বেঙ্গালুরুর ভুলের খেসারত দিল বসুন্ধরা

বেঙ্গালুরুর ভুলের খেসারত দিল বসুন্ধরা

ছবি: সংগৃহীত

মালেতে পৌঁছে স্বাস্থ্যবিধি ভেঙে বসে ভারতের দল বেঙ্গালুরু এফসি। বিধিনিষেধের মধ্যেও ঘুরতে বেরিয়ে পড়েন দলের ফুটবলাররা। ৮ মে থেকে মালদ্বীপে ডাকা লকডাউনের মধ্যে ভারতের দলটির এমন অপেশাদার আচরণে শেষ পর্যন্ত স্থগিত করতে হয় টুর্নামেন্ট।

এএফসি কাপের দক্ষিণ এশিয়ার গ্রুপ পর্বের ম্যাচগুলো স্থগিত করা নিয়ে আলোচনার মাঝেও আশা ছিল। ভারতের দল বেঙ্গালুরু এফসি মালদ্বীপে পৌছে যায় আগেই। আর ঢাকা থেকে রোববার দুপুরে মালে যাওয়ার কথা ছিল কিংসের। সবই ভেস্তে যায় একটি খামখেয়ালির ঘটনায়।

মালেতে পৌঁছে স্বাস্থ্যবিধি ভেঙে বসে ভারতের দল বেঙ্গালুরু এফসি। বিধিনিষেধের মধ্যেও ঘুরতে বেরিয়ে পড়েন দলের ফুটবলাররা। ৮ মে থেকে মালদ্বীপে ডাকা লকডাউনের মধ্যে ভারতের দলটির এমন অপেশাদার আচরণে শেষ পর্যন্ত স্থগিত করতে হয় টুর্নামেন্ট।

রোববার দুপুর দুটায় বিবৃতির মাধ্যমে টুর্নামেন্ট স্থগিতের ঘোষণা দেয় এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি)।

এতে করে মালেতে ভ্রমণ স্থগিত করতে হয় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের চ্যাম্পিয়ন দল বসুন্ধরা কিংসের।

এর আগে মালদ্বীপের অবস্থা নিয়ে এএফসি কাপ আয়োজনে অনাগ্রহ দেখান দেশটির ক্রীড়া মন্ত্রী আহমেদ মাহলুফ। তারপরও স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে ম্যাচগুলো আয়োজনের উদ্যোগ নেয়া হয়।

বেঙ্গালুরু এফসির স্বাস্থ্যবিধি ভাঙায় বিষয়টিকে গুরুত্বের সঙ্গে নিয়ে এএফসির সঙ্গে আলোচনা করে আজই ম্যাচগুলো স্থগিতের বিষয়টি জানিয়ে দেয় মালদ্বীপ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন।

টুইটারে ঘটনাটি উল্লেখ করে আহমেদ মাহলুফ জানান, ‘বেঙ্গালুরু এফসি এমন কর্মকাণ্ড গ্রহণযোগ্য নয়। ক্লাবটি অতি দ্রুত ফিরে যাক তাদের দেশে। এমন কর্মকাণ্ড গ্রাহ্য করা সম্ভব নয়। টুর্নামেন্ট স্থগিতের জন্য এএফসিকে জোর দাবি জানাই।’

এরপরই স্থগিত করে দেয়া হয় এএফসি কাপ। ভারত থেকে আসার কথা ছিল মোহনবাগান এফসিরও। স্থগিতের ঘোষণায় বাকি দলগুলোকেও ভ্রমণ বাতিল করতে বলে এশিয়ার সর্বোচ্চ ফুটবল সংস্থা।

আরও পড়ুন:
এএফসি কাপ স্থগিত, মালে যাচ্ছে না কিংস
করোনায় অনিশ্চিত কিংসের এএফসি কাপ

শেয়ার করুন

মন্তব্য