লিগ লড়াইয়ে দুই মাদ্রিদ, ছিটকে গেল বার্সা

ছবি: সংগৃহীত

লিগ লড়াইয়ে দুই মাদ্রিদ, ছিটকে গেল বার্সা

বার্সার লিগ শিরোপা জেতার ছোট্ট যে আশা ছিল তা নিভে গেল আজ ন্যু ক্যাম্পে। সেলতা ভিগোর কাছে ২-১ গোলে হেরে গেছে বার্সেলোনা।

স্প্যানিশ লিগের শিরোপা দৌড় থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে ছিটকে গেছে বার্সেলোনা। ঘরের মাটিতে সেলতা ভিগোর কাছে হেরে লিগের ক্ষীণ আশাটুকু ধ্বংস হয়ে গেল রোনাল্ড কুমানের শিষ্যদের। এদিকে একই সময়ে বাকী দুই প্রতিদ্বন্দ্বী দল রিয়াল মাদ্রিদ ও আতলেতিকো মাদ্রিদ জয় নিয়ে শিরোপার দৌড়ে টিকে রইল।

বার্সার লিগ শিরোপা জেতার ছোট্ট যে আশা ছিল তা নিভে গেল আজ ন্যু ক্যাম্পে। সেলতা ভিগোর কাছে ২-১ গোলে হেরে গেছে বার্সেলোনা।

আঁতোয়া গ্রিজমানের ক্রস থেকে ম্যাচের ২৩ মিনিটে গোল করে স্বাগতিকদের লিড এনে দেন অধিনায়ক লিওনেল মেসি। এক গোলের স্বস্তি নিয়ে বিরতিতে যায় সফরকারী দল।

ফিরে ৬৩ মিনিটের মাথায় সানতি মিনার গোলে সমতায় ফেরে সেলতা।

একাধিক গোল করে লিডের সুযোগ হাতছাড়া করে বার্সেলোনা। দুটি সুবর্ণ নষ্ট করেন রোনালড আরাউহো ও মার্টিন ব্যাথওয়েট। এর মাঝে লাল কার্ড দেখে ডিফেন্ডার ক্লেঁম লংলের বিদায়ের পর আরও একটি গোল হজম করে হেরে বসে বার্সা।

এদিকে আতলেতিক বিলবাওয়ের মাটি থেকে জয় নিয়ে লিগ জেতার আশা জিইয়ে রেখেছে বার্সার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ। নাচো ফার্নান্দেসের গোলে জয়ের স্বস্তি নিয়ে মাঠ ছেড়েছে জিনেদিন জিদানের দল।

একই সময়ে প্রায় পয়েন্ট খুইয়ে লিগে রিয়াল থেকে পিছিয়ে পড়তে যাচ্ছিল শহর প্রতিদ্বন্দ্বী আতলেতিকো মাদ্রিদ। ১-১ গোলের সমতায় থেকে ম্যাচের ৮৮ মিনিটে সাবেক বার্সা ফরোয়ার্ড লুইস সুয়ারেসের গোলে ওসাসুনার বিপক্ষে পূর্ণ তিন পয়েন্টের স্বস্তি নিয়ে মাঠ ছেড়েছে সিমিওনির শিষ্যরা।

এ জয়ে শিরোপার দৌড়ে টিকে রইল এই দুই মাদ্রিদ। ৮৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে আতলেতিকো মাদ্রিদ। আর দুই পয়েন্ট কম নিয়ে দুইয়ে রিয়াল মাদ্রিদ।

শেষ ম্যাচে আতলেতিকো জিতলেই চ্যাম্পিয়ন। আর হারলে এদিকে রিয়াল জিতে গেলে চ্যাম্পিয়ন হবে জিদানের দল।

আরও পড়ুন:
শিরোপা স্বপ্ন ধরে রাখল রিয়াল
লা লিগা শিরোপার আরও কাছে আতলেতিকো
মাঠে প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছে না স্পেন
চেলসির চেয়ে মাদ্রিদে ভালো আছেন কোঁতোয়া
জিদান জাদু চলছেই

শেয়ার করুন

মন্তব্য

সাবিনার গোলের সেঞ্চুরির দিনে বড় জয় কিংসের

সাবিনার গোলের সেঞ্চুরির দিনে বড় জয় কিংসের

ছবি: বাফুফে

তার এমন রেকর্ডের দিনে বড় জয় পেয়েছে তার দল বসুন্ধরা কিংস। সাবিনার হ্যাটট্রিকে সদ্যপুস্করণী যুব এসসিকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা।

দেশ ও বিদেশের মাটিতে আলো ছড়ানো ফুটবলার সাবিনা খাতুনের পালকে যোগ হলো আরেকটি পলক। দেশের নারী লিগে গোলের সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েছেন বসুন্ধরা কিংসের এই ফুটবলার।

তার এমন রেকর্ডের দিনে বড় জয় পেয়েছে তার দল বসুন্ধরা কিংস। সাবিনার হ্যাটট্রিকে সদ্যপুস্করণী যুব এসসিকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা।

শহীদ মোস্তফা কামাল বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়াম ঝিড়িঝিড়ি বৃষ্টিতেই ম্যাচটা হয়ে যায়। নিজেদের অষ্টম ম্যাচটাও আধিপত্য নিয়ে খেলে কিংস।

ম্যাচের ডেডলকটা ভাঙে সাবিনার হাত ধরে। ম্যাচের ২০, ৩১ ও ৭৮ মিনিটে তিনটি গোল করে নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করেন এই স্ট্রাইকার। সঙ্গে নারী লিগ ক্যারিয়ারে নিজের গোলের সেঞ্চুরির ফলক পূরণ করেন সাবিনা।

দলের হয়ে বাকি দুটি গোল আসে আঁখি খাতুন ও মারিয়া মান্ডার কাছ থেকে।

সাবিনার গোলের সেঞ্চুরির দিনে বড় জয় কিংসের
সাবিনার গোলের সেঞ্চুরি উদযাপন করছে কিংস

ম্যাচ শেষে সাবিনার সেঞ্চুরির গোলের মাইলফলকের আনন্দ ভাগাভাগি করে নেয় পুরো দল। শততম গোলের জার্সি পড়ে সাবিনাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে কিংস।

এ জয়ে পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষস্থান আরও পাকাপোক্ত করল আবু ফয়সালের শীষ্যরা। টানা আট ম্যাচেই জয় পেল কিংস।

আরও পড়ুন:
শিরোপা স্বপ্ন ধরে রাখল রিয়াল
লা লিগা শিরোপার আরও কাছে আতলেতিকো
মাঠে প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছে না স্পেন
চেলসির চেয়ে মাদ্রিদে ভালো আছেন কোঁতোয়া
জিদান জাদু চলছেই

শেয়ার করুন

ইতালিয়ান রোমাঞ্চ উপহার দিতে চান মানচিনি

ইতালিয়ান রোমাঞ্চ উপহার দিতে চান মানচিনি

সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে সাইডলাইন থেকে স্ট্রাইকার চিরো ইমোবিলের সঙ্গে পরামর্শ করছেন ইতালির কোচ রবার্তো মানচিনি। ছবি: এএফপি

২৯ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ডের মতোই চমকপ্রদ তাদের গোল করার রেকর্ড। শেষ দশ ম্যাচে গড়ে ম্যাচপ্রতি তিনটিরও বেশি গোল করেছে ইতালি। ঐতিহ্যগতভাবে রক্ষণে শক্তিশালী ইতালি প্রতিপক্ষের গোলের সামনেও দেখাচ্ছে শ্রেষ্ঠত্বের ঝলক।

২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে কোয়ালিফাই করতে না পারায় ইতালিয় ফুটবলে নেমে আশে আঁধার। চারবারের বিশ্বকাপ জয়ীদের টুর্নামেন্টে খেলতে নামা পারাটাকে ধরা হচ্ছিল জাতীয় বিপর্যয়। তিন বছরে মাথায় পালটে গেছে দৃশ্যপট।

টানা ২৯ ম্যাচে অপরাজিত আৎসুরিরা। টানা দশ ম্যাচে কোনো গোল হজম করেনি তারা। স্কোর করেছে ৩১ গোল।

২৯ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ডের মতোই চমকপ্রদ তাদের গোল করার রেকর্ড। শেষ দশ ম্যাচে গড়ে ম্যাচপ্রতি তিনটিরও বেশি গোল করেছে ইতালি। ঐতিহ্যগতভাবে রক্ষণে শক্তিশালী ইতালি প্রতিপক্ষের গোলের সামনেও দেখাচ্ছে শ্রেষ্ঠত্বের ঝলক।

ইতালিয়ানদের ফুটবল দর্শন খোলনলচে পালটে ফেলার কৃতিত্ব দিতে হবে রবার্তো মানচিনিকে। ২০১৮ বিশ্বকাপ বিপর্যয়ের পর ইতালির হাল ধরে দলের ভাগ্য বদলাতে সক্ষম হয়েছেন এই কোচ।

ফিফা ডটকমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মানচিনি জানালেন ইতালির ফুটবলে একঝাঁক নতুন প্রতিভা আশা কারণেই পালটে গেছে দলের গতিপথ। তারা এখন অনেক বেশি রোমাঞ্চ প্রিয়।

‘আমি কঠিন একটা সময়ে দায়িত্ব নিয়েছি। আগে যা করা হয়েছে তার চেয়ে আলাদা কিছু করতে চেয়েছি। প্রতিভাবান, তরুণ ও আক্রমণাত্মক একঝাঁক খেলোয়াড় পেয়েছি যারা ভিন্ন স্টাইলের খেলার সঙ্গে মানিয়ে নিতে সক্ষম। এই পদ্ধতিতে কখনও সাফল্য আসবে, কখনও আসবে না। উপভোগ্য ফুটবল খেলে এমন একটা রোমাঞ্চকর জাতীয় দল ভক্তদের উপহার দেওয়ার জন্য উপযুক্ত সময় এটি,’ বলেন মানচিনি।

ইতালি দলে বিশ্বসেরাদের কাতারে থাকা ফুটবলারদের কমতি কখনই ছিল না। রবার্তো বাজ্জো, জানলুইজি বুফন, ফাবিও কানাভারোর মতো কিংবদন্তিরা খেলেছেন প্রতিটি পজিশনে।

এখন ইতালি দলে নেই বিশ্বতারকাদের কেউই। তবে দল হিসেবে তারা এখন অনেক বেশি কার্যকরী দাবি মানচিনির।

মানচিনি বলেন, ‘এটা ঠিক আগে ইতালি দলে দারুণ, বিশ্বমানের কিছু খেলোয়াড় ছিলেন। এখন ওই ধরণের প্রতিভার ঘাটতি কেন রয়েছে সেটার উত্তর দেয়া মুশকিল। তবে ইতালিরা ফুটবলে বেশ কিছু প্রতিভা এসেছে যারা ভবিষ্যতে বিশ্ব তারকা হওয়ার দাবিদার। আমাদের চেষ্টা থাকবে তাদের সেই লক্ষ্য পূরণে সাহায্য করা।’

ইতালিয়ান রোমাঞ্চ উপহার দিতে চান মানচিনি
ওয়েলসের বিপক্ষে ম্যাচের আগে দলকে ব্রিফ করছেন মানচিনি। ছবি:এএফপি



মানচিনির অধীনে ইতালির আগ্রাসী ফুটবলের প্রশংসা আসছে চতুর্দিক থেকে। ব্রাজিল জাতীয় দলের কোচ লিওনার্দো তিতে মানচিনিকে বলেছেন এই মুহূর্তে বিশ্বের সেরা কোচ।

আক্রমণাত্মক ফুটবলের তোড়ে ইতালি কি ভুলে যাবে তাদের রক্ষণ ঐতিহ্য? মানচিনি জানালেন সেটার কোনো সম্ভাবনা নেই। আধুনিক ফুটবলে ডিফেন্স ও অ্যাটাকের সমন্বয়েই আসবে সাফল্য এমন দর্শনে বিশ্বাসী এই ট্যাকটিশিয়ান।

বলেন, ‘আমরা খুবই খুশি যে ইতালির আক্রমণাত্মক খেলা প্রশংসিত হচ্ছে। সঙ্গে এটাও মাথায় রাখতে হবে যে রক্ষণাত্মক কৌশল অবলম্বন করেই আমাদের দল চারটা বিশ্বকাপ ও একটা ইউরো জিতেছে। প্রতিটা দেশেরি নিজস্ব খেলার ধরন থাকে আর ইতালি এখনও তাদের রক্ষণভাগের জন্য বিখ্যাত। ভালোদল হতে হলে রক্ষণ ও আক্রমণের মিশেল থাকা জরুরী।’

ইউরো শুরুর আগে ইতালিয়ান ফুটবল ফেডারেশন তার চুক্তি নবায়ন করেছে আরও পাঁচ বছরের জন্য। স্বাভাবিকভাবেই মানচিনির পারফর্মেন্স ও তার দলের ফলে সন্তুষ্ট দেশটির ফুটবল ফেডারেশন।

আপাতত আৎসুরিদের মনোযোগ ইউরোতে। প্রথম দুই ম্যাচ জিতে সবার আগে নক আউট নিশ্চিত করেছে তারা। ইতালিকে অনেকে এবারের টুর্নামেন্টের ‘হট ফেভারিট’ মানছে। তবে, মানচিনির মতে তার দল মাত্র ঘুরে দাঁড়ানো শুরু করেছে।

‘ফ্রান্স, পর্তুগালের মতো অনেকগুলো দলই আমাদের চেয়ে এই মুহূর্তে শক্তিশাল। শেষ পাঁচ বছর যাবৎ শীর্ষ পর্যায়ে খেলা দলগুলোও ভালো করছে। আমাদের চেয়ে তাদের খেলোয়াড়দের অভিজ্ঞতা বেশি। তিন বছরে আমরা মাত্রই ওই পর্যায়ে পৌঁছানো শুরু করেনি। কিন্তু আমি বারবারই বলে এসেছি ফুটবলের অন্যতম মূল বিষয় হচ্ছে যে কোনো দলই যেকোনো দিন জিততে পারে।’

নক আউট নিশ্চিত করে ফেলা ইতালি রোববার রাতে নিজেদের শেষ গ্রুপ ম্যাচে নামছে ওয়েলসের বিপক্ষে।

আরও পড়ুন:
শিরোপা স্বপ্ন ধরে রাখল রিয়াল
লা লিগা শিরোপার আরও কাছে আতলেতিকো
মাঠে প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছে না স্পেন
চেলসির চেয়ে মাদ্রিদে ভালো আছেন কোঁতোয়া
জিদান জাদু চলছেই

শেয়ার করুন

কোপায় জিতবে আর্জেন্টিনা, আশা ‘তাহের মেসি’র

কোপায় জিতবে আর্জেন্টিনা, আশা ‘তাহের মেসি’র

আবু তাহেরের আর্জেন্টিনা রিকশা। ছবি: টুইটার

আর্জেন্টিনা ফুটবল দলের পাঁড় ভক্ত তাহের। সেই ১৯৮৬ সাল থেকে। ছোটবেলায় কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনার খেলা দেখে ভালোবেসে ফেলেন আর্জেন্টিনাকে। সেই ভালোবাসা আজও অটুট।

ঢাকার অলিগলিতে দেখা মেলে রং-বেরঙের রিকশার। জনপ্রিয় এই বাহনটি অনেকের কাছেই প্রতিদিনকার চলাচলের একমাত্র উপায়। রাজধানীর হাজারও রিকশার মাঝে হুট করেই চোখে পড়তে পারে একেবারে আলাদা আবু তাহেরের রিকশাটিকে।

আকাশি, নীল ও সাদা রঙে রাঙানো রিকশাটি একনজর দেখলেই বোঝা যায় এর চালকের উদ্দেশ্য। আর্জেন্টিনা ফুটবল দলের পাঁড় ভক্ত তাহের। সেই ১৯৮৬ সাল থেকে।

ছোটবেলায় কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনার খেলা দেখে ভালোবেসে ফেলেন আর্জেন্টিনাকে। সেই ভালোবাসা আজও অটুট।

বিশ্বকাপ ও কোপা আমেরিকার মতো বড় টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের অন্যান্য ভক্তের মতো আর্জেন্টিনার হাতে শিরোপা দেখার আশায় থাকেন তাহের।

ম্যারাডোনার পর তাহেরের নতুন ভালোবাসার নাম লিওনেল মেসি। সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলারের এতটাই ভক্ত তিনি যে, পরিচিতরা তাকে ডাকে ‘তাহের মেসি’ নামেই।

আর্জেন্টিনার জার্সি গায়েই তাহের রিকশা চালান ঢাকার অলিগলিতে। ব্রাজিলভক্তদের নিজের রিকশায় নিতে চান না। তারাও আর্জেন্টিনার জার্সির রঙের রিকশায় চড়েন না।

এবারের কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনার জয় নিয়ে প্রচণ্ড আশাবাদী তাহের। প্রিয় দল ও তারকার হাতে দেখতে চান শিরোপা।

এবার তিনি নিশ্চিত, ‘আর ফাইনাল হারবে না আর্জেন্টিনা। মেসির হাতেই উঠবে শিরোপা।’

তাহেরের আর্জেন্টিনাপ্রীতির খবর এক টুইটবার্তায় জানিয়েছে বাংলাদেশি আর্জেন্টিনা সমর্থকদের অন্যতম বড় টুইটার হ্যান্ডল ‘আর্জেন্টিনা ফুটবল মিডিয়া’।

তাহেরের প্রিয় আর্জেন্টিনা কোপা আমেরিকার প্রথম ম্যাচে ড্র করার পর দ্বিতীয় ম্যাচে উরুগুয়েকে হারিয়ে ছন্দে ফিরেছে। লাখো-কোটি ভক্তের মতো তাহেরও এবারের টুর্নামেন্টের শিরোপা মেসিদের হাতে দেখার অপেক্ষায় আছেন।

আরও পড়ুন:
শিরোপা স্বপ্ন ধরে রাখল রিয়াল
লা লিগা শিরোপার আরও কাছে আতলেতিকো
মাঠে প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছে না স্পেন
চেলসির চেয়ে মাদ্রিদে ভালো আছেন কোঁতোয়া
জিদান জাদু চলছেই

শেয়ার করুন

উড়তে থাকা রোনালডোদের মাটিতে নামাল জার্মানি

উড়তে থাকা রোনালডোদের মাটিতে নামাল জার্মানি

রুবেন দিয়াসের আত্মঘাতী গোলের পর জার্মানির সার্জ জিনাব্রির উচ্ছ্বাস। ছবি: টুইটার

ঘরের মাঠ মিউনিখের আলিয়াঞ্জ আরেনায় পর্তুগালকে জার্মানি উড়িয়ে দিয়েছে ৪-২ গোলে। ম্যাচের প্রথম তিনটি গোলই এসেছে পর্তুগিজদের পা থেকে। তার দুটি আত্মঘাতী।

হাঙ্গেরির বিপক্ষে ইউরোর প্রথম ম্যাচে জয়ে আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে ছিল পর্তুগাল। আর ফ্রান্সের কাছে আত্মঘাতী গোলে হেরে ব্যাকফুটে টুর্নামেন্ট শুরু করে জার্মানি। ক্রিস্টিয়ানো রোনালডো-ব্রুনো ফার্নান্দেসদের সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ নিয়ে মাঠে নেমে ভেলকি দেখাল জার্মানি। এক গোলে পিছিয়ে থেকে পর্তুগালকে উড়িয়ে দিল ওয়াকিম লোভের বাহিনী।

ঘরের মাঠে পর্তুগালকে স্বাগতিকরা ধসিয়েছে ৪-২ গোলে।

আলিয়াঞ্জ আরেনায় ম্যাচের শুরুটা একেবারে ভিন্ন ছিল। ঘরের মাঠে ফ্রান্সের কাছে হারের ক্ষত তখনও শুকায়নি জার্মানির। এর মধ্যে স্বাগতিকদের জালে ম্যাচের ১৫ মিনিটে বল পাঠিয়ে চমকে দেয় পর্তুগাল। আগের ম্যাচে জোড়া গোল করা রোনালডোই লিড এনে দেন দলকে।

এরপরই তোলপাড় শুরু হয় জার্মানির। প্রথমার্ধ শেষের আগেই দুই গোলে ম্যাচের লিড নিয়ে নেয় জার্মানি। দুটি গোলই এসেছে পর্তুগালের আত্মঘাতী গোলে। রুবেন দিয়াস ও রাফায়েল গেরেরোর দুই আত্মঘাতী গোলের খেসারতে পিছিয়ে থেকে প্রথমার্ধ শেষ করে পর্তুগাল।

বিরতি থেকে ফেরার পর তাদের দম ফেলার সুযগ দেয়নি জার্মানি। ছয় মিনিটের মাথায় কাই হাভের্টসের গোলে ব্যবধান ৩-১ করে ফেলে ডাই মানশাফট। ম্যাচ ততক্ষণে পর্তুগালের হাত থেকে দূরে সরে যেতে শুরু করেছে।

এর ঠিক নয় মিনিট পর রবিন গোসেনসের আরেকটি গোলে ব্যবধান ৪-১ করে ফেলে স্বাগতিকরা। ম্যাচে ফেরার সময় ছিল পর্তুগালের হাতে। ৬৭ মিনিটে ব্যবধানও কমিয়ে ফেলে পর্তুগাল।

এবারও আক্রমণের নেতৃত্বে রোনালডো। তার সাজিয়ে দেয়া বলে গোল করে ব্যবধান কমান দিয়োগো জোতা।

এরপরে আর গোলের দেখা না পেলে এই ব্যবধানেই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে জার্মানি। চলতি ইউরোতে এটা জার্মানির প্রথম জয়। আর প্রথম হার পর্তুগালের।

এ জয়ে পয়েন্ট টেবিলের দুইয়ে উঠে এসেছে জার্মানি। আর একই পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে পর্তুগাল আছে তিনে। নক আউট পর্বের লড়াইয়ে গ্রুপের শেষ ম্যাচটি জার্মানি খেলবে হাঙ্গেরির বিপক্ষে ২৪ জুন। আর পর্তুগাল খেলবে একই দিন ফ্রান্সের বিপক্ষে।

আরও পড়ুন:
শিরোপা স্বপ্ন ধরে রাখল রিয়াল
লা লিগা শিরোপার আরও কাছে আতলেতিকো
মাঠে প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছে না স্পেন
চেলসির চেয়ে মাদ্রিদে ভালো আছেন কোঁতোয়া
জিদান জাদু চলছেই

শেয়ার করুন

বার্সেলোনায় মেম্ফিস ডিপায়

বার্সেলোনায় মেম্ফিস ডিপায়

নেদারল্যান্ডসের জার্সিতে মেম্ফিস ডিপায়। ছবি: টুইটার

ফরাসি ক্লাব লিঁওর সঙ্গে চুক্তি শেষ হওয়ায় ফ্রি-এজেন্ট হিসেবেই মেসিদের সঙ্গে যোগ দিচ্ছেন ডিপায়। ২৭ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ডকে প্রাথমিকভাবে দুই বছরের চুক্তি অফার করবে বার্সা।

মৌসুমের তৃতীয় বড় সাইনিং সম্পন্ন করেছে বার্সেলোনা। নেদারল্যান্ডসের ফরোয়ার্ড মেম্ফিস ডিপায় যোগ দিচ্ছেন কাতালান জায়ান্টদের সঙ্গে ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ শেষে।

বার্সেলোনা ক্লাব সূত্রে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ইউরোপিয়ান ফুটবলের ট্র্যান্সফার বিশেষজ্ঞ ফাব্রিসিও রোমানো।

টুইট বার্তায় রোমানো জানান, ডিপায়ের উকিল ও এজেন্টদের সঙ্গে চুক্তিপত্র প্রস্তুত করে ফেলেছে বার্সেলোনা। রোমানোর টুইটের ঘণ্টাখানেক পর বার্সেলোনাও এক টুইট বার্তায় আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয় ডিপায়ের দলে যোগ দেয়ার।

ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে নেদারল্যান্ডসের ক্যাম্পে থাকা ডিপায়ের মেডিক্যাল পরীক্ষাও সম্পন্ন করেছে বার্সেলোনা।

ফরাসি ক্লাব লিঁওর সঙ্গে চুক্তি শেষ হওয়ায় ফ্রি-এজেন্ট হিসেবেই মেসিদের সঙ্গে যোগ দিচ্ছেন ডিপায়। ২৭ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ডকে প্রাথমিকভাবে দুই বছরের চুক্তি অফার করছে বার্সা।

এর আগে, ম্যানচেস্টার সিটি থেকে স্ট্রাইকার সার্হিও আগুয়েরো ও ডিফেন্ডার এরিক গার্সিয়াকে ফ্রি-এজেন্ট হিসেবে দলে টানে বার্সেলোনা।

লিভারপুলের মিডফিল্ডার জর্জিনিয়ো উইনালডামকে দলে নেয়ার সবকিছু চূড়ান্ত হয়ে গেলেও, শেষ মুহূর্তে বেশি পারিশ্রমিকের কারণে তিনি প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ে (পিএসজি) যোগ দেন।

ডিপায় যোগ দেয়ায় নিশ্চিতভাবেই বার্সার ফরোয়ার্ড লাইন থেকে বাদ পড়তে যাচ্ছেন মার্টিন ব্র্যাথওয়েইট ও উসমান ডেম্বেলের মধ্যে যে কোনো একজন।

এরই মধ্যে ব্রাজিলিয়ান অ্যাটাকার ফিলিপে কোতিনিয়োকে দলে টানার জন্য বার্সেলোনাকে চার কোটি ইউরোর অফার দিয়েছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব এভারটন।

আরও পড়ুন:
শিরোপা স্বপ্ন ধরে রাখল রিয়াল
লা লিগা শিরোপার আরও কাছে আতলেতিকো
মাঠে প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছে না স্পেন
চেলসির চেয়ে মাদ্রিদে ভালো আছেন কোঁতোয়া
জিদান জাদু চলছেই

শেয়ার করুন

জেমিকে ছাড়ছে না বাফুফে

জেমিকে ছাড়ছে না বাফুফে

ছবি: বাফুফে

সহজেই তাকে বিদায় করা যাচ্ছে না। কারণ তার চুক্তির শর্ত। বাফুফের অন্যতম এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানান, ‘চুক্তিতে কিছু ঝামেলা আছে। তাই অত সহজ হবে না তাকে বহিষ্কার করাটা। বহিষ্কার করলে বিপুল অর্থ দিতে হবে।’

নেপালে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে হারায় জাতীয় ফুটবল দলের প্রধান কোচ জেমি ডের ওপরে চটেছিলেন কাজী সালাউদ্দিন। পরে জেমির মুখে সিরিজ হারার ব্যাখ্যাতেও মন গলেনি বাফুফের সভাপতির। পরে জানিয়ে দেন বিশ্বকাপ বাছাই পর্যন্ত দেখবেন তাকে।

জাতীয় দলের ফলে সন্তুষ্ট না হলেই চাকরিচ্যুত হচ্ছেন জেমি, এমন গুঞ্জন ছিল দেশের ফুটবলাঙ্গনে। সালাহউদ্দিনের জবাব, ‘কোনো কিছুই ঠিক হয়নি। পরে বসে ঠিক করব।’

বিশ্বকাপ ও এশিয়ান বাছাই দ্বিতীয় পর্বের বাধা টপকে গেছে বাংলাদেশ। এতে সন্তুষ্টি ফিরেছে ফেডারেশনে।

তবে বাফুফের একটা পক্ষ জেমিকে ছাটাই করার পক্ষে। তাদের দাবি, তৃতীয় রাউন্ডে উতরে গেলেও কাতারে বাংলাদেশ পারফরম্যান্স মনে ধরেনি। এজন্য দোহা থেকে বাংলাদেশে ডেকে আনা হচ্ছে জেমিকে।

তিন বছর আগে বছরের মাঝামাঝি সময়ে জেমিকে প্রধান কোচ হিসেবে দায়িত্ব দেয় বাফুফে। পরে তার সঙ্গে আরও দুই বছরের নতুন চুক্তি নবায়ন করা হয়। চুক্তি শেষ হবে ২০২২ সালের মাঝামাঝিতে।

সহজেই তাকে বিদায় করা যাচ্ছে না। কারণ তার চুক্তির শর্ত। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাফুফের অন্যতম এক শীর্ষ কর্মকর্তা নিউজবাংলাকে জানান, ‘চুক্তিতে কিছু ঝামেলা আছে। তাই অতটা সহজ হবে না তাকে বহিষ্কার করাটা। বহিষ্কার করলে বিপুল অর্থ দিতে হবে।’

ফেডারেশনের সূত্র মতে, কোয়ারেন্টিন পর্ব শেষে আগামী রোববার বা সোমবার কোচের সাথে বসবেন বাফুফে সভাপতি। এসময় কোচের পরিকল্পনা ও ফেডারেশনের চাহিদা নিয়ে আলোচনা হবে। তৃতীয় রাউন্ড শুরু হওয়ার আগে দুই পক্ষের পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা হবে।

জেমি ডের অধীনে এখনও কোনো শিরোপা জেতেনি বাংলাদেশ। অর্জন বলতে ২০১৮ এশিয়ান গেমসে কাতারকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠা। সেটাও অনূর্ধ্ব-২৩ দলের খেলায়।

এছাড়া সাফ ফুটবলের গ্রুপ পর্বেই বিদায় ও বঙ্গবন্ধু গোলকাপে সেমি থেকে ছিটকে যাওয়াসহ খেলার ধরন নিয়েও অখুশি অনেকে।

এর পরও বিশ্বকাপ বাছাইয়ের তৃতীয় রাউন্ড পর্যন্ত জেমি ডের ওপর আস্থা রাখতে চলেছে ফেডারেশন।

আরও পড়ুন:
শিরোপা স্বপ্ন ধরে রাখল রিয়াল
লা লিগা শিরোপার আরও কাছে আতলেতিকো
মাঠে প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছে না স্পেন
চেলসির চেয়ে মাদ্রিদে ভালো আছেন কোঁতোয়া
জিদান জাদু চলছেই

শেয়ার করুন

রেকর্ডসংখ্যক দল নিয়ে হবে স্বাধীনতা কাপ

রেকর্ডসংখ্যক দল নিয়ে হবে স্বাধীনতা কাপ

ছবি: সংগৃহীত

এবার প্রিমিয়ার লিগের ১৩ দলসহ চ্যাম্পিয়নশিপের দল, বিভিন্ন জেলা ও সার্ভিসেস দল থেকে বাছাইপর্ব পার করে আসা আরও তিনটি দলসহ সর্বমোট ১৬ দল অংশ নেবে এই ঘরোয়া টুর্নামেন্টে।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) পরপরই মাঠে গড়াবে স্বাধীনতা কাপ। এবার রেকর্ডসংখ্যক দল নিয়ে দেশের ঘরোয়া ফুটবলের অন্যতম শীর্ষ এই টুর্নামেন্ট আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)।

সব মিলিয়ে ১৬ দল নিয়ে মাঠে গড়াবে স্বাধীনতা কাপের ১১তম আসর।

আজ পেশাদার লিগ কমিটির এক বৈঠকে দলের অংশগ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। পরে লিগ কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম মুর্শেদী বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে সংবাদমাধ্যমকে জানান।

এবার প্রিমিয়ার লিগের ১৩ দলসহ চ্যাম্পিয়নশিপের দল, বিভিন্ন জেলা ও সার্ভিসেস দল থেকে বাছাইপর্ব পার করে আসা আরও তিনটি দলসহ সর্বমোট ১৬ দল অংশ নেবে এই ঘরোয়া টুর্নামেন্টে।

এর আগের আসরটি করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বাতিল হয়ে যায়। এবার এই টুর্নামেন্ট মাঠে নামানোর সিদ্ধান্ত নেয় ফেডারেশন।

স্বাধীনতা কাপ আয়োজন নিয়ে আব্দুস সালাম মুর্শেদী বলেন, ‘মুজিব শতবর্ষে এই স্বাধীনতা কাপের আয়োজনকে আরও আকর্ষণীয়, প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ও পরিধি বাড়ানোর জন্য জেলা ও সার্ভিসেস দল, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং চ্যাম্পিয়নশিপের দলগুলো বাছাইপর্বে অংশগ্রহণ করবে।

এ ছাড়া এবার আয়োজিত হবে অনূর্ধ্ব-১৮ ফুটবল লিগ। যেখানে অংশ নেবে প্রিমিয়ার লিগের ১৩টি দলের যুব দল।

আরও পড়ুন:
শিরোপা স্বপ্ন ধরে রাখল রিয়াল
লা লিগা শিরোপার আরও কাছে আতলেতিকো
মাঠে প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছে না স্পেন
চেলসির চেয়ে মাদ্রিদে ভালো আছেন কোঁতোয়া
জিদান জাদু চলছেই

শেয়ার করুন