দুই মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন মৃত্যু

দুই মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন মৃত্যু

গত চব্বিশ ঘণ্টায় ১৪ জনের মৃত্যুসহ করোনায় দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে সাত হাজার ৮৩৩ জনে।

দেশে গত চব্বিশ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা গত দুই মাসের মধ্যে সবচেয়ে কম। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে সাত হাজার ৮৩৩ জনে।

এর আগে গত ১৪ নভেম্বর ১৪ জনের মৃত্যু হয়।

বুধবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়, গত একদিনে আরও ৮৯০ জনের শরীরে করোনার সংক্রমণ ধরা পড়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল পাঁচ লাখ ২৮ হাজার ৯১০ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৪১ জনসহ মোট সুস্থ হয়েছেন চার লাখ ৬৯ হাজার ৫২২ জন।

শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৯ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ১৪ জনের মধ্যে পুরুষ ছয় জন, নারী আট জন। বয়স বিবেচনায় পঞ্চাশোর্ধ চার, ষাটোর্ধ্ব ১০ জন।

বিভাগ অনুযায়ী, ঢাকায় ১০, চট্টগ্রামে দুই, খুলনা এক, সিলেট এক জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে ১৩ জন হাসপাতালে ও এক জন বাড়িতে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

গত ৮ মার্চ দেশে করোনাভাইরাসে প্রথম শনাক্তের খবর জানানো হয়। এর ১০ দিনের মাথায় ১৮ মার্চ করোনায় দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে সরকার। এখন দেশে সংক্রমণের ১০ মাস চলছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, এ পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৯ লাখ ৭২ হাজার ৩৪২ জন। মোট শনাক্ত হয়েছে ৯ কোটি ২০ লাখ ৯১ হাজার ৫২৮ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছে ৬ কোটি ৫৯ লাখ ৪২ হাজার ৪৯০ জন।

জনস হপকিন্স ইউনির্ভাসিটির হিসাব অনুযায়ী, বিশ্বে করোনাভাইরাস শনাক্তের দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান ২৭তম, মৃতের দিক থেকে ৩৭তম অবস্থানে রয়েছে।

আরও পড়ুন:
করোনারোধী ‘ন্যাজাল স্প্রে’ উদ্ভাবন দাবি বিআরআইসিএমের
টিকা ব্যবস্থাপনায় বিশেষ টিম
দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ কোথায়

শেয়ার করুন

মন্তব্য