নকল মাস্ক সরবরাহ: শারমিনকে অব্যাহতির সুপারিশ

নকল মাস্ক সরবরাহ: শারমিনকে অব্যাহতির সুপারিশ

মামলার অভিযোগে বলা হয়, বিএসএমএমইউ হাসপাতালে মাস্ক সরবরাহের অনুমতি পায় শারমিন জাহানের প্রতিষ্ঠান অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনাল। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি নকল মাস্ক সরবরাহ করে। এ মাস্ক ব্যবহার করে চিকিৎসক ও রোগী ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) নকল মাস্ক সরবরাহের মামলায় ছাত্রলীগের সাবেক নেত্রী শারমিন জাহানকে অব্যাহতির সুপারিশ করে আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দিয়েছে ডিবি পুলিশ।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) রমনা জোনাল টিমের পরিদর্শক মোর্শেদ হোসেন খান (নিরস্ত্র) ঢাকার মুখ্যমহানগর আদালতে মঙ্গলবার এ প্রতিবেদন দাখিল করেন।

আদালতের শাহাবাগ থানার সাধারণ নিবন্ধন শাখার কর্মকর্তা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) নিজাম উদ্দিন নিউজবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

নকল মাস্ক সরবরাহের অভিযোগে অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনালের মালিক শারমিনের বিরুদ্ধে গত বছর ২৩ জুলাই মামলা করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) প্রক্টর অধ্যাপক ডা. মোজাফফর আহমেদ।

অভিযোগে বলা হয়, বিএসএমএমইউ হাসপাতালে মাস্ক সরবরাহের অনুমতি পায় শারমিন জাহানের প্রতিষ্ঠান অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনাল। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি নকল মাস্ক সরবরাহ করে।

এ মাস্ক ব্যবহার করে চিকিৎসক ও রোগী ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। সেই সঙ্গে নকল মাস্ক সরবরাহ করে প্রতিষ্ঠানটি বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

মামলা দায়েরের পরদিন ২৪ জুলাই রাতে শাহবাগের একটি বাসা থেকে শারমিন জাহানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরদিন জিজ্ঞাসাবাদ করতে তাকে তিন দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ।

রিমান্ড শেষে শারমিন জাহানকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বিচারক। এরপর মামলাটিতে তিনি জামিন পান।

আরও পড়ুন:
নকল মাস্ক: শারমিনের মামলার প্রতিবেদন ফের পেছাল

শেয়ার করুন

মন্তব্য