জাপানে ভূমিধস: দুই জনের মৃত্যু, নিখোঁজ ২০

জাপানে ভূমিধস: দুই জনের মৃত্যু, নিখোঁজ ২০

জাপানে ভূমিধসের ঘটনায় দুই জনের মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়েছে। ছবি: এএফপি

শনিবার সকালে প্রবল বৃষ্টিপাতের সময় ওই ভূমিধসে কমপক্ষে ১০টি বাড়ি ধসে গেছে। অন্তত দুই শতাধিক উদ্ধারকর্মী নিখোঁজদের সন্ধানে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। এই অঞ্চলটি ঢালু ছিল ও সেখানে অনেক বসতি ও আবাসিক হোটেল গড়ে উঠেছিল।

জাপানের শিজুওকা রাজ্যের আতামি শহরে ভূমিধসের ঘটনায় এখন পর্যন্ত দুই জনের মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়েছে। নিঁখোজ রয়েছে কমপক্ষে ২০ জন।

রাষ্ট্রীয় সম্প্রচার মাধ্যম এনএইচকে জানিয়েছে, শনিবার সকালে প্রবল বৃষ্টিপাতের সময় ওই ভূমিধসে কমপক্ষে ১০টি বাড়ি ধসে গেছে।

অন্তত দুই শতাধিক উদ্ধারকর্মী নিখোঁজদের সন্ধানে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। এই অঞ্চলটি ঢালু ছিল ও সেখানে অনেক বসতি ও আবাসিক হোটেল গড়ে উঠেছিল।

রাজধানী টোকিও থেকে ১০০ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমের রাজ্য শিজুওকার আতামি শহরে এই ভূমিধস ঘটে।

ভূমিধসের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, আতামি শহরে বৃষ্টিপাতের সময়ই ব্যাপক ওই ভূমিধস হয়। মুহূর্তের মধ্যেই বেশ কয়েকটি বাড়িঘর থেকে শুরু করে গাড়ি মাটির নিচে চাপা পড়ে। অনেক মানুষ প্রাণ বাঁচাতে সেখান থেকে ছুটে পালাতেও দেখা যায়।

ভিডিওতে এক নারীকে বলতে শোনা যায়, এটা খুবই ভয়ানক। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই আকস্মিক বন্যা চলে আসে।

আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, পুলিশ ও ফায়ারফাইটাররা নিখোঁজ ব্যক্তিদের উদ্ধারে কাজ করছেন।

ভূমিধসের পর শিজুওয়া সরকার দেশটির কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে জরুরি পরিস্থিতিতে সহায়তা চেয়েছে।

ঘটনাস্থলের পাশে থাকা রেলওয়ে সেবা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। উদ্ধারকর্মী ও জরুরি সেবার কর্মীরা সেখানে উদ্ধারকাজ পরিচালনা করছেন।

এনএইচকে বলছে, গত ৪৮ ঘণ্টায় সিজুওকা প্রদেশে রেকর্ড বৃষ্টিপাত হয়েছে। সম্ভাব্য বন্যা ও ভূমিধস সম্পর্কিত দুর্যোগ বিষয়ে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ লোকজনকে সতর্ক ও সচেতন করছেন।

জাপানের আবহাওয়া দপ্তর থেকে সতর্ক করে বলা হয়েছে, আরও দুই দিন জাপানের বিভিন্ন অঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকতে পারে।

গত বছর একই সময়ে জাপানের দক্ষিণপূর্বাঞ্চলে ব্যাপক বন্যা ও ভূমিধসে ৫০ ব্যক্তি নিহত হয়েছিলেন।

আরও পড়ুন:
জাপানে ভূমিধসে নিখোঁজ ২০

শেয়ার করুন

মন্তব্য