বন্ধ হবে না টিকাদান

বন্ধ হবে না টিকাদান

অনেক জায়গা থেকে টিকা পাওয়ার আশ্বাস পাওয়ায় গণটিকা প্রদানের চলমান কার্যক্রম বন্ধ করার কোনো ভাবনা নেই বলে জানালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘টিকা কার্যক্রম ভবিষ্যতে হয়তো আর বন্ধ রাখতে হবে না। টিকার কার্যক্রম ইনশাল্লাহ চলমান থাকবে।’

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে দেশব্যাপী এক সপ্তাহের শাটডাউন আরোপ করা হলেও কোভিড রোধী টিকাদান বন্ধ করা হবে না বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

সচিবালয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে রোববার দুপুরে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

অনেক জায়গা থেকে টিকা পাওয়ার আশ্বাস পাওয়ায় গণটিকা প্রদানের চলমান কার্যক্রম বন্ধ করার কোনো ভাবনা নেই বলে জানালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘টিকা কার্যক্রম ভবিষ্যতে হয়তো আর বন্ধ রাখতে হবে না। টিকার কার্যক্রম ইনশাল্লাহ চলমান থাকবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘মর্ডানার টিকা ২৫ লাখ আমরা পাচ্ছি। এটা অল্প দিনে চলে আসবে। এটার জন্য আমাদের পক্ষ থেকে যে সিদ্ধান্ত দেয়ার কথা ছিল, সেটা আমরা দিয়ে দিয়েছি।’

চীন থেকেও টিকা পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়েছে জানিয়ে জাহিদ মালেক বলেন, ‘চায়না থেকে খুব তাড়াতাড়ি টিকা পেয়ে যাব বলে আমরা আশা করি। সেই সঙ্গে আমরা আশা করি, আগামী মাসে চীনের সঙ্গে যে চুক্তি করেছি, সে চুক্তি অনুযায়ী হয়তো বা টিকা পাব।

‘কোভ্যাক্স থেকেও আমরা টিকা পেতে থাকব। তারা সংখ্যাটা বললে আমরা পরে জানিয়ে দেব। রাশিয়ার সঙ্গে আমরা সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে টিকা পাব আশা করছি।’

টিকা উৎপাদন

দেশে দ্রুত করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা উৎপাদন শুরু হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। এ জন্য সরকারি ওষুধ উৎপাদন প্রতিষ্ঠান এসেনসিয়াল ড্রাগস কোম্পানি লিমিটেডকে (ইডিসিএল) নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানালেন তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ইডিসিএলকে বলা হয়েছে, টিকা উৎপাদনে তারা কার্যক্রম শুরু করবে। তাড়াতাড়ি সম্ভব আমরা প্রোডাকশনে যেতে চাই, এটাই আমাদের চেষ্টা থাকবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা উৎপাদন করলে তো বাংলাদেশি টিকাই উৎপাদন করব। যদি কারো সঙ্গে কোলাবোরেশনে যাই, সেটা আমরা দেখব। আর যদি কেউ বলে তাদের টিকা আমাদের এখানে উৎপাদন করবে, তাহলে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো আছে, সেখানে উৎপাদন করতে পারে।’

টিকা উৎপাদনের ফ্যাসিলিটিজ বর্তমানে সরকারের না থাকায় বেসরকারি পর্যায়ে নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়েছে বলে জানান জাহিদ মালেক। বলেন, ‘বেসরকারি খাতে সে সুযোগ আছে। এটার জন্য আমরা নীতিগত অনুমোদন দিয়েছি।’

বঙ্গভ্যাক্স

করোনা প্রতিরোধী দেশীয় ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট ‘বঙ্গভ্যাক্স’-এ সরকার সহযোগিতা করতে চায় বলে জানালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বলেছেন, বঙ্গভ্যাক্সের আন্তর্জাতিক সব শর্ত পূরণ হওয়া লাগবে।

মন্ত্রী বলেন, ‘পদক্ষেপগুলো পার করে আসার পরে ওনারা (গ্লোব বায়োটেক) ওনাদের টিকা উৎপাদন করতে পারবে। আন্তর্জাতিক যে নিয়মনীতি আছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার যে নিয়মনীতি আছে টিকা উৎপাদনের জন্য সে নিয়ম নীতিগুলো প্রতিপালন করে আসতে পারলে টিকা উৎপাদন করতে পারবে তারা।’

আরও পড়ুন:
সিরামের দ্বিতীয় ডোজের পর ৯৩ শতাংশের দেহে অ্যান্টিবডি
বাংলাদেশকে মডার্নার সেই ২৫ লাখ টিকা দেবে যুক্তরাষ্ট্র
করোনার টিকা তৈরি হবে গোপালগঞ্জে
এবার আসছে মডার্নার ২৫ লাখ টিকা
এডিবির সঙ্গে ৮ হাজার কোটি টাকার ঋণচুক্তি

শেয়ার করুন

মন্তব্য