ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ পরীমনির

ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ পরীমনির

বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় তারকা পরীমনি। ফাইল ছবি

‘আমি শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছি। আমাকে রেইপ এবং হত্যা করার চেষ্টা করা হয়েছে। আমি এর বিচার চাই। যাদের পেয়েছি, সবাই শুধু ঘটনা বিস্তারিত জেনে দেখছি বলে চুপ হয়ে যায়!’

ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরীমনি তাকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ এনেছেন। তবে তিনি কার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছেন, সেটি স্পষ্ট নয়।

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ করে একটি আবেদনপত্র লিখলেও তিনি যে অভিযোগ এনেছেন, সেটির বিস্তারিত লেখেননি।

এই অভিনেত্রী যে মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন, সেটিও বন্ধ রেখেছেন। ভ্যারিফায়েড ফেসবুক পেজে ভক্তরা অগুনতি কমেন্ট করলেও তাতেও কোনো রিপ্লাই দেননি।

রোববার রাত ৮টার দিকে ফেসবুক পেজ থেকে প্রধানমন্ত্রী বরাবর আবেদনের ঢঙে এই স্ট্যাটাস দেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের মিষ্টি মেয়ে।

আড়াই বছর বয়সে মাকে হারানোর যাতনা তুলে প্রধানমন্ত্রীকে মা সম্বোধন করেছেন এই অভিনেত্রী।

তিনি লিখেছেন, ‘আমার আপনাকে দরকার মা। আমার এখন বেঁচে থাকার জন্য আপনাকে দরকার মা। মা আমি বাঁচতে চাই। আমাকে বাঁচিয়ে নাও মা।’

পরীমনি লেখেন, ‘আমি শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছি। আমাকে রেইপ এবং হত্যা করার চেষ্টা করা হয়েছে। আমি এর বিচার চাই।’

পরিচিত বা চেনাজনদের যে পরীমনি এ ঘটনা বলেছেন, সেটিও তিনি লিখেছেন। তবে কারও সহযোগিতা পাননি বলে অনুযোগ করেছেন।

পরীমনি লেখেন, ‘যাদের পেয়েছি সবাই শুধু ঘটনা বিস্তারিত জেনে দেখছি বলে চুপ হয়ে যায়!’

পুলিশপ্রধান বেনজীর আহমেদকে উদ্দেশ করেও লিখেছেন পরীমনি।

তিনি লেখেন, ‘এই বিচার কই চাইব আমি? কোথায় চাইব? কে করবে সঠিক বিচার? আমি খুঁজে পাইনি গত চার দিন ধরে। থানা থেকে শুরু করে আমাদের চলচ্চিত্রবন্ধু বেনজীর আহমেদ আইজিপি স্যার! আমি কাউকে পাই না মা।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘মা’ সম্বোধন করে তিনি লেখেন, ‘আমার আপনাকে দরকার মা। আমার এখন বেঁচে থাকার জন্য আপনাকে দরকার মা।

‘মা আমি বাচঁতে চাই। আমাকে বাঁচিয়ে নাও মা।‘

তিনি লেখেন, ‘আমি চুপ কী করে থাকতে পারি মা? আমি তো আপনাকে দেখিনি চুপ থেকে কোনো অন্যায় মেনে নিতে!’- শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ করে লেখেন তিনি।’

পরীমনি আরও লেখেন, ‘আমি মেয়ে, আমি নায়িকা, তার আগে আমি মানুষ। আমি চুপ করে থাকতে পারি না। আজ আমার সঙ্গে যা হয়েছে তা যদি আমি কেবল মেয়ে বলে, লোকে কী বলবে এই গিলানো বাক্য মেনে নিয়ে চুপ হয়ে যাই, তাহলে অনেকের মতো (যাদের অনেক নাম এক্ষুণি মনে পরে গেল) তাদের মতো আমিও কেবল তাদের দল ভারী করতে চলেছি হয়তো।’

আড়াই বছর বয়সে মাকে হারানোর কথা তুলে ধরে পরীমনি লেখেন, ‘এতদিনে কখনও আমার এক মুহূর্ত মাকে খুব দরকার এখন, মনে হয়নি এটা। আজ মনে হচ্ছে, ভীষণ রকম মনে হচ্ছে মাকে দরকার, একটু শক্ত করে জড়িয়ে ধরার জন্য দরকার।’

আরও পড়ুন:
শেষ হলো ‘মুখোশ’-এর শুটিং
নতুন চমক নিয়ে ফিরছেন চয়নিকা-পরী
দুবাইতে পরীমনি, ‘উনি কোথায়’
‘মুখোশ’ নিয়ে বইমেলায় পরীমনি
শেষ হলো মুখোশ সিনেমার প্রথম লটের শুটিং

শেয়ার করুন

মন্তব্য