নতুন অবতারেও ধারালো তারিক কাজী

নতুন অবতারেও ধারালো তারিক কাজী

তারিক কাজী। ফাইল ছবি

বিশ্বনাথকে রাইট ব্যাকে ও তারিককে লেফট ব্যাকে নামান কোচ। তার এই এক্সপেরিমেন্টে দারুণভাবে উতরে গেছেন তারিক। রক্ষণ নিশ্চিদ্র রাখতে এক পাশ অতন্দ্র প্রহরীর মতো আগলে রেখেছেন এই ফিনল্যান্ড প্রবাসী বাংলাদেশী ফুটবলার।

উড়ন্ত জয় দিয়ে এএফসি কাপের মিশন শুরু করেছে বসুন্ধরা কিংস। ক্লিনশিট রেখে মাজিয়াকে হারিয়েছে বাংলাদেশের লিগ চ্যাম্পিয়নরা। এ ম্যাচে নতুন পজিশনে দুর্দান্ত পারফর্ম করেন কিংসের ডিফেন্ডার তারিক কাজী।

রক্ষণ নিশ্চিদ্র রাখতে এক পাশ অতন্দ্র প্রহরীর মতো আগলে রেখেছেন এই ফিনল্যান্ডপ্রবাসী বাংলাদেশী ফুটবলার।

মালদ্বীপের মালে জাতীয় স্টেডিয়ামে মাজিয়াকে ২-০ গোলের ব্যবধানে হারানোর ম্যাচে লেফট ব্যাকের ভূমিকায় খেলেন তারিক। একই দলে দুই রাইট ব্যাক বিশ্বনাথ ঘোষ ও তারিককে কীভাবে খেলাবেন সেটাই ধাঁধা ছিল কিংসের কোচ অস্কার ব্রুজনের কাছে।

শেষ পর্যন্ত দুজনকেই ম্যাচে নামিয়ে দেন এই স্প্যানিশ ট্যাকটিশিয়ান। বিশ্বনাথকে রাইট ব্যাক ও তারিককে লেফট ব্যাকে নামান। তার এই এক্সপেরিমেন্টে দারুণভাবে উতরে গেছেন তারিক।

নতুন পজিশনে খেলতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করার কথা জানালেন এই উদীয়মান ফুটবলার। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, ‘বিপিএলে আমি এই পজিশনে খেলেছি। পজিশনে অভ্যস্ত হচ্ছি। আমি অনেক আরামেই খেলেছি।’

ম্যাচের প্রথমার্ধে করা দুই গোলের বরাতে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে কিংস। তবে প্রথম দিকে অগোছাল খেলতে দেখা গেছে বিপিএল চ্যাম্পিয়নদের। সময় যত গড়িয়েছে নিজেদের গুছিয়েছে দলটি।

প্রথমে চাপে থাকার কথা স্বীকার করেছেন তারিক। বলেন, ‘ম্যাচের শুরুতে প্রেসার ছিল অনেক। বিশেষ করে প্রথম ২০ মিনিট। দুই দলই হেড ‍টু হেড খেলতে যাচ্ছে।’

সেই চাপ সামলে শেষ পর্যন্ত জয়ে রাঙিয়ে মাঠ ছাড়ে ব্রুজনের শিষ্যরা। এ জয়ে পুরো দলকে ধন্যবাদ জানান তারিক।

ভরপুর আত্মবিশ্বাস নিয়ে ২১ আগস্ট টুর্নামেন্টে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে কিংস খেলবে ভারতের দল ব্যাঙ্গালুরু এফসির বিপক্ষে।

আরও পড়ুন:
‘লজ্জায়’ তারিকের সঙ্গে সারাদিন কথা বলেননি জামাল!
ভারত ম্যাচে প্রাপ্তির নাম তারিক কাজী
লাল-সবুজ স্বপ্নপূরণের অপেক্ষায় রোমাঞ্চিত তারিক
তারিকের পর পাইপলাইনে মাহাদী-ওবাইদরা
এক ম্যাচে মাঠে তিন প্রবাসী ফুটবলার

শেয়ার করুন

মন্তব্য

মেসিকে থামানোর মিশনে ‘গুরু’ গার্দিওলা

মেসিকে থামানোর মিশনে ‘গুরু’ গার্দিওলা

বার্সেলোনায় পেপ গার্দিওলা ও লিওনেল মেসি। ফাইল ছবি

ছয়বারের ব্যলন ডর জয়ী এখন প্যারিসের সবচেয়ে বড় আকর্ষণ। আবারও ইউরোপ সেরাদের মঞ্চে গার্দিওলার সিটির বিপক্ষে মাঠে নামতে যাচ্ছে মেসির প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। 

লিওনেল মেসি তার গুরু পেপ গার্দিওলাকে প্রথমবার প্রতিপক্ষ হিসেবে পান ২০১৫ সালে। ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে গার্দিওলার বায়ার্ন মিউনিখের মুখোমুখি হয় মেসির বার্সেলোনা।

ওই ম্যাচের আগে গার্দিওলা বলেছিলেন, ‘মেসি সেরা ছন্দে থাকলে তাকে বিশ্বের কোনো ডিফেন্স আটকাতে পারবে না।’

গার্দিওলার কথা সত্যি প্রমাণ করে মেসি ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা পারফরম্যান্স করেন বায়ার্নের বিপক্ষে। বার্সার ৩-০ ব্যবধানের জয়ে জোড়া গোল করেন এই আর্জেন্টাইন তালিসমান।

এরপরের বছর গার্দিওলা ম্যানচেস্টার সিটির কোচ হয়েও মেসির মোকাবিলা করেন। সেবার মেসি হ্যাটট্রিক করে বার্সেলোনাকে ৪-০ গোলে জিতিয়েছিলেন।

এরপর কেটে গেছে পাঁচ বছর। গার্দিওলা সিটিতে থাকলেও মেসি ছেড়েছেন বার্সার পরিচিত ব্লুগ্রানা জার্সি।

প্যারিসের সেরা তারকা এখন ছয়বারের ব্যলন ডর জয়ী। আবারও ইউরোপ সেরাদের মঞ্চে গার্দিওলার সিটির বিপক্ষে মাঠে নামতে যাচ্ছে মেসির প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)।

এই কয় বছরে ফুটবল বিশ্ব পাল্টেছে অনেকটাই। সিটিকে গার্দিওলা পরিণত বিশ্বের অন্যতম সেরা ক্লাবে। আর বার্সেলোনার সঙ্গে একের পর এক হতাশার মৌসুম কাটিয়ে লা লিগার নিয়মের কারণে ক্লাব ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন মেসি।

চ্যাম্পিয়নস লিগে নামার আগে লিওনেল মেসিকে নিয়ে সন্দেহ থেকে যাচ্ছে পিএসজি শিবিরে। আর্জেন্টিনার হয়ে বিশ্বকাপ বাছাই খেলার সময় যে চোট পান অধিনায়ক সেটা এখনও পুরো সারেনি।

ফলে পিএসজির হয়ে টানা দুই ম্যাচ মাঠের বাইরে ছিলেন মেসি। তবে ফ্রেঞ্চ জায়ান্টদের প্রত্যাশা ম্যান সিটির বিপক্ষে ফিরছেন এই তালিসমান।

রোববার দলের সঙ্গে অনুশীলন করেছেন মেসি।

অন্যদিকে চেলসিকে হারিয়ে দারুণভাবে ছন্দে ফিরেছে গার্দিওলার সিটি। সার্হিও আগুয়েরো ক্লাব ছাড়ার পর একজন স্ট্রাইকারের অভাবে ভুগেছে তারা। কিন্তু ফিল ফডেনকে ফলস নাইন খেলিয়ে সেই অভাব অনেকটাই দূর করেছেন গার্দিওলা।

সামর্থ্যে ও সাফল্যে পিএসজির চেয়ে অনেকটাই এগিয়ে ম্যান সিটি। পিএসজির ম্যানেজার মরিসিও পচেত্তিনোর বিপক্ষে সাফল্যের পাল্লাটা ভারী গার্দিওলারই।

মেসির খেলাও সবার চেয়ে ভালো জানেন এই কাতালান ট্যাকটিশিয়ান। তবে মেসির জ্বলে ওঠার দিন যে কোনো কৌশলই কাজে লাগবে না সেটাও তার মাথাতে আছে নিশ্চিত ভাবেই।

আরও পড়ুন:
‘লজ্জায়’ তারিকের সঙ্গে সারাদিন কথা বলেননি জামাল!
ভারত ম্যাচে প্রাপ্তির নাম তারিক কাজী
লাল-সবুজ স্বপ্নপূরণের অপেক্ষায় রোমাঞ্চিত তারিক
তারিকের পর পাইপলাইনে মাহাদী-ওবাইদরা
এক ম্যাচে মাঠে তিন প্রবাসী ফুটবলার

শেয়ার করুন

ফাতির অন্যরকম অভিষেকের দিনে জয়ে ফিরল বার্সা

ফাতির অন্যরকম অভিষেকের দিনে জয়ে ফিরল বার্সা

ফাতির গোলের পর বার্সার উল্লাস। ছবি: এএফপি

গায়ে কিংবদন্তি ফুটবলার লিওনেল মেসির ১০ নম্বর জার্সি। এই জার্সি নিয়ে অন্যরকম অভিষেকের দিনটি গোল করে রাঙিয়ে রাখলেন স্প্যানিশ স্ট্রাইকার আনসু ফাতি।

ইনজুরি থেকে প্রায় বছর খানেক সময় পরে বার্সার জার্সিতে মাঠে নামলেন আনসু ফাতি। এবার গায়ে সাবেক ফুটবলার লিওনেল মেসির ১০ নম্বর জার্সি। এই জার্সি নিয়ে অন্যরকম অভিষেকের দিনটি গোল করে রাঙিয়ে রাখলেন স্প্যানিশ স্ট্রাইকার।

তার গোলের দিনে বড় জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে বার্সেলোনা। লেভান্তের বিপক্ষে ক্যাম্প ন্যুতে ৩-০ ব্যবধানে জিতেছে কাতালান বাহিনী।

এ ম্যাচের মধ্য দিয়ে লিগে দুই ম্যাচ ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগসহ তিন ম্যাচের পর জয়ে ফিরেছে রোনাল্ড কুমানের শিষ্যরা।

বায়ার্ন মিউনিকের সঙ্গে হারের তিক্ত অভিজ্ঞতার পর লিগে গ্রানাদা ও কাদিসের বিপক্ষে ড্রয়ের হোঁচট পায় বার্সা।

এই ম্যাচটা ঘরের মাঠে তাই জয়ের প্রত্যাশা নিয়ে নেমেছিল কুমান বাহিনী।

মেমফিস ডিপায়ের পেনাল্টি গোলে ম্যাচের ছয় মিনিটে লিড নেয় স্বাগতিকরা। পরে ম্যাচের ১৪ মিনিটে ওয়ান টু ওয়ানে সার্জিনিও ডেস্তের দারুণ পাস থেকে ডি-বক্সের মাঝখান থেকে দুর্দান্ত একটি গোল করেন লুল ডি ইয়ং।

দুই ডাচ ফুটবলারের গোলের দিনে বার্সার শেষটা রঙিন হলো ফাতির গোলে।

প্রায় মাঝমাঠ থেকে বলটা পেয়ে বক্সের দিকে এগিয়ে যান ১০ নম্বর জার্সিতে প্রথমবার মাঠে নামা ফাতি। ঠিক বক্সের সামনে এসে লেভান্তের ডিফেন্ডারকে ড্রিবলিং করে ডান পায়ের নিচু শটে বল জালে জড়ান এই স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড। ম্যাচ তখন ইনজুরি টাইমে চলছিল।

জয়ে ফেরার দিনে পয়েন্ট টেবিলের পাঁচে উঠে এসেছে বার্সেলোনা। ছয় ম্যাচে তাদের ঝুলিতে পয়েন্ট ১২। আর ১৭ পয়েন্ট নিয়ে এক ম্যাচ বেশি খেলে রিয়াল মাদ্রিদ শীর্ষে অবস্থান করছে।

আরও পড়ুন:
‘লজ্জায়’ তারিকের সঙ্গে সারাদিন কথা বলেননি জামাল!
ভারত ম্যাচে প্রাপ্তির নাম তারিক কাজী
লাল-সবুজ স্বপ্নপূরণের অপেক্ষায় রোমাঞ্চিত তারিক
তারিকের পর পাইপলাইনে মাহাদী-ওবাইদরা
এক ম্যাচে মাঠে তিন প্রবাসী ফুটবলার

শেয়ার করুন

সাফের শিরোপা ফিরে পাওয়া কি সম্ভব

সাফের শিরোপা ফিরে পাওয়া কি সম্ভব

ছবি: বাফুফে

সাফে বাংলাদেশ সবশেষ ফাইনালে খেলে ২০০৫ সালের করাচিতে। আর শেষবারের মতো সেমিফাইনাল খেলেছে ২০০৯ সালে ঢাকার টুর্নামেন্টে। টুর্নামেন্টে সবশেষ ১২ ম্যাচে মাত্র তিনবার জয় পেয়েছে বাংলাদেশ।

আবারও বাংলাদেশের সামনে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ ফুটবল। টুর্নামেন্টটি প্রথমে হওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশে। পরে করোনার কারণে চলে যায় মালদ্বীপে। দক্ষিণ এশিয়ার বিশ্বকাপখ্যাত এই টুর্নামেন্ট যখনই সামনে আসে তখনই দুঃখ বিলাসে ভাসতে হয় বাংলাদেশকে।

গত ১৮ বছর ধরে যে শিরোপা খরায় ভুগছে লাল-সবুজরা। ২০০৩ সালে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর থেকে শিরোপা পুনরুদ্ধারের লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

মাঝের চার আসরে শিরোপা তো দূরের কথা সেমিফাইনালেও ওঠা সম্ভব হয়নি বাংলাদেশের। কোচ এসেছেন, কোচ বিদায় নিয়েছেন। দলের অনেক খেলোয়াড় এসেছেন। তারপরও অধরা সাফ শিরোপা।

এবার টুর্নামেন্টের ঠিক আগে প্রধান কোচ জেমি ডেকে সরিয়ে জাতীয় দলের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে অস্কার ব্রুজনকে। ফেডারেশনের আশা, শিরোপা জিতবে বা অন্তত ফাইনালে খেলবে বাংলাদেশ।

কোচ বদলের পর ভাগ্য বদল হবে বলে প্রত্যাশা বাফুফের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনের।

‘অস্কার ব্রুজনের অধীনে সাফের ফাইনালে খেলতে পারে বাংলাদেশ’, এমন আশাবাদ তার।

গত তিন বছরে জেমি ডের অধীনে খেলে যাওয়া দলটি এখন নতুন কোচের কৌশল মানিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে। সেই হিসেবে মাত্র ছয় দিনের প্রস্তুতিতে সাফে নামতে চলেছে অস্কার ব্রুজনের দল।

এই কয়দিনে ডের কৌশল ঝেড়ে নতুন কৌশলে ফুটবলাররা কতটা মানিয়ে উঠবেন সেটা একটা প্রশ্ন হতে পারে। তবে অস্কার নিজে আত্মবিশ্বাসী।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ নিয়ে যে গল্প হয় যে, রক্ষণ করতে পারে না, গোল দিতে পারে না এই বিশ্বাস ভেঙে দেব।’

মালদ্বীপে এক অক্টোবর থেকে শুরু সাফের আসর। প্রথম দিন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশের সাফের মিশন।

সাফের শিরোপা ফিরে পাওয়া কি সম্ভব
অন্তর্বর্তীকালীন কোচ অস্কার ব্রুজনের অধীনে অনুশীলনে বাংলাদেশ দল। ছবি: বাফুফে

অতীত বলছে, সাফে সবশেষ ১২ ম্যাচে মাত্র তিনবার জয় খুঁজে পেয়েছে বাংলাদেশ। এবার গ্রুপ পর্বের সুযোগ নেই। লিগ পদ্ধতিতে টুর্নামেন্ট হবে। শীর্ষ দুই দল ফাইনাল খেলবে।

ভারত-নেপালসহ ঘরের মাঠে মালদ্বীপ ভয়ংকর প্রতিপক্ষ। মালদ্বীপ ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন। ভারত সর্বোচ্চ সাতবারের চ্যাম্পিয়ন। একই সঙ্গে ফেবারিট টুর্নামেন্টের। নেপালও আছে ভালো ফর্মে।

এই চ্যালেঞ্জটা নিতে প্রস্তুত অস্কার। বলেন, ‘নেপাল আর মালদ্বীপ আমাদের প্রকৃত প্রতিদ্বন্দ্বি। আশা করছি ফাইনালে খেলব। আমরা আত্মবিশ্বাসী।’

সাফে বাংলাদেশ সবশেষ ফাইনালে খেলে ২০০৫ সালের করাচিতে। আর শেষবারের মতো সেমিফাইনাল খেলেছে ২০০৯ সালে ঢাকার টুর্নামেন্টে।

সাফে লাল-সবুজদের সেরা সময় গেছে ১৯৯৯ থেকে ২০০৫ পর্যন্ত। এই তিন আসরে তারা ফাইনালিস্ট। শিরোপায় হাত ছোঁয়ানো ২০০৩ সালে নিজ মাঠে।

আরও পড়ুন:
‘লজ্জায়’ তারিকের সঙ্গে সারাদিন কথা বলেননি জামাল!
ভারত ম্যাচে প্রাপ্তির নাম তারিক কাজী
লাল-সবুজ স্বপ্নপূরণের অপেক্ষায় রোমাঞ্চিত তারিক
তারিকের পর পাইপলাইনে মাহাদী-ওবাইদরা
এক ম্যাচে মাঠে তিন প্রবাসী ফুটবলার

শেয়ার করুন

বুট তুলে রাখলেন সামির নাসরি

বুট তুলে রাখলেন সামির নাসরি

ছবি: এএফপি

নিষেধাজ্ঞা শেষে ফুটবলে ফিরলেও আক্ষেপ পুষে রেখেছিলেন মার্সেই, ম্যানচেস্টার সিটি ও আর্সেনালের মতো ইউরোপের অন্যতম শীর্ষ দলে খেলা এ ফুটবলার।

ফুটবল থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন ফ্রান্সের জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার সামির নাসরি।

রোববার নিজেই বুট জোড়া তুলে রাখার ঘোষণা দেন ৩৪ বছর বয়সী তারকা মিডফিল্ডার।

এর আগে ডোপ নেয়ার অপরাধে ১৮ মাসের জন্য নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরেন নাসরি। ২০১৮ সালে তাকে এই নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল ইউয়েফা।

নিষেধাজ্ঞা শেষে ফুটবলে ফিরলেও আক্ষেপ পুষে রেখেছিলেন মার্সেই, ম্যানচেস্টার সিটি ও আর্সেনালের মতো ইউরোপের অন্যতম শীর্ষ দলে খেলা এ ফুটবলার।

তার আক্ষেপটি ঝরে পড়ে তার বক্তব্যে, ‘এটা শুধু ভিটামিনের জন্য ইনজেকশন ছিল। কারণ আমি অসুস্থ ছিলাম।’

২০০৪ সালে ফরাসী ক্লাব মার্সেই দিয়ে সর্বোচ্চ পর্যায়ে ফুটবল ক্যারিয়ার শুরু সামির নাসরি। সবমিলে ৫৬৩ ম্যাচে ৭৮ গোলের পাশাপাশি ৯৮ গোলে অ্যাসিস্ট করেছেন এ মিডফিল্ডার। জিতেছেন ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপাসহ লিগ কাপ ও কমিউনিটি শিল্ড।

বর্ণাঢ্য ক্লাব ক্যারিয়ারের সঙ্গে ফ্রান্সের জাতীয় দলেও কৃতিত্বের সঙ্গে খেলেছেন এই ফুটবলার। দলের হয়ে ৪১ ম্যাচে খেলে চার গোল করেছেন তিনি।

আরও পড়ুন:
‘লজ্জায়’ তারিকের সঙ্গে সারাদিন কথা বলেননি জামাল!
ভারত ম্যাচে প্রাপ্তির নাম তারিক কাজী
লাল-সবুজ স্বপ্নপূরণের অপেক্ষায় রোমাঞ্চিত তারিক
তারিকের পর পাইপলাইনে মাহাদী-ওবাইদরা
এক ম্যাচে মাঠে তিন প্রবাসী ফুটবলার

শেয়ার করুন

সাবিনার চার গোলে ৯২৭ দিন পর বাংলাদেশের জয়

সাবিনার চার গোলে ৯২৭ দিন পর বাংলাদেশের জয়

হংকংয়ের বিরুদ্ধে ৫-০ ব্যবধানে জিতেছে বাংলাদেশ। ছবি: বাফুফে

রোববার হংকংকে ৫-০ ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। হ্যাটট্রিকসহ একাই চার গোল করে দলকে বড় জয় উপহার দিয়েছেন দলের অধিনায়ক সাবিনা খাতুন। অন্য গোল এসেছে তহুরা খাতুনের কাছ থেকে।

উজবেকিস্তানের সফরটা জয় দিয়ে শেষ করেছে জাতীয় নারী ফুটবল দল। এশিয়ান কাপ বাছাইয়ে জর্ডান ও ইরানের কাছে বিধ্বস্ত হওয়ার পর প্রীতি ম্যাচে হংকংকে উড়িয়ে দিয়েছে সাবিনা-কৃষ্ণারা।

দেশটির তাসখন্দের জার অ্যাকাডেমি ট্রেনিং গ্রাউন্ডে রোববার হংকংকে ৫-০ ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশ।

হ্যাটট্রিকসহ একাই চার গোল করে দলকে বড় জয় উপহার দিয়েছেন দলের অধিনায়ক সাবিনা খাতুন। অন্য গোল এসেছে তহুরা খাতুনের কাছ থেকে।

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের ৭৬ অবস্থানে থাকা হংকংয়ের বিপক্ষে ম্যাচের শুরুতেই গোল দিয়ে যাত্রা শুরু করে গোলাম রাব্বানী ছোটনের বাহিনী।

তহুরা খাতুনের গোলে ম্যাচের ১৮ মিনিটে ম্যাচের লিড নেয় বাংলাদেশ। ম্যাচের ৪৩ মিনিটে সাবিনার গোলে প্রথমার্ধ দুই গোলে শেষ করে বাঘিনীরা।

দ্বিতীয়ার্ধে আরও তিনবার জালের দেখা পায় মেয়েরা। তিনটি গোলই আসে সাবিনার কাছ থেকে। হ্যাটট্রিকের পাশাপাশি চার গোল করেন দলের অধিনায়ক।

এ ম্যাচের মধ্য দিয়ে ৯২৭ দিন পর আন্তর্জাতিক ফুটবলে জয়ের দেখা পেল বাংলাদেশ। এর আগে ২০১৯ সালে ১৪ মার্চ ভুটানকে সবশেষ হারিয়েছিল সাবিনা-কৃষ্ণারা। সাফের ওই জয়ের প্রায় আড়াই বছর পর পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশের মেয়েরা।

মাঝে নেপাল সফরে জয়হীন থেকে এশিয়ান কাপ বাছাইয়েও দুই ম্যাচে হারের স্বাদ পেয়েছিল ছোটনের বাহিনী। অবশেষে হংকং জয় দিয়ে জয়ের স্বস্তিতে ফিরেছে দল।

হংকংও বাংলাদেশের মতো এশিয়ান কাপ বাছাইয়ে অংশ নিয়েছিল। বাংলাদেশের মতো তারাও গ্রুপ থেকে বিদায় নিয়েছিল। পরে দুই দলই একটা প্রীতি ম্যাচ খেলার ঐক্যে পৌঁছালে উজবেকিস্তানেই ম্যাচটি আয়োজন করা হয়।

আরও পড়ুন:
‘লজ্জায়’ তারিকের সঙ্গে সারাদিন কথা বলেননি জামাল!
ভারত ম্যাচে প্রাপ্তির নাম তারিক কাজী
লাল-সবুজ স্বপ্নপূরণের অপেক্ষায় রোমাঞ্চিত তারিক
তারিকের পর পাইপলাইনে মাহাদী-ওবাইদরা
এক ম্যাচে মাঠে তিন প্রবাসী ফুটবলার

শেয়ার করুন

মেসিকে ছাড়া ভালোই যাচ্ছে পিএসজির

মেসিকে ছাড়া ভালোই যাচ্ছে পিএসজির

জয়সূচক গোলের পর সতীর্থদের সঙ্গে উদযাপন করছেন ইউলিয়ান ড্র্যাক্সলার। ছবি: টুইটার

লিগ ম্যাচে নিজ মাঠে মঁপলিয়েকে ২-০ গোলে হারিয়ে লিগে টানা আট ম্যাচে জয়ের রেকর্ড ধরে রেখেছে পিএসজি। গোল করেছেন গুয়ায়ে ও ড্র্যাক্সলার।

দলবদলের বাজারে চমক সৃষ্টি করে দলে আনার পর লিওনেল মেসিকে মাত্র তিন ম্যাচে পেয়েছে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। সর্বকালের সেরা ফুটবলারদের একজন এরপর পড়েছেন চোটে। যার কারণে খেলতে পারেনি ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ান পিএসজির সবশেষ ম্যাচে।

তাতে খুব একটা সমস্যা হয়নি প্যারিসিয়ানদের। লিগ ম্যাচে নিজ মাঠে মঁপলিয়েকে ২-০ গোলে হারিয়ে লিগে টানা আট ম্যাচে জয়ের রেকর্ড ধরে রেখেছে পিএসজি।

নিজেদের স্টেডিয়াম পার্ক দে প্রিন্সেসে শুরু থেকেই মঁপলিয়েকে কোণঠাসা করে রাখে পিএসজি। মেসি না থাকলেও কিলিয়ান এমবাপে ও নেইমার ছিলেন স্বাভাবিক ছন্দে।

শুরুর গোলের পেছনে অবদান ছিল এমবাপের। দ্রুত আক্রমণে উঠে নেইমারের উদ্দেশে বল ছাড়েন এই ফ্রেঞ্চ তারকা ফরোয়ার্ড।

সেটি মঁপলিয়ে ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে চলে যান আনহেল দি মারিয়ার পায়ে। দি মারিয়া বক্সের কিনারায় খুঁজে নেন ইদ্রিসা গুয়ায়েকে।

দারুণ শটে পিএসজিকে লিড এনে দেন গুয়ায়ে। ১৪ মিনিটে ১-০ গোলে এগিয়ে যায় পিএসজি।

ম্যাচের শুরু এগিয়ে যাওয়ার পর কিছুটা ধীর হয়ে আসে স্বাগতিকদের গতি। ৪২ মিনিটে আন্দের এরেরার শট ক্রসবারে লাগলে লিড দ্বিগুণ করার সুযোগ হারায় পিএসজি।

বিরতির পরও আক্রমণগুলো গুছিয়ে উঠতে পারছিল না পিএসজি। মাঝমাঠে তারা ভুগছিল মেসির সৃষ্টিশীলতার অভাবে।

নেইমার ও এমবাপে দূরপাল্লার শটে চেষ্টা করেন বার দুয়েক। কিন্তু ভাগ্য সহায় হয়নি। ম্যাচ নিশ্চিত করতে শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় পিএসজিকে।

৮৯ মিনিটে নেইমারের অ্যাসিস্ট থেকে ইউলিয়ান ড্র্যাক্সলারের গোলে তিন পয়েন্ট নিশ্চিত হয় তাদের।

এরপর তিন দিনের বিশ্রাম পাচ্ছে লিগের শীর্ষে থাকা পিএসজি। মঙ্গলবার রাতে ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে ইংলিশ চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটির মোকাবিলা করবে মরিসিও পচেত্তিনোর শিষ্যরা।

ওই ম্যাচের আগে মেসি পুরো সুস্থ হয়ে উঠবেন বলে আশাবাদী পিএসজির মেডিক্যাল টিম।

আরও পড়ুন:
‘লজ্জায়’ তারিকের সঙ্গে সারাদিন কথা বলেননি জামাল!
ভারত ম্যাচে প্রাপ্তির নাম তারিক কাজী
লাল-সবুজ স্বপ্নপূরণের অপেক্ষায় রোমাঞ্চিত তারিক
তারিকের পর পাইপলাইনে মাহাদী-ওবাইদরা
এক ম্যাচে মাঠে তিন প্রবাসী ফুটবলার

শেয়ার করুন

দেরিতে মেসিকে অভিনন্দন পেলের

দেরিতে মেসিকে অভিনন্দন পেলের

ফাইল ছবি

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে বলিভিয়ার বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করে আন্তর্জাতিক গোলসংখ্যায় পেলেকে ছাড়িয়ে গেছেন লিওনেল মেসি। ব্রাজিলের পক্ষে পেলের করা ৭৭ গোলের রেকর্ড ছাড়িয়ে মেসির গোল এখন ৭৯টি।

১০ সেপ্টেম্বর এই রেকর্ড ভেঙেছিলেন মেসি। তবে পেলে তাকে শুভেচ্ছা জানালেন রোববার। এ দিন রাতে নিজের ইন্সটাগ্র্যাম অ্যাকাউন্টে মেসির একটি ছবি পোস্ট করেন পেলে।

সঙ্গে লেখেন, ‘দেরি করে ফেলার জন্য দুঃখিত। আরেকটি রেকর্ড ভাঙায় আপনাকে শুভেচ্ছা জানানোর সুযোগটা হাতছাড়া করতে চাইনি।’

শুধু জাতীয় দল আর্জেন্টিনাই নয়, নতুন ক্লাব পিএসজির হয়ে মেসির সাফল্য কামনা করেন ব্রাজিলের হয়ে তিনটি বিশ্বকাপ জয়ী পেলে।

লেখেন, ‘বল নিয়ে আপনার প্রতিভা মুগ্ধ করার মতো। আশা করি, আমার বন্ধু এমবাপে ও নেইমারের সঙ্গে আপনি আরও সাফল্য লাভ করবেন।’

ফুটবল সম্রাটের স্বাস্থ্যগত অবস্থা খুব একটা ভালো যাচ্ছিল না। সপ্তাহ দুয়েক আগে কোলন টিউমারের সফল অস্ত্রোপচার শেষে সাও পাওলোর হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউ) ছাড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি ফুটবলার পেলে।

চার দিন পর ছাড়পত্র পান। তবে শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় ফের আইসিইউতে নেয়া হয় এই মহাতারকাকে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে জানা গেছে, পেটে জ্বালাপোড়ার কারণে অসুস্থ বোধ করছিলেন ৮০ বছর বয়সী পেলে। অবস্থা খারাপ হওয়ায় আইসিইউতে ভর্তি করা হয় তাকে।

সপ্তাহ খানেক থাকার পর হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান তিনি।

আরও পড়ুন:
‘লজ্জায়’ তারিকের সঙ্গে সারাদিন কথা বলেননি জামাল!
ভারত ম্যাচে প্রাপ্তির নাম তারিক কাজী
লাল-সবুজ স্বপ্নপূরণের অপেক্ষায় রোমাঞ্চিত তারিক
তারিকের পর পাইপলাইনে মাহাদী-ওবাইদরা
এক ম্যাচে মাঠে তিন প্রবাসী ফুটবলার

শেয়ার করুন