প্রথমবার একসঙ্গে নিশো-তানহা

প্রথমবার একসঙ্গে নিশো-তানহা

তানহা তাসনিয়া ও আফরান নিশো। ছবি: সংগৃহীত

আফরান নিশো বলেন, ‘এই গল্পের ভাবনাটা আমার। চলার পথে বিভিন্ন ঘটনাই দেখি। সেসব চিন্তা থেকে কিছু গল্প মাথায় আসে। আমার ভাবনাটাকে চিত্রনাট্যে রূপ দিয়েছে ভিকি।’

ডার্ক থ্রিলার গল্পে নির্মিত হচ্ছে বিশেষ নাটক কুয়াশা। আফরান নিশোর গল্প ভাবনায় এটি পরিচালনা করছেন ভিকি জাহেদ। এতে অভিনয় করছেন জনপ্রিয় অভিনেতা আফরান নিশো ও ভালো থেকো খ্যাত চিত্রনায়িকা তানহা তাসনিয়া। এবারই প্রথম জুটি বেঁধেছেন এ দুই শিল্পী।

রাজধানীর উত্তরায় এর শুটিং চলছে। নির্মাতা বলেন, ‘এটি একদমই ডার্ক থ্রিলার গল্প। এখানে নিশো ভাই যে চরিত্রে অভিনয় করেছেন, এরকমটা এর আগে কখনও করেননি। আর তানহার চরিত্রটা সিক্রেটই থাকুক।’

আফরান নিশো বলেন, ‘এই গল্পের ভাবনাটা আমার। চলার পথে বিভিন্ন ঘটনাই দেখি। সেসব চিন্তা থেকে কিছু গল্প মাথায় আসে। আমার ভাবনাটাকে চিত্রনাট্যে রূপ দিয়েছে ভিকি।’

তিনি আরও বলেন, ‘থ্রিলার গল্পে কাজ করেছি আগে। কুয়াশা একটু অন্যরকম। এখানে আমার চরিত্র এসবি অফিসার; যার একই অঙ্গে দুই রূপ।’

চিত্রনায়িকা তানহা তাসনিয়া বলেন, ‘থ্রিলার গল্পে এবারই প্রথম কাজ আমার। নিশো ভাই ও ভিকির সঙ্গেও আমার প্রথম কাজ। কোনো দৃশ্য শুরুর আগে নিশো ভাইয়ের কাছ থেকে পরামর্শ নিচ্ছি।’

ভিকি জাহেদ বলেন, ‘এবার ঈদে আমার ৭টি কাজ যাবে। রোমান্টিক, মেলোডি, ড্রামা; সব ধরনের কাজই করেছি এবার।'

টাইগার মিডিয়ার প্রযোজনায় ঈদে নাটকটি আসছে ইউটিউব চ্যানেলে।

আরও পড়ুন:
প্রথমবার ইরফান-তৌসিফ, মাঝে তানহা
মা-বাবার চরিত্রে কেমন আছে বাশার দম্পতি
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন

শেয়ার করুন

মন্তব্য

পরীমনির বাসায় অভিযানে র‌্যাব

পরীমনির বাসায় অভিযানে র‌্যাব

র‌্যাবের সদরদপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে অভিনেত্রী পরীমনির বাসায় অভিযান চলছে। বিস্তারিত পরে জানানো হবে।

পরীমনির বাসায় অভিযানে গেছে র‌্যাব। অভিযানের কিছুক্ষণ আগে ঢাকাই চলচ্চিত্রের হালের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ফেসবুক লাইভে বলেছিলেন, কে বা কারা তার বাসার দরজায় ধাক্কা-ধাক্কি করছেন।

এ বিষয়ে র‌্যাবের সদরদপ্তরে যোগাযোগ করা হলে জানানো হয়, সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে অভিনেত্রী পরীমনির বাসায় অভিযান চলছে। বিস্তারিত পরে জানানো হবে।

লাইভে পরীমনি বলেন, ‘কাকে ফোন দিব বুঝতেছিনা। থানা থেকে কেউ ফোন ধরছে না। আমি লাইভ কাটব না, যদি আমার হাত থেকে কেউ ফোন নিয়ে নেয় বুঝবেন আমার কিছু একটা হয়েছে।’

লাইভে শোনা যাচ্ছিল, দরজায় দাঁড়িয়ে থাকা লোকজনগুলো বসছিল- ‘ঘরে আসতে দেন। আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর লোক।’

এক পর্যায়ে দরজা খুলে দেন পরীমনি। বন্ধ হয়ে যায় লাইভ।

আরও আসছে...

আরও পড়ুন:
প্রথমবার ইরফান-তৌসিফ, মাঝে তানহা
মা-বাবার চরিত্রে কেমন আছে বাশার দম্পতি
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন

শেয়ার করুন

পরীমনির বাসায় কারা

পরীমনির বাসায় কারা

ঢাকাই চলচ্চিত্র অভিনেত্রী পরীমনির বাসার দরজায় পুলিশ পরিচয়ে কে বা কারা ধাক্কা-ধাক্কি করছেন বলে ফেসবুক লাইভে জানিয়েছেন তিনি।

পরীমনি বলেন, ‘নিচের গেট ভেঙে তারা বাসার দরজায় ধাক্কা-ধাক্কি করছে। তারা তাদের পরিচয় দিচ্ছে না।’

তবে র‌্যাবর সদর দপ্তর জানিয়েছে, সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে তারা পরীমনির বাসায় অভিযান চালাচ্ছে।
থানায় ফোন দিয়েও কোনো সাড়া পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ তুলে লাইভে পরীমনি বলেন, ‘কাকে ফোন দিব বুঝতেছিনা। থানা থেকে কেউ ফোন ধরছে না। আমি লাইভ কাটব না, যদি আমার হাত থেকে যদি কেউ ফোন নিয়ে নেয় বুঝবেন আমার কিছু একটা হয়েছে।’

লাইভে শোনা যাচ্ছিল, দরজায় দাঁড়িয়ে থাকা লোকজনগুলো বসছিল- ‘ঘরে আসতে দেন। আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর লোক।’

এ পর্যায়ে দরজা খুলে দেন পরীমনি। লাইভও বন্ধ করে দেন।

আরও আসছে...

আরও পড়ুন:
প্রথমবার ইরফান-তৌসিফ, মাঝে তানহা
মা-বাবার চরিত্রে কেমন আছে বাশার দম্পতি
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন

শেয়ার করুন

নাক কেটেছেন সারা

নাক কেটেছেন সারা

বলিউড অভিনেত্রী সারা আলি খান। ছবি: নিউজবাংলা কোলাজ

হ্যাঁ সত্যিই নাক কেটেছেন সারা। আর সেই ভিডিও নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেছেন অভিনেত্রী। ভিডিওতে দেখা গেল সারার নাকে ব্যান্ডেজ। ধীরে ধীরে ওই ব্যান্ডেজ সরাতেই প্রকাশ্যে এল রক্তাক্ত নাকের ক্ষত। কিন্তু কী করে ঘটল এমন কাণ্ড?

এই সময়ে বলিউডের ব্যস্ততম অভিনেত্রীদের মধ্যে অন্যতম একজন নবাব সাইফ আলি খান ও অমৃতা সিংয়ের কন্যা সারা আলি খান।

কিন্তু এ কী! নিজের নাক কেটে বাবা-মায়ের কাছে দুঃখ প্রকাশ করলেন সারা।

হ্যাঁ সত্যিই নাক কেটেছেন সারা। আর সেই ভিডিও নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেছেন অভিনেত্রী।

ভিডিওতে দেখা গেল সারার নাকে ব্যান্ডেজ। ধীরে ধীরে ওই ব্যান্ডেজ সরাতেই প্রকাশ্যে এল রক্তাক্ত নাকের ক্ষত।

কিন্তু কী করে ঘটল এমন কাণ্ড? এহেন হাজারো প্রশ্নের বন্যা বইছে সারার পোস্টের কমেন্ট বক্সে।

কিন্তু সারা এই ভিডিওতে একবারও বলেননি কীভাবে নাক কেটেছে। বরং ব্যাপারটি নিয়ে রসিকতাই করলেন কেদারনাথ খ্যাত এই অভিনেত্রী।

ভিডিওটি পোস্ট করে সারা লিখেছেন, ‘দুঃখিত আম্মা-আব্বা, আমি নাক কেটে ফেললাম।’ রসিকতার ছলে নাক কাটানো অর্থাৎ সম্মানহানির কথাই বলেছেন অভিনেত্রী।

তবে এই ভিডিও দেখে বেজায় চিন্তিত অভিনেত্রীর ভক্ত-অনুরাগীরা। নিজের প্রতি খেয়াল রাখার অনুরোধ জানিয়ে সারার প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করেছেন তারা।

নাক কেটেছেন সারা
বলিউড অভিনেত্রী সারা আলি খান। ছবি: সংগৃহীত

সম্প্রতিই আতরাঙ্গী রে সিনেমার শুটিং শেষ করেছেন সারা। এতে তাকে দেখা যাবে অক্ষয় কুমার ও দক্ষিণী তারকা ধনুষের সঙ্গে।

আরও পড়ুন:
প্রথমবার ইরফান-তৌসিফ, মাঝে তানহা
মা-বাবার চরিত্রে কেমন আছে বাশার দম্পতি
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন

শেয়ার করুন

মৌ আক্তার ‘নামেই মডেল’

মৌ আক্তার ‘নামেই মডেল’

কথিত মডেল মরিয়ম আক্তার মৌ। ছবি: সংগৃহীত

বুলবুল টুম্পা বলেন, ‘তিনি (মৌ আক্তার) আমার কাছে মডেল হিসেবে পরিচিত নন। তাকে আমি কখনও র‍্যাম্প মডেলিং বা প্রমোশনাল মডেলিংয়ের কাজে দেখিনি।’

বিত্তবানদের ব্ল্যাকমেইলের অভিযোগে রাজধানী থেকে সম্প্রতি গ্রেপ্তার হয়েছেন ফারিয়া মাহবুব পিয়াসা ও মরিয়ম আক্তার মৌ নামের দুই নারী। দুজনকেই মডেল বলা হচ্ছে। এদের মধ্যে পিয়াসা একসময় মডেলিং করতেন।

কিন্তু মৌ আক্তারের মডেলিংয়ের কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। দেশের ফ্যাশন জগতে যারা দীর্ঘদিন ধরে কাজ করেন, তারাও জানেন না মৌ আক্তারের কাজের ব্যাপারে।

দেশের ফ্যাশন জগতের জনপ্রিয় নাম বুলবুল টুম্পা। তিনি নিজে একসময় মডেল ছিলেন। এখন কোরিওগ্রাফার ও ট্রেইনার হিসেবে কাজ করছেন।

নিউজবাংলাকে তিনি জানান, মডেল হিসেবে মৌ আক্তারকে চেনেন না তিনি।

বুলবুল টুম্পা বলেন, ‘তিনি (মৌ আক্তার) আমার কাছে মডেল হিসেবে পরিচিত নন। তাকে আমি কখনও র‌্যাম্প মডেলিং বা প্রমোশনাল মডেলিংয়ের কাজে দেখিনি।’

মডেল হিসেবে পরিচিত না হলে মৌ আক্তার কী হিসেবে পরিচিত বুলবুল টুম্পার? জানতে চাইলে টুম্পা বলেন, ‘তিনি আমার ব্যক্তিগত পরিচিতও নন। অনুষ্ঠান বা পার্টিতে আমাদের দেখা হয়েছে।’

মৌ আক্তার ‘নামেই মডেল’
বাঁ থেকে বুলবুল টুম্পা, রামিম রাজ ও আজরা মাহমুদ। ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা

ফ্যাশন জগৎ, দেশের সিনেমায় কাজ করেন রামিম রাজ। মূলত তিনি একজন ফ্যাশন ডিজাইনার, ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর। তিনি নিউজবাংলাকে মৌ আক্তারকে না চেনার কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘ফ্যাশন জগতে কাজ করছি অনেক বছর ধরে। ৫ বছর হলো নিজের প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছি। কখনোই তাকে (মৌ আক্তার) মডেলিং করতে দেখিনি।’

দেশের ফ্যাশন জগতে আলোচিত এবং জনপ্রিয় নাম আজরা মাহমুদ। বাংলাদেশের জনপ্রিয় একজন র‌্যাম্প মডেল ও কোরিওগ্রাফার তিনি। এই সময়ে এসে একজন সফল উপস্থাপিকা হিসেবেও নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।

তিনি নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমি তার (মৌ আক্তার) সঙ্গে কখনও কাজ করিনি। আর আমার সঙ্গে তার কখনও কোথাও দেখাও হয়নি।’

আরও পড়ুন:
প্রথমবার ইরফান-তৌসিফ, মাঝে তানহা
মা-বাবার চরিত্রে কেমন আছে বাশার দম্পতি
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন

শেয়ার করুন

বদলেছে কাজ, বদলেছে আজরার পরিচয়

বদলেছে কাজ, বদলেছে আজরার পরিচয়

আজরা মাহমুদ। ছবি: সংগৃহীত

আজরা বলেন, ‘যদিও এদেশের মানুষ আমাকে চিনবে মডেল আজরা হিসেবে। কিন্তু আমি মডেলিংয়ের সঙ্গে জড়িত থাকলেও, আমি কিন্তু এখন আর মডেল হিসেবে কাজ করছি না। আমার পরিচিতি এখন বদলে গেছে।’

দেশের ফ্যাশন জগতে আলোচিত এবং জনপ্রিয় নাম আজরা মাহমুদ। বাংলাদেশের জনপ্রিয় একজন র‌্যাম্প মডেল ও কোরিওগ্রাফার তিনি। এই সময়ে এসে একজন সফল উপস্থাপিকা হিসেবেও নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।

সম্প্রতি রাজধানী থেকে দুই জন নারীকে আটক করার পর তাদের নামের পাশে মডেল পরিচয় ব্যবহার করার পর নানা প্রশ্ন উঠেছে।

কাকে বা কাদের আজরা মডেল মনে করেন, কখন তিনি নিজেকে মডেল পরিচয় দেয়া উচিৎ মনে করেন, কখন করেন না, এসব বিষয় নিয়ে তিনি কথা বলেছেন নিউজবাংলার সঙ্গে।

আজরা বলেন, ‘আমাকে যদি বলেন, আমি কাকে মডেল বলতে পারি, অডিয়েন্সের সামনে যে ফ্যাশন বা প্রডাক্ট তুলে ধরেন, তিনিই আমার কাছে মডেল।’

নিজের উদারহণ দিয়ে আজরা বলেন, ‘আমি তো অনেক কিছু করি। আমি স্টাইলিং করি, হোস্টিং করি, কোরিওগ্রাফি করি। আমাকে যখন মানুষ বলে যে, আজরা আপু, আপনার পরিচয় কী হিসেবে দেব। তখন কিন্তু আমি তাদেরকে বলি যে, আমার পরিচয় মডেল হিসেবে লিখ না।’

মডেলিংয়ে এখন অনিয়মিত আজরা। তাই সে পরিচয়টাকে তিনি প্রকাশ করতে করতে চান না। বর্তমান কাজের পরিচয় দিতেই বেশি স্বাচ্ছ্বন্দ বোধ করেন তিনি।

বদলেছে কাজ, বদলেছে আজরার পরিচয়
আজরা মাহমুদ। ছবি: সংগৃহীত

এ নিয়ে আজরা বলেন, ‘যদিও এদেশের মানুষ আমাকে চিনবে মডেল আজরা হিসেবে। কিন্তু আমি মডেলিংয়ের সঙ্গে জড়িত থাকলেও, আমি কিন্তু এখন আর মডেল হিসেবে কাজ করছি না। আমার পরিচিতি এখন বদলে গেছে।’

প্রসঙ্গ ধরে আজরা আরও বলেন, ‘আমি যে কাজের সঙ্গে জড়িত ছিলাম, সেই কাজের সঙ্গে এখনও জড়িত আছি কি না, সেভাবে করেই তো আমি আমার পরিচয় দেব।’

আজরার মতে একজন মানুষের তার বর্তমান পরিচয় ব্যবহার করা উচিত। তিনি বলেন, একজন ব্যক্তি যদি অনেক আগে মডেলিং করে থাকে এবং তিনি যদি লেজেন্ডারি কেউ হতে না পেরে থাকে, তাহলে এখন তাকে কেন মডেল বলা হবে।’

বদলেছে কাজ, বদলেছে আজরার পরিচয়
আজরা মাহমুদ। ছবি: সংগৃহীত

মডেল বা অভিনেত্রীরা অভিযুক্ত হলেই ক্লিক বাড়াতে নানা রকম আকর্ষণ তৈরি করা হয় বলে মনে করেন আজরা।

তিনি বলেন, ‘আমরা এমন একটা যুগে বাস করি, যেখানে ক্লিক-বাইট খুব গুরুত্বপূর্ণ। নিউজটা পড়ানোর জন্য আকর্ষণ তৈরি করতে বিষয়গুলো সামনে আনা হয় বেশি করে। তেমনই একটা ফাঁদে আমরা সবাই পরে আছি।’

সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই এখন নানা রকম ভিডিও বানিয়ে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। তাদের টেলিভিশন, পত্রিকায় প্রচারের প্রয়োজন হয় না। তাদেরকে জনপ্রিয়, মডেল, অভিনেত্রী বা অন্য পরিচয় পরিচিত করাকে কীভাবে দেখেন আজরা?

বদলেছে কাজ, বদলেছে আজরার পরিচয়
আজরা মাহমুদ। ছবি: সংগৃহীত

আজরা বলেন, ‘আমরা অনেক আনস্ট্রাকচার ওয়েতে বড় হচ্ছি। বিদেশেও যারা ইউটিউবার, যারা গান করেন, তাদের মাঝে অনেকেই অনেক ভালো গান গেয়ে জনপ্রিয় হয়েছেন। তবে তাকে মডেল বা অভিনেত্রী হিসেবে প্রমোট করার আগে কম্পানি বা ফ্যাশন হাউজগুলোর ভালোভাবে যাচাই করে নেয়া উচিৎ।’

আজরা জানান, এন্টারটেইনমেন্ট ইন্ডাস্ট্রি একে অপরের ওপর নির্ভরশীল। একে ওপরকে সাপোর্ট করেই এগিয়ে যেতে হবে বলে মনে করেন আজরা মাহমুদ।

আরও পড়ুন:
প্রথমবার ইরফান-তৌসিফ, মাঝে তানহা
মা-বাবার চরিত্রে কেমন আছে বাশার দম্পতি
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন

শেয়ার করুন

নেটফ্লিক্সের সিনেমায় বাংলাদেশি পণ্য নিয়ে ‘আপত্তিকর’ সংলাপের প্রতিবাদ

নেটফ্লিক্সের সিনেমায় বাংলাদেশি পণ্য নিয়ে ‘আপত্তিকর’ সংলাপের প্রতিবাদ

দ্য লাস্ট মার্সেনারি চলচ্চিত্রের পোস্টার। ছবি: আইএমডিবি

নেটফ্লিক্সে মুক্তি পেয়েছে ভ্যান ড্যাম অভিনীত ছবি ‘দ্য লাস্ট মার্সেনারি’। এতে একটি দৃশ্যে দেখা যায়, একজন অভিনয়শিল্পী বলছেন, ‘হ্যাঁ, এটা বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট’। প্রত্যুত্তরে আরেকজন বলেন, ‘এটা মেড ইন ফ্রান্স। তবে যদি এটি বাংলাদেশ থেকে আসে, তাহলে আমি ধ্বংস হয়ে যাব।’

কয়েক দিন আগে যুক্তরাষ্ট্রের বিনোদনধর্মী প্রতিষ্ঠান নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাওয়া একটি চলচ্চিত্রে বাংলাদেশি পণ্য নিয়ে ‘আপত্তিকর’ সংলাপের প্রতিবাদে ঝড় উঠেছে।

প্রথমে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নেটফ্লিক্স ব্যবহারকারী কানাডাপ্রবাসী বাংলাদেশি সাংবাদিক মুহম্মদ খান এই সংলাপের প্রতিবাদ করেন। পরে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডাসহ বিভিন্ন দেশে বসবাসকারী অনেক প্রবাসী মুহম্মদ খানের ফেসবুক ওয়ালে লিখে প্রতিবাদ করেন। প্রতিবাদ করেছেন দেশের অনেকে।

বাংলাদেশের রপ্তানি আয়ের প্রধান খাত তৈরি পোশাকশিল্পের মালিকদের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএর সভাপতি ফারুক হাসানও উষ্মা প্রকাশ করেছেন ওই সংলাপে।

গত ৩০ জুলাই নেটফ্লিক্সে মুক্তি পেয়েছে ভ্যান ড্যাম অভিনীত ছবি ‘দ্য লাস্ট মার্সেনারি’। চলচ্চিত্রটি এখন এই ওটিটি প্ল্যাটফর্মের জনপ্রিয়তার তালিকার সেরা দশে অবস্থান করছে।

বহুল ভিউ হওয়া ছবিটিতে বাংলাদেশি পণ্যবিরোধী প্রচারণার মতো গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। চলচ্চিত্রটির একটি সংলাপে তার প্রমাণও মেলে।

অনেকেই মন্তব্য করেছেন ডেভিড চারহন পরিচালিত ফ্রেঞ্চ ভাষার এ ছবির মাধ্যমে বাংলাদেশের রপ্তানি পণ্যকে নিম্নমানের বলে প্রচার চালানো হচ্ছে।

ছবিটির ১ ঘণ্টা ৪১ মিনিটে শুরু হওয়া দৃশ্যে দেখা যায়, একজন অভিনয়শিল্পী বলছেন, ‘হ্যাঁ, এটা বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট (Ah, yes. Bulletproof tuxedo)’।

প্রত্যুত্তরে আরেকজন বলেন, ‘এটা মেড ইন ফ্রান্স। তবে যদি এটি বাংলাদেশ থেকে আসে, তাহলে আমি ধ্বংস হয়ে যাব (Made in France. If it was from Bangladesh, I,d be gone.)।

সংলাপটি নিয়ে মুহম্মদ খান তার ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন…

#হোক_প্রতিবাদ

"The Last Mercenary" : এ বছরই মুক্তি পাওয়া নেটফ্লিক্স অরিজিনাল মুভি। জানি না বাংলাদেশে কতজন দেখছে, তবে কানাডায় আজকের 'টপ টেন' তালিকায় ৭-এ। মানে, লাখো কানাডিয়ান দেখছে মুভিটা। সারা বিশ্ব মিলে নিশ্চয়ই কোটি দর্শক!

মুভিটার শেষভাগে এসে একটা ডায়লগ কোনোভাবেই মেনে নিতে পারলাম না। পরিচালক ডেভিড চ্যারন কিংবা দারুণ জনপ্রিয় অভিনেতা জ্যঁ-ক্লদ ভ্যান ড্যাম-এর মুভিতে এমন ডায়লগ কোনোভাবেই আশা করিনি। ডায়লগটা এমন : Ah, yes. Bulletproof tuxedo. Made in France. If it was from Bangladesh, I,d be gone.

বাংলাদেশকে, আরও স্পষ্ট করে বললে বাংলাদেশে তৈরি পণ্যকে খুব নিম্নমানের হিসেবে প্রমাণের চেষ্টা করা হয়েছে এখানে। (স্ক্রিনশট দেখলেই বুঝবেন। অথবা মুভিটার ১ ঘণ্টা ৪১ মিনিটের পরপরই আছে ডায়লগটা)

বিষয়টাকে নেহাত সিনেমার একটা ডায়লগ মনে করলে আমার মনে হয় চরম বোকামি হবে। এটা খুব প্রচ্ছন্নভাবে করা হয়েছে বলেই ধরে নেয়া ভালো। এবং বাংলাদেশের বা বাংলাদেশে তৈরি পণ্যের নেগেটিভ ব্র্যান্ডিংয়ের জন্য এসব মুভি যে মোক্ষম অস্ত্র, তা চোখে আঙুল দিয়ে দেখানোর প্রয়োজন আছে বলে মনে হয় না! একটা জুতসই প্রতিবাদ হওয়া দরকার না?’

নেটফ্লিক্সের সিনেমায় বাংলাদেশি পণ্য নিয়ে ‘আপত্তিকর’ সংলাপের প্রতিবাদ

নেটফ্লিক্সের সিনেমায় বাংলাদেশি পণ্য নিয়ে ‘আপত্তিকর’ সংলাপের প্রতিবাদ

সুজন হোসেন নামের একজন লেখেন, ‘আমরা বুলেটপ্রুফ কিছু তৈরি করি না। তার পরেও এর সঙ্গে বাংলাদেশের নাম জুড়ে নিম্নমানের প্রমাণ করাটা সত্যিকার অর্থে একটা গভীর চক্রান্ত। বিশেষ করে বাংলাদেশের পোশাক, চামড়া, ওষুধ এবং অন্যান্য রপ্তানিযোগ্য পণ্য ব্যবসা ক্ষতিগ্রস্ত করার উদ্দেশ্যে এসব করা হচ্ছে।’

সুমন কায়সার লিখেছেন, ‘এত দেশ থাকতে বাংলাদেশ! প্রতিদ্বন্দ্বীদের উদ্দেশ্যমূলক প্রচার হওয়া অসম্ভব না।’

শেখ শাফায়েত হোসেন লিখেছেন, ‘খান ভাই, এ রকম একটি বিষয় নিয়ে বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমেও প্রতিবাদ হওয়া দরকার। একজন বিজনেস রিপোর্টার হিসেবে আমি তো ভাই কোনোভাবেই মেলাতে পারছি না।

‘বাংলাদেশের রপ্তানি পণ্যের ৮০ শতাংশের বেশি তৈরি পোশাক। এসব পোশাকের মান এতই ভালো যে, এই লকডাউনের মধ্যেও কারখানা খুলে পোশাক বানিয়ে বিদেশে পাঠানো হচ্ছে। পোশাকের বাইরে অন্য যেসব পণ্য বিদেশে রপ্তানি হয়, এগুলোও দেশের মধ্যে থেকে বাছাই করা সেরা পণ্য। তাহলে কেন বিদেশি মুভিতে বাংলাদেশের পণ্য নিম্নমানের বোঝানোর চেষ্টা করা হচ্ছে বুঝলাম না।’

সাংবাদিক নাসরিন গীতি লেখেন, ‘এটা সচেতনভাবেই ফিল্ম মেকার ব্যবহার করেছেন। দুঃখজনক। জুতসই প্রতিবাদ দরকার।’

রাশেদুজ্জামান লিটু লেখেন, ‘অবশ্যই এর যথার্থ প্রতিবাদ হওয়া উচিত। এভাবে কূটকৌশল অবলম্বন করে বাংলাদেশি পণ্যের প্রতিযোগীর দালালি করে মুভির মতো একটা গণমাধ্যমকে ব্যবহার করে অতিরিক্ত স্বার্থ হাসিলের যে অপপ্রয়াস মি. পরিচালক ডেভিড চ্যারন করেছেন, তার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। তার এই নেতিবাচক উক্তির ফলে আমাদের তৈরি পোশাকের বাজারে যে মর্যাদাহানি হয়েছে, তার বিপরীতে তাকে ক্ষতিপূরণসহ ক্ষমা প্রার্থনা করতে হবে।’

বিজিএমইএর সভাপতিরও উদ্বেগ

বাংলাদেশে তৈরি পোশাকশিল্পের মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর সভাপতি ফারুক হাসান নিউজবাংলাকে বলেন, ‘মুভিটি আমি দেখিনি। তবে যা শুনছি…সত্যিই যদি বাংলাদেশের পণ্য নিয়ে এ ধরনের কোনো সংলাপ কোনো ছবিতে দেয়া হয়ে থাকে, তাহলে প্রতিবাদ করছি।’

তিনি বলেন, ‘আমরা সব সময় উন্নত মানের পোশাক রপ্তানি করি, সে কারণেই বিশ্বের বিখ্যাত ব্র্যান্ডগুলো আমাদের পোশাক কেনে। কোনো চলচ্চিত্র বা মুভিতে বাংলাদেশকে নিয়ে বিতর্কিত কোনো সংলাপ মোটেই সমীচীন নয়।’

মহামারি করোনাভাইরাসের মধ্যেও গত ২০২০-২১ অর্থবছরে বিভিন্ন পণ্য রপ্তানি করে ৩ হাজার ৮৭৫ কোটি ৮৩ লাখ (৩৮.৭৬ বিলিয়ন) ডলার বিদেশি মুদ্রা আয় করেছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে তৈরি পোশাক রপ্তানি থেকে এসেছে ৩১ দশমিক ৪৫ বিলিয়ন ডলার।

নেটফ্লিক্স একটি মার্কিন বিনোদনধর্মী প্রতিষ্ঠান। ১৯৯৭ সালের ২৯ আগস্ট মাসে রিড হ্যাস্টিংস এবং মার্ক রেন্ডোল্ফ দ্বারা যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া রাজ্যের স্কটস ভ্যালি শহরে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি মূলত সংস্থান মিডিয়া দর্শন এবং প্রয়োজন মাফিক অনলাইন।

নেটফ্লিক্স পরবর্তী সময়ে চলচ্চিত্র এবং ছোট পর্দার ধারাবাহিক, চলচ্চিত্র পরিচালনায় সম্প্রসারিত হয়, এর সঙ্গে ইন্টারনেটভিত্তিক অনলাইনে চলচ্চিত্রের বণ্টনও চালু করে।

নেটফ্লিক্স ২০১৩ সালে কনটেন্ট (নাটক, চলচ্চিত্র, ভিডিও) প্রযোজনা শিল্পে প্রবেশ করে।

আরও পড়ুন:
প্রথমবার ইরফান-তৌসিফ, মাঝে তানহা
মা-বাবার চরিত্রে কেমন আছে বাশার দম্পতি
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন

শেয়ার করুন

‘মৌ’ নামের মিলে বিব্রত সাদিয়া ইসলাম মৌ

‘মৌ’ নামের মিলে বিব্রত সাদিয়া ইসলাম মৌ

নৃত্যশিল্পী, মডেল, অভিনেত্রী সাদিয়া ইসলাম মৌ। ছবি: সংগৃহীত

দীর্ঘদিন মডেলিংয়ে কাজ না করেও কি একজন মডেল পরিচয় দিতে পারেন কি না জানতে চাইলে সাদিয়া ইসলাম মৌ বলেন, ‘অনেক দিন আগে কাজ করত, কিন্তু এখন করে না, তারপরও সেই মানুষ যদি নিজেকে সেই পরিচয়ে পরিচিত করতে পছন্দ করেন তাহলে তো আর কারও কিছু করার নাই।’

বিত্তবানদের ব্ল্যাকমেইলের অভিযোগে সম্প্রতি গ্রেপ্তার কথিত মডেল মরিয়ম আখতার মৌ-এর সঙ্গে নামের মিলের কারণে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হচ্ছে বলে জানালেন জনপ্রিয় নৃত্যশিল্পী, মডেল ও অভিনেত্রী সাদিয়া ইসলাম মৌ।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিউজবাংলাকে এমন কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘ঘটনার রাত থেকেই আমি বিব্রত হচ্ছি। আমার নামের সঙ্গে মিলে গেছে এমন একজনকে পুলিশ ধরেছে। আর এতেই অনেকে আমার পরিবার, স্বজন, বন্ধুদের নিউজ লিংক পাঠাতে ছাড়েনি। অথচ তারা কিন্তু দেখছে যে এটা আমি না।

‘আমাকে হয়তো অনেকে বিষয়টি বলতে সাহস পায়নি, কিন্তু আমার পরিচিত মানুষদের অনেক বিরক্ত ও বিব্রত করেছে। তারা (পরিবার-পরিজনরা) যতই বলছে নিউজটা খুলে দেখ, এটা সাদিয়া ইসলাম মৌ না, তারপরও তারা এমন কথাও বলেছে যে, এদের তো অনেক কিছুই লুকানো থাকে।’

এসব বন্ধ করার জন্য সহকর্মী, অভিনয়শিল্পী, জুনিয়ররা সবাই ফেসবুকে লিখছেন দেখে খুবই সম্মানিত বোধ করছেন।

মৌ নামটি দেশের অনেকেরই থাকতে পারে, তাই নাম ব্যবহারের ক্ষেত্রে আরও সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানান সাদিয়া ইসলাম মৌ।

‘মৌ’ নামের মিলে বিব্রত সাদিয়া ইসলাম মৌ
নৃত্যশিল্পী, মডেল, অভিনেত্রী সাদিয়া ইসলাম মৌ। ছবি: সংগৃহীত

প্রেপ্তার হওয়া দুজন নারীর পরিচয়ে মডেল-অভিনেত্রী থাকার বিষয়টি নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠেছে। তারা আসলেই মডেল কি না তা নিয়েও বিতর্কে জড়াচ্ছেন শিল্পীরা। অভিনেত্রী-মডেল পরিচয় গণমাধ্যমে না লেখার অনুরোধ ও এসেছে সংগঠন থেকে।

মডেল কাদের বলা যাবে? জানতে চাইলে সাদিয়া ইসলাম মৌ বলেন, ‘মডেল তাদেরকে বলব যারা রেগুলার স্টেজে কাজ করছে, ফ্যাশন শো করছে, রেগুলার সম্মানি নিচ্ছে একজন মডেল হিসেবে, যখন মডেল খোঁজা হয় পোর্টফলিও দেখা হয়, ঐখানে যাদের আমরা দেখি তাদেরকে আমরা মডেল বলব।’

‘মৌ’ নামের মিলে বিব্রত সাদিয়া ইসলাম মৌ
নৃত্যশিল্পী, মডেল, অভিনেত্রী সাদিয়া ইসলাম মৌ। ছবি: সংগৃহীত

রোববার রাতে আটক দুই নারীর মধ্যে মৌ খানের মিডিয়ায় কাজের কোনো রেকর্ড না পাওয়া গেলেও পিয়াসা অনেকদিন আগে কাজ করেছেন বিজ্ঞাপনে।

দীর্ঘদিন মডেলিংয়ে কাজ না করেও কি একজন মডেল পরিচয় দিতে পারেন কি না জানতে চাইলে সাদিয়া ইসলাম মৌ বলেন, ‘অনেক দিন আগে কাজ করত, কিন্তু এখন করে না, তারপরও সেই মানুষ যদি নিজেকে সেই পরিচয়ে পরিচিত করতে পছন্দ করেন তাহলে তো আর কারও কিছু করার নাই।

‘মৌ’ নামের মিলে বিব্রত সাদিয়া ইসলাম মৌ
নৃত্যশিল্পী, মডেল, অভিনেত্রী সাদিয়া ইসলাম মৌ। ছবি: সংগৃহীত

‘কিন্তু তাকেই বুঝতে হবে যে, সে নিজের মডেল পরিচয় দেবে কি না। কিছু রেসপনসিবিলিটি কিন্তু আমাদের আর্টিস্টদেরও থাকে।

‘যত যাই বলি, আমি যদি ফাইট করে এই যুগে ফিরে না আসতাম তাহলে এখনকার বাচ্চারা আমাকে মডেল হিসেবে চিনত না। আমি যতই পরিচয় দেই ওদেরকে যে, আমি মডেল মৌ, এখনকার বাচ্চারা কিন্তু আমাকে চিনবে না। আমি এখনও মডেলিংয়ের কাজ করছি বলে এখনকার কিছু ছেলে-মেয়েরা আমাকে চেনে।

‘মৌ’ নামের মিলে বিব্রত সাদিয়া ইসলাম মৌ
নৃত্যশিল্পী, মডেল, অভিনেত্রী সাদিয়া ইসলাম মৌ। ছবি: সংগৃহীত

‘তাই আমার পরিচয়টাও আমার বুঝে শুনে দিতে হবে।’

মৌ জানান, তিনি খুব অল্প বয়সে মিডিয়ায় এসেছেন। প্রথমে ছিলেন নৃত্যশিল্পী। একটা-দুইটা মডেলিং করার পর দর্শকরা তাকে পছন্দ করতে শুরু করেন।

‘মৌ’ নামের মিলে বিব্রত সাদিয়া ইসলাম মৌ
নৃত্যশিল্পী, মডেল, অভিনেত্রী সাদিয়া ইসলাম মৌ। ছবি: সংগৃহীত

বলেন, ‘মডেলিংকে একটা প্রফেশনাল জায়গায় নিয়ে আসার পেছনে কিন্তু খুব অল্প কয়েকজনের হাত রয়েছে।’

আরও পড়ুন:
প্রথমবার ইরফান-তৌসিফ, মাঝে তানহা
মা-বাবার চরিত্রে কেমন আছে বাশার দম্পতি
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন

শেয়ার করুন