়। যদিও এটির কোনো নির্দিষ্ট সময়সীমা নেই। বরং বিষণ্নতার তীব্রতার ওপর নির্ভর করে। তবে এটি নিয়ে চিন্তিত হওয়ার কারণ নেই। ধরন অনুযায়ী এর চিকিৎসা রয়েছে।

এর লক্ষ্মণগুলো মানসিক পরিবর্তনের সঙ্গে সামাজিক পরিবর্তনও সম্পর্কিত। ওষুধ এবং কাউন্সেলিংয়ের মাধ্যমে এর চিকিৎসা করা যায়।

এ ক্ষেত্রে রাসায়নিক যে পরিবর্তন ঘটে, তা হরমোন দ্রুত কমে যাওয়ার জন্য হতে পারে। তবে হরমোন কমে যাওয়া এবং হতাশার প্রকৃত যোগসূত্র পুরোপুরি পরিষ্কার নয়। যেটি স্পষ্ট তা হলো, নারীদের প্রজননের জন্য ইস্ট্রোজেন এবং প্রজেস্টেরন হরমোন রয়েছে, গর্ভাবস্থায় যা ১০ গুণ বেড়ে যায়। প্রসবের পর সেটি খুব দ্রুত কমে যায়।

লক্ষ্মণ কী?

প্রসব-পরবর্তী বিষণ্নতার উল্লেখযোগ্য লক্ষ্মণগুলো হলো-

  • ঘুমের সমস্যা
  • ক্ষুধা না লাগা বা খাবারে অরুচি
  • তীব্র ক্লান্তি
  • ঘন ঘন মেজাজ পরিবর্তন অর্থাৎ মুড সুইং
  • যৌন ইচ্ছা কমে যাওয়া

এগুলো ছাড়াও বিষণ্নতা তীব্র হলে আরও কিছু লক্ষ্মণ দেখা দিতে পারে-

  • সন্তানের প্রতি অনাগ্রহ
  • প্রচণ্ড রাগ
  • নিজেকে অসহায় মনে করা
  • কাউকে আঘাত করা
  • মনোযোগের অভাব
  • এমনকি আত্মহত্যার প্রবণতাও আসতে পারে

চিকিৎসা

প্রসব-পরবর্তী বিষণ্নতার চিকিৎসা নানাভাবে করা যেতে পারে। সাধারণত উপসর্গের ধরন বুঝে এটি করা হয়। এর মধ্যে অ্যান্টি-অ্যাংজাইটি বা অ্যান্টি-ডিপ্রেসেন্ট ওষুধ, সাইকোথেরাপি রয়েছে। তবে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন মানসিক সাপোর্ট। এ সময় কাছের মানুষদের তার পাশে থাকা খুব জরুরি।

এ ক্ষেত্রে অনেকে এটি ধরে নেন, বুকের দুধ খাওয়ালে ধরে নেবেন না যে আপনি বিষণ্নতা বা সাইকোসিসের জন্য ওষুধ খেতে পারবেন না। এটি ভাবার কারণ নেই। চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলুন। ডাক্তারের তত্ত্বাবধানে অনেক নারী বুকের দুধ খাওয়ানোর সময় এই ওষুধ খেতে পারেন।

মন্তব্য

আরও পড়ুন

স্বাস্থ্য
Womens rights not important Taliban

নারীর অধিকার গুরুত্বপূর্ণ নয়: তালেবান

নারীর অধিকার গুরুত্বপূর্ণ নয়: তালেবান আফগানিস্তানে নারীদের ওপর আরোপিত হয়েছে একাধিক বিধিনিষেধ। ছবি: এএফপি
গত ২০ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ে নারীদের উচ্চশিক্ষা নিষিদ্ধ ঘোষণা করে বিশ্বব্যাপী সমালোচনার মুখে পড়ে তালেবান। এরপর দেশটিতে এনজিওতে নারীদের কাজ নিষিদ্ধ করা হয়। এ নিয়ে দেশটিতে বিক্ষোভও করেন নারীরা।

নারীর ওপর আরোপিত বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করা তালেবানের জন্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নয় বলে জানিয়েছেন গোষ্ঠীটির মুখমাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম খামা প্রেসের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএনআইর প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

তালেবানের মুখপাত্র জবিউল্লাহ শনিবার একটি বিবৃতিতে বলেন, ‘ইসলামিক আইনের ওপরে নির্ভর করেই ইসলামিক শাসন জারি থাকবে। নারীদের ওপর আরোপিত বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করাটা কখনোই সরকারের কাছে অগ্রাধিকার পাবে না।’

গত ২০ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ে নারীদের উচ্চশিক্ষা নিষিদ্ধ ঘোষণা করে বিশ্বব্যাপী সমালোচনার মুখে পড়ে তালেবান। এরপর দেশটিতে এনজিওতে নারীদের কাজ নিষিদ্ধ করা হয়। এ নিয়ে দেশটিতে বিক্ষোভও করেন নারীরা।

নারীদের ওপর এসব বিধিনিষেধ আরোপ করায় নিন্দা জানিয়েছে জাতিসংঘসহ বিভিন্ন পশ্চিমা দেশ। গত বছরের আগস্টে জাতিসংঘের প্রতিবেদনে বলা হয়, আফগানিস্তানে নারীদের শিক্ষার সীমিত প্রবেশাধিকারের কারণে ১২ মাসে দেশটির আনুমানিক ৫০ কোটি ডলার ক্ষতি হয়েছে।

বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম আন্তর্জাতিক সংস্থা অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশন (ওআইসি) অবিলম্বে আফগানিস্তানে লিঙ্গভিত্তিক বৈষম্য তুলে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে।

আরও পড়ুন:
আফগানিস্তানে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বাইরে বিস্ফোরণ, নিহত ২০
তালেবানের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযানে নামছে পাকিস্তান
পড়তে চাই, তালেবান মানি না: আফগান কিশোরী
নারীদের কাজে নিষেধাজ্ঞা: আফগানিস্তানে ৫ এনজিওর কার্যক্রম স্থগিত
আফগানিস্তানে এনজিওতে নারী নিষিদ্ধ

মন্তব্য

স্বাস্থ্য
France is changing the name of a city to raise awareness of gender equality

লিঙ্গ সমতায় শহরের নাম বদল করল ফ্রান্স

লিঙ্গ সমতায় শহরের নাম বদল করল ফ্রান্স ফ্রান্সের পঁতা শহর এ বছর পরিচিত হবে পঁতে নামে। ছবি: সংগৃহীত
ফরাসিতে ‘পঁতা’ শব্দটি পুরুষবাচক, এটি পরিবর্তন করে এক বছরের জন্য নারীবাচক ‘পঁতে’ রাখা হয়েছে। নগর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শহরের নাম পরিবর্তন হলেও রাস্তাঘাটের নামে হেরফের আসছে না। 

লিঙ্গ সমতা নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে শহরের নাম বদলানোর ঘোষণা দিয়েছেন ফ্রান্সের পঁতা শহরের মেয়র বার্ট্রান্ড কার্ন। খ্রিষ্টীয় নববর্ষ উপলক্ষে দেয়া টুইটে তিনি এ ঘোষণা দেন।

ফরাসিতে ‘পঁতা’ শব্দটি পুরুষবাচক, এটি পরিবর্তন করে এক বছরের জন্য নারীবাচক ‘পঁতে’ রাখা হয়েছে। চলতি বছর জুড়ে নতুন এই নামে চলবে শহরটির কার্যক্রম।

পঁতা শহরের মেয়র বলেন, ‘সাম্প্রতিক বছরগুলোতে লিঙ্গ সমতার উন্নতি হলেও বিষয়টি এখনও পুরোপুরি ঠিক হয়নি। এখনও নারীরা পুরুষের চেয়ে কম মজুরি পান।’

পঁতে (সাবেক পঁতা) কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শহরের নাম পরিবর্তন হলেও রাস্তাঘাটের নামে হেরফের আসছে না।

শহরের নাম পরিবর্তনের ঘোষণার পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেকে একে স্বাগত জানিয়েছেন, তবে বিদ্রুপও করেছেন অনেকে।

ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের গ্লোবাল জেন্ডার গ্যাপ সূচকে ২০২২ সালে ফ্রান্সের অবস্থান ছিল ১৫তম।

গত বছর দেশটির প্রধানমন্ত্রী হন ৬১ বছর বয়সী এলিজাবেথ বোর্ন। তিনি দেশটির দ্বিতীয় নারী প্রধানমন্ত্রী।

স্ত্রীকে চড় মারার অভিযোগে ফ্রান্সের কট্টর বামপন্থি দলের তরুণ নেতা অ্যাড্রিয়েন কোয়াটেনেনসকে ডিসেম্বরে চার মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়। এ ঘটনার জেরে যৌন হয়রানি ও নারীদের ওপর শারীরিক নির্যাতন ইস্যুতে উত্তাল ফ্রান্সের রাজনৈতিক অঙ্গন।

এর আগে ২০১৬ সালে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাখোঁর তিন মন্ত্রীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে।

আরও পড়ুন:
‘ইতিহাসে ঢুকতে যাচ্ছেন মেসি’
আর্জেন্টিনার স্বপ্নপূরণ নাকি ফ্রান্সের ইতিহাস
ফ্রান্সে আবাসিক ভবনে আগুন, ৫ শিশুসহ ১০ মৃত্যু
বিশ্বকাপ ফাইনালে পোল্যান্ডের রেফারি
হারের পর ফ্রান্স-বেলজিয়ামে বেপরোয়া মরক্কো সমর্থকরা

মন্তব্য

স্বাস্থ্য
Supporting protests Oscar winning film actress arrested in Iran

বিক্ষোভে সমর্থন: ইরানে অস্কারজয়ী সিনেমার অভিনেত্রী গ্রেপ্তার

বিক্ষোভে সমর্থন: ইরানে অস্কারজয়ী সিনেমার অভিনেত্রী গ্রেপ্তার ইরানের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তারানেহ আলিদুস্তি। ছবি: সংগৃহীত
২০১৬ সালে অস্কার পাওয়া চলচ্চিত্র দ্য সেলসম্যানে অভিনয় করেছিলেন তারানেহ আলিদুস্তি। বিক্ষোভ নিয়ে মিথ্যা ছড়ানোর অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে ইরানের আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী।

পোশাকের স্বাধীনতার দাবিতে চলা আন্দোলনে সমর্থন দেয়ায় ইরানের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তারানেহ আলিদুস্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসির প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, ২০১৬ সালে অস্কার পাওয়া চলচ্চিত্র দ্য সেলসম্যানে অভিনয় করেছিলেন তারানেহ। বিক্ষোভ নিয়ে মিথ্যা ছড়ানোর অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে ইরানের আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী।

বিক্ষোভসংশ্লিষ্ট এক ব্যক্তিকে ফাঁসি দেয়ার ঘটনায় গত সপ্তাহে একটি ইনস্টাগ্রাম পোস্টে নিন্দা জানান তারানেহ। এ ঘটনায় চুপ থাকায় বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থাকেও একহাত নেন ৩৮ বছর বয়সী এই অভিনেত্রী।

চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে তেহরানে এক নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যকে ছুরি মেরে জখম করার অভিযোগে মোহসেন শেকারি নামের ওই ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।

এ নিয়ে ইনস্টাগ্রাম পোস্টে তারানেহ বলেন, প্রতিটি আন্তর্জাতিক সংস্থা যারা এই রক্তপাত দেখেও পদক্ষেপ নিচ্ছে না, মানবতার জন্য এটি কলঙ্কের।

ইরানের বার্তা সংস্থা আইআরএনএর টেলিগ্রাম অ্যাকাউন্টে জানানো হয়, দাবির সঙ্গে সংগতিপূর্ণ কোনো প্রমাণ দেখাতে না পারায় তারানেহকে গ্রেপ্তার করা হয়। ইনস্টাগ্রামে তার অনুসারীর সংখ্যা প্রায় ৮০ লাখ।

সঠিকভাবে হিজাব না পরার অভিযোগে ইরানের নৈতিকতা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার কুর্দি তরুণী মাহসা আমিনির মৃত্যু হয় গত ১৬ সেপ্টেম্বর। সেদিন থেকেই প্রতিবাদ ছড়িয়ে পড়ে গোটা ইরানে।

ইরানের বিচার বিভাগ মঙ্গলবার জানায়, বিক্ষোভ শুরুর পর থেকে হাজার হাজার মানুষকে আটক করা হয়েছে, এদের মধ্যে ৪০০ জনকে ১০ বছরের বেশি কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন:
 কুমিল্লায় বিএনপির মিছিলে বাধা, আটক ১ 
বকেয়া বেতনের দাবিতে বিক্ষোভ, পুলিশ-শ্রমিক সংঘর্ষ
ইরানে বিক্ষোভ: প্রকাশ্যে দ্বিতীয় মৃত্যুদণ্ড
ফোর্বসের ক্ষমতাধর নারীর তালিকায় ইরানের মাহসা
যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞায় ইরানের ৩ কর্মকর্তা

মন্তব্য

স্বাস্থ্য
Iran is expelled from the UN Womens Rights Organization

জাতিসংঘের নারী অধিকার সংস্থা থেকে ইরানকে বহিষ্কার

জাতিসংঘের নারী অধিকার সংস্থা থেকে ইরানকে বহিষ্কার ইরানে নারীর পোশাকের স্বাধীনতার দাবিতে চলমান বিক্ষোভ। ছবি: এএফপি
নারী অধিকারের কাঠামোগত লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে কমিশন অন দ্য স্ট্যাটাস অফ উইমেন থেকে ইরানকে বহিষ্কারে জাতিসংঘের ৫৪ সদস্যের অর্থনৈতিক ও সামাজিক কাউন্সিলে বুধবার খসড়া প্রস্তাব উত্থাপন করে যুক্তরাষ্ট্র। পরে এ নিয়ে ভোটাভুটি হয়।

নারীর পোশাকের স্বাধীনতার দাবিতে চলমান বিক্ষোভে ইরান সরকার দমন-পীড়ন অব্যাহত রাখায় দেশটিকে জাতিসংঘের নারী অধিকার সংস্থা থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সময় বুধবার ভোটাভুটির পর দেশটিকে ওই সংস্থা থেকে সরিয়ে দেয় জাতিসংঘ।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, নারী অধিকারের কাঠামোগত লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে কমিশন অন দ্য স্ট্যাটাস অফ উইমেন থেকে ইরানকে বহিষ্কারে জাতিসংঘের ৫৪ সদস্যের অর্থনৈতিক ও সামাজিক কাউন্সিলে বুধবার খসড়া প্রস্তাব উত্থাপন করে যুক্তরাষ্ট্র। পরে এ নিয়ে ভোটাভুটি হয়।

২৯-৮ ভোটে ইরানকে বহিষ্কারের প্রস্তাবটি পাস হয়, তবে ১৬ সদস্য ভোট দেয়া থেকে বিরত ছিল।

ভোটাভুটির মাধ্যমে গৃহীত এ সিদ্ধান্ত ২০২২ থেকে ২০২৬ সাল পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।

জাতিসংঘের নারী অধিকার সংস্থা থেকে ইরানকে বহিষ্কার

ভোটের পর জাতিসংঘে নিযুক্ত আমেরিকার রাষ্ট্রদূত লিন্ডা থমাস-গ্রিনফিল্ড টুইটে বলেন, ‘জাতিসংঘের সদস্য রাষ্ট্রগুলো সবেমাত্র নারীর মর্যাদা সংক্রান্ত কমিশন থেকে ইরানকে অপসারণে ভোট দিয়েছে। ইরানি নারী ও কর্মীরা আমাদের এমনটি করার আহ্বান জানিয়েছেন। আজ আমরা এটি সম্পন্ন করেছি।’

ইরান জাতিসংঘের এমন সিদ্ধান্তে হতাশা প্রকাশ করেছে। এর আগে দেশটি বলেছিল, এ ধরনের পদক্ষেপ একটি ‘অনাকাঙ্ক্ষিত নজির’ তৈরি করবে।


সঠিকভাবে হিজাব না পরার অভিযোগে ইরানের নৈতিকতা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার কুর্দি তরুণী মাহসা আমিনির মৃত্যু হয় গত ১৬ সেপ্টেম্বর। সেদিন থেকেই প্রতিবাদ ছড়িয়ে পড়ে গোটা ইরানে। চলমান বিক্ষোভে জড়িত থাকার অভিযোগে ইরান সরকার এরই মধ্যে প্রকাশ্যে দুজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে।

বিদেশি মানবাধিকার সংস্থাগুলো বলছে, ইরানে চলা বিক্ষোভে ৪৫০ জনের বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন।

১৯৪৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় জাতিসংঘের নারী অধিকার সংস্থা কমিশন অন দ্য স্ট্যাটাস অফ উইমেন।

জেন্ডার সমতা ও নারীর ক্ষমতায়নকে এগিয়ে নিতে প্রতি বছরের মার্চে সংস্থাটির সদস্যরা বৈঠক করেন।

আরও পড়ুন:
যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞায় ইরানের ৩ কর্মকর্তা
নাগরিক মত প্রকাশের স্বাধীনতা কমেছে: জাতিসংঘ মহাসচিব
নারী বিক্ষোভকারীদের যৌনাঙ্গে ইরানের বাহিনীর গুলি
ইরানে বিক্ষোভসংশ্লিষ্ট প্রথম ফাঁসি
ইরানি নারীরা টাইমের ‘হিরোস অফ দ্য ইয়ার’

মন্তব্য

স্বাস্থ্য
American journalist dies at World Cup in Qatar

বিশ্বকাপে রেইনবো টি-শার্ট পরে আটক সেই সাংবাদিকের মৃত্যু

বিশ্বকাপে রেইনবো টি-শার্ট পরে আটক সেই সাংবাদিকের মৃত্যু আমেরিকান সাংবাদিক গ্র্যান্ট ওয়াল। ছবি: সিএনএন
এলজিবিটিকিউ কমিউনিটির সমর্থনে রেইনবো টি-শার্ট পরে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ওয়েলসের গ্রুপ পর্বের ম্যাচ কাভার করতে গিয়ে বিতর্কে পড়েছিলেন গ্র্যান্ট ওয়াল। সে সময় কিছুক্ষণের জন্য তাকে আটক রেখেছিল সমকামিতা অবৈধ ঘোষণা করা কাতার সরকার।

কাতার ফুটবল বিশ্বকাপ কাভার করতে যাওয়া যুক্তরাষ্ট্রের সাংবাদিক গ্র্যান্ট ওয়ালের মৃত্যু হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ফুটবল ফেডারেশন ইউএস সকারের বরাত দিয়ে সিএনএনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

কোথায়, কীভাবে ওয়ালের মৃত্যু হয়েছে, তা জানানো হয়নি প্রতিবেদনে।

এলজিবিটিকিউ কমিউনিটির সমর্থনে রেইনবো টি-শার্ট পরে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ওয়েলসের গ্রুপ পর্বের ম্যাচ কাভার করতে গিয়ে বিতর্কে পড়েছিলেন গ্র্যান্ট ওয়াল। সে সময় কিছুক্ষণের জন্য তাকে আটক রেখেছিল সমকামিতা অবৈধ ঘোষণা করা কাতার সরকার।

ইউএস সকারের বিবৃতিতে বলা হয়, ‘গ্র্যান্ট ওয়ালকে হারানোর খবরে জেনে পুরো ইউএস সকার পরিবার ভেঙে পড়েছে। এটি ভেবে আমাদের খুব খারাপ লাগছে যে, তার দুর্দান্ত লেখা আর পড়া যাবে না।’

ওয়ালের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতিও সমবেদনা জানিয়েছে ইউএস সকার।

এক টুইটবার্তায় ওয়ালের স্ত্রী সেলিন গাউন্ডার বলেন, ‘গ্র্যান্ট ওয়ালের মৃত্যুতে যারা সমবেদনা জানিয়েছেন, তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। আমি ভাষা হারিয়ে ফেলেছি।’

মন্তব্য

স্বাস্থ্য
Workshop to make the road safe for women

নারীর পথ নিরাপদ করতে কর্মশালা

নারীর পথ নিরাপদ করতে কর্মশালা
জাতীয় মানবাধিকার কমিশন, ইউএনডিপি, সিআরআই এবং ইয়ং বাংলা এ কর্মশালায় সহযোগিতা করে।

নারীর প্রতি সব ধরনের সহিংসতা বন্ধে তরুণদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার পাশাপাশি কর্মশালার আয়োজন করে জীবন ইয়ুথ ফাউন্ডেশন।

শুক্রবার রাঙামাটি জেলায় আঞ্চলিক জনসংখ্যা প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট (আরপিটিআই) মিলনায়তনে ‘অ্যাডভান্সিং ইয়ুথ এক্টিভিজম টু অ্যাড্রেস জেন্ডার-বেইসড ভায়োলেন্স’ শীর্ষক এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালায় ‘উইমেন সেইফটি ইন পাবলিক প্লেস’ ক্যাম্পেইনের ভূমিকা তুলে ধরে জীবন ইয়ুথ ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক সাজিদ-বিন-জাহিদ (মিকি) বলেন, ‘নারীর নিরাপদ অগ্রযাত্রা নিশ্চিতে এতে অংশগ্রহণকারীরা গ্রুপ ওয়ার্কের মাধ্যমে নিজ নিজ জায়গা থেকে সমাধান ও প্রস্তাবনা পেশ করেন।’

তিনি জানান, কর্মশালাটির মূল লক্ষ্য নারীর প্রতি সব ধরনের সহিংসতা বন্ধে তরুণদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা। বিশেষভাবে নারীর নিরাপদ চলাচল নিশ্চিতে সম্মিলিত উদ্যোগ গ্রহণ করা।

কর্মশালায় অংশ নেয়া সদস্যরা বলেন, জনসমাগম ও চলার পথকে নারীদের জন্য নিরাপদ করতে আরও বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। নারীর প্রতি সহিংসতা ও হয়রানি রোধে জনসচেতনতার কোন বিকল্প নেই।

ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে ইউএনডিপি এর মানবাধিকার প্রকল্পের কমিউনিকেশন অ্যান্ড অ্যাডভোকেসি এক্সপার্ট অলি মো. আব্দুল্লাহ চৌধুরী এই কর্মশালার লক্ষ্য, উদ্দেশ্য ও জনস্থানে নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সমাজের পাশাপাশি অংশীদারদের জোড়ালো ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান।

রাঙ্গামাটি সদর উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসরিন ইসলাম বলেন, ‘জনস্থানে নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে সংশ্লিষ্ট অংশীজনসহ তরুণ সমাজ ও নাগরিকদের ধারণা, দৃষ্টিভঙ্গি ও আচরণে ইতিবাচক পরিবর্তন আনা অতি জরুরি।’

রাঙ্গামাটি পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘আমরা রাঙামাটি পৌর এলাকাকে নারীর জন্য শতভাগ নিরাপদ করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি।’

কর্মশালায় অতিথি হিসেবে রাঙ্গামাটি সদর উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসরিন ইসলাম, রাঙ্গামাটি প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাখাওয়াৎ হোসেন রুবেল, রাঙ্গামাটি প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার আল হক উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় মানবাধিকার কমিশন, ইউএনডিপি, সিআরআই এবং ইয়ং বাংলা এ কর্মশালায় সহযোগিতা করে।

আরও পড়ুন:
জার্মানি-কোস্টারিকা ম্যাচ পরিচালনা করলেন তিন নারী
ফের পেছাল ক্রিকেটার আল আমিনের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন
ক্ষমতায়ন না হলে নারীর অবস্থার উন্নতি হতো না: প্রধানমন্ত্রী
‘নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি নারী নির্যাতনের কারণ’
৬০০ নারীর অংশগ্রহণে ‘পশিয়ান কনফারেন্স’

মন্তব্য

স্বাস্থ্য
Young man in legal trouble for marrying 2 twin sisters at the same time

যমজ বোনকে বিয়ে নিয়ে আইনি ঝামেলা

যমজ বোনকে বিয়ে নিয়ে আইনি ঝামেলা এক সঙ্গে দুই জমজ বোনকে বিয়ে করেছেন ভারতের এক যুবক। ছবি: সংগৃহীত
মহারাষ্ট্রের সোলাপুর জেলার মালশিরাস তহসিলে শুক্রবার বিয়ের পিঁড়িতে বসেন ওই তিনজন। পাত্রী দুই বোন একই প্রতিষ্ঠানের প্রযুক্তি কর্মী। ৩৬ বছর বয়সী পাত্রের বিস্তারিত পরিচয় পাওয়া যায়নি।

একসঙ্গে যমজ বোনকে বিয়ে করে আলোচনার জন্ম দিয়েছেন ভারতের মুম্বাইয়ের এক যুবক।

সম্প্রতি ঘটা এ ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে পড়ার পর তার বিরুদ্ধে থানায় একটি অভিযোগ দেয়া হয়েছে বলে এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

মহারাষ্ট্রের সোলাপুর জেলার মালশিরাস তহসিলে শুক্রবার বিয়ের পিঁড়িতে বসেন ওই তিনজন। পাত্রী দুই বোন একই প্রতিষ্ঠানের প্রযুক্তি কর্মী। ৩৬ বছর বয়সী পাত্রের বিস্তারিত পরিচয় পাওয়া যায়নি।

আকলুজ থানার পুলিশ জানিয়েছে, স্বামী বা স্ত্রী থাকার পরও আরেকটি বিয়ে অর্থাৎ ভারতীয় পেনাল কোডের ৪৯৪ ধারায় অভিযোগ এসেছে পাত্রের বিরুদ্ধে। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।

পুলিশ বলছে, কয়েক দিন আগেই ওই দুই বোনের বাবা মারা যান। মায়ের সঙ্গেই থাকছেন তারা। বিয়ে হয়েছে দুই পরিবারের সম্মতিতে।

ভারতে অবশ্য এ ঘটনা এটিই প্রথম নয়। গত বছরের মে মাসে উভয় পরিবারের সম্মতি এবং উপস্থিতিতে এক দিনে এক বিয়ের মঞ্চেই দুই বোনকে বিয়ে করার ঘটনায় এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছিল কর্নাটক রাজ্যের কোলার জেলার পুলিশ।

হিন্দু বিবাহ আইনের বরাত দিয়ে তখন পুলিশ জানায়, আইন অনুযায়ী দ্বিতীয় বিয়ের আগে প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে বিয়েবিচ্ছেদ বাধ্যতামূলক। তাই নিয়ম ভাঙার অপরাধে দুই বোনের স্বামীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আরও পড়ুন:
সংঘর্ষে প্রাণ গেল কনের দাদির, বরসহ আটক ১২
মানসিক হাসপাতালে পরিচয়-প্রেম, এরপর বিয়ে
বান্ধবীর সংসার জোড়া লাগাতে গিয়ে সতিন

মন্তব্য

p
উপরে