দুস্থদের ঈদ আনন্দে জামালের আনন্দ

দুস্থদের ঈদ আনন্দে জামালের আনন্দ

ছবি: সংগৃহীত

পিতৃভূমি ময়মনসিংহের চংভাদেরা গ্রামসহ আশপাশের প্রায় দশ গ্রামের প্রায় তিন শ পরিবারের কাছে জামাল তুলে দিয়েছেন খাবার সামগ্রী। সেমাই, চাল, আলু, পেয়াজসহ খাদ্যসামগ্রীর প্যাকেট পৌঁছে দিয়েছেন দুস্থদের পরিবারে।

ঈদুল ফিতরের ছুটিতে ঢাকায় আছেন জাতীয় দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া। পরিবার-পরিজন সবাই ডেনমার্কে। করোনা পরিস্থিতিতে কোথাও যাচ্ছেন না তিনি। তবে, এই কঠিন সময়ে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে ভোলেননি। দুস্থদের হাতে তুলে দিয়েছেন খাবার সামগ্রীসহ নগদ অর্থ।

তাদের আনন্দেই যেন নিজের ঈদ আনন্দ খুঁজে পান জাতীয় দলের এই পোস্টারবয়।

পিতৃভূমি ময়মনসিংহের চংভাদেরা গ্রামসহ আশপাশের প্রায় দশ গ্রামের প্রায় তিন শ পরিবারের কাছে জামাল তুলে দিয়েছেন খাবার সামগ্রী। সেমাই, চাল, আলু, পেয়াজসহ খাদ্যসামগ্রীর প্যাকেট পৌঁছে দিয়েছেন দুস্থদের পরিবারে।

এ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তার ফেসবুক পোস্টে জামাল ভূঁইয়া জানান, ‘আমার এবং আমার পরিবারের পক্ষ থেকে গ্রামের কিছু দুস্থ মানুষের জন্য চাল, আলু, পেঁয়াজ, মসুর, আটা, নুডলস, চিনি ও বিস্কুটের প্যাকেজ দিচ্ছি যাতে তারাও ঈদ উদযাপন করতে পারে।’

জামাল সরাসরি তুলে দিতে পারেননি দুস্থদের হাতে। জাতীয় দলের কাতার মিশনের জন্য চার দিনের ছুটিতে রাজধানীতে অবস্থান করছেন তিনি।

এই উদ্যোগটা নিয়ে এই উপহার ঘরে ঘরে পৌঁছে দিয়েছেন তার চাচাতো ভাই জুনায়েদ জামাল।

তিনি নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমি আগে থেকেই তাকে বলছি এবার ঈদে দুস্থদের জন্য কিছু করতে। সে তাৎক্ষণিক রাজি হয়ে যায়। প্রায় ৩০০ পরিবারে খাবার সামগ্রী দেয়া হয়। আর কিছু নগদ অর্থ দেয়া হয়। যাতে সবাই ঈদটা আনন্দ নিয়ে উদযাপন করতে পারে।’

গত দুই ঈদেও এই আয়োজন করেছিলেন জামাল। করোনার সময়ে বেশ কয়েকবার এমন উদ্যোগ নিতে দেখা গেছে জাতীয় দলের এই অধিনায়ককে।

চার দিন ঈদের ছুটি শেষে বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইপর্ব সামনে রেখে আগামী ১৬ মে ক্যাম্পে যোগ দেবেন জামাল ভূঁইয়া।

আরও পড়ুন:
দেশে ফিরলেন জামাল ও জীবন
জামালকে ফেরাতে সরকারের দ্বারস্থ সাইফ
গোধূলিতে ভাতিজাকে নিয়ে জামালের ফুটবল
মালির ভূমিকায় জামাল ভূঁইয়া
চারবার বুলেটবিদ্ধ হয়েও ফুটবলে ফেরার নামই জামাল

শেয়ার করুন

মন্তব্য