পগবাকে দিয়ে রোনালডোকে চায় ইউনাইটেড

পগবা ও রোনালডো। ছবি: টুইটার

পগবাকে দিয়ে রোনালডোকে চায় ইউনাইটেড

রোনালডো আসার পর চ্যাম্পিয়নস লিগ তো জিততে পারেইনি ইউভেন্তাস, এবার হাতছাড়া হওয়ার পথে লিগ শিরোপা। করোনা পরিস্থিতিতে তাই বাৎসরিক ৩ কোটি ইউরো বেতন দিয়ে রোনালডোকে রাখার চেয়ে বিক্রি করে দিতে বেশি ইচ্ছুক ইউভেন্তাস।

ক্রিস্টিয়ানো রোনালডো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছেড়েছেন ২০০৯ সালে। ৯৪ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে যোগ দেন রিয়াল মাদ্রিদে।

অন্যদিকে পল পগবা ইউভেন্তাস থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে আসেন ২০১৬ সালে ১০৫ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে। যা ছিল তৎকালীন ট্রান্সফার রেকর্ড।

ইউনাইটেডে নিজের পুরো প্রতিভার প্রদর্শনী ধারাবাহিকভাবে করতে পারেননি পগবা। ওল্ড ট্র‍্যাফোর্ডে খুশি নন এই বিশ্বকাপজয়ী মিডফিল্ডার, এমন খবরও এসেছে বহুবার।

তেমন আরেক খবরে জানা গেল, পগবাকে বিক্রি করে দিতে চাইছে খোদ ইউনাইটেড!

পগবার সাবেক ক্লাব ইউভেন্তাসে রোনালডো পাড়ি জমিয়েছেন ২০১৮ সালে। তবে সেখানে গিয়ে তাদেরকে আরাধ্য চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতাতে পারেননি, তাই রোনালডোর বেশি বেতনের ভার নিতে আর রাজি নয় তুরিনের ওল্ড লেডি।

এমন খবরে নড়েচড়ে বসেছে ইউনাইটেড। তাদের তাই লক্ষ্য, পগবাকে তার সাবেক ক্লাব ইউভেন্তাসে ফিরিয়ে দিয়ে রোনালডোকে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ফিরিয়ে আনা। এমনটিই জানিয়েছে ইতালিয়ান সংবাদমাধ্যম কালসিওমার্কেতো।

তাদের মতে, রোনালডো আসার পর চ্যাম্পিয়নস লিগ তো জিততে পারেইনি ইউভেন্তাস, এবার হাতছাড়া হওয়ার পথে লিগ শিরোপা। করোনা পরিস্থিতিতে তাই বাৎসরিক ৩ কোটি ইউরো বেতন দিয়ে রোনালডোকে রাখার চেয়ে বিক্রি করে দিতে বেশি ইচ্ছুক ইউভেন্তাসের।

আর সেটির উপায় হতে পারে পগবাকে দলে ভিড়িয়ে ইউনাইটেডের কাছে রোনালডোকে বিক্রি করে দেওয়া। পগবার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে দারুণ সময়টা এখন পর্যন্ত কেটেছে ইউভের জার্সিতে। তাই ফিরতে আপত্তি থাকার কথা নয় তারও।

এখন বাকিটা অপেক্ষা গ্রীষ্মকালীন দলবদলের। আদৌ এই লেনদেন হবে কি না, তার উত্তরও পাওয়া যাবে তখনই!

আরও পড়ুন:
পর্তুগালকে বাঁচালেন রোনালডো-জোটা
টানা দ্বিতীয়বার সেরি আর বর্ষসেরা রোনালডো
রোনালডোর গল্প এখনও শেষ হয়নি

শেয়ার করুন

মন্তব্য

ফিলিস্তিনের পাশে হামজা ও ফোফানা

ফিলিস্তিনের পাশে হামজা ও ফোফানা

ছবি: টুইটার

দলের ট্রফি উদযাপনের সময় যুদ্ধাহত ফিলিস্তিনের পতাকা ধরে মাঠে প্রদর্শন করেন হামজা ও ফোফানা। উইনার্স মেডেল সংগ্রহ করার সময় পতাকাটি নিজের কাঁধে রেখেছিলেন হামজা।

নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবার এফএ কাপ জিতেছে লেস্টার সিটি। ক্লাবের এই ঐতিহাসিক দিনে খেলোয়াড় ও স্টাফদের উচ্ছ্বাস ছিল চোখে পড়ার মতো। এর মধ্যে ক্লাবের দুই খেলোয়াড় হামজা চৌধুরী ও ওয়েসলি ফোফানা সাফল্য উদযাপন করলেন ভিন্নভাবে।

বিখ্যাত ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে চেলসিকে ১-০ গোলে হারিয়ে ইংলিশ ফুটবলের সবচেয়ে পুরোনো ট্রফি উঁচিয়ে ধরে লেস্টার সিটি। মৌসুমে এটি লেস্টার সিটির প্রথম শিরোপা। দ্বিতীয়ার্ধে ইউরি তিয়েলেমানসের গোলে জয় পায় তারা।

দলের ট্রফি উদযাপনের সময় যুদ্ধাহত ফিলিস্তিনের পতাকা ধরে মাঠে প্রদর্শন করেন হামজা ও ফোফানা। উইনার্স মেডেল সংগ্রহ করার সময় পতাকাটি নিজের কাঁধে রেখেছিলেন হামজা।

ইংল্যান্ডে জন্ম নেয়া হামজা চৌধুরীর বাবা গ্রানাডিয়ান আর মা বাংলাদেশি। ২০১৫ সাল থেকে তিনি খেলছেন লেস্টার সিটির হয়ে। আর ফোফানা ফ্রান্সে জন্ম নিলেও তার বাবা-মা মালিয়ান। গত বছর ফ্রান্সের সেইন্ত এতিঁয়ে থেকে যোগ দেন লেস্টার সিটিতে।

গত এক সপ্তাহে অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকা, পশ্চিম তীরসহ ফিলিস্তিনের বিভিন্ন অঞ্চলে ইসরায়েলের বিমান হামলায় প্রাণ গেছে দেড় শতাধিক মানুষের। এদের মধ্যে ৪১ জনই শিশু।

ভয়াবহ এই হামলার প্রতিবাদে পুরো বিশ্বের মতো সরব ফুটবলাররাও। গত সপ্তাহে ইসরাইলি হামলার প্রতিবাদ করেন তারকা ফুটবলার মোহামেদ সালাহ, রিয়াদ মাহরেজ ও সাদিও মানে।

হামজা চৌধুরীও নিজ টুইটার অ্যাকাউন্টে প্রতিবাদ জানান এই হামলার এবং সমর্থন দেন নির্যাতিত ফিলিস্তিনিদের। শনিবার রাতে নিজের সমর্থন বিশ্বের সামনে তুলে ধরেন এফএ কাপ জয়ের মঞ্চে।

আরও পড়ুন:
পর্তুগালকে বাঁচালেন রোনালডো-জোটা
টানা দ্বিতীয়বার সেরি আর বর্ষসেরা রোনালডো
রোনালডোর গল্প এখনও শেষ হয়নি

শেয়ার করুন

মৌসুম শেষে রিয়াল ছাড়ছেন জিদান

মৌসুম শেষে রিয়াল ছাড়ছেন জিদান

ছবি: এএফপি

জিদান জানিয়ে দিয়েছেন মৌসুম শেষে রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়ছেন তিনি। গত রোববার সেভিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের আগে ক্লাবের খেলোয়াড়দের নিজের এই সিদ্ধান্ত জানান তিনি।

সর্বকালের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় তো বটেই রিয়াল মাদ্রিদের ক্লাব ইতিহাসের সেরা কোচ ধরা হয় তাকে। ২০১৬ থেকে ১৮ এই তিন বছর টানা তিন চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতিয়ে অনন্য রেকর্ড গড়ে সমর্থকদের কাছে প্রিয় হয়ে ওঠেন জিনেদিন জিদান।

এতটাই যে, ২০১৮ সালে পদত্যাগ করার পরের বছর জিদানকে ফেরাতে বাধ্য হয় ক্লাব ম্যানেজমেন্ট। এবারে অবশ্য আর তাকে আটকে রাখা যাচ্ছে না।

জিদান জানিয়ে দিয়েছেন মৌসুম শেষে রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়ছেন তিনি। গত রোববার সেভিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের আগে ক্লাবের খেলোয়াড়দের নিজের এই সিদ্ধান্ত জানান তিনি।

গতবছর লা লিগা শিরোপা জেতার পর এই বছর রিয়াল মাদ্রিদের মৌসুমটা ভালো যাচ্ছে না। চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনাল থেকে তারা বাদ পড়েছে চেলসির কাছে হেরে। লিগ শিরোপাও হাতছাড়া হওয়ার অবস্থা আতলেতিকো মাদ্রিদের কাছে।

সান্তিয়াগো বার্নাব্যুয়ে ক্রমাগত প্রত্যাশার চাপ সামলাতে থাকা জিদান ভুগছেন মানসিক ও শারীরিক অবসাদে এমনটাই দাবি করছে স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যমগুলো। যে কারণে জিজু চাইছেন স্পেনের রাজধানী ছেড়ে যেতে।

অর্থাৎ রোববার আথলেতিক বিলবাও ও ২৩মে ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে ম্যাচ দুটিতেই শেষবারের মতো রিয়াল মাদ্রিদের ডাগ আউটে দেখা যাবে এই ফ্রেঞ্চ ট্যাকটিশিয়ানকে।

রিয়াল ছেড়ে দেওয়ার পর। কয়েকমাস হয়তো বিশ্রাম নেবেন জিদান। তবে, স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যমগুলোর বিশ্লেষণ অনুযায়ী জিদান ফিরতে পারেন তুরিনে নিজের পুরনো ডেরায়। ক্যারিয়ারে ইউভেন্তাসের হয়ে খেলেই মহাতারকা হয়েছেন তিনি।

ইউভের বর্তমান মৌসুম একেবারে যাচ্ছেতাই অবস্থায় যাচ্ছে। আন্দ্রেয়া পিরলোর অধীনে তুরিনের ওল্ড লেডিরা নয় মৌসুম পর লিগ শিরোপা খুইয়েছে। সামনের মৌসুমে তাদের চ্যাম্পিয়নস লিগ খেলা নিয়েও আছে সংশয়। এমন অবস্থায় ক্লাবের আইকন জিদানকে ফিরে পেতে চায় ইউভেন্তাস।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে সামনের বছর ইতালিয়ান জায়ান্টদের ডাগআউটে দেখা যাবে তাকে।

মাদ্রিদ ছেড়ে যাবার আগে লা লিগা শিরোপার জন্য শেষ চেষ্টা করতে চান জিদান। সে জন্য শেষ দুই ম্যাচ জিততেই হবে তার দলকে। আর আশায় থাকতে হবে শীর্ষে থাকা আতলেতিকোর পয়েন্ট খোয়ানোর।

লা লিগা টেবিলের শীর্ষস্থান আপাতত আতলেতিকোর দখলে। ৩৬ ম্যাচে তাদের সংগ্রহ ৮০ পয়েন্ট। দুইয়ে থাকা রিয়াল খেলেছে সমান ম্যাচ। তাদের ঝুলিতে আছে ৭৮ পয়েন্ট। আর তিনে থাকা বার্সেলোনার শিরোপা স্বপ্ন এক রকম শেষ। ৭৬ পয়েন্ট নিয়ে তাদের শিরোপার আশা আছে শুধুমাত্র গাণিতিক হিসেবে।

আরও পড়ুন:
পর্তুগালকে বাঁচালেন রোনালডো-জোটা
টানা দ্বিতীয়বার সেরি আর বর্ষসেরা রোনালডো
রোনালডোর গল্প এখনও শেষ হয়নি

শেয়ার করুন

চেলসিকে হারিয়ে এফএ কাপ জিতল লেস্টার

চেলসিকে হারিয়ে এফএ কাপ জিতল লেস্টার

এফএ কাপ শিরোপা হাতে লেস্টার সিটির ডিফেন্ডার ওয়েস মরগান ও গোলকিপার ক্যাসপার স্মাইকেল। ছবি: টুইটার

লেস্টার সিটির কাছে ১-০ ব্যবধানে হেরে টানা দ্বিতীয় এফএ কাপ ফাইনাল হারল ব্লুজ। মৌসুমে এটি লেস্টার সিটির প্রথম শিরোপা। দ্বিতীয়ার্ধে ইউরি তিয়েলেমানসের গোলে জয় পায় তারা।

ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদকে বিদায় করে চেলসি। এরপর টানা দুই ম্যাচে পেপ গার্দিওলার চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটিকে হারায় টমাস টুখেলের শীষ্যরা।

উড়ন্ত ফর্ম নিয়েই এফএ কাপের ফাইনালে লেস্টার সিটির মুখোমুখি হয় লন্ডনের ক্লাবটি। চেলসির সমর্থকদের স্বপ্ন কাপ ও চ্যাম্পিয়নস লিগের ডাবল জয়। আর লেস্টার ঐতিহাসিক লিগ শিরোপার পর খুঁজছিল নিজেদের প্রথম ট্রফি।

এফএ কাপ ফাইনালে পারলো না চেলসির। স্বপ্ন পূরণ হলো লেস্টারের।ক্লাব ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ইংলিশ ফুটবলের সবচেয়ে পুরনো ট্রফি উঁচিয়ে ধরল তারা।

লেস্টার সিটির কাছে ১-০ ব্যবধানে হেরে টানা দ্বিতীয় এফএ কাপ ফাইনাল হারল ব্লুজ।

মৌসুমে এটি লেস্টার সিটির প্রথম শিরোপা। দ্বিতীয়ার্ধে ইউরি তিয়েলেমানসের গোলে জয় পায় তারা।

প্রথমার্ধে কোনো গোল পায়নি দুই দল। কিন্তু ৬৩ মিনিটে প্রায় ৩০ গজ দূর থেকে দুর্দান্ত এক শটে চেলসি গোলকিপার কেপা আরিসাবালাগাকে পরাস্ত করে লেস্টারকে এগিয়ে নেন তাদের বেলজিয়ান মিডফিল্ডার তিয়েলেমানস।

একে একে পাঁচ খেলোয়াড় বদলি করলেও কোন ফল পাচ্ছিলেন না চেলসি ম্যানেজার টুখেল।

৯০ মিনিটে অবশ্য কাঙ্ক্ষিত গোল পায় চেলসি। বাঁ প্রান্ত থেকে বেন চিলওয়েল বক্সে ঢুকে শট নিলে তা লেস্টার ডিফেন্ডার চালার সয়ুনজুর গায়ে লেগে ফিরে এসে বল চিলওয়েলের গায়ে লেগেই জালে জড়ায়।

উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন চেলসি সমর্থকরা, কিন্তু তখনই আসে হৃদয়ভঙ্গের মুহূর্ত। ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি অফসাইডে বাতিল করে দেয় তাদের গোল।

শেষ পর্যন্ত আর সমতায় ফিরতে পারেনি চেলসি,তাতে শিরোপা নিশ্চিত হয় লেস্টারের। ২০১৫/১৬ মৌসুমে লিগ জয়ের পর এটিই লেস্টার সিটির প্রথম শিরোপা।

দীর্ঘদিন পর দলের শিরোপা খরা দূর করতে পেরে উচ্ছ্বসিত লেস্টার বস ব্রেন্ডন রজার্স। ম্যাচ শেষে বিবিসি স্পোর্টকে তিনি বলেন, লেস্টার কখনও এফএ কাপ জেতেনি এটা জানা ছিল না তার।

‘অসাধারণ অনুভূতি। লেস্টারে আসার আগে আমি জানতাম না যে তারা এফএ কাপ জেতেনি আগে। চারবার ফাইনাল হেরেছে। ক্লাবের মালিক ও ফ্যানদেরকে কিছু দিতে পেরে ভালো লাগছে।‘

সিটি, ইউনাইটেড, চেলসি, লিভারপুলের মতো বড় বাজেটের ক্লাবকে ছাপিয়ে লেস্টারের কাপ সাফল্যের রহস্যটাও জানালেন এই অভিজ্ঞ ট্যাকটিশিয়ান।

‘বড় দলগুলোই সব জিতবে এটাই প্রত্যাশিত। কিন্তু আমাদের সাফল্য হচ্ছে লড়াই করায় আর আজকের মতো পারফর্ম করায় যাতে আমরা জিততে পারি।‘

আরও পড়ুন:
পর্তুগালকে বাঁচালেন রোনালডো-জোটা
টানা দ্বিতীয়বার সেরি আর বর্ষসেরা রোনালডো
রোনালডোর গল্প এখনও শেষ হয়নি

শেয়ার করুন

মুলারের পাশে লেওয়ানডোভস্কি

মুলারের পাশে লেওয়ানডোভস্কি

ফ্রাইবুর্গের বিপক্ষে মুলারের রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলার পর লেওয়ানডোভস্কির উদযাপন। ছবি: টুইটার

শনিবার ফ্রাইবুর্গের বিপক্ষে ম্যাচে মুলারকে ছুঁয়ে ফেলেন লেওয়ানডোভস্কি। প্রথমার্ধের ২৬ মিনিটে পেনাল্টি থেকে নিজের ৪০তম গোলটি করেন এই পোলিশ সুপারস্টার।

গত শনিবার বরুশিয়া মনশেনগ্লাডবাখের বিপক্ষে ম্যাচে হ্যাটট্রিক করে অনন্য এক রেকর্ডের কাছে চলে আসেন রবার্ট লেওয়ানডোভস্কি। ওই ম্যাচ শেষে বায়ার্ন মিউনিখ স্ট্রাইকারের গোলসংখ্যা চলতি মৌসুমে দাঁড়ায় ৩৯।

বুনডেসলিগায় এক মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড কিংবদন্তি গার্ড মুলারের। ১৯৭১-৭২ মৌসুমে বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে ৪০ গোল করেছিলেন ‘ডার বম্বার’।

শনিবার ফ্রাইবুর্গের বিপক্ষে ম্যাচে মুলারকে ছুঁয়ে ফেলেন লেওয়ানডোভস্কি। প্রথমার্ধের ২৬ মিনিটে পেনাল্টি থেকে নিজের ৪০তম গোলটি করেন এই পোলিশ সুপারস্টার। গোল করার পরই সতীর্থরা মাঠেই তাকে অভিনন্দন জানান। গার্ড অফ অনার দেন।

বায়ার্নের নাম্বার নাইন নিজেও বিশেষ কায়দায় উদযাপন করেন এই রেকর্ড। জার্সির নিচে মুলারের ছবি সম্বলিত একটি টি-শার্ট পরেছিলেন লেওয়া। গোল করে জার্সি তুলে টি-শার্ট দেখান তিনি।

বায়ার্নের উচ্ছ্বাস খুব বেশিক্ষণ অবশ্য টেকেনি। তিন মিনিট পরই মানুয়েল গুল্ডের গোলে সমতা ফেরায় স্বাগতিক ফ্রাইবুর্গ। প্রথমার্ধ শেষে দুই দলের মধ্যে ১-১ গোলের সমতা ছিল।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে লেরয় সানের গোলে আবারও লিড নেয় বায়ার্ন। তবে ম্যাচ শেষ হওয়ার মিনিট দশেক আগে ক্রিস্টিয়ান গুন্টার এর গোলে চ্যাম্পিয়নদের এক পয়েন্ট রেখে দেয় ফ্রাইবুর্গ। ২-২ গোলে ড্র হয় ম্যাচ।

মুলারকে ছাড়য়ে যাওয়ার জন্য বায়ার্নের হয়ে আরেকটি ম্যাচ পাবেন পোল্যান্ডের অধিনায়ক। ২২ মে অগসবুর্গের বিপক্ষে মৌসুমের শেষ ম্যাচে নিজ মাঠ আলিয়াঞ্জ আরেনায় নামবে বায়ার্ন মিউনিখ।

শিরোপা নিশ্চিত করে ফেলা বাভারিয়ানরা চাইবে লেওয়ানডোভস্কি শেষ ম্যাচে নতুন ইতিহাস গড়ে আনন্দের আরেকটি উপলক্ষ তাদেরকে এনে দেবেন।

আরও পড়ুন:
পর্তুগালকে বাঁচালেন রোনালডো-জোটা
টানা দ্বিতীয়বার সেরি আর বর্ষসেরা রোনালডো
রোনালডোর গল্প এখনও শেষ হয়নি

শেয়ার করুন

মেসিকে বার্সা ছাড়ার পরামর্শ কেম্পেসের

মেসিকে বার্সা ছাড়ার পরামর্শ কেম্পেসের

ছবি: এএফপি

সাফল্য ধরে রাখতে মেসিকে পুরনো কোচ পেপ গার্দিওলা বা বন্ধু নেইমারের কাছে ফেরার পরামর্শ দিয়েছেন কেম্পেস।

মৌসুমের শুরুতেই একবার তুমুল কাণ্ড বাঁধিয়েছিলেন বার্সেলোনা অধিনায়ক লিওনেল মেসি। বার্সেলোনাকে জানান, ক্লাব ছাড়তে চান তিনি। তাকে দলে ভেড়াতে অপেক্ষায় ছিল ম্যানচেস্টার সিটি ও পিএসজি।

শেষ পর্যন্ত বার্সা ছাড়তে পারেননি মেসি। স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, আরও দুই বছরের জন্যই বার্সেলোনায় থেকে যাবেন এই আর্জেন্টাইন।

এবারে মেসিকে ভিন্ন এক পরামর্শ দিচ্ছেন বিশ্বকাপ জয়ী আর্জেন্টাইন মারিও কেম্পেস। তার মতে, বার্সেলোনায় থেকে মেসির চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতার সম্ভাবনা ক্ষীণ। সেটি মেসি নিজেও জানেন।

জার্মান ক্রীড়া ম্যাগাজিন স্পোর্ট বিল্ডকে কেম্পেস বলেন, ‘সে বার্সেলোনায় খুবই সুখে আছে। কিন্তু সে নিজেও এটি বোঝে যে বার্সাকে নিয়ে তার চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতার সম্ভাবনা ক্ষীণ। তারা নতুন একটি দল তৈরি করতে হিমশিম খাচ্ছে।’

সাফল্য ধরে রাখতে মেসিকে পুরনো কোচ পেপ গার্দিওলা বা বন্ধু নেইমারের কাছে ফেরার পরামর্শ দিয়েছেন কেম্পেস।

‘তাকে যেতে হবে পেপ গার্দিওলার কাছে ম্যান সিটিতে। অথবা পিএসজি কিংবা বায়ার্নে। এই ক্লাবগুলোর কাছে বড় সাফল্যের জন্য প্রয়োজনীয় টাকা কিংবা খেলোয়াড় রয়েছে।’

এই মৌসুমে কোপা দেল রে ছাড়া আর কিছুই জিততে পারেনি বার্সা। লা লিগায় গাণিতিকভাবে সুযোগ থাকলেও, বাস্তবিকে নেই বললেই চলে।

পুরো মৌসুমে তরুণ খেলোয়াড়রা উঠে এলেও, নিজেদের দল হিসেবে গড়ে তুলতে পারেনি রোনাল্ড কুমানের দল। মেসি এখনও নতুন চুক্তি সই করেননি ক্লাবের সঙ্গে। জুনে তার চুক্তির মেয়াদ শেষ হচ্ছে।

স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যমে জোর গুঞ্জন, মেসিকে বিশাল অঙ্কের বেতন দিতে রাখার চেয়ে নতুন তারকা আর্লিং হালান্ডকে দলে ভেড়াতে চায় বার্সেলোনার শীর্ষ কর্মকর্তারা। তবে ক্লাব সভাপতি হোয়ান লাপোর্তা মেসিকে কাম্প ন্যুয়ে রাখার পক্ষে।

আরও পড়ুন:
পর্তুগালকে বাঁচালেন রোনালডো-জোটা
টানা দ্বিতীয়বার সেরি আর বর্ষসেরা রোনালডো
রোনালডোর গল্প এখনও শেষ হয়নি

শেয়ার করুন

চোটের কারণে ইউরোতে নেই ইব্রাহিমোভিচ

চোটের কারণে ইউরোতে নেই ইব্রাহিমোভিচ

জাতীয় দলের অনুশীলন ক্যাম্পে ইব্রাহিমোভিচ। ফাইল ছবি: এএফপি

১০ মে সেরি আয় ইউভেন্তাসের বিপক্ষে খেলতে নেমে হাঁটুতে চোট পান এসি মিলানের হয়ে খেলা এই স্ট্রাইকার। প্রথমে মিলানের মেডিক্যাল টিম ভেবেছিল এটি হালকা চোট। দুই সপ্তাহের মধ্যে সুস্থ হয়ে যাবেন তিনি। স্ক্যানের পর দেখা যায় তার সুস্থ হতে ছয় থেকে আট সপ্তাহ লাগবে।

পাঁচ বছর পর সুইডেনের জাতীয় দলে ফেরা স্লাতান ইব্রাহিমোভিচ শনিবার পেলেন দুঃসংবাদ। ৩৯ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকার হাঁটুর চোটের কারণে খেলতে পারছেন না এবারের ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ। শনিবার এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সুইডিশ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন।

২০২১ সালে মার্চে সুইডিশ জাতীয় দলে ফেরেন অভিজ্ঞ এই স্ট্রাইকার। স্বপ্ন ছিল ইউরো খেলার। তবে টুর্নামেন্টের এক মাস আগে পেলেন এই দুঃসংবাদ।

সুইডেনের জাতীয় দলের কোচ ইয়ান অ্যান্ডারসন এক বিবৃতে শনিবার বলেন, ‘আমি স্লাতানের সঙ্গে কথা বলেছি। দুর্ভাগ্যজনকভাবে সে জানিয়েছে যে তার চোটের কারণে সে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে খেলতে পারবে না। খুবই দুঃখজনক ঘটনা এটি। শুধু স্লাতানের জন্যই নয়, আমাদের দলের জন্যও।’

১০ মে সেরি আয় ইউভেন্তাসের বিপক্ষে খেলতে নেমে হাঁটুতে চোট পান এসি মিলানের হয়ে খেলা এই স্ট্রাইকার। প্রথমে মিলানের মেডিক্যাল টিম ভেবেছিল এটি হালকা চোট। দুই সপ্তাহের মধ্যে সুস্থ হয়ে যাবেন তিনি। স্ক্যানের পর দেখা যায় তার সুস্থ হতে ছয় থেকে আট সপ্তাহ লাগবে।

২০১৬ সালে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসরের ঘোষণা দেন সুইডিশ স্ট্রাইকার স্লাতান ইব্রাহিমোভিচ। এরপর ২০১৮ বিশ্বকাপের আগে জানান, বিশ্বকাপে খেলতে আগ্রহী তিনি। কিন্তু তাকে ডাকা হয়নি সেবার।

সেই ডাক অবসরের পাঁচ বছর পর স্লাতান। এই মৌসুমে এসি মিলানের হয়ে দারুণ ফর্মে আছেন এই সুইড। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে জর্জিয়া ও এস্তোনিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের জন্য ডাক পান তিনি।

সুইডেন জাতীয় দলের জার্সি গায়ে ১১৪ ম্যাচে ৬২ গোল করেছেন স্লাতান।

করোনা মহামারীর কারনে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ এক বছর পিছিয়ে ১১ জুন থেকে রোমে শুরু হচ্ছে। এবারই প্রথমবারের মত ইউরোপের ১২টি ভিন্ন ভেন্যুতে ইউরো আয়োজিত হতে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন:
পর্তুগালকে বাঁচালেন রোনালডো-জোটা
টানা দ্বিতীয়বার সেরি আর বর্ষসেরা রোনালডো
রোনালডোর গল্প এখনও শেষ হয়নি

শেয়ার করুন

কাতারেই জেমির অগ্নিপরীক্ষা

কাতারেই জেমির অগ্নিপরীক্ষা

ছবি: সংগৃহীত

বাফুফের শীর্ষ কর্মকর্তারা প্রকাশ্যেই জেমির বিদায় নিয়ে ইঙ্গিত দিয়েছেন সংবাদমাধ্যমে। তাদের ধারনা জুনে বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের মিশনটাই জাতীয় দলের হয়ে শেষ টুর্নামেন্ট জেমি ডের।

২০১৮ সালে বাংলাদেশ জাতীয় দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে অনেক চড়াই-উতরাই দেখেছেন জেমি ডে। দায়িত্ব নেয়ার পর এখন পর্যন্ত তার সর্বোচ্চ সাফল্য এশিয়ান গেমসে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশকে নক আউট পর্বে তোলা। তার অধীনে হতাশার তালিকাও ছোট নয়।

ব্যর্থতার মধ্যে ঘরের মাঠে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ, বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের মতো টুর্নামেন্ট থেকে করুণ বিদায়ও রয়েছে। এর পরও গত বছরের জুনে এই ইংলিশ ট্যাকটিশিয়ানের সঙ্গে দুই বছরের জন্য চুক্তি নবায়ন করে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)।

এক বছর যেতে না যেতেই দেশের ফুটবল মহলে জেমির বিদায় দেখছেন অনেকে। বিশেষ করে বাফুফের শীর্ষ কর্মকর্তারা প্রকাশ্যেই জেমির বিদায় নিয়ে ইঙ্গিত দিয়েছেন সংবাদমাধ্যমে।

তাদের ধারনা জুনে বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের মিশনটাই জাতীয় দলের হয়ে শেষ টুর্নামেন্ট জেমি ডের।

এবার বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় রাউন্ডে গ্রুপ এ-তে সবমিলে পাঁচটি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। ভারতের সঙ্গে ড্র ছাড়া সব ম্যাচেই হেরেছে জেমির দল। গ্রুপ টেবিলের তলানিতে বাংলাদেশ।

জেমির সামনে তাই চাকরি বাঁচানোর অগ্নিপরীক্ষা হয়ে দাঁড়িয়েছে বাছাইয়ের বাকি তিন ম্যাচ।

কাতারের মাটিতে ৩ জুন বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচ খেলবে আফগানিস্তানের সঙ্গে। ৭ জুন ভারতের সঙ্গে ও টুর্নামেন্টে নিজেদের শেষ ম্যাচে ১৫ জুন বাংলাদেশ লড়বে ওমানের বিপক্ষে।

বাফুফের আশা, এই তিন ম্যাচে অন্তত একটিতে পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়বে বাংলাদেশ। লক্ষ্য ভারত ও আফগানিস্তান। সেভাবেই জেমিকে লক্ষ্য দিয়ে দিয়েছে জাতীয় দল ব্যবস্থাপনা কমিটি।

অবশ্য চাকরি নিয়ে কোনো দুশ্চিন্তায় নেই বলে জানিয়েছেন জেমি ডে।

নিউজবাংলাকে তিনি বলেন, ‘ভবিষ্যত নিয়ে আমি দুশ্চিন্তা করছি না। এটা ফেডারেশনের সিদ্ধান্ত। আমি তাদের সিদ্ধান্ত দিতে পারি না। জুনে আমাদের সেরাটা দেয়ার জন্য বদ্ধ পরিকর। সবসময়ের মতো এটাই করব।’

ঈদের ছুটি শেষে রোববার ক্যাম্পে যোগ দেবেন জাতীয় ফুটবলাররা। আজ কোয়ারেন্টিনের শেষ দিন জেমির। ১৭ মে থেকে মাঠের অনুশীলনে নামবে জেমির শীষ্যরা।

২১ বা ২২ মে কাতারে যাচ্ছে বাংলাদেশ দল। সেখানে অন্তত দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার আগ্রহ দেখিয়েছেন এই ইংলিশ কোচ।

আরও পড়ুন:
পর্তুগালকে বাঁচালেন রোনালডো-জোটা
টানা দ্বিতীয়বার সেরি আর বর্ষসেরা রোনালডো
রোনালডোর গল্প এখনও শেষ হয়নি

শেয়ার করুন