অনুদানের সিনেমা অন্তত ২০ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি বাধ্যতামূলক

অনুদানের সিনেমা অন্তত ২০ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি বাধ্যতামূলক

অনুদানের সিনেমা প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেয়া প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘আগে অনুদানের ছবি হলে মুক্তি পেত না। আমরা এখন প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেয়ার বাধ্যবাধকতা দিয়েছি। গত বছর ১০টা হলে মুক্তি দেয়ার বাধ্যবাধকতা ছিল, এ বছর থেকে ২০টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেয়ার বাধ্যবাধকতা দিয়েছি।’

চলচ্চিত্রে সরকারি অনুদান প্রক্রিয়ায় অর্থের পরিমাণ বেড়েছে। একই সঙ্গে বাড়ানো হয়েছে সিনেমার সংখ্যা।

চলচ্চিত্রে বরাদ্দ বাড়ানোর বিষয় নিয়ে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য আগে প্রতিবছর আমাদের বরাদ্দ ছিল ৫ কোটি টাকা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে, অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে সেটিকে ১০ কোটি টাকায় উন্নীত করা হয়েছে।’

এখন অনুদানের চলচ্চিত্রের সংখ্যা বাড়বে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘প্রতিবছর ১০টা সিনেমায় অনুদান দেয়া হতো। আমরা গত বছর ১৬টি সিনেমা অনুদান দিয়েছি।’

অনুদানের সিনেমা প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেয়া প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘আগে অনুদানের ছবি হলে মুক্তি পেত না। আমরা এখন প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেয়ার বাধ্যবাধকতা দিয়েছি। গত বছর ১০টা হলে মুক্তি দেয়ার বাধ্যবাধকতা ছিল, এ বছর থেকে ২০টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেয়ার বাধ্যবাধকতা দিয়েছি।’

মন্ত্রী আরও জানান, অনুদানের ছবিতে শুধু আর্ট ফিল্ম নয়, এখন বাণিজ্যিক ছবির সংখ্যা বাড়ানো হবে।

সচিবালয়ে রোববার দুপুরে পরিচালক সমিতির নবনির্বাচিত কমিটির সঙ্গে মতবিনিময়কালে মন্ত্রী এসব এ কথা জানান।

এ সময় চলচ্চিত্র নির্মাণে ঋণ দিতে এবং নতুন মুখের সন্ধানে করার জন্য চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনকে (বিএফডিসি) থোক বরাদ্দ দেয়ার দাবি জানান পরিচালক সমিতি।

দাবির পরিপ্রেক্ষিতে মন্ত্রী বলেন, ‘এটি একটি ভালো প্রস্তাব। বিষয়টি আমরা বিবেচনা করে দেখব।’

এ ছাড়া রুগণ্‌ চলচ্চিত্রকে বাঁচাতে প্রেক্ষাগৃহ নির্মাণ ও সংস্কারে ১ হাজার কোটি টাকার একটি তহবিল গঠন করা হয়েছে বলেও জানান তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী।

তিনি বলেন ‘এই তহবিল থেকে ঢাকা ও চট্টগ্রামে কেউ হল নির্মাণ বা সংস্কার করতে চাইলে ৫ শতাংশ সুদে এবং বাকি জেলাগুলোতে ৪ দশমিক ৫ শতাংশ সুদে ঋণ নিতে পারবে। এটি ১০ বছর মেয়াদি ঋণ।’

পাঁচ-ছয় বছর অপেক্ষার পর জেলা তথ্য ভবন নির্মাণের একটি প্রকল্প একনেকে পাস হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘যে প্রকল্পের অধীনে বিভিন্ন জেলায় তথ্য ভবন নির্মিত হবে। তথ্য ভবনের সঙ্গে সেখানে একটি সিনেমা হল বা হল নির্মিত হবে। হল আউটসোর্সিং করে সিনেমা হল হিসেবে ব্যবহার করা যাবে।’

বিদেশি শিল্পী, কলাকুশলী দিয়ে বিজ্ঞাপনচিত্র নির্মাণ বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘বিদেশি শিল্পীপ্রতি ২ লাখ টাকা সরকারের কাছে জমা দিতে হবে। আর যে টেলিভিশন চ্যানেল সেই বিজ্ঞাপনচিত্র প্রচার করবে, তাদেরকেও এককালীন ২০ হাজার টাকা রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দিতে হবে। আমরা নীতিমালায় সংযোজন করেছি। মুক্তবাজার অর্থনীতিতে আমি একেবারে বন্ধ করে দিতে পারি না। তবে আমাদের শিল্পী, শিল্পকে সুরক্ষা দিতে হবে। সে জন্য এটি করা হয়েছে।’

বিদেশ থেকে দ্বিতীয় বা তৃতীয় শ্রেণির মডেল দিয়ে বিজ্ঞাপন বানিয়ে এ দেশে চালানো হয় উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের দেশের ছেলেমেয়েরা কি তবে আনস্মার্ট? ভালো, স্মার্ট অনেক সুন্দর অভিনয় করে এমন অনেক ছেলেমেয়ে আমাদের দেশ আছেন। তারা বঞ্চিত হচ্ছেন।’

শেয়ার করুন

মন্তব্য

পরীমনির বাসায় ভয়ংকর মাদক এলএসডি

পরীমনির বাসায় ভয়ংকর মাদক এলএসডি

বনানীর বাসা থেকে মাদকদ্রব্যসহ আটকের পর পরীমনিকে র‌্যাবের সদরসপ্তরে নিয়ে যাওয়া হয়। ছবি: সাইফুল ইসলাম।

পরীমনিকে জিম্মায় নিয়ে র‌্যাব সদর দপ্তরে নেয়ার পর সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান বাহিনীর গোয়েন্দা শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল খায়রুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘এগুলো পরীমনি সেবন করতেন কি না, তা জিজ্ঞাসাবাদে জানা যাবে।’

ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত অভিনেত্রী পরীমনির বাসা থেকে ভয়ংকর মাদক এলএসডি উদ্ধারের দাবি করেছে র‌্যাব। এ ছাড়া নতুন ধরনের মাদক ‘আইস’সহ জব্দ করা হয়েছে বিপুল পরিমাণ মদ।

পরীমনিকে জিম্মায় নিয়ে র‌্যাব সদর দপ্তরে নেয়ার পর সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান বাহিনীর গোয়েন্দা শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল খায়রুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘এগুলো পরীমনি সেবন করতেন কি না, তা জিজ্ঞাসাবাদে জানা যাবে।’

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক খন্দকার আল মঈন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘পরীমনিকে আজ (বুধবার) রাতে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে কাল সাংবাদিকদের বিস্তারিত জানানো হবে।’

পরীমনির বাসায় বুধবার বিকেল পৌনে ৫টার দিকে অভিযান শুরু করে র‌্যাব। এর আগে ফেসবুকে লাইভে এসে পরীমনি অভিযোগ করেন, কে বা কারা তার বাসার দরজায় ধাক্কাধাক্কি করছে।

সে সময় র‌্যাব সদর দপ্তরে যোগাযোগ করা হলে জানানো হয়, সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে অভিনেত্রী পরীমনির বাসায় অভিযান চলছে। কমান্ডার খন্দকার আল মঈন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে তার বাসায় অভিযান চালানো হচ্ছে। অভিযান শেষে বিস্তারিত তথ্য জানানো হবে।’

একই তথ্য জানান বাহিনীটির গণমাধ্যম শাখার সহকারী পরিচালক এএসপি আ ন ম ইমরান খান।

নিউজবাংলাকে তিনি বলেন, ‘সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে আমাদের একটি টিম সেখানে গেছে। তারা পরীমনির বাসায় অভিযান তল্লাশি চালাচ্ছে। তল্লাশিতে এখনও কিছু পাওয়া গেছে কি না, সেটা বলতে পারছি না। অভিযান ও তল্লাশি চলমান।’

শেয়ার করুন

পরিচালক রাজও র‍্যাবের অভিযানে আটক

পরিচালক রাজও র‍্যাবের অভিযানে আটক

চলচ্চিত্র পরিচালক ও প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজের সঙ্গে পরীমনি।

র‌্যাবের মুখপাত্র কমান্ডার খন্দকার আল মঈন নিউজবাংলাকে জানান, মডেল ফারিয়া মাহাবুব পিয়াসার সহযোগী মিশুকে গ্রেপ্তারের পর তার কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ বেশ কিছু তথ্য পাওয়া গেছে। এর ভিত্তিতেই রাজকে আটক করেছে র‍্যাব।

অভিনেত্রী পরীমনির বাসায় অভিযান শেষ হওয়ার পরপরই বনানী থেকে চলচ্চিত্র পরিচালক ও প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজকে আটক করেছে র‌্যাব। এর আগে বনানীতে তার বাসায় অভিযান চালানো হয়।

বাহিনীর লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের উপপরিচালক মেজর হুসাইন রইসুল আজম মণি নিউজবাংলাকে বলেন, ‘সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে রাজের বাসায় অভিযান চলেছে।’

র‌্যাবের মুখপাত্র কমান্ডার খন্দকার আল মঈন নিউজবাংলাকে জানান, মডেল ফারিয়া মাহাবুব পিয়াসার সহযোগী মিশুকে গ্রেপ্তারের পর তার কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ বেশ কিছু তথ্য পাওয়া গেছে। এর ভিত্তিতেই রাজকে আটক করেছে র‍্যাব।

ঢাকাই চলচ্চিত্রের প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজের বাড়ি গোপালগঞ্জ সদরের দুর্গাপুরে। চলচ্চিত্র ও নাটক প্রযোজনার পাশাপাশি তিনি নিয়মিত অভিনয়ও করেন।

দেশের শোবিজ অঙ্গনকে এগিয়ে নেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ২০১৯ সালের জুলাইয়ে যাত্রা শুরু করে রাজ মাল্টিমিডিয়া।

শেয়ার করুন

র‌্যাব সদর দপ্তরে পরীমনি

র‌্যাব সদর দপ্তরে পরীমনি

পরীমনিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাসা থেকে নেয়া হয়েছে র‌্যাব সদর দপ্তরে। ছবি: সাইফুল ইসলাম/নিউজবাংলা

পরীমনিকে নিজেদের জিম্মায় নেয়ার তথ্য সন্ধ্যা ৭টার দিকে নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেন র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল খায়রুল ইসলাম। এরপর রাত সোয়া ৮টার দিকে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় বাহিনীর সদর দপ্তরে।

চিত্রনায়িকা পরীমনির বাসায় তল্লাশিতে বিপুল পরিমাণ মাদক দ্রব্য উদ্ধারের পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে র‌্যাব সদর দপ্তরে। জব্দ করা মাদকও একটি মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

পরীমনিকে র‌্যাব নিজেদের জিম্মায় নেয় সন্ধ্যা ৭টার দিকে। এরপর রাত পৌনে ৯টার দিকে তাকে বহনকারী গাড়িটি বাহিনীর সদর দপ্তরে পৌঁছায়।

বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেন র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার সহকারী পরিচালক আ ন ম ইমরান খান।

পরীমনির বাসায় বুধবার বিকেল পৌনে ৫টার দিকে অভিযান শুরু করে র‌্যাব। এর আগে ফেসবুকে লাইভে এসে পরীমনি অভিযোগ করেন, কে বা কারা তার বাসার দরজায় ধাক্কাধাক্কি করছে।

সে সময় র‌্যাব সদর দপ্তরে যোগাযোগ করা হলে জানানো হয়, সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে অভিনেত্রী পরীমনির বাসায় অভিযান চলছে। কমান্ডার খন্দকার আল মঈন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে তার বাসায় অভিযান চালানো হচ্ছে। অভিযান শেষে বিস্তারিত তথ্য জানানো হবে।’

একই তথ্য জানান বাহিনীটির গণমাধ্যম শাখার সহকারী পরিচালক এএসপি আ ন ম ইমরান খান।

নিউজবাংলাকে তিনি বলেন, ‘সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে আমাদের একটি টিম সেখানে গেছে। তারা পরীমনির বাসায় অভিযান তল্লাশি চালাচ্ছে। তল্লাশিতে এখনও কিছু পাওয়া গেছে কি না, সেটা বলতে পারছি না। অভিযান ও তল্লাশি চলমান।’

শেয়ার করুন

পরীমনির বিরুদ্ধে মামলা করতে তৈরি নাসির

পরীমনির বিরুদ্ধে মামলা করতে তৈরি নাসির

নাসির উদ্দিন মাহমুদ নিউজবাংলাকে বলেন, ‘মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে আমাকে জনসমক্ষে সে (পরীমনি) হেয় করেছে। আমি অবশ্যই এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব, মামলা করব।’

র‍্যাবের অভিযানে আটক আলোচিত অভিনেত্রী পরীমনির বিরুদ্ধে শিগগিরই মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন ঢাকা বোট ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির সাবেক সদস্য নাসির উদ্দিন মাহমুদ।

পরীমনির বাসায় র‍্যাবের অভিযানের মধ্যে বুধবার বিকেলে তিনি নিউজবাংলাকে এ কথা জানান।

পরীমনি গত ৯ জুন রাতে ঢাকা বোট ক্লাবে যাওয়ার পর ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যার হুমকি পাওয়ার অভিযোগ তুলে সারা দেশে তোলপাড় ফেলেন।

এরপর ১৪ জুন তিনি সাভার থানায় নাসির উদ্দিন ও অমির বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার মামলা করেন। মামলার পরপরই পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন নাসির।

১ জুলাই জামিনে কারাগার থেকে মুক্তি পান নাসির উদ্দিন মাহমুদ। শুরু থেকেই তিনি নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করছেন।

পরীমনির বাসায় বুধবার র‌্যাবের অভিযানের সময় নাসির নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমার সম্পর্কে সে (পরীমনি) মিথ্যার আশ্রয় নিয়েছিল, যা সত্য নয় তা বলেছিল। ভিডিও ফুটেজ এবং তার কথাবার্তা সবকিছুতেই অসংগতি ছিল। বাস্তবে এর কোনো মিল ছিল না।

‘এই মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে আমাকে জনসমক্ষে সে হেয় করেছে। আমি অবশ্যই এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব, মামলা করব।’

তিনি বলেন, ‘আমার মানহানি হয়েছে, আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা কথা ছড়িয়েছে, ফেসবুকে মিথ্যাচার করেছে, বোট ক্লাবে ড্রিংক নিয়ে জোরাজুরি করেছে। আমি মামলা তো করবই। তাকে তো ছাড় দেয়া যায় না। আমি আমার মতো করে লিখে রেখেছি, যেকোনো সময় বিমানবন্দর থানায় পরীমনির বিরুদ্ধে মামলা করব।’

শেয়ার করুন

পরীমনি আটক

পরীমনি আটক

তাকে আটকের তথ্য সন্ধ্যা ৭টার দিকে নিশ্চিত করেন র‌্যাব কর্মকর্তারা। তাকে র‌্যাব কার্যালয়ে নেয়ার জন্য একটি গাড়ি প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

চিত্রনায়িকা পরীমনির বাসায় তল্লাশি চালিয়ে বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্যসহ তাকে আটক করা হয়েছে।

তাকে আটকের তথ্য সন্ধ্যা ৭টার দিকে নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেন র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল খায়রুল ইসলাম। পরীমনিকে র‌্যাবের কার্যালয়ে নেয়ার জন্য একটি গাড়ি প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

পরীমনির বাসায় বুধবার বিকেল পৌনে পাঁচটার দিকে অভিযান শুরু করে র‌্যাব। এর আগে ফেসবুকে লাইভে এসে পরীমনি অভিযোগ করেন, কে বা কারা তার বাসার দরজায় ধাক্কাধাক্কি করছে।

র‌্যাব সদর দপ্তরে যোগাযোগ করা হলে জানানো হয়, সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে অভিনেত্রী পরীমনির বাসায় অভিযান চলছে। কমান্ডার খন্দকার আল মঈন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে তার বাসায় অভিযান চালানো হচ্ছে। অভিযান শেষে বিস্তারিত তথ্য জানানো হবে।’

একই তথ্য জানান বাহিনীটির গণমাধ্যম শাখার সহকারী পরিচালক এএসপি আ ন ম ইমরান খান।

নিউজবাংলাকে তিনি বলেন, ‘সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে আমাদের একটি টিম সেখানে গেছে। তারা পরীমনির বাসায় অভিযান তল্লাশি চালাচ্ছে। তল্লাশিতে এখনও কিছু পাওয়া গেছে কি না, সেটা বলতে পারছি না। অভিযান ও তল্লাশি চলমান।’

শেয়ার করুন

নাক কেটেছেন সারা

নাক কেটেছেন সারা

বলিউড অভিনেত্রী সারা আলি খান। ছবি: নিউজবাংলা কোলাজ

হ্যাঁ সত্যিই নাক কেটেছেন সারা। আর সেই ভিডিও নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেছেন অভিনেত্রী। ভিডিওতে দেখা গেল সারার নাকে ব্যান্ডেজ। ধীরে ধীরে ওই ব্যান্ডেজ সরাতেই প্রকাশ্যে এল রক্তাক্ত নাকের ক্ষত। কিন্তু কী করে ঘটল এমন কাণ্ড?

এই সময়ে বলিউডের ব্যস্ততম অভিনেত্রীদের মধ্যে অন্যতম একজন নবাব সাইফ আলি খান ও অমৃতা সিংয়ের কন্যা সারা আলি খান।

কিন্তু এ কী! নিজের নাক কেটে বাবা-মায়ের কাছে দুঃখ প্রকাশ করলেন সারা।

হ্যাঁ সত্যিই নাক কেটেছেন সারা। আর সেই ভিডিও নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেছেন অভিনেত্রী।

ভিডিওতে দেখা গেল সারার নাকে ব্যান্ডেজ। ধীরে ধীরে ওই ব্যান্ডেজ সরাতেই প্রকাশ্যে এল রক্তাক্ত নাকের ক্ষত।

কিন্তু কী করে ঘটল এমন কাণ্ড? এহেন হাজারো প্রশ্নের বন্যা বইছে সারার পোস্টের কমেন্ট বক্সে।

কিন্তু সারা এই ভিডিওতে একবারও বলেননি কীভাবে নাক কেটেছে। বরং ব্যাপারটি নিয়ে রসিকতাই করলেন কেদারনাথ খ্যাত এই অভিনেত্রী।

ভিডিওটি পোস্ট করে সারা লিখেছেন, ‘দুঃখিত আম্মা-আব্বা, আমি নাক কেটে ফেললাম।’ রসিকতার ছলে নাক কাটানো অর্থাৎ সম্মানহানির কথাই বলেছেন অভিনেত্রী।

তবে এই ভিডিও দেখে বেজায় চিন্তিত অভিনেত্রীর ভক্ত-অনুরাগীরা। নিজের প্রতি খেয়াল রাখার অনুরোধ জানিয়ে সারার প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করেছেন তারা।

নাক কেটেছেন সারা
বলিউড অভিনেত্রী সারা আলি খান। ছবি: সংগৃহীত

সম্প্রতিই আতরাঙ্গী রে সিনেমার শুটিং শেষ করেছেন সারা। এতে তাকে দেখা যাবে অক্ষয় কুমার ও দক্ষিণী তারকা ধনুষের সঙ্গে।

শেয়ার করুন

মৌ আক্তার ‘নামেই মডেল’

মৌ আক্তার ‘নামেই মডেল’

কথিত মডেল মরিয়ম আক্তার মৌ। ছবি: সংগৃহীত

বুলবুল টুম্পা বলেন, ‘তিনি (মৌ আক্তার) আমার কাছে মডেল হিসেবে পরিচিত নন। তাকে আমি কখনও র‍্যাম্প মডেলিং বা প্রমোশনাল মডেলিংয়ের কাজে দেখিনি।’

বিত্তবানদের ব্ল্যাকমেইলের অভিযোগে রাজধানী থেকে সম্প্রতি গ্রেপ্তার হয়েছেন ফারিয়া মাহবুব পিয়াসা ও মরিয়ম আক্তার মৌ নামের দুই নারী। দুজনকেই মডেল বলা হচ্ছে। এদের মধ্যে পিয়াসা একসময় মডেলিং করতেন।

কিন্তু মৌ আক্তারের মডেলিংয়ের কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। দেশের ফ্যাশন জগতে যারা দীর্ঘদিন ধরে কাজ করেন, তারাও জানেন না মৌ আক্তারের কাজের ব্যাপারে।

দেশের ফ্যাশন জগতের জনপ্রিয় নাম বুলবুল টুম্পা। তিনি নিজে একসময় মডেল ছিলেন। এখন কোরিওগ্রাফার ও ট্রেইনার হিসেবে কাজ করছেন।

নিউজবাংলাকে তিনি জানান, মডেল হিসেবে মৌ আক্তারকে চেনেন না তিনি।

বুলবুল টুম্পা বলেন, ‘তিনি (মৌ আক্তার) আমার কাছে মডেল হিসেবে পরিচিত নন। তাকে আমি কখনও র‌্যাম্প মডেলিং বা প্রমোশনাল মডেলিংয়ের কাজে দেখিনি।’

মডেল হিসেবে পরিচিত না হলে মৌ আক্তার কী হিসেবে পরিচিত বুলবুল টুম্পার? জানতে চাইলে টুম্পা বলেন, ‘তিনি আমার ব্যক্তিগত পরিচিতও নন। অনুষ্ঠান বা পার্টিতে আমাদের দেখা হয়েছে।’

মৌ আক্তার ‘নামেই মডেল’
বাঁ থেকে বুলবুল টুম্পা, রামিম রাজ ও আজরা মাহমুদ। ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা

ফ্যাশন জগৎ, দেশের সিনেমায় কাজ করেন রামিম রাজ। মূলত তিনি একজন ফ্যাশন ডিজাইনার, ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর। তিনি নিউজবাংলাকে মৌ আক্তারকে না চেনার কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘ফ্যাশন জগতে কাজ করছি অনেক বছর ধরে। ৫ বছর হলো নিজের প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছি। কখনোই তাকে (মৌ আক্তার) মডেলিং করতে দেখিনি।’

দেশের ফ্যাশন জগতে আলোচিত এবং জনপ্রিয় নাম আজরা মাহমুদ। বাংলাদেশের জনপ্রিয় একজন র‌্যাম্প মডেল ও কোরিওগ্রাফার তিনি। এই সময়ে এসে একজন সফল উপস্থাপিকা হিসেবেও নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।

তিনি নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমি তার (মৌ আক্তার) সঙ্গে কখনও কাজ করিনি। আর আমার সঙ্গে তার কখনও কোথাও দেখাও হয়নি।’

শেয়ার করুন