20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
সভাপতি ছাড়াই সমন্বিত প্যানেলের ইশতেহার

ইশতেহার ঘোষণা করেছে আসলাম-মহি নেতৃত্বে গঠিত সমন্বয় পরিষদ।

সভাপতি ছাড়াই সমন্বিত প্যানেলের ইশতেহার

সম্প্রতি এই প্যানেলের অধিকাংশ প্রার্থী তরফদার রুহুল আমিনকে সরাসরি সমর্থন দিয়েছেন। পরে তরফদার ও বাদল রায় নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালে ওই পদ ফাঁকা রেখে প্যানেল ঘোষণা দিয়েছে আসলাম-মহি সমন্বিয় পরিষদ।

সালাউদ্দিন-মুর্শেদী প্যানেলের বিরোধী সমন্বিত ফুটবল প্যানেল পরিষদের আয়োজনে দেখা গেল শফিকুল ইসলাম মানিককে। স্বতন্ত্রপ্রার্থী হিসেবে সভাপতি পদে যিনি বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

পাশে জেলা ও বিভাগের ডেলিগেটরা বসে। এদিকে মানিকের সামনে, সভাপতি পদ ছাড়াই প্যানেল পরিচিতি ও ইশতেহার ঘোষণা করেছে আসলাম-মহির নেতৃত্বে গঠিত সমন্বয় পরিষদ।

শীর্ষ পদের প্রার্থী ছাড়াই নির্বাচনে দাঁড়িয়ে রাজধানীর একটি হোটেলে কাউন্সিলরদের আশ্বাস দিয়েছেন সমন্বয় পরিষদের প্রার্থীরা।

তবে খটকা ছিল সালাউদ্দিনের বিপক্ষে একই পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা শফিকুল ইসলাম মানিককে দেখে। তাহলে কি মানিককে নিয়েই প্যানেল ঘোষণা করে দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল সমন্বয় পরিষদের?
BFF president Kazi Salauddin
বাফুফের বর্তমান সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন

শেষ পর্যন্ত তা আর হয়নি। সভাপতি পদ ছেড়েই নির্বাচনে যাচ্ছেন তারা। সঙ্গে অনুষ্ঠানের মাধ্যমে কাউন্সিলরদের সামনে ২৪ দফা ইশতেহার ঘোষণা করেছেন।

জাতীয় দলকে নিয়ে ১২ বছরের দীর্ঘমেয়াদী কর্মপরিকল্পনা ছাড়াও বয়সভিত্তিক ফুটবলকে জোর দিয়েছে এই প্যানেল। সঙ্গে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগকে ঢেলে সাজানোর বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছে ইশতেহারে।

সভাপতি ছাড়াই কেন প্যানেল ঘোষণা করতে হলো সেই ব্যাখ্যা দিয়েছেন নির্বাচনে সহ-সভাপতি প্রার্থী মহিউদ্দিন মহি।

'আমরা সভাপতি পদটি খালি রেখেছি। কাউকে সমর্থন করছি না। আমরা মনে করি, নির্বাচনে যদি সংখ্যাগরিষ্ঠ আসতে পারি তাহলে কাজ করার সুযোগ থাকবে। তখন সভাপতি এককভাবে কিছু করতে পারবে না। তাই আমরা এখানে সভাপতি পদটি উন্মুক্ত রেখেছি। ১৯ জনের বাইরে আমাদের কোনো প্রার্থী নেই।'

সম্প্রতি এই প্যানেলের অধিকাংশ প্রার্থী তরফদার রুহুল আমিনকে সরাসরি সমর্থন দিয়েছেন। পরে তরফদার ও বাদল রায় নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালে ওই পদ ফাঁকা রেখে প্যানেল ঘোষণা দিয়েছে আসলাম-মহি সমন্বিয় পরিষদ।

একা সভাপতি কিছু করতে পারবে না উল্লেখ করলেও, ৩ অক্টোবর নির্বাচনে প্যানেলের প্রার্থীর জয় নিয়ে আত্মবিশ্বাসী সিনিয়র সহ-সভাপতি প্রার্থী শেখ মোহাম্মদ আসলাম।

‘আমাদের প্যানেলে যারা আছেন তারা পরীক্ষিত সৈনিক। জেলা-বিভাগ ও ক্লাবের প্রতিনিধিরা আছেন। আগেও তারা পাস করে এসেছেন। এবারও আশা করছি জিতবেন।’

শফিকুল ইসলাম মানিকের কাছে এই প্যানেলে যোগ দেয়ার সুযোগ থাকার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এই প্যানেল আগে থেকেই সভাপতি পদ ছাড়াই নির্বাচনে যাবে বলেছে। সো এখানে বলার কিছু থাকে না। আমি কাউন্সিলরদের সঙ্গে দেখা করতে এসেছি। এবং ফুটবল উন্নয়নে কারা কেমন ইশতেহার দিচ্ছেন সেটা পর্যবেক্ষণ করছি।

শেয়ার করুন