ঝিনাইদহে করোনা শনাক্তের হার ৬৯ শতাংশ

ঝিনাইদহে করোনা শনাক্তের হার ৬৯ শতাংশ

সিভিল সার্জন সেলিনা বেগম জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ১ জন, শৈলকুপায় ২ জন ও মহেশপুরে ১ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ৮৮তে ।

ঝিনাইদহে আবারও করোনা সংক্রমণ বেড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ২০৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৪৩ জনের করোনা পজেটিভ এসেছে। শনাক্তের হার ৬৮ দশমিক ৭৫ ভাগ। এটাই জেলায় সর্বোচ্চ শনাক্তের হার।

সিভিল সার্জন সেলিনা বেগম জানান, সোমবার সকালে ঝিনাইদহ ও কুষ্টিয়া ল্যাবে পরীক্ষা করা ২০৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে এদের মধ্যে ১৪৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ১ জন, শৈলকুপায় ২ জন ও মহেশপুরে ১ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ৮৮তে ।

তিনি বলেন, ‘বারবার সতর্ক করা সত্ত্বেও মানুষ স্বাস্থ্যবিধি না মানায় এখন প্রত্যন্ত গ্রামে করোনা ছড়িয়ে পড়েছে। এ কারণে করোনা সংক্রমণ বেড়ে গেছে। গতকাল সংক্রমণের হার ছিল ৩৮ শতাংশ। এক দিনেই শনাক্তের হার প্রায় দ্বিগুণ।

ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক হারুন অর রশিদ জানান, সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটে বর্তমানে ৮৭ জন রোগী ভর্তি আছেন। প্রতিদিন রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। বাড়তি রোগীর চাপে চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন হাসপাতালের চিকিৎসক ও নার্সরা।

এদিকে ঝিনাইদহে লকডাউনের সপ্তম দিন চলছে। জেলা শহরে লকডাউন ঢিলেঢালাভাবে কার্যকর হলেও গ্রামাঞ্চলে লকডাউন মানার বালাই নেই।

গ্রামীণ হাট-বাজারগুলোতে ভিড় করে চলছে কেনাকাটা। স্বাস্থ্যবিধি মানার তোয়াক্কা করা হচ্ছে না। গণপরিবহন বন্ধ থাকলেও নানা অজুহাতে শহরমুখী হচ্ছেন মানুষ। চলাচল করছে সিএনজিচালিত অটোরিকশা, ইজিবাইক, রিকশা, ভ্যান ও মোটরসাইকেল।

আরও পড়ুন:
খুলনায় ১১, কুষ্টিয়ায় ৯ মৃৃত্যু
রাজশাহী মেডিক্যালে ২৭ দিনে ৩১৮ মৃত্যু
করোনা নিয়ে রোগী দেখছেন চিকিৎসক
ঋণ শোধে কিডনি বিক্রি করতে চান চিত্রশিল্পী
বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা দিচ্ছে আবুল খায়ের গ্রুপ

শেয়ার করুন

মন্তব্য