আমরা যে জায়গায় আছি তা বঙ্গবন্ধুর কারণে: কাজী সালাউদ্দিন

আমরা যে জায়গায় আছি তা বঙ্গবন্ধুর কারণে: কাজী সালাউদ্দিন

বঙ্গবন্ধুর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বাফুফের টানা চারবারের সভাপতি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা উনার কাছে কৃতজ্ঞ একটি দেশ স্বাধীন করে দিয়েছেন। আমরা এখানে এসেছি। মোনাজাত করেছি।'

নতুন কমিটির সদস্যদের নিয়ে রাজধানীর ধানমন্ডিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন।

সোমবার দুপুরে শ্রদ্ধা জানানোর পর বঙ্গবন্ধুর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বাফুফের টানা চারবারের সভাপতি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা উনার কাছে কৃতজ্ঞ একটি দেশ স্বাধীন করে দিয়েছেন। আমরা এখানে এসেছি। মোনাজাত করেছি।

‘বঙ্গবন্ধু ও গোটা পরিবারকে আল্লাহতায়ালা বেহেশতের সবচেয়ে ভালো জায়গায় রাখেন- এই দোয়া করি। আজ আমরা যে জায়গায় আছি তা বঙ্গবন্ধুর কারণে। উনি যদি দেশ স্বাধীন না করতেন আমরা কে কোথায় থাকতাম কেউ জানি না।’

মুক্তিযুদ্ধের প্রসঙ্গ টেনে সালাউদ্দিন বলেন, ‘একাত্তরে আমাদের যুদ্ধ করতে যখন বললেন বঙ্গবন্ধু তখনই আমরা ঝাঁপিয়ে পড়েছি। উনার ডাকে দেশ স্বাধীন হয়েছে, স্বাধীন দেশের নাগরিক হয়ে আজ আমরা ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি, সিনিয়র সহ সভাপতিসহ অন্য পদে আসতে পেরেছি।
‘দেখেন আজ আমি সাফেরও (দক্ষিণ এশীয় ফুটবল ফেডারেশন) সভাপতি। বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ স্বাধীন করে দিয়েছেন বলেই তো হতে পেরেছি।’

বাফুফের চারবারের নির্বাচিত সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কারণে একটি লাল-সবুজ পতাকা পেয়েছি। আমি মনে করি, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা চতুর্থবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হয়ে দেশকে এগিয়ে নিচ্ছেন। তিনি শুধু ব্যবসা বা শ্রমবান্ধব নন, ক্রীড়াবান্ধবও।’

চারবারের সহসভাপতি ও আবাহনী লিমিটেডের ভারপ্রাপ্ত ডিরেক্টর ইনচার্জ কাজী নাবিল আহমেদ বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতিবিজড়িত ৩২ নম্বর রোডের বাড়িটিতে এলে অবশ্যই তার কথা আমাদের মনে পড়ে।

‘মনে পড়ে তার অনুপ্রেরণা, মুক্তিযুদ্ধের ডাক, পরিবারের অবদান। যে পরিবারের সকলেই ফুটবলের সঙ্গে জড়িত। বিশেষ করে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তিনি আমাদের আবাহনীর প্রতিষ্ঠাতা শেখ কামালের বড় বোনই শুধু নন, নিজেও আবাহনীর প্রতিষ্ঠাতা সদস্যদের অন্যতম।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা অবশ্যই এই ক্রীড়ামোদী পরিবারের অবদান স্মরণ করলে অনুপ্রেরণা পাই। আমরা চাই তাদের আদর্শকে ধারণ করে ক্রীড়াঙ্গন বিশেষ করে ফুটবলকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে যেতে। একটি উজ্জ্বল ভবিষ্যতের দিকে।’

শেয়ার করুন

মন্তব্য