× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

ফুটবল
ইন্টারকে হারিয়ে টিকে থাকল রিয়াল
google_news print-icon

ইন্টারকে হারিয়ে টিকে থাকল রিয়াল

ইন্টারকে-হারিয়ে-টিকে-থাকল-রিয়াল
ইন্টার মিলানকে ২-০ গোলে হারায় রিয়াল। এই জয়ে গ্রুপ বিতে দুই নম্বরে উঠে এসেছে তারা। চার ম্যাচ থেকে তাদের সংগ্রহ সাত। সমান ম্যাচে আট পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে বরুশিয়া মনশেনগ্লাডবাখ। ইউক্রেইনের শাখতার দনেৎস্ককে ৪-০ গোলে হারায় জার্মান ক্লাবটি। ইন্টার আছে শেষে আর শাখতার আছে তিনে।

ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে টিকে থাকল রিয়াল মাদ্রিদ। টুর্নামেন্টের গ্রুপ বিতে ইন্টারনাৎসিওনালকে তারা হারায় ২-১ গোলে।

এই জয়ে নক আউট পর্বে যাওয়ার আশা জিইয়ে রাখল রিয়াল। আরও দুই রাউন্ড খেলা বাকি আছে গ্রুপ পর্বে।

মাঠের নামার আগে দুই দলই সম্মান জানায় প্রয়াত ফুটবল গ্রেট ডিয়েগো ম্যারাডোনাকে।

এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয় তার স্মৃতির উদ্দেশে।
ইন্টারকে হারিয়ে টিকে থাকল রিয়াল

ম্যাচের শুরুতেই প্রতিপক্ষের মাঠে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পায় রিয়াল। পঞ্চম মিনিটে নাচোকে নিজেদের বক্সে ফাউল করেন ইন্টার মিলান ডিফেন্ডার নিকোলা বারেলা।

রেফারি পেনাল্টির নির্দেশ দিলে, স্পট থেকে দলকে এগিয়ে দেন ইডেন অ্যাজার।

চ্যাম্পিয়নস লিগে এই বেলজিয়ান তিন বছর পর গোল করলেন।

ইন্টারকে হারিয়ে টিকে থাকল রিয়াল

পিছিয়ে পড়ার পর আগ্রাসী হয়ে খেলার চেষ্টা করে ইন্টার। কিন্তু ৩৩ মিনিটে ১০ জনের দলে পরিণত হয় তারা।

রিয়ালের বক্সে ডিফেন্ডার রাফায়েল ভারান ফাউল করেন আর্তুরো ভিদালকে। চিলিয়ান মিডফিল্ডার পেনাল্টির আবেদন করলে তাতে সাড়া দেননি রেফারি অ্যান্থনি টেইলর।

রেফারির সিদ্ধান্তে অসন্তোষ জানানোয় ভিদালকে হলুদ কার্ড দেখান তিনি। তবে, ভিদাল তর্ক করে যেতে থাকলে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখিয়ে তাকে মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দেন টেইলর।

বাকি সময়ে ১০ জন নিয়েই ম্যাচ খেলতে হয় ইন্টারকে। ফলে, কিছুটা রক্ষণাত্মক ঢংয়ে খেলতে থাকে আন্তোনিও কন্তের দল।

ম্যাচের নির্ধারণী গোল আসে ৫৯ মিনিটে। লুকাস ভাসকেসের ডান প্রান্ত থেকে করা ক্রসে কাছ থেকে লক্ষ্যভেদ করেন রদ্রিগো। জালে জড়ানোর আগে ইন্টারের আচরাফ হাকিমির পা ছুঁয়ে গেলে আত্মঘাতী হিসেবেই বিবেচিত হয় গোলটি।

এরপর আর কোনো দল স্কোর করতে না পারলে ২-০ ব্যবধানেই ম্যাচ জিতে মাদ্রিদে ফেরে রিয়াল।

এই জয়ে গ্রুপ বিতে দুই নম্বরে উঠে এসেছে রিয়াল। চার ম্যাচ থেকে তাদের সংগ্রহ সাত। সমান ম্যাচে আট পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে বরুশিয়া মনশেনগ্লাডবাখ। ইউক্রেইনের শাখতার দনেৎস্ককে ৪-০ গোলে হারায় জার্মান ক্লাবটি। ইন্টার আছে শেষে আর শাখতার আছে তিনে।

রাতের অন্য ম্যাচে রেডবুল সালজবুর্গকে ৩-১ গোলে হারায় বায়ার্ন মিউনিখ। অঘটন ছিল অ্যানফিল্ডে। নিজেদের মাঠে ইতালির আতালান্তার কাছে ২-০ গোলে হেরে যায় লিভারপুল।

আরও পড়ুন:
টিকে থাকার লড়াইয়ে রাতে মুখোমুখি ইন্টার-রিয়াল
আবারও চোটে রামোস

মন্তব্য

আরও পড়ুন

ফুটবল
Spain has won the Euros a record four times

ইউরোতে রেকর্ড চারবার শিরোপা স্পেনের

ইউরোতে রেকর্ড চারবার শিরোপা স্পেনের মাঠে উচ্ছ্বসিত স্পেন দল। ছবি: ইউএনবি
স্থানীয় সময় রোববার জার্মানির বার্লিনে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচে জয়ের মধ্য দিয়ে চতুর্থবারের মতো ইউরোর শিরোপা জিতল স্পেন।

ইংল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে ইউরোতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে স্পেন।

স্থানীয় সময় রোববার জার্মানির বার্লিনে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচে জয়ের মধ্য দিয়ে চতুর্থবারের মতো ইউরোর শিরোপা জিতল দলটি।

ইউএনবি জানায়, টুর্নামেন্টের সবগুলো ম্যাচ জিতে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে স্পেন।

বার্তা সংস্থাটির খবরে বলা হয়, তারুণ্য, অভিজ্ঞতা, গতি, কৌশল, ভাতৃত্ববোধ ও নান্দনিক ফুটবলের পসরা সাজিয়ে টুর্নামেন্টের শুরুতেই যে নতুন দিনের ফুটবলের আভাস দিয়েছিল স্পেন, তা দিয়েই একের পর এক দলকে ধরাশায়ী করে তারা। শেষ পর্যন্ত ইউরোর শিরোপা উঁচিয়ে ধরল লা রোহা। এর ফলে বদল যাওয়া ফুটবলে নবযুগের সূত্রপাত করল লুইস দে লা ফুয়েন্ত শিষ্যরা।

ইউএনবির খবরে উল্লেখ করা হয়, টানা দ্বিতীয়বার ফাইনালে উঠেও হারের হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে গ্যারেথ সাউথগেটের শিষ্যদের। এর ফলে আরও দীর্ঘ হলো ইংল্যান্ডের ট্রফি জয়ের অপেক্ষা।

ম্যাচের ৪৭ মিনিটে দলকে এগিয়ে দেন চলতি আসরে দুর্দান্ত গতির ফুটবল খেলা নিকো উইলিয়ামস। এরপর ৭৩তম মিনিটে কোল পালমার চকিতে গোল করে দলকে সমতায় ফিরিয়ে ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দিলেও স্পেনের আক্রমণের তোড়ে শেষ পর্যন্ত ভেঙে যায় ইংলিশদের রক্ষণের বাঁধ। ফলে ম্যাচের ৮৬তম মিনিটে মিকেল ওইয়ারসাবালের গোলে এগিয়ে গিয়ে জয়ে ম্যাচ শেষ করে লাল জার্সির ‘ব্যান্ড অব ব্রাদার্স’।

আরও পড়ুন:
যুক্তরাষ্ট্রের স্বপ্নযাত্রা থামিয়ে সেমিতে ইংল্যান্ড
জর্ডানের হ্যাটট্রিকে ১১৫ রানে গুটিয়ে গেল যুক্তরাষ্ট্র
টস জিতে বোলিং করছে ইংল্যান্ড
টস জিতে ব্যাটিংয়ে স্কটল্যান্ড
চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডের সামনে অঘটনের জন্ম দেয়া স্কটল্যান্ড

মন্তব্য

ফুটবল
Argentina won the Copa title with Lautaros goal

বদলি লাউতারোর গোলে কোপার শিরোপা আর্জেন্টিনার

বদলি লাউতারোর গোলে কোপার শিরোপা আর্জেন্টিনার মাঠে আর্জেন্টিনা দলের উচ্ছ্বাস। ছবি: এএফপি
কোপায় জয়ের মধ্য দিয়ে টানা তিনটি বড় আসরের শিরোপা জিতল আর্জেন্টিনা। এর আগে ২০২১ সালে কোপা আমেরিকা এবং ২০২২ সালে বিশ্বকাপ জেতে দলটি।

বদলি হয়ে নামা লাউতারো মার্তিনেজের গোলে কোপা আমেরিকার ফাইনালে ১-০ গোলে জিতেছে আর্জেন্টিনা।

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার মায়ামি গার্ডেনসের হার্ড রক স্টেডিয়ামে স্থানীয় সময় রোববার রাতে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচে জয়ের মধ্য দিয়ে টানা দুইবার কোপার শিরোপা ঘরে তুলল ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর দলটি।

কোপার এবারের আসরের শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে ইনজুরির কারণে মাঠের বাইরে চলে যেতে হয় লিওনেল মেসিকে। এতে শঙ্কায় পড়া আর্জেন্টিনা দলের ত্রাণকর্তার ভূমিকায় আবির্ভূত হন লাউতারো মার্তিনেজ।

ম্যাচের ১১২তম মিনিটে আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে দেন এ স্ট্রাইকার। তার সেই গোলেই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে আলবিসেলেস্তেরা।

ফাইনালে নির্ধারিত ৯০ মিনিটে কোনো দল গোল করতে না পারায় খেলা গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে।

এর আগে ম্যাচের ৬৪তম মিনিটে ইনজুরিতে পড়া মেসিকে বেঞ্চে বসে হাত দিয়ে মুখ ঢাকতে দেখা যায়। পরবর্তী সময়ে গোল করে বেঞ্চে এসে অধিনায়ককে আলিঙ্গন করেন আর্জেন্টিনাকে রেকর্ড ১৬তম বারের মতো শিরোপা এনে দেয়া লাউতারো।

দক্ষিণ আমেরিকার দুই দলের ম্যাচ মানেই বাড়তি উত্তেজনা। এ উত্তেজনার পারদ আরও বাড়িয়ে দেন দর্শকরা। স্টেডিয়ামে দর্শকদের ঝামেলার কারণে ম্যাচ শুরু হয় নির্ধারিত সময়ের ১ ঘণ্টা ২০ মিনিট পর।

কোপায় জয়ের মধ্য দিয়ে টানা তিনটি বড় আসরের শিরোপা জিতল আর্জেন্টিনা। এর আগে ২০২১ সালে কোপা আমেরিকা এবং ২০২২ সালে বিশ্বকাপ জেতে দলটি।

আরও পড়ুন:
মেসির খেলা নিয়ে যা বললেন স্কালোনি
কোপার কোয়ার্টারে কবে কে কার মুখোমুখি
ভিনিসিয়ুসের জোড়া গোলে প্যারাগুয়ের সঙ্গে দাপুটে জয় ব্রাজিলের
লাউতারোর শেষ মুহূর্তের গোলে কোয়ার্টারে আর্জেন্টিনা
কোপায় চালু হচ্ছে ‘গোলাপি কার্ড’

মন্তব্য

ফুটবল
Expectations of Messis coach before the final

ফাইনালের আগে মেসিদের কোচের প্রত্যাশা

ফাইনালের আগে মেসিদের কোচের প্রত্যাশা আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্কালোনি। ছবি: সংগৃহীত
দ্বিতীয় সেমিফাইনালে কলম্বিয়া ও উরুগুয়ের খেলোয়াড় এবং সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের পর ফাইনাল ম্যাচটি নির্বিঘ্নে হওয়ার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন আর্জেন্টিনার কোচ। ফাইনালের আগে মেসিদের কোচ লিওনেল স্কালোনি বলেছেন, ‘মারামারি না হলেই বাঁচি।’

কোপা আমেরিকার শিরোপা ধরে রাখার অভিযানে বাংলাদেশ সময় সোমবার সকাল ৬টায় কলম্বিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামছে আর্জেন্টিনা।

ফাইনালের আগে মেসিদের কোচ লিওনেল স্কালোনি বলেছেন, মারামারি না হলেই বাঁচি।’

দ্বিতীয় সেমিফাইনালে কলম্বিয়া ও উরুগুয়ের খেলোয়াড় এবং সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের পর ফাইনাল ম্যাচটি নির্বিঘ্নে হওয়ার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন আর্জেন্টিনার কোচ।

বৃহস্পতিবার সকালে দ্বিতীয়ার্ধের বেশিরভাগ সময় ১০ জন নিয়ে খেলেও উরুগুয়েকে ১-০ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে কলম্বিয়া। ওই ম্যাচের পর গ্যালারিতে কলম্বিয়ার সমর্থকদের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়ান উরুগুয়ের ফুটবলাররা।

পরবর্তীতে অবশ্য খেলোয়াড়রা অভিযোগ করেছেন, গ্যালারিতে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে বাজে ব্যবহার ও হামলা করায় তাদের রক্ষার্থে ছুটে গিয়েছিলেন তারা।

ফাইনালে তেমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি চান না স্কালোনি।

ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘আশা করব, ভক্তরা উদযাপন করবে। হৃদয় দিয়েই এটি চাই আমি। শিরোপা জিতে শেষটা রাঙিয়ে সবাইকে উদযাপনের সুযোগ করে দেয়া দারুণ ব্যাপার হবে।’

উরুগুয়ের খেলোয়াড় ও তাদের পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা জানিয়ে আর্জেন্টিনার কোচ বলেন, ‘খেলেয়াড়দের সবসময়ই আমি বাকিদের জন্য উদাহরণ হতে বলি। কিন্তু এ ধরনের পরিস্থিতিতে মাথা ঠাণ্ডা রাখা খুবই কঠিন হয়ে যায়।

‘জানি না এখানে কার বা কাদের দোষ ছিল। তবে পরিবারের সদস্যরা বিপদে পড়লে আপনি মরিয়া হয়ে তাদের রক্ষা করতে চাইবেন- এটাই স্বাভাবিক।’

কোপার চলতি আসর শেষেই অবসরে যাওয়ার ঘোষণা দিয়ে রেখেছেন বিশ্বকাপ ফাইনালে আর্জেন্টিনার হয়ে গুরুত্বপূর্ণ গোল করা আনহেল দি মারিয়া। ফলে ফাইনাল ম্যাচটিই নীল-সাদা জার্সিতে তার শেষ ম্যাচ হতে চলেছে।

তবে ফাইনালে দি মারিয়াকে শুরুর একাদশে দেখা যাবে কিনা তা নিয়ে অনিশ্চিত স্কালোনি।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘জানি, এটি তার শেষ ম্যাচ। কিন্তু দলের জন্য যেটি সেরা সিদ্ধান্ত, আমি তা-ই নেব। সে যদি খেলার সুযোগ পায়, তাহলে বুঝতে হবে দলে নিজের জায়গা সে নিজেই করে নিয়েছে। আর যদি তা না হয়, তাহলেও দলের জন্য সেটাই ভালো বলে বিবেচিত হবে।’

তবে দি মারিয়ার শেষটা যাতে সুন্দর হয়, সেই প্রত্যাশাও ঝরেছে কোচের কণ্ঠে- ‘আশা করব, সবকিছু যেন ঠিকঠাক থাকে। আর আনহেল যেন ভালোভাবে তার ক্যারিয়ার শেষ করতে পারে।’

আরও পড়ুন:
ফুটবলের প্রসারে মাধবপুর ব্যারিস্টার সুমন একাডেমির যাত্রা শুরু
চেলসিকে হারিয়ে এফএ কাপের ফাইনালে ম্যানসিটি
ধর্ষণের মামলায় সাজা পাওয়া সাবেক ফুটবলার রবিনহো গ্রেপ্তার
ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের মেয়েরা
ভুটানকে উড়িয়ে দিল বাংলাদেশের মেয়েরা

মন্তব্য

ফুটবল
Spain coach fears ahead of Euro final

ইউরো ফাইনালের আগে স্পেন কোচের ভয়

ইউরো ফাইনালের আগে স্পেন কোচের ভয় স্পেনের কোচ লুইস দে লা ফুয়েন্তে। ছবি: সংগৃহীত
দলীয় পারফরম্যান্সে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে টানা ৬ ম্যাচ জিতে ফাইনালে উঠেছে দে লা ফুয়েন্তের ছোঁয়ায় বদলে যাওয়া স্পেন। তবে ফাইনাল ম্যাচ বলে কথা। শিষ্যরা আবার খেই হারিয়ে না বসে সেই ভয়টাই পাচ্ছেন স্পেনিশ কোচ।

কয়েক ঘণ্টার অপেক্ষা। এরপরই ইউরোপসেরার শিরোপা উঁচিয়ে ধরবে স্পেন ও ইংল্যান্ডের কোনো একটি দল। টুর্নামেন্টজুড়ে অসাধারণ ফুটবল খেলে ফাইনালে উঠলেও প্রতিপক্ষকে যথেষ্ট সমীহ করছেন স্পেন কোচ লুইস দে লা ফুয়েন্তে।

তবে মাঠে সেরাটা বের করে আনতে নিজেদের পরিচয়ের দিকেই মনোযোগ দিতে চান ৬৩ বছর বয়সী এই স্প্যানিশ কোচ। তিনি মনে করেন, আক্রমণাত্মক ও নান্দনিক ফুটবল খেলে যে আত্মপরিচয় তৈরি করেছে তার দল, ফাইনালেও তা ধরে রাখতে পারলে শিরোপা ঘরে আসবে।

দলীয় পারফরম্যান্সে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে টানা ৬ ম্যাচ জিতে ফাইনালে উঠেছে দে লা ফুয়েন্তের ছোঁয়ায় বদলে যাওয়া স্পেন। তবে সেমিফাইনালে একাদশের বেশ কয়েকজন ফুটবলারের অনুপস্থিতিতে রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলে তারা। ফলে শক্তি ও প্রতিভায় ভরা ফ্রান্সের সামনে বেশ ভুগতে হয় দলটির। ফাইনালে আবার যেন শিষ্যরা খেই হারিয়ে না বসে, সেই ভয়টাই পাচ্ছেন দে লা ফুয়েন্তে।

ফাইনালের চাপ, প্রত্যাশা ও নানা সমীকরণে মাঠের খেলায় বদলে যায় অনেক কিছুই। তবে নিজেদের হারিয়ে বসলেই বিপদ বলে মনে করছেন দে লা ফুয়েন্তে। তার আশা, নিজেদের পরিচিত ফুটবলই যেন খেলে শিষ্যরা।

ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে লুইস দে লা ফুয়েন্তে বলেছেন, ‘আমরা যদি স্পেন হয়ে উঠতে না পারি, তাহলে কোনো সুযোগই নেই। নিজেদের উন্নতি করতে আমরা যথেষ্ট পরিশ্রম করেছি। রোববারও সে ধারা অব্যাহত রাখতে চাই। তবে অবশ্যই নিজেদের পরিচয় ধরে রেখে।

‘ফুটবলে বিভিন্ন কৌশল আছে, আছে শৈলীও। আমাদের সামনে প্রতিপক্ষও কোনো একটি কৌশলে খেলবে। তবে আমাদের পরিকল্পনা দৃঢ়, নিজেদের ফুটবলই খেলতে হবে।’

তবে মাঠের পরিস্থিতির ওপর অনেক কিছু নির্ভর করে, তাও মাথায় আছে দে লা ফুয়েন্তের।

‘আমরা অবশ্যই আমাদের সহজাত ফুটবল খেলব। তবে যদি (কৌশলে) কোনো পরিবর্তন আসে, তা খেলার বিশেষ কোনো পরিস্থিতির কারণে আসবে। এর মানে এই নয় যে, আমরা কৌশল পাল্টে ফাইনাল খেলছি।’ যোগ করেন তিনি।

চলতি ইউরো আসরে স্পেনই একমাত্র দল, যারা সবগুলো ম্যাচ জিতেছে। জয়ের এই ধারায় আক্রমণাত্মক, ছন্দময়, কার্যকর ও গতিময় আধুনিক ফুটবল উপহার দিয়েছে দর্শককে। ‘হাই প্রেসিং’ ও ‘ওয়ান টাচ’ ফুটবলে খুব দ্রুত সিদ্ধান্ত নিয়ে আক্রমণে ওঠে দলটি। লুইস আরাগোনেস ও ভিসেন্তে দেল বস্কের পর লুইস দে লা ফুয়েন্তের হাত ধরে ফের এমন নান্দনিক ফুটবল উপহার দিচ্ছে স্পেন।

এই আসরে ছয় ম্যাচে মোট ১০৮টি শট নিয়েছে স্পেন, যার ৩৭টি ছিল লক্ষ্যে। এ থেকে গোল পেয়েছে ১৩টি। এর সবগুলো সংখ্যাই যে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। অন্যদিকে, টুর্নামেন্টজুড়ে ইংল্যান্ডের মোট ৬৬টি শটের ১৯টি ছিল লক্ষ্যে।

পরিসংখ্যান থেকে দল দুটির কৌশল বিপরীতমুখী এবং ইংল্যান্ডকে কিছুটা দুর্বল মনে হলেও নিজেদের ফেভারিট মানতে নারাজ দে লা ফুয়েন্তে।

‘আমরা জানি, ফাইনালে কোনো ফেভারিট নেই। দুই দলের ভারসাম্যই সঠিকভাবে আছে। কে ফেভারিট তা জুয়াড়িরাই নির্ধারণ করুক।

‘কারণ আমরা জানি, যদি নিজেদের সেরাটা না খেলতে পারি, তাহলে এতদিনের পরিশ্রম মূল্যহীন হয়ে যাবে। তবে আমি এও জানি যে, ছেলেরা সবাই জানে- মাঠে কী করতে হবে। আর তারা সেটাই করবে।’

দারুণ ফুটবল খেলে এতদূর আসতে পেরে খুশি দে লা ফুয়েন্তে। ফাইনালে ওঠার কৃতিত্ব টিমকেই দিতে চান তিনি।

‘যেভাবে আমরা ফাইনালে উঠেছি, তাতে আমি গর্বিত। এখানে পৌঁছাতে কেউই আমাদের ছেড়ে কথা বলেনি। তাই গর্ববোধ করার অধিকার আমাদের আছে।’

ভালো ফুটবল খেললেও এই দলটি এখনও কিছু জিতে দেখাতে পারেনি। তাই ফাইনালকে বিশেষ গুরুত্বের সঙ্গেই দেখছেন কোচ।

‘অসাধারণ একটি প্রজন্ম এটি। আমাদের বর্তমান আলোকিত, ভবিষ্যতও উজ্জ্বল। আমরা ইতিহাস গড়তে চাই। জাতীয় দলের সবাই যখন দেশের প্রতি নিবেদিত থাকে, তখন ব্যাপারটি দারুণ হয়। স্পেনকে ইউরোর ইতিহাসের সেরা দলে পরিণত করার সুযোগ আছে এই দলের সামনে।’

ইতোমধ্যে তিনটি শিরোপা জিতে জার্মানির সঙ্গে সর্বোচ্চ ইউরো জয়ের রেকর্ড ভাগাভাগি করছে স্পেন। রোববারের ফাইনাল জিতলে চতুর্থবার চ্যাম্পিয়ন হয়ে রেকর্ডটি নিজেদের করে নেবে লুইস দে লা ফুয়েন্তের শিষ্যরা।

অপরদিকে, ফুটবলের আঁতুরঘর হলেও ইউরোপসেরার মুকুট কখনও পরা হয়নি ইংল্যান্ডের। গতবার ইতালির কাছে ফাইনালে টাইব্রেকারে হেরে তীরে গিয়েও তরী ডোবে গ্যারেথ সাউথগেটের শিষ্যদের।

তবে টানা দ্বিতীয়বারের মতো এবারও ফাইনালে উঠেছে ইংল্যান্ড। গতবারের ভুলভ্রান্তি ঘুচিয়ে তাই এবার ইউরো শিরোপা উঁচিয়ে ধরতে চাইবে তারাও।

আরও পড়ুন:
চেলসিকে হারিয়ে এফএ কাপের ফাইনালে ম্যানসিটি
ধর্ষণের মামলায় সাজা পাওয়া সাবেক ফুটবলার রবিনহো গ্রেপ্তার
ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের মেয়েরা
ভুটানকে উড়িয়ে দিল বাংলাদেশের মেয়েরা
জয় দিয়ে সাফ শুরু বাংলাদেশের

মন্তব্য

ফুটবল
Islami Bank is the champion in Sheikh Hasina Interbank Football Tournament

শেখ হাসিনা আন্তঃব্যাংক ফুটবল টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন ইসলামী ব্যাংক

শেখ হাসিনা আন্তঃব্যাংক ফুটবল টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন ইসলামী ব্যাংক সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে ট্রফি গ্রহণ করেন বিজয়ী দলের অধিনায়ক। ছবি: নিউজবাংলা
ব্যাংক কর্মকর্তাদের নিয়ে বিএবি দ্বিতীয়বারের মতো এ টুর্নামেন্টের আয়োজন করে। দেশের ৩১টি বেসরকারি ব্যাংক এবারের টুর্নামেন্টে অংশ নেয়।

শেখ হাসিনা আন্তঃব্যাংক ফুটবল টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ পিএলসি।

রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে শনিবার অনুষ্ঠিত ফাইনালে ইসলামী ব্যাংক ২-০ গোলে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক পিএলসিকে হারিয়ে শিরোপা অর্জন করে।

সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে ট্রফি গ্রহণ করেন ইসলামী ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মুহাম্মদ মুনিরুল মওলা, ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. আকিজ উদ্দীন ও কাজী মো. রেজাউল করিমসহ দলীয় অধিনায়ক।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকস (বিএবি) চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম মজুমদার।

ওই সময় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী নাজমুল হাসান, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আবদুর রউফ তালুকদার ও টুর্নামেন্ট আয়োজক কমিটির সভাপতি একেএম নুরুল ফজল বুলবুল উপস্থিত ছিলেন।

ব্যাংক কর্মকর্তাদের নিয়ে বিএবি দ্বিতীয়বারের মতো এ টুর্নামেন্টের আয়োজন করে। দেশের ৩১টি বেসরকারি ব্যাংক এবারের টুর্নামেন্টে অংশ নেয়।

টুর্নামেন্টে সার্বিক সহযোগিতা করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সেনা ক্রীড়া নিয়ন্ত্রণ বোর্ড।

সমাপনী অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন নির্বাহী ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:
সাংবাদিকদের বর্জনের মধ্যে অনলাইনে মুদ্রানীতি প্রকাশ করবে বাংলাদেশ ব্যাংক
রূপালী ব্যাংক ও পেনশন কর্তৃপক্ষের সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর
ঋণমুক্ত হওয়ার পথ সহজ করল বাংলাদেশ ব্যাংক
রপ্তানি তথ্যে অসঙ্গতির জন্য দায়ী এনবিআর ও ইপিবি
এক বছরে ১৩ বিলিয়ন ডলার বিক্রি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক

মন্তব্য

ফুটবল
Governments support for football development will continue PM

ফুটবলের উন্নয়নে সরকারের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে: প্রধানমন্ত্রী

ফুটবলের উন্নয়নে সরকারের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে: প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শনিবার বাংলাদেশ আর্মি স্টেডিয়ামে শেখ হাসিনা আন্তঃব্যাংক ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচ উপভোগ শেষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন। ছবি: সংগৃহীত
শেখ হাসিনা বলেন, ‘যখন সরকারে এসেছি তখন থেকেই আমার প্রচেষ্টা, বাংলাদেশ যেন খেলাধুলায় আরও এগিয়ে যায়। দেশের প্রতিটি উপজেলায় আমরা খেলার মাঠ করে দিচ্ছি, সেটা হলো শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম। চেষ্টা করে যাচ্ছি সবাই যেন খেলাধুলার প্রতি আরও মনোযোগী হয়।’

দেশে ফুটবলের উন্নয়নে সরকারের সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার বাংলাদেশ আর্মি স্টেডিয়ামে শেখ হাসিনা আন্তঃব্যাংক ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচ উপভোগ শেষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘খেলাধুলার মাধ্যমে নিজেকে দেশের জন্য প্রস্তুত করে তোলা যায়। এজন্য প্রত্যেক উপজেলায় মিনি স্টেডিয়াম গড়ে তোলা হচ্ছে। সময় পেলে আমি নিজেও ফুটবল খেলা উপভোগ করি।

‘আমার বাবা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ফুটবল খেলতেন। আমার ভাই শেখ কামাল এবং শেখ জামালও ফুটবল খেলতেন। এখন আমাদের নাতি-নাতনীরাও ফুটবল খেলছে।’

তিনি বলেন, ‘খেলাধুলা, সংস্কৃতি চর্চা এগুলোর পৃষ্ঠপোষকতা না করলে হয় না। এমন আয়োজনের মাধ্যমে ভালো খেলোয়াড় তৈরি হবে, যাতে করে দেশের ভাবমূর্তিও উজ্জ্বল হতে পারে বিশ্ব-পরিমণ্ডলে। একদিন আমাদের খেলোয়াড়রাও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পারদর্শিতা দেখাবে।’

খেলাধুলার প্রসারে সরকারের নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ‘যখন সরকারে এসেছি তখন থেকে আমার প্রচেষ্টা, বাংলাদেশ যেন খেলাধুলায় আরও এগিয়ে যায়; ছেলেমেয়েরা আরও বেশি মনোযোগী হয়। বাংলাদেশের প্রতিটি উপজেলায় আমরা খেলার মাঠ করে দিচ্ছি, সেটা হলো শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম। চেষ্টা করে যাচ্ছি সবাই যেন খেলাধুলার প্রতি আরও মনোযোগী হয়।’

প্রশিক্ষণের ওপর গুরুত্বারোপ করে সরকারপ্রধান বলেন, প্রশিক্ষণের মাধ্যমে খেলোয়াড়দের উপযুক্ত করে গড়ে তোলা, এটা সবচেয়ে বেশি দরকার। সেজন্য আমরা প্রত্যেক বিভাগে একটি করে বিকেএসপি করে দিচ্ছি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা আমাদের অর্থনীতিকে উন্নত করেছি। দারিদ্র্যের হার অর্ধেকের বেশি কমিয়ে এনেছি, এখন ১৮ দশমিক ৭ ভাগ। অতিদারিদ্র্যের হার ২৫ ভাগের উপরে ছিল, তা ৫ দশমিক ৬ ভাগে নামিয়ে এনেছি। ইনশাল্লাহ, এটুকুও থাকবে না। বাংলাদেশে কোনো মানুষ অতিদরিদ্র থাকবে না। প্রত্যেককে বিনা পয়সায় ঘর করে দিচ্ছি, লেখাপড়ার বই দিচ্ছি, বৃত্তি দিচ্ছি- সব ধরনের সহযোগিতা করে যাচ্ছি।’

শেখ হাসিনা আশা প্রকাশ করে বলেন, ‘আন্তর্জাতিক পর্যায়েও বাংলাদেশ যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে, এই ধারা অব্যাহত রেখে আমরা এগিয়ে যাব। বাংলাদেশ অপ্রতিরোধ্য গতিতে বিশ্ব দরবারে এগিয়ে যাবে উন্নত-সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশ হিসেবে।’

খেলাধুলায় বাংলাদেশ ভালো করছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সারা বাংলাদেশে মেয়েদের বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট এবং ছেলেদের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ফুটবল টুর্নামেন্ট প্রতিযোগিতা আছে। সেখান থেকে ধীরে ধীরে ভালো খেলোয়াড় উঠে আসছে। তারা শুধু দেশে না, দেশের মাটি পার হয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাংলাদেশের জন্য মর্যাদা বয়ে নিয়ে আসছে। বাংলাদেশকে খেলাধুলার মাধ্যমে বিশ্বের কাছে তুলে ধরা, এটা তারা করছে।’

ফুটবল টুর্নামেন্টটি আয়োজনের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনকে ধন্যবাদ জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এই খেলাধুলার মধ্য দিয়ে এক সময় উপযুক্ত খেলোয়াড় গড়ে উঠবে। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে খেলাধুলা করে কোনোদিন হয়ত বিশ্ব ফুটবলে আমরা চ্যাম্পিয়নও হয়ে যেতে পারি। সেটাই আমাদের প্রচেষ্টা থাকবে।’

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান ও বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অফ ব্যাংকসের (বিএবি) চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মজুমদার।

টুর্নামেন্টের ফাইনালে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানিকে ২-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ইসলামী ব্যাংক প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এর আগে ফাইনাল ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধ এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।

আরও পড়ুন:
২১ সহযোগিতা নথিতে সই ঢাকা-বেইজিংয়ের
বাংলাদেশ-চীন প্রতিনিধি পর্যায়ের বৈঠক শুরু
ঋণের সুদ হার কমাতে এআইআইবির প্রতি শেখ হাসিনার আহ্বান
সময় এখন বাংলাদেশে বিনিয়োগের: চীনা ব্যবসায়ীদের প্রধানমন্ত্রী
বেইজিংয়ে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

মন্তব্য

ফুটবল
Argentinas opponent in the Copa final is Colombia

কোপার ফাইনালে আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ কলম্বিয়া

কোপার ফাইনালে আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ কলম্বিয়া কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে বুধবার উরুগুয়ের বিপক্ষে গোল উদযাপন করেন কলম্বিয়ার মিডফিল্ডার জেফারসন লেরমা। ছবি: এএফপি
যুক্তরাষ্ট্রের নর্থ ক্যারোলিনার শার্লটে স্থানীয় সময় বুধবার অনুষ্ঠিত ম্যাচে দ্বিতীয়ার্ধে ১০ জনের দল নিয়েও জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়ে কলম্বিয়া।

কোপা আমেরিকার দ্বিতীয় সেমিফাইনালে উরুগুয়েকে ১-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে পৌঁছেছে কলম্বিয়া।

এর ফলে কোপার এবারের আসরের ফাইনালে প্রতিপক্ষ হিসেবে কলম্বিয়াকে পাচ্ছে আর্জেন্টিনা।

যুক্তরাষ্ট্রের নর্থ ক্যারোলিনার শার্লটে স্থানীয় সময় বুধবার অনুষ্ঠিত ম্যাচে দ্বিতীয়ার্ধে ১০ জনের দল নিয়েও জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়ে কলম্বিয়া।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়, কোপার ফাইনালের আগে অনুষ্ঠিত ম্যাচটি শেষ হয় কলম্বিয়ার সমর্থকদের সঙ্গে উরুগুয়ের ফুটবলারদের মুখোমুখি হওয়ার মধ্য দিয়ে। ওই সময় শৃঙ্খলা ফেরাতে হিমশিম খেতে হয় নিরাপত্তাকর্মীদের।

এ ঘটনার তদন্তে চলছে বলে জানিয়েছে দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা কনমেবল।

ম্যাচটি দেখতে স্টেডিয়ামে আসা ৭০ হাজারের বেশি দর্শকের বড় অংশ ছিল কলম্বিয়ার। তারা শুরু থেকেই মাঠ গরম রাখেন।

গোটা ম্যাচে ব্যবধান গড়া গোলটি করেন কলম্বিয়ার মিডফিল্ডার জেফারসন লেরমা। অন্যদিকে দলকে এগিয়ে নেয়ার তিনটি দারুণ সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি উরুগুয়ের ফরোয়ার্ড ডারউইন নুনেজ।

সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে না পারার খেসারত হারের মধ্য দিয়ে দিতে হয়েছে দক্ষিণ আমেরিকার দলটিকে।

আরও পড়ুন:
ভিনিসিয়ুসের জোড়া গোলে প্যারাগুয়ের সঙ্গে দাপুটে জয় ব্রাজিলের
লাউতারোর শেষ মুহূর্তের গোলে কোয়ার্টারে আর্জেন্টিনা
কোপায় চালু হচ্ছে ‘গোলাপি কার্ড’
কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনার প্রাথমিক দল ঘোষণা
কলম্বিয়ায় ভূমিধসে ৩৩ প্রাণহানি

মন্তব্য

p
উপরে