নকআউট ‘মহাযুদ্ধ’ জিততে মরিয়া ইংল্যান্ড ও জার্মানি

নকআউট ‘মহাযুদ্ধ’ জিততে মরিয়া ইংল্যান্ড ও জার্মানি

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের আগে অনুশীলনে জার্মানি স্কোয়াড। ছবি: টুইটার

১৯৬৬ সালের পর কখনই কোনো টুর্নামেন্টের নক আউটে জার্মানিকে হারাতে পারেনি ইংল্যান্ড। ১৯৯০ ও ২০১০ বিশ্বকাপ ও ১৯৯৬ ইউরোতে জার্মানির কাছে হেরেই বিদায় নিতে হয় তাদের। এর মধ্যে ১৯৯৬-এর হার ছিল ওয়েম্বলিতে।

ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের নকআউট রাউন্ডের মেগা ম্যাচে রাতে মুখোমুখি হচ্ছে জার্মানি ও ইংল্যান্ড। ডি-গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ষোলয় পা রাখে ইংল্যান্ড আর এফ-গ্রুপে দ্বিতীয় হয়ে নকআউট নিশ্চিত করে জার্মানি।

ফুটবল মাঠে দুই দেশের মোকাবিলা মানেই ভক্তদের জন্য বাড়তি কিছু। ইংলিশ ও জার্মানদের তিক্ততার ইতিহাস বহু পুরনো। দু-দুটি বিশ্বযুদ্ধে একে অপরের প্রতিপক্ষ ছিল ইংল্যান্ড ও জার্মানি। স্বাভাবিকভাবে এই বৈরিতা চলে এসেছে ফুটবল মাঠেও।

আর এবারের ম্যাচ হচ্ছে ঐতিহাসিক ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে। ১৯৯৬ সালের ইউরোতে একই ভেন্যুতে নির্ধারিত সময়ে ১-১ গোলে ড্র থাকার পর টাইব্রেকারে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ফাইনালে পৌছায় জার্মানি। ফাইনালে চেক রিপাবলিককে হারিয়ে শিরোপা জিতে নেয় ডাই মানশাফট।

ওয়েম্বলিতে জার্মানি-ইংল্যান্ড শত্রুতার সূত্রপাত পুরনো। ১৯৬৬ সালের ফাইনালে এই স্টেডিয়ামে জার্মানিকে ৪-২ গোলে হারিয়ে নিজেদের একমাত্র বিশ্বকাপ জেতে ইংল্যান্ড।

ফাইনালে নির্ধারিত সময়ে ২-২ গোলে খেলা শেষ হওয়ার পর জেফ হার্স্ট গোল করে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন। ওই গোলটি নিয়েই শুরু হয় বিপত্তি। জার্মানদের দাবি ছিল হার্স্টের গোল গোললাইন অতিক্রম করেনি। কিন্তু রেফারি তাদের দাবি কানে নেননি। গোলটিকে বৈধতা দেন ও জার্মানি ফাইনাল হেরে যায়।

পরে ইম্পেরিয়াল কলেজ অফ লন্ডন ও অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির একদল গবেষক প্রমাণ করেন হার্স্টের গোলটি গোললাইন অতিক্রমের চেয়ে ২.৫-৬ সেন্টিমিটার দূরে ছিল।

এরপর আর কখনই কোনো টুর্নামেন্টের নক আউটে জার্মানিকে হারাতে পারেনি ইংল্যান্ড। ১৯৯০ ও ২০১০ বিশ্বকাপ ও ১৯৯৬ ইউরোতে জার্মানির কাছে হেরেই বিদায় নিতে হয় তাদের। এর মধ্যে ১৯৯৬-এর হার ছিল ওয়েম্বলিতে।

নকআউট ‘মহাযুদ্ধ’ জিততে মরিয়া ইংল্যান্ড ও জার্মানি
অনুশীলনে জার্মানির অধিনায়ক মানুয়েল নয়্যার। ছবি: টুইটার



বরাবরের মতো এবারের আসরের ম্যাচটিকে ইংলিশ মিডিয়া ফুলিয়ে ফাঁপিয়ে বলছে ‘ম্যাচ অফ দ্য টুর্নামেন্ট’। তবে সাবেক জার্মান তারকা ডিয়েটমার হামান ম্যাচের আগে ইংলিশ সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, ‘আমি কখনই ইংল্যান্ডকে জার্মানির সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বি ভাবি না।’

গ্যারেথ সাউথগেইট ও ওয়াকিম লোভ দুই দলের দুই কোচই মনোমুগ্ধকর ফুটবলের চেয়ে ট্যাকটিকাল ফুটবলে জোর দেন বেশি। এই ম্যাচেও তার ব্যতিক্রম হওয়ার সম্ভাবনা কম।

লোভ বেছে নিয়েছেন তার টার্গেটকে। জার্মান ডিফেন্স বিশেষ ছক কষছে ইংলিশ ‘হিটম্যান’ হ্যারি কেইনকে থামাতে, জানালেন লোভ।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘হ্যারি কেইন যেমনটা খেলে, ম্যাচের যেকোনো পরিস্থিতিতে সে গোল করতে পারে। তার এই দক্ষতা ও গুন আছে। কেইন ছাড়াও ইংল্যান্ডের আক্রমণভাগে সানচো ও র‍্যাশফোর্ডের মতো দারুণ সব খেলোয়াড় আছে।

‘এই তরুণরা অত্যন্ত দ্রুতগতির। তারা মাঠে ডুয়েল পছন্দ করে। তাদের আক্রমণভাগ আসলেই আমাদের জন্য হুমকি।’

নকআউট ‘মহাযুদ্ধ’ জিততে মরিয়া ইংল্যান্ড ও জার্মানি
অনুশীলনে ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হ্যারি কেইন। ছবি: টুইটার



তার প্রতিপক্ষ সাউথগেইট ১৯৯৬ ইউরোর স্মৃতি ভুলে যেতে চান। সাউথগেইট ওই হারের সাক্ষী হলো এখনকার অধিকাংশ খেলোয়াড়ের তখন জন্মই হয়নি। পুরনো স্মৃতি না হাতড়ে নকআউট ম্যাচ জেতার ওপরই জোর দিলেন ইংলিশ কোচ।

‘আমি তো ম্যাচ জিতব না। জিতবে খেলোয়াড়রা। তাই তাদের ওপরই ফোকাস থাকা উচিত। আমার সঙে যা হয়েছিল সেটা থেকে আমি জীবনে শিক্ষা নিয়েছি। কিন্তু ওই ঘটনা এখনকার খেলোয়াড়দের কাছে গুরুত্বপূর্ণ নয়,’ বলেন সাউথগেইট।

জার্মানির মতো ঐতিহাসিক প্রতিদ্বন্দ্বির সঙ্গে মাঠে নামার আগে নিজেদের প্রস্ততির দিকে খেয়াল রেখেছেন সাউথগেইট। ওয়েম্বলিতে কোন দলের রেকর্ড কেমন সেটা নিয়ে ভাবছেন না তিনি।

বলেন, ‘পুরোটাই কে কেমন প্রস্তুতি নিয়েছে ও কেমন খেলে সেটার ওপর নির্ভর করে। অনেক প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব আছে যারা নির্দিষ্ট কোনো মাঠে ৩০ বছর জেতেনি এবং পরে ওই মাঠে জেতার রেকর্ড গড়েছে। জীবনে এসব বাধা দূর করার মানসিকতা আমাদের থাকতে হবে।’

সাউথগেইট মুখে যতই বলুন না কেন জার্মানির বিপক্ষে ইংল্যান্ডের ম্যাচ বাড়তি উত্তেজনার খোরাক যোগাবেই খেলোয়াড় ও দর্শকদের। স্নায়ুচাপ যারা সামলাতে পারবে তাদের দিকের জয়ে পাল্লা হেলে থাকবে সেটা প্রায় নিশ্চিত।

বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় শুরু হচ্ছে ইংল্যান্ড-জার্মানি ফুটবল দ্বৈরথের নতুন অধ্যায়।

আরও পড়ুন:
পেনাল্টি শুটআউটে ফ্রান্সকে বিদায় করে দিল সুইজারল্যান্ড
ইতালির বিপক্ষে ব্রুইনা ও অ্যাজারকে পাচ্ছে না বেলজিয়াম
৮ গোলের থ্রিলারে ক্রোয়েশিয়াকে হারাল স্পেন
লড়াই শেষে ক্লান্ত বেলজিয়াম, ডাচদের হারের দায় নিলেন ডি লিখট
চ্যাম্পিয়ন পর্তুগালকে হারিয়ে শেষ আটে বেলজিয়াম

শেয়ার করুন

মন্তব্য