জয়ের ধারায় চট্টগ্রাম আবাহনী, ছন্দে শেখ জামাল

লিগের দ্বিতীয় ম্যাচে জয় তুলে নিয়েছে দুই টাইটেল প্রত্যাশী চট্টগ্রাম আবাহনী ও শেখ জামাল

জয়ের ধারায় চট্টগ্রাম আবাহনী, ছন্দে শেখ জামাল

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার দুটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রথম ম্যাচে আরামবাগকে ১-০ গোলে হারায় চট্টগ্রাম আবাহনী। রাতের ম্যাচে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রকে ২-১ গোলে হারায় শেখ জামাল।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পেয়েছে চট্টগ্রাম আবাহনী। প্রথম ম্যাচে হারের পর জয়ে ফিরল বন্দরনগরীর দলটি। আর নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে জয় পেয়েছে শেখ জামাল।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার দুটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রথম ম্যাচে আরামবাগকে ১-০ গোলে হারায় চট্টগ্রাম আবাহনী। রাতের ম্যাচে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রকে ২-১ গোলে হারায় শেখ জামাল।

লিগের প্রথম ম্যাচে শেখ জামালের কাছে হার দিয়ে আসর শুরু করা চট্টগ্রাম আবাহনী নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে কাঙ্ক্ষিত জয় পেয়েছে। জয়সূচক গোলটি করেন নিক্সন গুয়েলার্মে।

ম্যাচের ৩০ মিনিটে একমাত্র গোলে লিড আর জয় নিশ্চিত করে মারুফুল হকের শিষ্যরা।

ডিফেন্ডারের মাথার উপর দিয়ে চিনেদু ম্যাথিউয়ের চিপ থ্রু পাওয়ার পর বল হাঁটু দিয়ে নিয়ন্ত্রণে নেন নিক্সন।

বলটা মাটিতে নামানোর সময় ভলিতে বল জালে জড়িয়ে চট্টগ্রাম আবাহনীর সমর্থকদের উল্লাসের মুহূর্ত এনে দেন এই ব্রাজিলিয়ান।

দিনের শেষ ম্যাচে মুক্তিযোদ্ধা এসকেসিকে হারিয়ে জয়ে ধারা অব্যাহত রাখে শেখ জামাল।

ম্যাচের ৩৮ মিনিটে এগিয়ে যায় শেখ জামাল। বাম প্রান্ত থেকে বল নিয়ে এগিয়ে দেন সলোমন কনফার্মের কাছে। ডি-বক্সের ভেতর থেকে মাঝে বাড়িয়ে দিলে বল জালে জড়াতে ভুল করেননি ওমর জবে।

একটি অ্যাসিস্টের পর ৬১ মিনিটে এবার নিজেই গোল করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন কনফার্ম। তার গোলে ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে মুক্তিযোদ্ধা।

ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে সজন মিয়ার ক্রস থেকে সান্ত্বনাসূচক গোলটি আসে মেহেদী হাসান রয়েলের কাছ থেকে। দারুণ হেডে বল জালে জড়ান রয়েল। তবে এই গোল হার এড়ানোর জন্য যথেষ্ট না হওয়ায় ২-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে শেখ জামাল।

টানা দ্বিতীয় জয়ে লিগের পয়েন্ট টেবিলের তিনে উঠে আসে শফিকুল ইসলাম মানিকের শেখ জামাল। প্রথম জয়ে টেবিলের সাতে অবস্থান করছে চট্টগ্রাম আবাহনী। প্রথম ম্যাচে হারে টেবিলের সাতে অবস্থান করছে মুক্তিযোদ্ধা। দুই হারে পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে আরামবাগ।

শেয়ার করুন

মন্তব্য

৩০ এপ্রিল থেকে প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় পর্ব

৩০ এপ্রিল থেকে প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় পর্ব

ছবি: সংগৃহীত

এএফসি কাপ, জাতীয় দলের ক্যাম্প ও ঈদের ছুটি বিবেচনায় এনে ৩০ এপ্রিল থেকে মাঠে গড়াবে লিগ।

সকল জল্পনা-কল্পনা শেষে মাঠে গড়াচ্ছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় পর্বের ম্যাচ। লকডাউনের কারণে গত এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহ থেকে স্থগিত থাকা লিগের দ্বিতীয় পর্ব শুরু হচ্ছে ৩০ এপ্রিল থেকে।

বৃহস্পতিবার বাফুফের পেশাদার লিগ কমিটির সভায় বিষয়টি চূড়ান্ত হয়।

এএফসি কাপ, জাতীয় দলের ক্যাম্প ও ঈদের ছুটি বিবেচনায় এনে ৩০ এপ্রিল থেকে মাঠে গড়াবে লিগ।

এরই মধ্যে লিগের দ্বিতীয় পর্বের খসড়া সূচি চূড়ান্ত করা হয়েছে কমিটির বৈঠকে।

লিগ কমিটি চাচ্ছে ৩ বা ৪ রাউন্ড শেষ করে বিরতিতে যেতে। এই রাউন্ডগুলো বসুন্ধরা কিংস ও ঢাকা আবাহনীর ম্যাচ থাকছে। ১৪ এপ্রিল মালদ্বীপে এএফসি কাপের ম্যাচ আছে কিংসের।

আবাহনীও শেষ পর্যন্ত মালদ্বীপে গিয়েই এই টুর্নামেন্টের প্রিলিমিনারি রাউন্ডের ম্যাচগুলো খেলতে পারে। তার আগে দেশে লিগের খেলায় অংশ নিবে দুই দল।

ফিক্সচার অনুযায়ী ৩০ এপ্রিল বসুন্ধরা কিংস আর উত্তর বারিধারার ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে লিগ। ম্যাচটি হবে টঙ্গীর আহসান উল্লাহ মাস্টার স্টেডিয়ামে।

একই দিন মাঠে নামবে ঢাকা আবাহনীও। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে তারা খেলবে পুলিশ এফসির বিপক্ষে।

কয়েক রাউন্ড ম্যাচ গড়িয়ে আবারও বিরতিতে যেতে পারে লিগ। এএফসি কাপ, বিশ্বকাপ বাছাইকে সামনে রেখে জাতীয় দলের ক্যাম্প ও ঈদের ছুটি বিবেচনায় রেখে বড় ছুটিতে যেতে পারে লিগ।

রমজানের সময় ম্যাচ কখন হবে সেটা নিয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসেনি। এ নিয়ে লিগের টিভি সত্ব নেয়া টি-স্পোর্টসের সঙ্গে আলোচনা করছে লিগ কমিটি।

শেয়ার করুন

সুপার লিগ অধ্যায় শেষ, বললেন গার্দিওলা

সুপার লিগ অধ্যায় শেষ, বললেন গার্দিওলা

সুপার লিগ থেকে মনোযোগ সরিয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে দৃষ্টি এখন গার্দিওলার। এক মৌসুম পর শিরোপা পুনরুদ্ধারের পথে অনেকটাই এগিয়ে তার দল। ভিলাকে ২-১ গোলে হারানোর পর ৩৩ ম্যাচে ৭৭ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে আছে সিটি।

শুরুর মাত্র তিনদিনের মধ্যে মুখ থুবড়ে পড়লো সুপার লিগ।১২ ক্লাব একজোট হয়ে বিদ্রোহী লিগের যে স্বপ্ন দেখেছিল রোববার তা বুধবারের মধ্যেই ভেঙে চুরমার। একে একে ক্লাবগুল সরে দাঁড়ানোয় এখন শুধুমাত্র টিকে আছে রিয়াল মাদ্রিদ,বার্সেলোনা ও ইউভেন্তাস।

এর মধ্যে বুধবার ইউভেন্তাস সভাপতি আন্দ্রেয়া আগনেলি জানান তিনি আর এই টুর্নামেন্টের ভবিষ্যত দেখছেন না। আর বার্সেলোনা সদস্যদের ভোট ছাড়া সুপার লিগে অংশগ্রহণই করতে পারবে না। সুপার লিগ কর্তৃপক্ষও মেনে নিয়েছে আপাতত তাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী আসর আয়োজন করা সম্ভব নয়।

সরে আসা ক্লাবগুলো এরই মধ্যে সমর্থকদের কাছে দুঃখপ্রকাশ করে সুপার লিগে নাম লেখানোর জন্য ক্ষমা চেয়েছে সরে আসা অধিকাংশ ক্লাব।তবে,ম্যানচেস্টার সিটি এখনও ক্ষমা চায়নি তার সমর্থক, খেলোয়াড় ও ম্যানেজমেন্টের কাছে। তবে, সেটা নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছেন না সিটির ম্যানেজার পেপ গার্দিওলা।

সুপার লিগ নিয়ে ভাবনা চিন্তা করে আর সময় নষ্ট করতে চাননা বিশ্বসেরা এই কোচ। বুধবার রাতে অ্যাস্টন ভিলাকে হারানোর পর তিনি বলেন,‘আমি তাদেরকে (মালিকপক্ষ) খুব ভালো ভাবে চিনি। তাদের ক্ষমা চাওয়ার দরকার নেই। গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে আমরা জানি আমাদের সভাপতি ও প্রধান নির্বাহী কেমন। এই অধ্যায় শেষ। পুরোপুরি সমাপ্ত।’

সুপার লিগ থেকে মনোযোগ সরিয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে দৃষ্টি এখন গার্দিওলার। এক মৌসুম পর শিরোপা পুনরুদ্ধারের পথে অনেকটাই এগিয়ে তার দল। ভিলাকে ২-১ গোলে হারানোর পর ৩৩ ম্যাচে ৭৭ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে আছে সিটি।

দুইয়ে থাকা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের চেয়ে ১১ পয়েন্ট এগিয়ে তারা। ইউনাইটেড এক ম্যাচ কম খেলেছে। তারপরও নিশ্চিত হতে পারছেন না গার্দিওলা। ক্যারিয়ারের সবচেয়ে কঠিন মৌসুম পার করছেন উল্লেখ করে তিনি স্কাই স্পোর্টসকে বলেন, ‘ভিলার কাছে হারলে বিপদ হতে পারত। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড সেরা ছন্দে আছে। তবে, জয়টা আমাদের প্রাপ্য ছিল। মৌসুমের শেষ পাঁচ ম্যাচে এখন জানি আমাদের কী করতে হবে। ঠিক আজকের মতো খেলতে হবে। আর তিনটা ম্যাচ জিতলেই আমরা চ্যাম্পিয়ন।’

শেয়ার করুন

জিমনেসিয়াম দিয়ে সমালোচনার জবাব দিলেন সালাউদ্দিন

জিমনেসিয়াম দিয়ে সমালোচনার জবাব দিলেন সালাউদ্দিন

ছবি: সংগৃহীত

নির্বাচনে প্রতিবার জিমনেসিয়াম নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিলেও তা হয়ে ওঠেনি। ১২ বছরে না হলেও এবার কথা রেখেছেন সভাপতি। মার্চের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষে এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায় দীর্ঘ প্রতীক্ষিত এই জিমনেসিয়াম।

শেষ পর্যন্ত ফুটবলারদের জন্য জিমনেসিয়াম নির্মাণ করলেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের চতুর্থবারের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন। বহুল কাঙ্ক্ষিত জিমটি এখন বাফুফে ভবনের সামনে দৃশ্যমান।

নির্বাচনে প্রতিবার জিমনেসিয়াম নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিলেও তা হয়ে ওঠেনি। ১২ বছরে না হলেও এবার কথা রেখেছেন সভাপতি। মার্চের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষে এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায় দীর্ঘ প্রতীক্ষিত এই জিমনেসিয়াম।

বাফুফে জানায়, জিমনেসিয়ামের নির্মাণ কাজ শেষ। যন্ত্রপাতির সকল সুযোগ-সুবিধাও নিশ্চিত করা হয়েছে। অন্তত ৩০ জন ফুটবলার একসঙ্গে জিম করতে পারবেন।

অগ্রাধিকার পাবে জাতীয় ফুটবলাররা। লকডাউন শেষ হলে বর্ণাঢ্য উদ্বোধন করা হবে জিমনেসিয়াম।

জাতীয় ফুটবলারদের ছাড়া বাকী ফুটবলারদের কীভাবে জিমের সুবিধা দেয়া যায় সেজন্য একটি নীতিমালা করবে ফেডারেশন।

উদ্বোধনের বিষয়ে বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ বলেন, ‘লকডাউন শেষ হওয়ার অপেক্ষায় আছি। নির্মাণ কাজ শেষ। মন্ত্রী, মেয়র ক্লাব কর্মকর্তাসহ সাবেক-বর্তমান ফুটবলার নিয়ে জিমনেসিয়াম উদ্বোধনের চিন্তা আছে। লকডাউন শেষ হলেই উদ্বোধন করব।’

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের কয়েকটি দলের জিমনেসিয়ামের আদলে নির্মাণ করতে ব্যয় করতে হয়েছে প্রায় কোটি টাকা। পুরো টাকাই দিয়েছে তমা গ্রুপ। তাই জিমনেসিয়ামের নামকরণ করা হয়েছে ‘বাফুফে-তমা এলিট ট্রেনিং সেন্টার।’

এই উদ্যোগ সফল হওয়ার পেছনে ছিলেন তমা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আতাউর রহমান ভূঁইয়া (মানিক)। তিনি বাফুফের সহ-সভাপতিও।

ফেডারেশনের চাহিদামতো নির্মাণ কাজ করেছে তমা গ্রুপ। আর জিমের যন্ত্রপাতি ক্রয় করেছে বাফুফে কোটেশনের মাধ্যমে।

শেয়ার করুন

সুপার লিগের রইল বাকি তিন

সুপার লিগের রইল বাকি তিন

ছবি: সংগৃহীত

ফুটবলবিশ্বে ঝড় তোলার দুই দিনের মাথায় প্রতিষ্ঠাকালীন ১২ ক্লাবের মধ্যে সুপার লিগ ছেড়ে গেছে নয় ক্লাব। প্রথমে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ছয় ক্লাবের পর ইতালির এসি মিলান ও ইন্টার মিলান এবং স্প্যানিশ লিগের দল অ্যাথলেতিকো মাদ্রিদ।

ইউয়েফাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ইউরোপিয়ান সুপার লিগের ভাবনা রীতিমত মৃত্যু পথযাত্রী। মাত্র ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সুপার লিগের সাজানো স্বপ্ন ভেঙে চুরমার।

ফুটবলবিশ্বে ঝড় তোলার দুই দিনের মাথায় প্রতিষ্ঠাকালীন ১২ ক্লাবের মধ্যে সুপার লিগ ছেড়ে গেছে নয় ক্লাব। প্রথমে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ছয় ক্লাবের পর জোট ছেড়েছে ইতালির এসি মিলান ও ইন্টার মিলান ও স্প্যানিশ লিগের দল আতলেতিকো মাদ্রিদ।

বাকী থাকা তিন ক্লাবের মধ্যে আছে রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা ও ইউভেন্তাস। এবার লিগের এক প্রতিষ্ঠাতা টুর্নামেন্টের ভবিষ্যত নেই বলে জানিয়ে দিয়েছেন।

সুপার লিগের প্রতিষ্ঠাতা সহ-সভাপতি ও ইতালের জায়ান্ট ইউভেন্তাসের সভাপতি আন্দ্রেয়া আগনেলি কোনো ভবিষ্যত দেখছেন না এই টুর্নামেন্টের।

মাত্র তিন দল নিয়ে ইউয়েফাকে টেক্কা দিয়ে প্রজেক্ট মাঠানো সম্ভব কী না জানতে চাইলে রয়টার্সকে ইউভেন্তাসের সভাপতি আন্দ্রেয়া আগনেলি বলেন, ‘সৎ ও খোলাভাবে বলতে গেলে ভবিষ্যত নাই। তবে স্পষ্টভাবে ঘটনা এটা না।’

আগনেলি মনে করেন, ইউরোপের ফুটবলে বদল দরকার ও যেভাবে সুপার লিগ থেকে দলগুলো চলে গেছে তাতে কোনো লজ্জার কিছু নেই।

‘আমি এই প্রজেক্টের সৌন্দর্যে এখনও বিশ্বাসী। এই টুর্নামন্ট বিশ্বের সেরা টুর্নামেন্ট হতে পারত। কিন্তু স্বীকার করে নিচ্ছি, মনে হয় না এই প্রজেক্ট আর থাকছে।’

ইতালির একমাত্র ক্লাব হিসেবে এখনও সুপার লিগ থেকে বের না হওয়ার তালিকায় আছে ইউভেন্তাস। ইতালির বাকী দুই ক্লাব সরে এসেছে প্রজেক্ট থেকে।

সমর্থকদের বিদ্রোহের মুখে ১২ ক্লাবের নয় ক্লাবই সরে এসেছে। সব মিলে প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্যদের মধ্যে বাকী থাকল আর তিন ক্লাব। যার মধ্যে বার্সেলোনা তখনই সুপার লিগে খেলতে পারবে যখন এর সদস্যরা চাইবেন।

শেয়ার করুন

আপাতত হচ্ছে না সুপার লিগ

আপাতত হচ্ছে না সুপার লিগ

সুপার লিগে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে প্রিমিয়ার লিগে ছয় দল- ম্যানচেস্টার সিটি, চেলসি, আর্সেনাল, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, লিভারপুল ও টটেনহ্যাম। আর এই সিদ্ধান্তের পর নিজেদের এক বিবৃতিতে সুপার লিগকে আপাতত স্থগিত করেছে সুপার লিগ কর্তৃপক্ষ।

সোমবার কেঁপে উঠেছিল পুরো ফুটবল বিশ্ব। ইউরোপের শীর্ষ ১২ ক্লাব মিলে ঘোষণা করে, ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের বদলে নতুন একটি ইউরোপিয়ান সুপার লিগের আয়োজন করবে তারা।

সেই ঘোষণার পর থেকেই ভক্ত-সমর্থকদের চাপের মুখে পড়েছিল সবকটি ক্লাব। কেবল সমর্থক নয়, চাপ আসছিল সাবেক এবং বর্তমান ফুটবলারদের থেকেও।

এত কিছুর পর তাই সুপার লিগে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে প্রিমিয়ার লিগে ছয় দল- ম্যানচেস্টার সিটি, চেলসি, আর্সেনাল, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, লিভারপুল ও টটেনহ্যাম।

আর এই সিদ্ধান্তের পর নিজেদের এক বিবৃতিতে সুপার লিগকে আপাতত স্থগিত করেছে সুপার লিগ কর্তৃপক্ষ।

ইংলিশ ক্লাবগুলোর মধ্যে সবার আগে ম্যান সিটি আনুষ্ঠানিকভাবে সরে দাঁড়ালেও, সবার আগে সুপার লিগ ত্যাগের আলোচনায় বসে চেলসিই।

মঙ্গলবার বিক্ষোভরত চেলসি সমর্থকদের থামাতে চেলসির কিংবদন্তি গোলকিপার ও বর্তমান উপদেষ্টা পিটার চেক এগিয়ে আসেন এবং বলেন, ‘আমরা আপনাদের ক্ষোভের কারণ বুঝি। আমাদের একটু সময় দিন।’

কাজ আগে চেলসি শুরু করলেও সবার আগে ঘোষণা দেয় ম্যানচেস্টার সিটি। এক বিবৃতিতে তারা জানায়, ‘সুপার লিগের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছেন না তারা।’

একে একে নিজেদের যুক্ত না হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, আর্সেনাল, লিভারপুল ও টটেনহ্যাম। সবার শেষে ঘোষণা দেয় চেলসি। তবে সেটির কারণে হিসেবে অনেকেই ধারণা করেছেন ব্রাইটনের বিপক্ষে তাদের ম্যাচকে। ম্যাচ গোলশূন্য ড্র হলেও সমর্থকদের মন জিতে নিয়েছেন রোমান আব্রামোভিচ।

এই ছয় ক্লাবের মধ্যে কেবল আর্সেনালই এরকম একটি প্রকল্পে যুক্ত হওয়ার জন্য ক্ষমা চেয়েছে তাদের সমর্থকদের কাছে।

ছয় ইংলিশ ক্লাব ছেড়ে যাবার পর প্রস্তাবিত টুর্নামেন্ট নিয়ে ভাবতে বাধ্য হচ্ছে সুপার লিগ। বুধবার সকালে এক বিবৃতিতে নিশ্চিত করে, বহিরাগত চাপে সুপার লিগ ছাড়তে বাধ্য হয়েছে এই ছয় দল। আপাতত স্থগিত করলেও তারা এই টুর্নামেন্টকে ঢেলে সাজাবেন। ও নতুন আঙিকে ফুটবল ভক্তদের সামনে নিয়ে আসবেন।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ছয় ক্লাব সুপার লিগ ছাড়ার পর অন্য দুই দেশের ছয় ক্লাবও থাকছে কি না, সেটি নিয়েও রয়েছে প্রশ্ন। গুঞ্জন আছে সুপার লিগ ছাড়তে যাচ্ছে দুই ইতালিয়ান দল এসি ও ইন্টার মিলান।

এই সিদ্ধান্ত নেবার কথা ভাবছে স্পেনের আতলেতিকো মাদ্রিদও। বার্সেলোনা সভাপতি হোয়ান লাপোর্তা সুপার লিগকে জানিয়ে দিয়েছেন, ক্লাবের সদস্যরা না চাইলে কোনোভাবেই এই প্রকল্পে যুক্ত হতে পারবে না বার্সা।

শুরুর মাত্র দুই দিনের মাথায়ই তাই এমন ধাক্কা খেলো সুপার লিগ। এমনকি এমন গুঞ্জনও আছে, সুপার লিগের চেয়ারম্যান ফ্লোরেন্তিনো পেরেস রিয়াল মাদ্রিদের সভাপতি হিসেবে বহাল থাকলে ইউয়েফার কোনো প্রতিযোগিতায় খেলতে দেওয়া হবে না তাদের।
ফুটবলে পরিবর্তন আনতে গিয়ে ভালোই বিপাকে পড়েছেন পেরেস।

শেয়ার করুন

সুপারলিগ ছাড়ছে চেলসি ও সিটি

সুপারলিগ ছাড়ছে চেলসি ও সিটি

যে ১২ দলের জোট নিয়ে টুর্নামেন্ট শুরুর কথা ছিল সেখান থেকে বের হয়ে যেতে চাচ্ছে চেলসি ও ম্যানচেস্টার সিটি। বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী সুপার লিগ ছাড়ার প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে দুই ইংলিশ হেভিওয়েট।

শুরুর আগেই ভাঙনের সম্ভাবনায় সুপার লিগ। যে ১২ দলের জোট নিয়ে টুর্নামেন্ট শুরুর কথা ছিল সেখান থেকে বের হয়ে যেতে চাচ্ছে চেলসি ও ম্যানচেস্টার সিটি। বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী সুপার লিগ ছাড়ার প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে দুই ইংলিশ হেভিওয়েট।

এই দুই ক্লাব ছাড়াও ইংল্যান্ডের দুই শীর্ষ ক্লাব লিভারপুল ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও মাঝ টেবিলের দুই ক্লাব আর্সেনাল ও টটেনহ্যাম হটস্পার আছে ১২দলের জোটে। ক্লাবগুলোর যোগ দেয়ার ঘোষণার পরপরই সমালোচনায় ফেটে পড়ে ফুটবল জগত।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে ইউয়েফা সভাপতি ও সাবেক ও বর্তমান খেলোয়াড় সবাই এই সুপার লিগকে বলছেন ফুটবল ধ্বংসের হাতিয়ার। ফ্যানরা আন্দোলন করেন ক্লাবের স্টেডিয়ামের বাইরে।

চেলসির স্টেডিয়ামের বাইরে মঙ্গলবার প্রায় এক হাজার সমর্থক সুপার লিগে যোগ দেয়ার জন্য ধিক্কার জানান ক্লাব কর্তৃপক্ষকে। চেলসিতে ক্লাব সভা হয় এদিন। বিবিসির মতে সেখানে সিদ্ধান্ত আসতে পারে সুপার লিগ ত্যাগ করার।

একই অবস্থা ম্যানচেস্টার সিটিরও। বর্তমান বিশ্বের অন্যতম ধনী এই ক্লাব সুপার লিগে যোগ দেয়ার দুই দিন পর সেই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেন ক্লাবের ম্যানেজার ও বিশ্বসেরা কোচ পেপ গার্দিওলা।

সুপার লিগের বিপক্ষে গার্দিওলা বলেন সাফল্য নিশ্চিত থাকলে খেলা আর খেলা থাকে না।

‘খেলা আর খেলা থাকে না যখন প্রচেষ্টা ও পুরস্কারের কোনো সম্পর্ক না থাকে।সাফল্য যদি নিশ্চিত হয় বা হার যদি কোনো প্রভাব না ফেলে তাহলে সেটা আর খেলা থাকে না।’

গার্দিওলা ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম স্কাই স্পোর্টসকে মঙ্গলবার বলেন,তার সবসময়ের প্রত্যাশা ছিল প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ প্রিমিয়ার লিগ। নির্দিষ্ট কিছু দলের প্রাধান্য নয়।

‘আমি সবসময়ই চেয়েছি প্রিমিয়ার লিগ সফল হোক। দুই-একটা ক্লাবের সফলতা চাইনি। সুপার লিগ করা হলো কীভাবে করা হলো কেউ কি জানে? আয়াক্স চারবার চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছে তারা কেনো নেই? সুপার লিগের আয়োজকেরা কি পুরো বিশ্বকে জানাবেন কীভাবে তারা এই সিদ্ধান্তে এসেছেন?’

সুপার লিগ ঘোষণার পরদিন ইউয়েফা হুুুঁশিয়ারি দেয় অংশগ্রহণকারী দল ও খেলোয়াড়দের সর্বস্তরের ফুটবল থেকে নিষিদ্ধ করা হবে।

এমন পরিস্থিতিতে চাপে পড়ে ক্লাব দুটি টুর্নামেন্ট ছাড়তে বাধ্য হচ্ছে কি না সেটা নিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে কিছু জানায়নি বিবিসি।

এদিকে, মঙ্গলবার স্পেনের নিম্ন আদালত রায় দেয় সুপার লিগকে মাঠে গড়ানো থেকে রুখতে পারবে না ফিফা ও ইউয়েফা। এক লিখিত রায়ে স্পেনের ওই বানিজ্যিক আদালত এই আদেশ জারি করে বলে জানায় রয়টার্স।

শেয়ার করুন

গোধূলিতে ভাতিজাকে নিয়ে জামালের ফুটবল

গোধূলিতে ভাতিজাকে নিয়ে জামালের ফুটবল

ছবি: সংগৃহীত

মঙ্গলবার ঠিক ইফতারের আগে আগে গোধূলীর সময়টাতে নিজের বাসার পেছনে ছোট্ট ফুটবল মাঠে ভাতিজার সঙ্গে নেমে পড়েছেন। বল নিয়ে তার সঙ্গে খুনসুটিতে মেতে উঠেছেন। কখনও ভাতিজার দু পায়ের ভেতর দিয়ে বল নাটমেগ করার চেষ্টা করছেন।

ইফতারের আগ মুহূর্তে বাসার পেছনে ছোট্ট ‍মাঠে ভাতিজার সঙ্গে ফুটবল খুনসুটিতে মেতে উঠেছেন জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া। ঠিক সূর্য ডুববে ডুববে এমন প্রাকৃতি সৌন্দর্যের সামনে ফুটবলে মজেছেন জেবিসিক্স।

স্বজনদের টানে ডেনমার্কে গিয়ে সময়টা ভালোই কাটছে জাতীয় দলের অধিনায়কের। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে সমর্থকদের সঙ্গে খুশির মুহূর্তগুলো ভাগাভাগি করে নিচ্ছেন এই ফুটবলার।

এই যেমন মঙ্গলবার ঠিক ইফতারের আগে আগে গোধূলীর সময়টাতে নিজের বাসার পেছনে ছোট্ট ফুটবল মাঠে ভাতিজার সঙ্গে নেমে পড়েছেন। বল নিয়ে তার সঙ্গে খুনসুটিতে মেতে উঠেছেন। কখনও ভাতিজার দু পায়ের ভেতর দিয়ে বল নাটমেগ করার চেষ্টা করছেন।

ফেসবুকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সেই মুহূর্তের একটি ভিডিও আপলোড করেছেন জামাল। ক্যাপশনে লেখেন, ‘ইফতারির আগে ১০ বছর বয়সী ভাতিজার সঙ্গে বাসার পেছনের মাঠে ফুটবল খেলছি।’

ভিডিওতে দেখা যায়, চাচা যেমন, ভাতিজাও তেমন। বল পায়ে নিয়ে কারিকুরি করছেন ১০ বছর বয়সী ছেলেটি। জামালকে নাকানিচুবানিও খাওয়াচ্ছেন! ভাতিজার পা থেকে বল কেড়ে নিতে বেশ বেগ পেতে হয়েছে তাকেও। পরিবারে আরও একজন যে ফুটবলার হতে চলেছে সেটা জামালের ভাতিজার ফ্রিস্টাইল দেখে আঁচ করা যাচ্ছে।

ফুটবলের পাশাপাশি নিজের বাগানে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য হাতে কাঁচি তুলে নিতে দেখা গেছে জামালকে। মালির ভূঁমিকায় বাগানে নামার সেই মুহূর্তের ছবি ইন্সটাগ্রামে দিয়েছিলেন জেবিসিক্স।

সবকিছু মিলিয়ে লকডাউনের সময়টা ভালোই কাটছে জামালের।

গেল বছরের নভেম্বরে নেপালের সঙ্গে সিরিজ শেষে ডিসেম্বরে বিশ্বকাপ বাছাই, পরে আই লিগ খেলতে কলকাতার মোহামেডানের হয়ে ভারতে মাস দুয়েক খেলার পর আবারও ত্রিদেশীয় সিরিজে লাল-সবুজের প্রতিনিধিত্ব করতে নেপালে গমন। যেন দম নেয়ার ফুরসত ছিল না জামাল ভূঁইয়ার।

নেপাল থেকে ঢাকায় ফিরে তিন দিনের মাথায় গত ৫ এপ্রিল ডেনমার্কে ফিরে যান জামাল।

শেয়ার করুন