× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

রেস-জেন্ডার
5 women got Bangamata medal
google_news print-icon

বঙ্গমাতা পদক পেলেন ৫ নারী

বঙ্গমাতা-পদক-পেলেন-৫-নারী
প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে পদকপ্রাপ্তদের হাতে সম্মাননা তুলে দেন নারী ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা। ছবি: সংগৃহীত
পদক দেয়ার অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে গণভবন থেকে যুক্ত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে পদকপ্রাপ্তদের হাতে সম্মাননা তুলে দেন নারী ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।

নারীর অগ্রযাত্রায় ভূমিকা রাখায় এ বছর ৫ বিশিষ্ট নারী পেয়েছেন ‘বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব পদক’।

রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে রোববার সকালে এ পদক দেয়া হয়।

পদক দেয়ার অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে গণভবন থেকে যুক্ত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে পদকপ্রাপ্তদের হাতে সম্মাননা তুলে দেন নারী ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা।

এবার দুজন মরণোত্তর পদক পেয়েছেন। তাদের মধ্যে ‘স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ’ ক্যাটাগরিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক মমতাজ বেগম ও ‘শিক্ষা, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া’ ক্যাটাগরিতে টাঙ্গাইলের জয়া পতি।

এ ছাড়া পদক পেয়েছেন ‘কৃষি ও পল্লি উন্নয়নে’ পাবনার কৃষি উদ্যোক্তা নুরুন্নাহার বেগম, ‘রাজনীতিতে’ কুমিল্লার বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ জোবেদা খাতুন পারুল এবং ‘গবেষণায়’ নেত্রকোণার লেখক ও গবেষক নাদিরা জাহান (সুরমা জাহিদ)।

পদকপ্রাপ্তদের প্রত্যেককে দেয়া হয় ১৮ ক্যারেট মানের ৪০ গ্রাম স্বর্ণ দিয়ে নির্মিত পদক, পদকের রেপ্লিকা, চার লাখ টাকার চেক ও সম্মাননাপত্র।

আরও পড়ুন:
জন্মদিনে বঙ্গমাতাকে স্মরণ
বঙ্গমাতার জন্মদিনে শ্রদ্ধাঞ্জলি
যেভাবে শেখ ফজিলাতুন নেছা হয়ে উঠলেন বঙ্গমাতা
বঙ্গমাতা: মমতাময়ী বিজয়লক্ষ্মী নারী
নারী উন্নয়নে বঙ্গমাতা পদক উৎসর্গ করতে চান জয়ীরা

মন্তব্য

আরও পড়ুন

রেস-জেন্ডার
Quader urges not to blame India for killing MP

এমপি হত্যায় ভারতকে দোষারোপ না করার আহ্বান কাদেরের

এমপি হত্যায় ভারতকে দোষারোপ না করার আহ্বান কাদেরের আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ফাইল ছবি
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে উদ্দেশ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘ভারত আমাদের বন্ধুরাষ্ট্র। এমপি আনোয়ারুল আজীমকে যে ফ্ল্যাটটিতে হত্যা করা হয়েছে সেটি বাংলাদেশের কেউ ভিন্ন নামে কিনেছে। ওখানে পাঁচ-ছয়জনের মতো লোক এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত, যাদের মধ্যে পাঁচজনই বাংলাদেশের। যারে দেখতে নারি, চলন বাঁকা- এ ধরনের উক্তি করা সমীচীন নয়।’

কলকাতায় বাংলাদেশের একজন সংসদ সদস্যকে হত্যার ঘটনায় ভারতকে দোষারোপ করার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে উদ্দেশ করে তিনি বলেছেন, ‘বন্ধুরাষ্ট্র ভারতকে নিয়ে কথায় কথায় দোষারোপের রাজনীতি না করার আহ্বান জানাচ্ছি।’

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বুধবার সাংস্কৃতিক উপ-কমিটির অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এই আহ্বান জানান ওবায়দুল কাদের।

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার ভারতের কলকাতায় খুন হওয়ার ঘটনায় বিএনপি নেতাদের সমালোচনার জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বন্ধুরাষ্ট্রে গিয়ে বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন আহমেদের তো জীবননাশ হয়নি। বন্ধুরাষ্ট্র নিয়ে কথায় কথায় দোষারোপের রাজনীতি না করতে আমি তাদের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।’

বন্ধুরাষ্ট্রে গিয়ে নিরাপত্তা নেই- বিএনপি মহাসচিবের এমন বক্তব্যের জবাবে কাদের বলেন, ‘আপনাদের কাছে ভারত যদি শত্রুরাষ্ট্র হয়, সেখানে সালাউদ্দিন এতদিন কীভাবে নিরাপদে আছেন? তাকে তো কেউ হত্যা করেনি। তার জীবনের তো নিরাপত্তা বিঘ্নিত হয়নি। আপনারা এ ধরনের অপবাদ কেন দিচ্ছেন বন্ধুরাষ্ট্রকে?’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ভারত আমাদের বন্ধুরাষ্ট্র। আমাদের একজন এমপি যখন চিকিৎসার জন্য সেদেশে যান, তিনি কিন্তু ভারত সরকারকে জানিয়ে যান না। সেখানকার যথাযথ কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে গেলে নিরাপত্তার ব্যাপারটি তখনই দেখা হয়। এখানে বন্ধুরাষ্ট্রের...।

‘তাকে (আনোয়ারুল আজীম) যে ফ্ল্যাটটিতে হত্যা করা হয়েছে সেটি বাংলাদেশের কেউ ভিন্ন নামে কিনেছে। ওখানে পাঁচ-ছয়জনের মতো লোক এমপি আনারকে হত্যা করেছে। তাদের মধ্যে পাঁচজনই বাংলাদেশের। এই ব্যাপারটি নিয়ে...। যারে দেখতে নারি, চলন বাঁকা- এ ধরনের উক্তি করা সমীচীন নয়।’

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি ইঙ্গিত করে কাদের বলেন, ‘সাড়ে ৩৫ হাজার মানুষকে নির্বিচারে হত্যা করেছে ইসরায়েল। যুক্তরাষ্ট্রে মানবাধিকার চরমভাবে লঙ্ঘিত হচ্ছে। গাজার গণহত্যাকে যারা স্বীকার করে না, যারা গাজার গণহত্যার সহযোগী- এসব যদি গণতন্ত্রের অংশ হয় তাহলে তাদের নিষেধাজ্ঞা নিয়ে বাংলাদেশের মাথাব্যথা নেই।

সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অব.) আজিজ আহমেদের নিষেধাজ্ঞা বিষয়ে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ‘সেনাবাহিনীর নিজস্ব নিয়ম-কানুন রয়েছে। সেখানে কেউ অপরাধী হলে তাদের ছাড় দেয়ার মতো লোক বঙ্গবন্ধু-কন্যা নয়।’

তিনি বলেন, ‘একসময় দেশের নারী ও তরুণরা আওয়ামী লীগ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিল। এখন শেখ হাসিনার জাদুকরী নেতৃত্বে এককথায় তারা নৌকায় সমর্থন ও ভোট দিচ্ছে।’

আওয়ামী লীগের আসন্ন প্লাটিনাম জুবিলির অনুষ্ঠানে সাংস্কৃতিক অঙ্গনের মানুষদের অনেক বড় ভূমিকা থাকবে বলে সভায় উল্লেখ করেন দলটির সাধারণ সম্পাদক।

সংস্কৃতি বিষয়ক উপ-কমিটির চেয়ারম্যান আতাউর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী নাহিদ ইজাহার খান, সাবেক সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ, ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য ফেরদৌস আহমেদ, আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য আনিসুল ইসলাম প্রমুখ।

আরও পড়ুন:
এমপি আনারকে হত্যা করেছে বাংলাদেশি অপরাধীরা: ডিএমপি ডিবি প্রধান
এমপি আনারের হত্যাকাণ্ড দুই রাষ্ট্রের বিষয় নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
বাবা হত্যার বিচারে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চান আনারকন্যা
কলকাতার বাসায় এমপি আনারকে পরিকল্পিত হত্যা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
ভারতে গিয়ে নিখোঁজ এমপি আনারের মরদেহ উদ্ধার

মন্তব্য

রেস-জেন্ডার
In April 708 people lost their lives and 2426 were injured in road accidents in the country
যাত্রী কল্যাণ সমিতির প্রতিবেদন

এপ্রিলে দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানি ৭০৮, আহত ২৪২৬

এপ্রিলে দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানি ৭০৮, আহত ২৪২৬ প্রতীকী ছবি।
প্রতিবেদনে বলা হয়, সারাদেশে সড়ক, নৌ ও রেলপথে ৭৩৩টি দুর্ঘটনায় ৭৬৩ জন নিহত ও দুই হাজার ৪৭২ জন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে ৩০৫টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ২৭৪ জন নিহত ও ৩২৮ জন আহত হয়েছেন।

চলতি বছরের এপ্রিল মাসে সারা দেশে ৬৮৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৭০৮ জন প্রাণ হারিয়েছেন। এসব দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন দু’হাজার ৪২৬ জন।

এছাড়া রেলপথে ৪৪টি দুর্ঘটনায় ৪৭ জনের প্রাণহানি ও ৩৬ জন আহত হয়েছেন। আর নৌপথে ছয়টি দুর্ঘটনায় আটজন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছেন। এখনও নিখোঁজ রয়েছেন একজন।

বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরীর সই করা এক বিবৃতিতে বুধবার এসব তথ্য জানানো হয়।

দেশের জাতীয়, আঞ্চলিক ও অনলাইন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত সড়ক, রেল ও নৌপথে দুর্ঘটনার সংবাদ মনিটরিং করে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সারাদেশে সড়ক, নৌ ও রেলপথে ৭৩৩টি দুর্ঘটনায় ৭৬৩ জন নিহত ও দুই হাজার ৪৭২ জন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে ৩০৫টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ২৭৪ জন নিহত ও ৩২৮ জন আহত হয়েছেন, যা মোট দুর্ঘটনার ৪৪ দশমিক ৬৫ শতাংশ, মোট নিহতের ৩৮ দশমিক ৭০ শতাংশ এবং আহতের ২৪ দশমিক ৬৬ শতাংশ।

এপ্রিল মাসে সবচেয়ে বেশি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে ঢাকা বিভাগে। এই বিভাগে সর্বোচ্চ ১৫৫টি সড়ক দুর্ঘটনায় ১৭৯ জন নিহত ও ৩০৫ জন আহত হয়েছেন। বরিশাল বিভাগে সর্বনিম্ন ৩৫টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৫৩ জন নিহত ও ৪৮ জন আহত হয়েছেন।

সড়কে দুর্ঘটনার শিকারদের মধ্যে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ১০ সদস্য, ১৬৯ জন চালক, ৬৩ জন পথচারী, ৫৮ জন পরিবহন শ্রমিক, ৪৬ জন শিক্ষার্থী, ছয়জন শিক্ষক, ১১৯ জন নারী, ৬৭টি শিশু, তিনজন সাংবাদিক, দুজন চিকিৎসক, একজন আইনজীবী, তিনজন প্রকৌশলী ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের আট নেতা-কর্মীর পরিচয় মিলেছে।

তাদের মধ্যে নিহত হয়েছেন- একজন পুলিশ সদস্য, তিনজন সেনা সদস্য, একজন সাংবাদিক, দুজন চিকিৎসক, ১২৩ জন বিভিন্ন পরিবহনের চালক, ৫৮ জন পথচারী, ৯৩ জন নারী, ৪৯টি শিশু, ৩৬ জন শিক্ষার্থী, ৩৩ জন পরিবহন শ্রমিক, ছয়জন শিক্ষক, তিনজন প্রকৌশলী ও আটজন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী।

এই সময়ে সড়ক দুর্ঘটনায় জড়িত ৯৮৮টি যানবাহনের পরিচয় মিলেছে।

দুর্ঘটনায় জড়িত যানবাহনের মধ্যে ছিল ৩৪ দশমিক ৭১ শতাংশ মোটরসাইকেল, ১৫ দশমিক ৪৮ শতাংশ বাস, ১৩ দশমিক ১৫ শতাংশ ব্যাটারিচালিত রিকশা ও ইজিবাইক, ৫ দশমিক ৯৭ শতাংশ সিএনজিচালিত অটোরিকশা, ৬ দশমিক ৭৮ শতাংশ নছিমন-করিমন-মাহিন্দ্রা-ট্রাক্টর ও লেগুনা এবং ৬ দশমিক ২৭ শতাংশ প্রাইভেটকার, এসইউভি ও মাইক্রোবাস।

সংঘটিত মোট দুর্ঘটনার মধ্যে ৪৭ দশমিক ৪৩ শতাংশ গাড়িচাপা দেয়ার ঘটনা, ২৫ দশমিক ৩২ শতাংশ মুখোমুখি সংঘর্ষ এবং ২৩ দশমিক ১৩ শতাংশ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে দুর্ঘটনা ঘটেছে।

এছাড়া ৩ দশমিক ৩৬ শতাংশ বিবিধ কারণে যেমন- চাকায় ওড়না পেঁচিয়ে দশমিক ২৯ শতাংশ ‌ও দশমিক ৪৩ শতাংশ ট্রেনের সঙ্গে অন্য কোনো যানবাহনের সংঘর্ষে ঘটেছে।

দুর্ঘটনার ধরণ বিশ্লেষণে দেখা যায়, এই মাসে সংঘটিত মোট দুর্ঘটনার ৩৫ দশমিক ২৮ শতাংশ জাতীয় মহাসড়কে, ১৪ দশমিক ৭৮ শতাংশ আঞ্চলিক মহাসড়কে, ৪২ দশমিক ৪৫ শতাংশ ফিডার রোডে ঘটেছে।

এছাড়াও সারা দেশে সংঘটিত মোট দুর্ঘটনার ৬ দশমিক ৫৮ শতাংশ ঢাকা মহানগরীতে, দশমিক ৪৩ শতাংশ চট্টগ্রাম মহানগরীতে ও দশমিক ৪৩ শতাংশ রেলক্রসিংয়ে ঘটেছে।

আরও পড়ুন:
পাবনায় তেলবাহী লরির চাপায় দুজন নিহত
শ্রীনগরে কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় নিহত ২
সাভারে সড়ক দুর্ঘটনায় স্ত্রী নিহত, আহত পুলিশ কর্মকর্তা
মেরিন ড্রাইভ সড়কে দুর্ঘটনায় পর্যটকসহ নিহত ২
বাড়ি ফেরার পথে ট্রাকের ধাক্কায় কলেজছাত্র নিহত

মন্তব্য

রেস-জেন্ডার
BNP announced a 15 day program around Zias death anniversary

জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকী ঘিরে ১৫ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা বিএনপির

জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকী ঘিরে ১৫ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা বিএনপির ছবি: সংগৃহীত
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘দেশে বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবর্তক, আধুনিক বাংলাদেশ নির্মাণের মহান পথপ্রদর্শক শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য আমরা আগামী ২৮ মে থেকে ১১ জুন পর্যন্ত কর্মসূচি গ্রহণ করেছি।’

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ১৫ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে দলটি। ২৮ মে থেকে ১১ জুন পর্যন্ত চলবে এই কর্মসূচি।

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বুধবার যৌথসভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, ‘আজ এই মহান নেতা, দেশে বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবর্তক, আধুনিক বাংলাদেশ নির্মাণের মহান পথপ্রদর্শক শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য আমরা আগামী ২৮ মে থেকে ১১ জুন পর্যন্ত কর্মসূচি গ্রহণ করেছি।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, অধ্যাপক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ার, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানি, চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাসসহ বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

কর্মসূচি

বিএনপি ঘোষিত কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- ৩০ মে জিয়াউর রহমানের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ, সকাল ৬টায় দলীয় কার্যালয়সহ সারাদেশে দলীয় পতাকা ও কালো পতাকা উত্তোলন, ড্যাবের উদ্যোগে নয়াপল্টনে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের উদ্যোগে দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ এবং ছাত্রদলের উদ্যোগে আলোকচিত্র প্রর্দশনী।

২৮ মে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আলোচনা সভা। ৩১ মে নয়াপল্টনে দোয়া মাহফিল। এছাড়া সারাদেশের মহানগর, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে আলোচনা সভা, সেমিনার, আলোকচিত্র প্রদর্শনী, রচনা প্রতিযোগিতা, স্বরচিত কবিতা পাঠ ও বইমেলা প্রদর্শনী ইত্যাদি।

বিএনপির প্রতিটি অঙ্গ-সংগঠন পৃথকভাবে এসব কর্মসূচির আয়োজন করবে। ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ প্রতিটি ওয়ার্ডে দুস্থ ও অসহায়দের মাঝে বস্ত্র ও খাদ্য বিতরণ এবং দোয়া মাহফিল করবে।

মন্তব্য

রেস-জেন্ডার
Munni of the third gender showed surprise
উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

চমক দেখালেন তৃতীয় লিঙ্গের মুন্নী

চমক দেখালেন তৃতীয় লিঙ্গের মুন্নী দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মুন্নী আক্তার। ছবি: নিউজবাংলা
বিজয়ের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে মুন্নী আক্তার বলেন, ‘আমি মানুষের মৌলিক অধিকার নিয়ে কাজ করব। সমাজের অবহেলিত জনগোষ্ঠীর, বিশেষ করে মা-বোনদের মৌলিক অধিকার আদায়ে কাজ করব।’

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন তৃতীয় লিঙ্গের মুন্নী আক্তার। এই উপজেলায় এবারই প্রথম কোনো তৃতীয় লিঙ্গের ব্যক্তি জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হলেন।

মঙ্গলবার ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে তার প্রতিদ্বন্দ্বী পাঁচ প্রার্থীকে পরাজিত করে বিজয়ী হন মুন্নী।

নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে সেলাই মেশিন প্রতীকে ২৩ হাজার ৭৬৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন মুন্নী আক্তার। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মাজেদা বেগম কলস প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ২১ হাজার ১৮৪টি।

বিজয়ের অনুভূতি ও আগামী দিনে কী কী কাজ করবেন- এমন প্রশ্নের জবাবে মুন্নী বলেন, ‘দেওয়ানগঞ্জের মানুষ আমাকে ভালোবেসে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছে। এই জন্য আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। তবে পুরুষের তুলনায় নারীদের ভোট বেশি পেয়েছি। আমি মানুষের মৌলিক অধিকার নিয়ে কাজ করব। সমাজের অবহেলিত জনগোষ্ঠীর, বিশেষ করে মা-বোনদের মৌলিক অধিকার আদায়ে কাজ করব।’

এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ ৩০ হাজার ২৭৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান মো. সোলায়মান হোসেন মোটরসাইকেল প্রতীকে পান ২৫ হাজার ৮৯৮ ভোট।

এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান পদে বই প্রতীক নিয়ে ২৯ হাজার ৭৭৮ ভোটে পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন মো. আরিফ খান।

আরও পড়ুন:
কালীগঞ্জে চাচাকে হারিয়ে এমপিপুত্রের জয়লাভ
সাবেক এমপি জাফরকে হারিয়ে এবারও উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুল
জিতেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর শ্যালক, হেরেছেন সাবেক অর্থমন্ত্রীর ভাই
নওগাঁয় যারা ছিলেন চেয়ারে, রইলেন তারাই

মন্তব্য

রেস-জেন্ডার
MP Anar was killed by Bangladeshi criminals DMP DB chief

এমপি আনারকে হত্যা করেছে বাংলাদেশি অপরাধীরা: ডিএমপি ডিবি প্রধান

এমপি আনারকে হত্যা করেছে বাংলাদেশি অপরাধীরা: ডিএমপি ডিবি প্রধান বুধবার দুপুরে মিণ্টো রোডে ডিবি কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলে ডিএমপি ডিবির অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন-অর-রশিদ। ছবি: সংগৃহীত
ডিএমপি ডিবির অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন-অর-রশিদ বলেন, ‘তদন্তকারী কর্মকর্তারা কাজ করছেন। নিবিড়ভাবে ভারতীয় পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। কয়েকজন আমাদের কাছে আছে। তাদের কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাচ্ছি। তদন্তের স্বার্থে আমরা সবকিছু বলতে পারছি না।’

‘একজন সংসদ সদস্যকে বাংলাদেশি অপরাধীরা নৃশংসভাবে হত্যা করেছে। কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকি যারা আছে তাদের প্রত্যেককে আমরা আইনের আওতায় আনব। বিচারের মুখোমুখি করব। তদন্তের স্বার্থে নাম প্রকাশ করতে চাচ্ছি না।’

সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার ভারতের কলকাতায় নিহত হওয়ার ঘটনা নিয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন-অর-রশিদ।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর মিণ্টো রোডে ডিবি কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলে ডিএমপি ডিবির প্রধান।

তিনি বলেন, ‘এমপি আনোয়ারুল আজীম আনার হত্যার কারণ জানতে নিবিড়ভাবে তদন্ত চলছে। এ ঘটনায় নিহতের মেয়ে থানায় মামলা করবেন। আমাদের কর্মকর্তারা তাকে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করছেন।’

হারুন-অর-রশিদ বলেন, ‘নিহত এমপির মেয়ে ডরিন আমাদের কাছে এসেছেন। তার বাবা বাসা থেকে বের হয়ে গেলেন, এরপর আর পাওয়া যায়নি। সেখানে কী ঘটেছে সেটা শুনেছেন। এই ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করার জন্য এসেছেন ডরিন।

‘মামলা কীভাবে, কোথায় করবেন...। তার বাবা সংসদ ভবন এলাকায় থাকতেন। সেখান থেকে তিনি ভারতে গেছেন। আমরা তাকে বলেছি শেরে বাংলা নগর থানায় মামলা করতে। মামলা করতে আমাদের কর্মকর্তারা তাকে সহযোগিতা করছেন। মামলাটি আজকের মধ্যেই হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আনোয়ারুল আজীম আনার ঝিনাইদহ-কালিগঞ্জ এলাকার জনপ্রিয় এমপি ছিলেন। তিনি তিনবারের সংসদ সদস্য। তার এলাকার সাধারণ মানুষ এ ঘটনায় স্তম্ভিত।

‘আমরা অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছি। এটি নিষ্ঠুর হত্যাকাণ্ড- এটা মনে করেই তদন্তকারী কর্মকর্তারা কাজ করছেন। নিবিড়ভাবে ভারতীয় পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। কয়েকজন আমাদের কাছে আছে। তাদের কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাচ্ছি। তদন্তের স্বার্থে আমরা সবকিছু বলতে পারছি না।’

ডিএমপি ডিবি প্রধান বলেন, ‘বিভিন্ন ধরনের ভুল তথ্য ছড়ানো হচ্ছে।’

হত্যার কারণ জানা গেছে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘কারণটা জানতে আমাদের তদন্ত চলছে। এটা পারিবারিক নাকি আর্থিক, নাকি এলাকায় কোনো দুর্বৃত্ত দমন করার কারণে এমন ঘটনা ঘটেছে- সবকিছু আমরা তদন্তে আনব।’

আরও পড়ুন:
এমপি আনারের হত্যাকাণ্ড দুই রাষ্ট্রের বিষয় নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
বাবা হত্যার বিচারে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চান আনারকন্যা
কলকাতার বাসায় এমপি আনারকে পরিকল্পিত হত্যা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
ভারতে গিয়ে নিখোঁজ এমপি আনারের মরদেহ উদ্ধার
ভারতে চিকিৎসা করাতে গিয়ে এমপি আনোয়ারুল আজীম ‘নিখোঁজ’

মন্তব্য

রেস-জেন্ডার
MPs son wins by defeating his uncle in Kaliganj
উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

কালীগঞ্জে চাচাকে হারিয়ে এমপিপুত্রের জয়লাভ

কালীগঞ্জে চাচাকে হারিয়ে এমপিপুত্রের জয়লাভ কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের বেসরকারিভাবে নির্বাচিত চেয়ারম্যান রাকিবুজ্জামান আহমেদ (ডানে) ও তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মাহবুবুজ্জামান আহমেদ। কোলাজ: নিউজবাংলা
নির্বাচনে আনারস প্রতীকের প্রার্থী রাকিবুজ্জামান আহমেদকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা জহির ঈমাম। তিনি পেয়েছেন ২৪ হাজার ৩০৩ ভোট, অন্যদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী মাহবুবুজ্জামান আহমেদ পেয়েছেন ১৯ হাজার ৩৫০ ভোট।

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সাবেক সমাজকল্যাণমন্ত্রী ও লালমনিরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য নুরুজ্জামান আহমেদের ছেলে রাকিবুজ্জামান আহমেদ আপন চাচা মাহবুবুজ্জামান আহমেদকে হারিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন। ভোটের লড়াইয়ে ভাতিজার কাছে ৪ হাজার ৯৫৩ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছেন চাচা মাহবুবুজ্জামান।

নির্বাচনে আনারস প্রতীকের প্রার্থী রাকিবুজ্জামান আহমেদকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা জহির ঈমাম। তিনি পেয়েছেন ২৪ হাজার ৩০৩ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী মাহবুবুজ্জামান আহমেদ পেয়েছেন ১৯ হাজার ৩৫০ ভোট।

এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান পদে দেবদাস কুমার রায় বাবুল বৈদ্যুতিক বাল্প প্রতীকে ১২ হাজার ৯৪৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। টিউবওয়েল প্রতীকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আবির হোসেন চৌধুরী ১২ হাজার ৯০৫ ভোট পেয়েছেন।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১৮ হাজার ৬৪৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন হাঁস প্রতীকের প্রার্থী শিউলি রানি রায়। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোছাম্মদ নাজনীন রহমান পেয়েছেন ১২ হাজার ২৭৯ ভোট।

অন্যদিকে, জেলার আদিতমারী উপজেলায় ৩৩ হাজার ১৩৫ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন ইমরুল কায়েস ফারুক, ২২ হাজার ৫২৩ ভোট পেয়ে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন মাইদুল ইসলাম সরকার এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোছা. শামসুন্নাহার মিলি ২৪ হাজার ৬৮৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

উল্লেখ্য, দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে লালমনিরহাটের আদিতমারী ও কালীগঞ্জ উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে দুই উপজেলায় চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোট ২৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন।

মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে ভোট গ্রহণ। গণনা শেষে রাত ১টার দিকে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা লুৎফর কবির বেসরকারিভাবে এসব ফলাফল ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন:
সাবেক এমপি জাফরকে হারিয়ে এবারও উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুল
জিতেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর শ্যালক, হেরেছেন সাবেক অর্থমন্ত্রীর ভাই
নওগাঁয় যারা ছিলেন চেয়ারে, রইলেন তারাই
গাইবান্ধায় এমপি সমর্থিত প্রার্থীকে হারিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান হলেন রিংকু

মন্তব্য

রেস-জেন্ডার
3 dead bodies found in Mymensingh have been identified

ময়মনসিংহে উদ্ধার হওয়া ৩ মরদেহের পরিচয় শনাক্ত

ময়মনসিংহে উদ্ধার হওয়া ৩ মরদেহের পরিচয় শনাক্ত ত্রিশালের কাকচর এলাকা থেকে মঙ্গলবার বিকেলে তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ছবি: সংগৃহীত
পুলিশ জানায়, ঋণের কিস্তি দেয়া নিয়ে ওই দম্পতির ঝগড়ার পর রাতে স্ত্রী ও দুই ছেলেকে হত্যা করেন আলী হোসেন। পরে পাশের নির্জন স্থানে মরদেহগুলো মাটিচাপা দিয়ে রাখেন তিনি।

ময়মনসিংহের ত্রিশালে উদ্ধার হওয়া তিন মরদেহের পরিচয় শনাক্ত হয়েছে। তারা হলেন ২৫ বছর বয়সী আমেনা খাতুন এবং তার দুই ছেলে চার বছরের আবু বক্কর সিদ্দিক ও দুই বছরের আনাস।

নিহতরা উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের কাকচর নয়াপাড়া গ্রামের আলী হোসেনের স্ত্রী ও সন্তান।

পুলিশ জানায়, অভাব-অনটনের সংসার ছিল নিহত আমেনা ও আলী হোসেনের। বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তাদের সংসারে ঝগড়াঝাটি লেগেই থাকত। বিভিন্ন ব্যক্তি ও এনজিওর কাছ থেকে ঋণ নিয়ে দেনাগ্রস্ত ছিলেন তারা।

বৃহস্পতিবার (১৬ মে) রাতে ঋণের কিস্তি দেয়া নিয়ে ওই দম্পতির ঝগড়া হয়। এরপর রাতের কোনো এক সময় স্ত্রী ও দুই ছেলেকে হত্যা করেন আলী হোসেন। পরে রাতেই পাশের এক নির্জন স্থানে মরদেহগুলো মাটিচাপা দিয়ে রাখেন তিনি।

ঘটনার ছয়দিন পর শেয়াল গর্ত থেকে একটি শিশুর মরদেহ টেনে বের করে আনলে বিষয়টি নজরে আসে স্থানীয়দের। তারা থানায় খবর দিলে ঘটনাস্থল থেকে মা ও দুই সন্তানের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

ত্রিশাল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হুমায়ুন কবীর বলেন, ‘তিনজনকে হত্যার ঘটনায় নিহত আমেনার মা হামিদা খাতুন বাদী হয়ে মামলা করেছেন। ঘটনার পর থেকে আলী হোসেন পলাতক।

‘ঘাতক আলী হোসেন একটি হত্যা মামলার আসামি। ২০১২ সালে একটি হত্যা মামলায় সাত বছর জেল খাটেন তিনি।’

আরও পড়ুন:
ময়মনসিংহে গর্ত খুঁড়ে দুই শিশুসহ ৩ জনের মরদেহ উদ্ধার

মন্তব্য

p
উপরে