চুয়াডাঙ্গায় ১ দিনে ৭৬ জন শনাক্ত

চুয়াডাঙ্গায় ১ দিনে ৭৬ জন শনাক্ত

চুয়াডাঙ্গা সিভিল সার্জন কার্যালয় জানায়, ১৯৩ জনের নমুনা পরীক্ষার ফল শুক্রবার রাতে পেয়েছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। এর মধ্যে ৭৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় করোনায় মারা গেছেন আরও দু’জন।

চুয়াডাঙ্গায় বেড়েই চলেছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। নতুন করে এ জেলায় আরও ৭৬ জনে করোনা শনাক্ত হয়েছে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে চুয়াডাঙ্গায় এটিই একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

শনাক্তের হার বিবেচনায় ৩৯ দশমিক ৩৮ শতাংশ। গত ২৪ ঘন্টায় মারা গেছেন আরও দু’জন। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৭৭ জনে।

সিভিল সার্জন কার্যালয় জানায়, ১৯৩ জনের নমুনা পরীক্ষার ফল শুক্রবার রাতে পেয়েছে চুয়াডাঙ্গা স্বাস্থ্য বিভাগ। এর মধ্যে ৭৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৫২৩ জনে।

জেলায় নতুন শনাক্ত ৭৬ জনের মধ্যে সদর উপজেলায় ৩৫ জন, দামুড়হুদায় ৩৫, আলমডাঙ্গায় চার ও জীবননগরে দুই জন।

চুয়াডাঙ্গায় করোনা সংক্রমণ রোধে সীমান্তবর্তী দামুড়হুদা উপজেলা ১৪ দিনের জন্য বিশেষ লকডাউন করা হয়েছে। বিশেষ বিধি নিষেধ জারি করা হয়েছে জীবননগর উপজেলাতেও। লকডাউন ও বিধি নিষেধ জারি করা এলাকা নিয়মিত তদারকি করছে প্রশাসন। স্বাস্থ্যবিধি অমান্যকারীদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা করা হচ্ছে।

সিভিল সার্জন এএসএম মারুফ হাসান জানান, চুয়াডাঙ্গায় সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। অনেকে সর্দি কাশি জ্বরে আক্রান্ত হয়েও পরীক্ষায় আগ্রহী হচ্ছে না। অসুস্থতার মাত্রা বেড়ে যখন শ্বাসকষ্ট তীব্র হচ্ছে তখন স্বজনরা তড়িঘড়ি করে হাসপাতালে নিচ্ছেন। এ ধরনের রোগীর মৃত্যু হচ্ছে বেশি।

করোনাভাইরাস থেকে নিজেকে রক্ষা করতে এবং সংক্রমণ রোধে সবাইকে দায়িত্বশীল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার।

আরও পড়ুন:
নদী-ঝিলের জলেও করোনাভাইরাসের নমুনা
জয়পুরহাট ও পাঁচবিবির পর কালাই পৌর এলাকা অবরুদ্ধ
গ্রামে বেড়েছে সংক্রমণ, মৃত্যুর তালিকায় তরুণরা
চাঁদপুরে এসেছে করোনার ৯৬০০ চীনা টিকা
যশোরে এক দিন পরই ভাঙল শনাক্তের রেকর্ড

শেয়ার করুন

মন্তব্য