দুর্দান্ত ঘুরে দাঁড়ানোয় কোয়ার্টার ফাইনালে বার্সেলোনা

ছবি: এফসি বার্সেলোনা

দুর্দান্ত ঘুরে দাঁড়ানোয় কোয়ার্টার ফাইনালে বার্সেলোনা

প্রতিপক্ষের মাঠে বুধবার রাতে ম্যাচটিতে ২-১ ব্যবধানের জয় পায় বার্সেলোনা। লিওনেল মেসি সমতা ফেরানোর পর শেষ দিকে গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেন ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ং।

কোপা দেল রে এর চতুর্থ রাউন্ডে দ্বিতীয় স্তরের দল রায়ো ভায়োকানোর মাঠে প্রথমে পিছিয়ে পড়লেও বিশ্বাস হারায়নি বার্সেলোনা। দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে শেষ পর্যন্ত জয় নিয়ে প্রতিযোগিতাটির কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে কাতালান ক্লাব।

প্রতিপক্ষের মাঠে বুধবার রাতে ম্যাচটিতে ২-১ ব্যবধানের জয় পায় বার্সেলোনা। লিওনেল মেসি সমতা ফেরানোর পর শেষ দিকে গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেন ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ং।

ভায়োকানোর মাঠে শুরু থেকেই আক্রমণের পসরা সাজায় বার্সেলোনা। কিন্তু প্রথমার্ধেই দুই বার বল বারে লেগে ফিরে আসলে গোল না পেয়েই প্রথমার্ধ শেষ করেন মেসিরা।

১৯ মিনিটের মাথায় জুনিয়র ফিরপোর ক্রসে পা লাগালেও তা গোলে পরিণত করতে পারেননি ডি ইয়ং। ডাচ মিডফিল্ডারের শট লাগে বারে।

৩৫ মিনিটের মাথায় ফ্রান্সিসকো ত্রিনকাওয়ের শট রায়ো গোলকিপার স্টোল দিমিত্রিভিয়েস্কি ফিরিয়ে দিলে বল আসে রিকি পুজের কাছে। তরুণ এই মিডফিল্ডার ভালো শট নিলেও এক রায়ো ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে বল লাগে পোস্টে, গোলবঞ্চিতই থাকে বার্সেলোনা।

বিরতির পরপরই মেসির একটি ফ্রি-কিক ফিরে আসে বারে লেগে।

স্রোতের বিপরীতে ম্যাচের ৬৩ মিনিটে গোল করে ভায়োকানোকে এগিয়ে নেন ফ্রান গার্সিয়া।

তবে জবাব দিতে সময় নেয়নি কাতালানরা। গোল খাওয়ার মাত্র পাঁচ মিনিট পর বক্সের ভেতর মেসিকে খুঁজে নেন আঁতোয়ান গ্রিজমান, সমতায় ফেরে বার্সেলোনা।

বার্সেলোনা এগিয়ে যায় ম্যাচের দশ মিনিট বাকি থাকতে। মেসির দারুণ পাস থেকে ভায়োকানোর বক্সে জায়গা পেয়ে যান বদলি হিসেবে নামা জর্দি আলবা। তার পাস পেয়ে জালে বল জড়াতে ভুল করেননি ডি ইয়ং। গত সাত ম্যাচে এটি এই ডাচ মিডফিল্ডারের চতুর্থ গোল।

আরও পড়ুন:
ডি ইয়ং-পুজের গোলে বার্সার সহজ জয়
নির্বাচন পেছাচ্ছে বার্সেলোনার
স্টেগানের বীরত্বে সুপার কাপের ফাইনালে বার্সেলোনা

শেয়ার করুন

মন্তব্য

জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু ১৪ মার্চ

জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু ১৪ মার্চ

মঙ্গলবার জাতীয় দলের প্রাথমিক স্কোয়াড ঘোষণা করা হবে। ছবি: ফাইল ছবি

ত্রিদেশীয় সিরিজ সামনে রেখে জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু হবে ১৪ মার্চ। আগের দিন কোভিড টেস্ট করা হবে খেলোয়াড়দের। ১৮ বা ১৯ মার্চ নেপালের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবেন সাদ-সুফিলরা।

বিশ্বকাপ বাছাইয়ের আফগানিস্তান না আসার সিদ্ধান্ত নেয়ায় নেপালের আমন্ত্রণে ত্রিদেশীয় সিরিজে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ। বিষয়টি সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)।

জাতীয় দলের প্রস্তুতি, কোভিড প্রটোকল ও নেপাল ভ্রমণের সময়সূচি নিয়ে সোমবার বৈঠক করে জাতীয় দল ব্যবস্থাপনা কমিটি।

ত্রিদেশীয় সিরিজ সামনে রেখে জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু হবে ১৪ মার্চ। আগের দিন কোভিড টেস্ট করা হবে খেলোয়াড়দের। ১৮ বা ১৯ মার্চ নেপালের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবেন সাদ-সুফিলরা।

বৈঠক শেষে জাতীয় দল কমিটির চেয়ারম্যান কাজী নাবিল আহমেদ গণমাধ্যমকে বলেন, “আমরা প্লান ‘এ’ ও প্লান ‘বি’ ঠিক করেছি। যদি প্লান ‘এ’ কাজ না করে তবে প্লান ‘বি’ হিসেবেই আমরা নেপালে যাচ্ছি। তাই নেপালের এই টুর্নামেন্টের জন্য আগামীকাল (মঙ্গলবার) জাতীয় দল ঘোষণা করা হবে।”

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচ বাতিল হওয়ার পর নেপালও চাচ্ছিল জাতীয় দলের খেলা অব্যাহত রাখতে। তাই ত্রিদেশীয় সিরিজের পরিকল্পনা থেকে বাংলাদেশকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল।

বলে-ব্যাটে মিলে যাওয়ায় ২২-৩০ মার্চ তিন দেশের নয়দিনের টুর্নামেন্টে অংশ নিতে যাচ্ছে বাফুফে। টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ ছাড়াও ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের ৯৬তম দেশ কিরগিজস্তানও অংশ নিচ্ছে এই সিরিজে।

আরও পড়ুন:
ডি ইয়ং-পুজের গোলে বার্সার সহজ জয়
নির্বাচন পেছাচ্ছে বার্সেলোনার
স্টেগানের বীরত্বে সুপার কাপের ফাইনালে বার্সেলোনা

শেয়ার করুন

কাজী সালাউদ্দিনের দুর্নীতি পায়নি দুদক

কাজী সালাউদ্দিনের দুর্নীতি পায়নি দুদক

দুই বছর তদন্ত শেষে অভিযোগ থেকে মুক্তি পেলেন কাজী সালাউদ্দিন। ছবি: ফাইল ছবি

গত পয়লা মার্চ বাফুফে সভাপতির কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি দিয়ে বিষয়টি জানায় দুদক। কাজী সালাউদ্দিন ছাড়াও বাফুফের নারী কমিটির চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণ এবং প্রধান হিসাব কর্মকর্তা আবু হোসেনকেও এই অভিযোগ থেকে মুক্তি দিয়েছে দুদক।

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ ও পাচারের সত্যতা পায়নি দুর্নীতি দমন কমিশন- দুদক।

১ মার্চ বাফুফে সভাপতির কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি দিয়ে বিষয়টি জানায় দুদক।

কাজী সালাউদ্দিন ছাড়াও বাফুফের নারী কমিটির চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণ এবং প্রধান হিসাব কর্মকর্তা আবু হোসেনকেও এই অভিযোগ থেকে মুক্তি দিয়েছে সংস্থাটি।

দুদকের সচিব ড. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার স্বাক্ষরিত চিঠিতে এই অভিযোগের কার্যক্রম সমাপ্তির বিষয়টি উল্লেখ করা হয়।

চিঠিতে বলা হয়, ‘নিম্নবর্ণিত ব্যক্তিবর্গের বিরুদ্ধে বর্ণিত অভিযোগ অনুসন্ধানে প্রমাণিত না হওয়ায় দুর্নীতি দমন কমিশন কর্তৃক অভিযোগটির কার্যক্রম পরিসমাপ্ত করা হয়েছে।’

দুই বছর তদন্ত শেষে অভিযোগ থেকে মুক্তি পেলেন কাজী সালাউদ্দিন।

২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে বিভিন্ন অনিয়ম ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে কাজী সালাউদ্দিনকে চিঠি দেয় দুদক। বাফুফে সভাপতিসহ দেশের সর্বোচ্চ ফুটবল সংস্থার আরও দুই শীর্ষ কর্মকর্তার বিরুদ্ধেও এই অনুসন্ধান করা হয়। তারা হলেন বাফুফের নির্বাহী সদস্য ও মহিলা কমিটির চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণ এবং প্রধান হিসাব কর্মকর্তা আবু হোসেন।

আরও পড়ুন:
ডি ইয়ং-পুজের গোলে বার্সার সহজ জয়
নির্বাচন পেছাচ্ছে বার্সেলোনার
স্টেগানের বীরত্বে সুপার কাপের ফাইনালে বার্সেলোনা

শেয়ার করুন

পালিচড়া থেকে বিশ্বদরবারে

পালিচড়া থেকে বিশ্বদরবারে

রংপুর শহর থেকে প্রায় ১৬ কিলোমিটার দূরের সদ্যপুস্কুরিনী ইউনিয়নের পালিচড়া গ্রামের মেয়েদের ফুটবল খেলা শুরু হয় ১০ বছর আগে। গ্রামের মেয়েদের জন্যই পালিচড়ার নতুন নাম হয়েছে ‘ফুটবলারদের গ্রাম’। গ্রামের গণ্ডি পেরিয়ে তারা খেলছে ঢাকার বিভিন্ন ক্লাবে।

গ্রামটিতে একসময় কিশোরী বয়স পেরোনোর আগেই বিয়ের পিঁড়িতে বসত মেয়েরা। পাঠশালার বই-খাতার পরিবর্তে তারা ব্যস্ত থাকত হাড়ি-পাতিল নিয়ে। সেই গ্রামের মেয়েরা এখন স্বপ্ন দেখছে বিশ্ব জয়ের। ফুটবলার হিসেবে নিজেদের পরিচয় তুলে ধরছে বিশ্ব দরবারে।

রংপুর শহর থেকে প্রায় ১৬ কিলোমিটার দূরের সদ্যপুস্কুরিনী ইউনিয়নের পালিচড়া গ্রামের মেয়েদের ফুটবল খেলা শুরু হয় ১০ বছর আগে। এ সময়েই দেশসেরা হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে তারা।

গ্রামের মেয়েদের জন্যই পালিচড়ার নতুন নাম হয়েছে ‘ফুটবলারদের গ্রাম’। গ্রামের গণ্ডি পেরিয়ে তারা খেলছে ঢাকার বিভিন্ন ক্লাবে।

২৭ মার্চ থেকে শুরু হতে যাওয়া নারী ফুটবল লিগে অংশ নিচ্ছে স্থানীয় ফুটবলারদের দিয়ে তৈরি সদ্যপুষ্করিনী যুব ক্লাব।

এ বিষয়ে সদ্যপুষ্করিনী যুব ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক গোলজার হোসেন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘২০১০ সালে এখানকার মেয়েরা খেলা শুরু করে। ওই সময় গ্রামের মানুষজন নানা ধরনের নেতিবাচক কথা বলত। তারপরও মেয়েরা মাঠে এসে নিজে নিজে খেলত।’

২০১১ সালে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় টুর্নামেন্ট চালু হয়। ওই টুর্নামেন্টে পালিচড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় তাদের ছাত্রীদের নাম লেখায়।

সেবার জাতীয় পর্যায়ে রানার্স-আপ হয় পালিচড়ার মেয়েরা। ওই টুর্নামেন্টের পর গ্রামের মেয়েদের আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। স্থানীয় ফুটবলপ্রেমীদের উৎসাহ আর অভিভাবকদের এগিয়ে আসায় প্রতি বছর সাফল্য পাচ্ছে দলটি। চলতি বছরের ক্রীড়া পরিদপ্তর বিচ ফুটবল টুর্নামেন্টে অংশ নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারা।

২০১৫ সালে কেএফসি জাতীয় মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপের চূড়ান্ত পর্বে ওঠে পালিচড়া বিদ্যালয়। চ্যাম্পিয়ন হতে না পারলেও জিতেছিল ফেয়ার প্লে ট্রফি। ২০১৬ সালে কেএফসি সিনিয়র ন্যাশনাল উইমেন্স চ্যাম্পিয়নশিপে তারা অর্জন করে তৃতীয় স্থান।

২০১৭ সালে জেএফএ অনূর্ধ্ব-১৪ টুর্নামেন্টে তারা রানার্স-আপ, ২০১৮ সালে ৪৭তম গ্রীষ্মকালীন ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন হয়।

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়ন ও এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপে কৃতিত্বের জন্য এই গ্রামের সুলতানা, লাভলী, রত্নাসহ বেশ কয়েকজন ফুটবলার প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে আর্থিক সম্মাননা পেয়েছেন।

বঙ্গমাতা গোল্ডকাপে পরপর দুই বছর সেরা খেলোয়াড়ের গোল্ডেন বুট জিতেছেন পালিচড়ার রোকসানা পারভীন। এখন ঢাকায় বিজিএমসিতে খেলছেন। নিউজবাংলাকে তিনি জানান ফুটবলার তৈরিতে আর্থিক সংকটের কথা।

‘আমি এএফসির বি-লাইসেন্স পাওয়া কোচ। এখানে নিয়মিত প্রশিক্ষণ দিচ্ছি। এই ফুটবলারদের বল, জার্সি, বুটসহ অন্যান্য সরঞ্জাম কিনতে টাকার প্রয়োজন। সেই টাকা জোগাড় করতে হিমশিম খেতে হয়।’

লিগ শুরু হতে খুব বেশি দেরি নেই। তাই নিবিড় প্রস্তুতিতে ব্যস্ত ফুটবলাররা। অনুশীলনের ফাঁকে নবম শ্রেণির ছাত্রী রুমি আক্তার জ্যোতি কথা বলেন নিউজবাংলার সঙ্গে।

তিনি বলেন, “গ্রামে এসব পছন্দ করত না। বলত, ‘তুমি খেলতে যাও কী জন্য? খেলে কী হবে।’ কিন্তু আমি হাল ছাড়িনি।”

২০১৪ সালে খেলা শুরু করা রুমি এখন অনুশীলন করান উঠতি ফুটবলারদের। বয়সভিত্তিক দলে খেলার অভিজ্ঞতা ছড়িয়ে দিচ্ছেন কিশোরীদের মাঝে। তার চোখে ধরা পড়ে বদলে যাওয়ার দৃশ্য।

‘পায়ের ইনজুরির কারণে বড় দলে খেলতে পারছি না। এখানে যারা আছে তাদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছি। গ্রামজুড়ে এখন ফুটবলের আলোচনা। যারা খারাপ চোখে দেখত তারাও এখন ভালো বলছে।’

একই রকম পরিবর্তনের কথা জানালেন ফারজানা আক্তার। পালিচড়া গ্রামের মাটি ভাটা স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্রী তিনি। বলেন, “ফুটবল খেলতে ভালো লাগে। তাই খেলি। প্রথমে আমাকে অনেকে বাধা দিছে গ্রামের মানুষ ও আত্মীয় স্বজনেরা। এখন বলে, ‘তুমি এখন ভালো খেলো।’ আমাকে এখন সবাই উৎসাহ দেয়।”

palichara-women

পালিচড়া সরকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আঞ্জুআরা বেগম জানালেন ফুটবলারদের নিয়ে গর্ব করেন এখন গ্রামবাসী। সঙ্গে যোগ করেন তাদের উন্নয়নে দরকার আরও অর্থের।

‘নিভৃত পল্লী এই গ্রামটি। এখানকার অধিকাংশ মানুষই কৃষি কাজ করি। মেয়েদের খেলার মাঠে যেতে দেবে এটা ভাবাই কষ্টকর। তারপরও মেয়েরা এখন খেলছে। তারা আমাদের অহংকার। এই মেয়েরা শুধু নিজেরাই সাফল্য অর্জন করেনি গোটা গ্রামের মুখ উজ্জ্বল করেছে। ওরা আমাদের সোনার মেয়ে। সহযোগিতা পেলে আরও অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারবে।’

স্কুলের শিক্ষক আখতারুজ্জামান সরকার নিউজবাংলাকে বলেন, ‘সত্যি বলতে শুরুতে আমাদের গ্রামের মানুষ চায়নি মেয়েরা এভাবে মাঠে খেলুক। যখন একটা সফলতা আসল তখন আমরা বললাম, না আর মেয়েদের নিষেধ করব না। তখন থেকেই তারা মাঠে খেলে, আমরা ক্লাসে উদাহরণ দেই। ক্লাসের সব মেয়ে এখন খেলতে চায়।’

‘মুই এলা এইলে কতা শোনোং না’

মেয়েদের ধারাবাহিক সাফল্যে গ্রামের বাসিন্দাদের অন্যতম আগ্রহের বিষয় হয়ে উঠেছে ফুটবল। মেয়েদের ফুটবলকে আর বাঁকা চোখে দেখেন না এখানকার মানুষ। বারণ নেই আগের মতো। বাবা-মা, অভিভাবকেরাই স্বত:স্ফূর্ত হয়ে মেয়েদের ফুটবল শিখতে অনুপ্রাণিত করছেন।

শুধু রংপুরই নয়, নেত্রকোনা জেলার ২৭ কিশোরী ফুটবলার এখানে এসেছেন খেলা শিখতে। ক্লাবের ক্যাম্পে থেকে প্রতিদিন ফুটবল খেলার প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন।

তাদেরই একজন বিরিশিরি মিশন গার্লস স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্রী রিয়া রেমা। তিনি বলেন, ‘এখানে ২৭ জন আসছি। সবার সঙ্গে তাল মিলিয়ে খেলছি। এখন অনেকটা শিখে গেছি। আমি খেলা শিখে দেশের হয়ে সুনাম অর্জন করতে চাই।’

শামীমা আক্তার মেয়েকে নিয়ে এসেছেন ক্যাম্পে। নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমাদের গ্রামাঞ্চলে বাড়ি। নানান জন নানান কথা বলতেছে। কেয়ার করি নাই। সব কথাত কান দিতে নাই। গত শনিবার আমার ভাতিজিকে নিয়ে মাঠে এসেছি। সে এখন বেশ ভালো খেলছে। আমি চাই, মেয়েরা বাইরে আসুক, খেলুক।’

ক্যাম্পে অনুশীলন করা পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী ময়না খাতুনের বাবা মাইদুল ইসলাম বলেন, ‘মুই তো খেলবার দিবের চাং নাই। সবার বেটিরা খেলে মাডোত আসি। তারপর ময়নাও আইসে। এলা শুনবেনজি হামার ময়না নাকি ঢাকাত খেলবে। খেলুক দেহি কী হয়। মানুষ আগোত মেলা কতা কইছে মোক, মুই এলা এইলে কতা শোনোং না।’

palichara-training

কিশোরী ফুটবলারদের থাকা, খাওয়া ও নিরাপত্তার বিষয়টি দেখছেন স্থানীয় প্রশাসন। এ বিষয়ে সদ্যপুস্কুরিনী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সোহেল রানা নিউজবাংলাকে বলেন, মেয়ে ফুটবলারদের দেয়া হচ্ছে সর্বোচ্চ সহায়তা।

‘খেলার মাঠের পাশে মেয়েদের থাকা ও খাওয়ার জন্য একটি ক্যাম্প রয়েছে। জেলা প্রশাসন সেটি করেছে। ওই ক্যাম্প ও গ্রামের খেলোয়াড় মেয়েদের নিরাপত্তা আমরা দিচ্ছি। পুলিশও সেখানে অবস্থান করে। এই মেয়েরা গ্রামকে নতুন করে চিনিয়েছে। দল-মত নির্বিশেষে সবাই তাদের সহযোগিতা করি। এরা আমাদের গর্ব। আমি ও গ্রামবাসী তাদের পাশে আছি।’

ইউনিয়নে ফুটবল খেলাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য নির্মাণ করা হচ্ছে একটি মিনি-স্টেডিয়াম। বিষয়টি নিশ্চিত করেন রংপুর জেলা প্রশাসক আসিব আহসান।

‘তাদের এই অর্জন অন্যন্যদের মাঝেও উৎসাহ তৈরি করবে; অনুপ্রেরণা তৈরি করবে। শুধু খেলাধুলা নয়, সকল ক্ষেত্রে এই অনুপ্রেরণা নারী জাগরণে সহযোগিতা করবে,’ যোগ করেন তিনি।

আরও পড়ুন:
ডি ইয়ং-পুজের গোলে বার্সার সহজ জয়
নির্বাচন পেছাচ্ছে বার্সেলোনার
স্টেগানের বীরত্বে সুপার কাপের ফাইনালে বার্সেলোনা

শেয়ার করুন

১১ বছর পর বার্সেলোনার সভাপতি লাপোর্তা

১১ বছর পর বার্সেলোনার সভাপতি লাপোর্তা

নতুন দায়িত্ব নিয়ে মেসিকে ক্লাবে রাখাই হবে লাপোর্তার সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। মৌসুম শেষে সর্বকালের সেরা ফুটবলারের সঙ্গে চুক্তি শেষ হচ্ছে বার্সেলোনার। এরই মধ্যে তাকে সই করানোর আগ্রহ প্রকাশ করেছে ম্যানচেস্টার সিটি ও পিএসজি। তাদের হাত থেকে ক্লাবের আইকন খেলোয়াড়কে রক্ষা করবেন এমনটাই বিশ্বাস লাপোর্তার।

বার্সেলোনায় দ্বিতীয় মেয়াদে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছে হোয়ান লাপোর্তা। মোট ভোটের ৫৪ শতাংশ পেয়ে বাকি দুই প্রতিদ্বন্দ্বী ভিক্তর ফন্ত ও টনি ফ্রেইশাকে পেছনে ফেলেন পেশায় আইনজীবী এই সংগঠক।

বার্সেলোনা ক্লাবের পক্ষ থেকে জানানো হয় ১০৯,৫৩১ জন সদস্যের মধ্যে ভোট দেন ৫৫,৬১১ জন। জানুয়ারিতে ক্লাবের নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও করোনাভাইরাসের প্রকোপে দুই মাস পেছানো হয়।

৫৮ বছর বয়সী লাপোর্তা এর আগে ২০০৩ থেকে ২০১০ পর্যন্ত ক্লাবের দায়িত্বে ছিলেন। তার আমলেই পেপ গার্দিওলা অধীনে ইতিহাসে সেরা সাফল্য পায় বার্সেলোনা।

গার্দিওলাকে ক্লাবের দায়িত্ব দেয়া ছাড়াও তৎকালীণ সুপারস্টার রোনালদিনিয়োকে পিএসজি থেকে কাম্প ন্যুয়ে এনেছিলেন লাপোর্তা। লা মাসিয়া থেকে মূল একাদশে লিওনেল মেসি নিয়মিত হয়ে ওঠেন তার সময়েই।

নতুন দায়িত্ব নিয়ে মেসিকে ক্লাবে রাখাই হবে লাপোর্তার সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। মৌসুম শেষে সর্বকালের সেরা ফুটবলারের সঙ্গে চুক্তি শেষ হচ্ছে বার্সেলোনার। এরই মধ্যে তাকে সই করানোর আগ্রহ প্রকাশ করেছে ম্যানচেস্টার সিটি ও পিএসজি। তাদের হাত থেকে ক্লাবের আইকন খেলোয়াড়কে রক্ষা করবেন এমনটাই বিশ্বাস লাপোর্তার।
জেতার পরপরই নিজের লক্ষ্য পরিস্কার করেছেন লাপোর্তা।

‘বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় লিও তার ছেলেকে নিয়ে আমাকে ভোট দিতে এসেছে। এ থেকে এটাই প্রমাণ করে যে লিও বার্সাকে ভালোবাসে। সবসময়ই বলে এসেছি আমরা একটা পরিবারের মতো। আশা করি এ কারণেই সে থেকে যাবে। আমরা সবাই সেটা চাই।’

লাপোর্তার সামনে মেসিকে রাখার চেয়েও বড় চ্যালেঞ্জ ক্লাবের ভঙ্গুর আর্থিক অবস্থাকে শক্তিশালী করা। জানুয়ারিতে স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক এল মুনদো দেপোর্তিভোর এক প্রতিবেদনে প্রকাশিত হয় যে বার্সেলোনা প্রায় ১০০ কোটি ইউরো দেনায় আছে।

যার কারণে মেসির পাশাপাশি আঁতোয়া গ্রিজমান, ফিলিপে কোতিনিয়ো, উসমান ডেম্বেলে ও আনসু ফাতির মতো তারকাদের ছেড়ে দিতে হতে পারে ক্লাবটির।

আরও পড়ুন:
ডি ইয়ং-পুজের গোলে বার্সার সহজ জয়
নির্বাচন পেছাচ্ছে বার্সেলোনার
স্টেগানের বীরত্বে সুপার কাপের ফাইনালে বার্সেলোনা

শেয়ার করুন

ডার্বি জিতেও শিরোপা স্বপ্ন নেই ইউনাইটেডের

ডার্বি জিতেও শিরোপা স্বপ্ন নেই ইউনাইটেডের

সিটিকে ২-০ গোলে হারিয়ে লিগ টেবিলের দুই নম্বরে আছে ইউনাইটেড। সিটির মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটে ব্রুনো ফার্নানদেসের পেনাল্টি থেকে এগিয়ে যাওয়া ইউনাইটেড ম্যাচ নিজেদের করে নেয় ৫০ মিনিটে। লুক শর গোলে নিশ্চিত হয় টানা দুই ম্যাচ ড্রয়ের পর ইউনাইটেডের জয়।

টানা দ্বিতীয় ডার্বি জিতেছেন। পেপ গার্দিওলার সর্বজয়ী ম্যানচেস্টার সিটিকে ২১ ম্যাচ পর হারের স্বাদ দিয়েছেন। দলকে নিয়ে উঠে এসেছেন টেবিলের দুইয়ে। তারপরও শিরোপার স্বপ্ন নেই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ম্যানেজার ওলে-গানার শোলস্কায়ারের।

রাতে সিটিকে ২-০ গোলে হারিয়ে লিগ টেবিলের দুই নম্বরে আছে ইউনাইটেড। সিটির মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটে ব্রুনো ফার্নানদেসের পেনাল্টি থেকে এগিয়ে যাওয়া ইউনাইটেড ম্যাচ নিজেদের করে নেয় ৫০ মিনিটে। লুক শর গোলে নিশ্চিত হয় টানা দুই ম্যাচ ড্রয়ের পর ইউনাইটেডের জয়।

এমন জয়ের পরও শিরোপা নিয়ে খুব একটা আশাবাদী মনে হচ্ছে না শোলস্কায়ারকে। শীর্ষে থাকা সিটির চেয়ে ১১ পয়েন্ট পিছিয়ে তার দল, এটা খুব ভালো করেই জানেন তিনি।

‘ওরা (সিটি) আসলে এতটাই এগিয়ে যে কোনো কিছু চিন্তা করার সুযোগ নেই। আমরা বাকি ম্যাচগুলো জিততে চাই ও গত মৌসুমের চেয়ে ভালো অবস্থানে থেকে শেষ করতে চাই।’

গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল ও রানার্সআপ সিটির পেছনে থেকে তৃতীয় হয়ে লিগ শেষ করে ইউনাইটেড। এই বছর দ্বিতীয় স্থান নিয়ে তাদের সঙ্গে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে লেস্টার সিটি, চেলসি ও এভারটনের।

২৮ ম্যাচে ৫৪ পয়েন্ট নিয়ে ইউনাইটেড আছে দুই নম্বরে। সমান ম্যাচে তিনে থাকা লেস্টারে ঝুলিতে ৫৩ পয়েন্ট। চার নম্বরে আছে চেলসি। তাদের সংগ্রহে ৪৭ পয়েন্ট তবে তারা ম্যাচ খেলেছে ২৭টি। ৪৬ পয়েন্ট পাওয়া এভারটনে পাঁচে থাকলেও তারা ম্যাচ খেলেছে ২৬টি।

রাতে বড় দলগুলোর মধ্যে আবারও অঘটনের শিকার হয়েছে লিভারপুল। ফুলহ্যামের কাছে নিজ মাঠে তারা হেরেছে ১-০ গোলে। এই নিয়ে নিজ মাঠ অ্যানফিল্ডে টানা ছয় ম্যাচ হারল চ্যাম্পিয়নরা। এই হারে ২৮ ম্যাচে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে আট নম্বরে আছে ইয়ুর্গেন ক্লপের লিভারপুল।

আরও পড়ুন:
ডি ইয়ং-পুজের গোলে বার্সার সহজ জয়
নির্বাচন পেছাচ্ছে বার্সেলোনার
স্টেগানের বীরত্বে সুপার কাপের ফাইনালে বার্সেলোনা

শেয়ার করুন

মাদ্রিদ ডার্বি ড্রয়ে জমে উঠল লা লিগা

মাদ্রিদ ডার্বি ড্রয়ে জমে উঠল লা লিগা

বল পায়ে কাসেমিরো। ছবি: টুইটার

১৫ মিনিটে লুইস সুয়ারেস আতলেতিকোকে এগিয়ে নেওয়ার পর কারিম বেনজেমার শেষ মুহূর্তের গোলে ড্র করেছে রিয়াল মাদ্রিদ।

মাদ্রিদ ডার্বি শুরুর আগে দুই দলের লক্ষ্য ছিল দুই রকম। আতলেতিকো মাদ্রিদের লক্ষ্য ছিল জয় নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা বার্সেলোনার চেয়ে পাঁচ পয়েন্টে এগিয়ে যাওয়া। রিয়াল মাদ্রিদের লক্ষ্য ছিল জয় নিয়ে আতলেতিকোর সাথে ব্যবধান কমানো।

শেষ পর্যন্ত কোনোটিই হয়নি। ১৫ মিনিটে লুইস সুয়ারেস আতলেতিকোকে এগিয়ে নেওয়ার পর কারিম বেনজেমার শেষ মুহূর্তের গোলে ড্র করেছে রিয়াল মাদ্রিদ।

ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণ সাজাতে থাকে লা লিগার শীর্ষে থাকা আতলেতিকো। ফলও পায় তারা। তবে সেটি কাউন্টার অ্যাটাকে। রিয়াল ডিফেন্ডার নাচো ফার্নান্দেসের ভুলে ফাঁকা জায়গায় বল পেয়ে যান মার্কোস ইয়োরেন্তে। সুয়ারেসকে পাস বাড়াতে ভুল করেননি তিনি।

সেই পাস থেকে নিখুঁত এক ফিনিশে থিবো কোঁতোয়াকে পরাস্ত করেন সাবেক বার্সা স্ট্রাইকার। আতলেতিকোকে এগিয়ে নেন।

প্রথমার্ধের শেষদিকে সমতায় ফিরতে পারত রিয়াল। টনি ক্রুসের কর্নার ক্লিয়ার করতে গেলে হাতে লাগে আতলেতিকো ডিফেন্ডার ফেলিপের। ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির সঙ্গে আলোচনার পর পেনাল্টির বাঁশি বাজাননি রেফারি।

দ্বিতীয়ার্ধে আতলেতিকো বেশ কিছু সুযোগ পায় ব্যবধান বাড়ানোর। কঁতোয়ার দৃঢ়তায় সেটি পারেনি তারা। বরং দ্বিতীয়ার্ধে ফেদেরিকো ভালভার্দে ও ভিনিসিয়াস জুনিয়র মাঠে নামার পর খেলার গতি বাড়ে রিয়ালের।

তারই ফলস্বরূপ ৮৮ মিনিটে গোলের দেখা পায় তারা। আতলেতিকো বক্সের মধ্যে দারুণ এক পাস দিয়ে বেনজেমাকে খুঁজে নেন কাসেমিরো। সেই পাস থেকে বল জালে জড়াতে ভুল করেননি এই ম্যাচেই চোট থেকে ফেরা ফরাসি স্ট্রাইকার।

এই ড্রয়ে ২৫ ম্যাচ শেষে ৫৯ পয়েন্ট নিয়ে লা লিগা টেবিলের শীর্ষস্থান ধরে রাখল আতলেতিকো। ২৬ ম্যাচে ৫৪ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে রিয়াল। সমান ম্যাচে ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে বার্সেলোনা।

আরও পড়ুন:
ডি ইয়ং-পুজের গোলে বার্সার সহজ জয়
নির্বাচন পেছাচ্ছে বার্সেলোনার
স্টেগানের বীরত্বে সুপার কাপের ফাইনালে বার্সেলোনা

শেয়ার করুন

১০ বছর পর স্কটিশ চ্যাম্পিয়ন জেরার্ডের রেঞ্জার্স

১০ বছর পর স্কটিশ চ্যাম্পিয়ন জেরার্ডের রেঞ্জার্স

উদযাপনে রেঞ্জার্স। ছবি: টুইটার

৩২ ম্যাচ শেষে রেঞ্জার্সের পয়েন্ট ৮৮। সমান ম্যাচে সেল্টিক পেয়েছে ৬৮ পয়েন্ট। বাকি ছয় ম্যাচে কোনোভাবেই সেল্টিকের পক্ষে রেঞ্জার্সকে টপকানো সম্ভব নয়।

শেষবার ২০১১ সালে স্কটল্যান্ডের প্রিমিয়ারশিপ জিতেছিল রেঞ্জার্স। এরপর টানা নয় মৌসুম তারা দেখেছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী সেল্টিককে শিরোপা জিততে।

অবশেষে সেই ধারা ভাঙল তারা। রোববার ডান্ডি ইউনাইটেডের বিপক্ষে সেল্টিক ড্র করায় স্কটিশ প্রিমিয়ারশিপ নিশ্চিত হয় রেঞ্জার্সের।

৩২ ম্যাচ শেষে রেঞ্জার্সের পয়েন্ট ৮৮। সমান ম্যাচে সেল্টিক পেয়েছে ৬৮ পয়েন্ট। বাকি ছয় ম্যাচে কোনোভাবেই সেল্টিকের পক্ষে রেঞ্জার্সকে টপকানো সম্ভব নয়।

সাবেক লিভারপুল অধিনায়ক স্টিভেন জেরার্ডের অধীনে এই মৌসুমে অবিশ্বাস্য ফর্ম খুঁজে পেয়েছে তারা। ২০১৮ সালে রেঞ্জার্সের দায়িত্ব নেওয়ার পর দুই মৌসুমেই রেঞ্জার্সকে স্কটিশ লিগের দ্বিতীয় স্থানে রেখে লিগ শেষ করেছিলেন জেরার্ড। কিন্তু লিগ জেতা হয়নি।

এবারের মৌসুমে এখন পর্যন্ত লিগে একটি ম্যাচও হারেনি জেরার্ডের শিষ্যরা। ৩২ ম্যাচের মধ্যে জিতেছে ২৮টিই, বাকি চারটি ড্র। গোল করেছে ৭৭টি, খেয়েছে মাত্র নয়টি। ২৪টি ম্যাচে গোল হজম করেনি তারা।

১৯০২/০৩ মৌসুমের পর এবারই দ্রুততম সময়ে লিগ জিতল রেঞ্জার্স। তবে সেবার হাইবারনিয়ান লিগ জিতেছিল দুই ম্যাচ হাতে রেখে, রেঞ্জার্স জিতেছে ছয় ম্যাচ হাতে রেখে।

রেঞ্জার্সকে লিগ জেতানোয় প্রশংসায় ভাসছেন স্টিভেন জেরার্ড। সাবেক ইংলিশ স্ট্রাইকার গ্যারি লিনেকার তার টুইটারে লিখেছেন, ‘লিগ জেতার জন্য রেঞ্জার্সকে অভিনন্দন। স্টিভেন জেরার্ডকেও এই অসাধারণ অর্জনের জন্য অভিনন্দন।’

আরও পড়ুন:
ডি ইয়ং-পুজের গোলে বার্সার সহজ জয়
নির্বাচন পেছাচ্ছে বার্সেলোনার
স্টেগানের বীরত্বে সুপার কাপের ফাইনালে বার্সেলোনা

শেয়ার করুন

ad-close 103.jpg