20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
জয়ের চেয়ে ফুটবল ফেরা গুরুত্বপূর্ণ বাফুফের কাছে

জয়ের চেয়ে ফুটবল ফেরা গুরুত্বপূর্ণ বাফুফের কাছে

১৩ ও ১৭ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে নেপালের সঙ্গে দুটো আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ম্যাচে জয়ের থেকেও দেশের মাটিতে ফুটবল ফেরাটাই গুরুত্ব বেশি পাচ্ছে বাফুফের জাতীয় দলের কমিটি ও কোচদের কাছে।

নভেম্বরে নেপালের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের প্রস্তুতি শুরু করতে চায় বাংলাদেশ। প্রায় এক বছর পর আন্তর্জাতিক ফুটবল ফিরছে। নেপাল ম্যাচে জয়ের থেকেও দেশের মাটিতে ফুটবল ফেরাটাই গুরুত্ব বেশি পাচ্ছে বাফুফের জাতীয় দলের কমিটি ও কোচদের কাছে।

সাত মাস পরে আন্তর্জাতিক ম্যাচ দেশের ফুটবলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ মনে করছেন ন্যাশনাল টিমস কমিটির চেয়ারম্যান কাজী নাবিল আহমেদ। এক অনলাইন সংবাদ সম্মলনে বুধবার তিনি বলেন, ‘৭ মাস ফুটবল প্রাকটিসের মধ্যে নেই। কোচরা আলাদা নির্দেশনা দিয়ে গেছে। আমরা জেতার জন্য নামব। তবে জেতাই সব কথা নয়। ফুটবল ফেরানোই সবচেয়ে বড় কথা।‘

জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু হচ্ছে ২৪ অক্টোবর থেকে। প্যান ফ্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ে আইসোলেশনে থাকবেন ফুটবলাররা। সেখান থেকেই বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুশীলন করবে স্কোয়াড তারা। জাতীয় দলের বিদেশি কোচিং স্টাফ দলের সঙ্গে যোগ দিবেন ২৯ অক্টোবর।

এই সময়ের মধ্যে নেপাল ম্যাচের জন্য ফুটবলারদের উপযুক্ত করে তোলার বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী জাতীয় দলের প্রধান কোচ জেমি ডে। বলেন, ‘অনেকদিন পর মাঠে ফেরাটাই হলো বড় কথা। অনেকদিন থেকেই ফুটবলাররা মাঠে নেই। তাদের নিয়ে প্রস্তুতি শুরু করব। ফিটনেসের কাজ করে ম্যাচের জন্য উপযুক্ত করে তোলার চেষ্টা করবো। অনেকদিন থেকেই ফিটনেসের জন্য তাদের নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে।’

জেমি_ডে

দুটো ম্যাচকে বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে দেখছেন জেমি, ‘পরের বছর খুবই ব্যস্ত বছর যাবে ফুটবলে। তাই এই ম্যাচ দুটো বিশ্বকাপ বাছাইয়ের প্রস্তুতি হবে আশা করি।‘

২০ দিনের ক্যাম্পে বাংলাদেশকে প্রস্তুত করার বিষয়ে জানালেন সহকারি কোচ স্টুয়ার্ট পল ওয়াটকিস। বলেন, ‘ফিটনেস লেভেল কোথায় আছে সেটা দেখতে হবে। ক্লাবের খেলা ছিল। জাতীয় দলের খেলা ছিল না। তাই ফিটনেস প্রোগ্রাম দিয়ে শুরু করতে হবে। ফিটনেস কোচ এটা নিয়ে কাজ করবেন। তারপর চলে যেতে হবে টেকনিক্যাল ও ট্যাকটিক্যাল প্রোগ্রামে।’

ক্যাম্পকে সামনে রেখে ৩৬ সদস্যের প্রাথমিক দল ঘোষণা করেছে ফেডারেশন। ২৩ অক্টোবর রিপোর্টিং করবেন ফুটবলাররা। ২৪ তারিখ থেকে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম ও কমলাপুরস্থ বীর শ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে অনুশীলন করবেন ফুটবলাররা। নেপাল দল অনুশীলন করবে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের ট্রেনিং গ্রাউন্ডে।

১৩ ও ১৭ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে নেপালের সঙ্গে দুটো আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। কোভিড প্রটোকল মেনে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে জানান টিমস কমিটির চেয়ারম্যান।

নাবিল বলেন, ‘সবাই কোভিড টেস্ট করে ক্যাম্পে আসবে। আমাদের বৈঠক আছে আন্ত: মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে। সরকারের নির্দেশনা মেনে আমাদের ফলো করতে হবে। বৈঠকে স্বাস্থ্যকর্মকর্তারা থাকবেন। তাদের নির্দেশনা মেনেই আগাব। উদ্দেশ্য একটাই প্রতিপক্ষ দল ও আমাদের দলকে নিরাপদ রাখা। খেলাটা সুন্দরভাবে করা।’

শেয়ার করুন

মন্তব্য