মা-বাবার চরিত্রে কেমন আছে বাশার দম্পতি

নাটকে মা-বাবার চরিত্রে অভিনয় করা অভিনয়শিল্পী দম্পতি মিলি বাশার (বাঁয়ে) ও ফখরুল বাশার মাসুম। ছবি: সংগৃহীত

মা-বাবার চরিত্রে কেমন আছে বাশার দম্পতি

‘পৃথিবীর সব দেশেই আমাদের বয়সীদের নিয়ে আলাদা ভাবে কাজ হয়। শুধু বাংলাদেশেই দেখি এসব নিয়ে কোনো ভাবনা নেই। আমার বন্ধু রাইসুল ইসলাম আসাদ। এত ভালো একজন অভিনেতা। কিন্তু তিনি নিয়মিত কাজ করছেন না। কারণ তিনি মানানসই চরিত্র পাচ্ছে না।’

অভিনয়শিল্পী দম্পতি ফখরুল বাশার মাসুম ও মিলি বাশার। নাটকে ও সিনেমায় বাবা-মার চরিত্রে তাদের উপস্থিতি অনেকদিন ধরেই চোখে পড়ে।

সম্প্রতি তারা দুজনেই অভিনয় শুরু করেছেন লিডার: আমিই বাংলাদেশ সিনেমায়। সিনেমার শুটিং শুরুর দিনে এ দম্পতির সঙ্গে কথা হয় নিউজবাংলার।

শোনা যায় বাবা-মার চরিত্র নাকি এখন থাকছেই না, বিশেষ করে নাটকে। অন্যদিকে, নাটকে আপনাদের উপস্থিতি দেখে তা মনে হয় না। আপনাদের প্রায়ই নাটক, ওয়েব কনটেন্টে এবং সিনেমায় দেখা যায়। আসলে পরিস্থিতিটা কেমন?

ফখরুল বাশার মাসুম: নাটকে বাবা-মার চরিত্র থাকছে না- এটা এক অর্থে ঠিক। বেশিভাগ নাটকেই বাবা-মা, ভাই-বোন, খালা-খালু, চাচা চরিত্রগুলো এখন থাকছে না। এমনও দেখা যায় যে, বাবা আছে তো মা নেই, মা আছে তো বাবা নেই। কিংবা নায়কের মা আছে আর নায়িকার বাবা।

এটা বুঝতে অসুবিধা হয় না যে, এটা হয় বাজেটের কারণে। গল্পকার, চিত্রনাট্যকার বা পরিচালককে বলা হয় যে, এসব চরিত্রের জন্য বাজেট নেই। এমন কথা আমরা পরিচালকদের কাছ থেকে শুনেছি।

আর আমাদের দেখা যায় কারণ এখন দেশে অনেক চ্যানেল। অধিকাংশের নাটক দিয়ে স্ক্রিন ভরতে হয়। যে কারণে নাটকের সংখ্যাও অনেক বেশি। মাসে হয়ত টিভি ও ইউটিউবের জন্য শত শত নাটক নির্মিত হয়। কিন্তু আমরা কয়টা নাটকে কাজ করতে পারি? সবচেয়ে বেশি হলেও হয়তো ৩০ দিনে ৩০টি নাটকে কাজ করি। মোট নাটকের হিসেবে ২০-৩০টি নাটক শতাংশের হিসাবে অনেক কম।

মিলি বাশার: আমাদের সৌভাগ্য যে, আমরা দর্শকদের চোখে পড়ছি। আমার মনে হয় দর্শকরা এই চরিত্রগুলো চাচ্ছে। দর্শকদের চাহিদার কারণে এখন হয়ত মা-বাবার চরিত্র আগের চেয়ে বেশি দেখা যাচ্ছে।

মা-বাবার সংলাপেও কিন্তু অনেক পরিবর্তন এসেছে। যেমন আগে মা-বাবার চরিত্রের সংলাপ ছিল সন্তানকে বলা বিয়ে করবি কিনা কিংবা খবরের কাগজ পড়া, সন্তানদের খেতে ডাকা। এখন তার চেয়ে বেশি সংলাপ শোনা যায় মা-বাবার চরিত্রে।

মা-বাবার চরিত্রে কেমন আছে বাশার দম্পতি

নাটকে অভিনয়ের যে হিসাব দিলেন, তাতে তো মনে হচ্ছে না বেশি কাজ করছেন। যদি এটিই আপনাদের জীবীকা হয়, তাহলে অভিনয়ের এই পরিমাণ কি জীবন ধারণের জন্য ঠিক আছে?

ফখরুল বাশার মাসুম: এই বয়সে এই ধরনের কাজ করে জীবীকা নির্বাহ আসলেই কষ্টের। আমরা দুজন কাজ করছি এবং একই ছাদের নিচে থাকছি। তাই হয়ত দুজন মিলে কোনোরকম চালিয়ে নিতে পারছি। কিন্তু সত্যি কথা বলতে এটা অনেক কষ্টের।

আপনাদের বয়সের চরিত্র নিয়ে তো ভিন্নভাবে কাজও হচ্ছে না। যেখানে আপনাদের মতো বয়সীরাই মুখ্য। এটা কেন?

ফখরুল বাশার মাসুম: পৃথিবীর সব দেশেই আমাদের বয়সীদের নিয়ে আলাদা ভাবে কাজ হয়। শুধু বাংলাদেশেই দেখি এসব নিয়ে কোনো ভাবনা নেই।

আমার বন্ধু রাইসুল ইসলাম আসাদ। এতো ভালো একজন অভিনেতা। কিন্তু তিনি নিয়মিত কাজ করছেন না। কারণ তিনি মানানসই চরিত্র পাচ্ছে না।

আমরাও চাই আমাদের নিয়ে কাজ হোক। কিন্তু তা না হলে অভিনয়শিল্পী হিসেবে আমাদের কী করার আছে। আর সে রকম কাজ হলে আমাদের জীবীকা নির্বাহ আরও একটু সহজ হতো।

কখনও যদি ভাবেন কাজ করবেন না, তখন কী করবেন?

ফখরুল বাশার মাসুম: কাজ করব না, এ কথা এখনও ভাবিনি।

মা-বাবার চরিত্রে কেমন আছে বাশার দম্পতি

শুটিং টানা কয়েকদিন না থাকলে কী করেন?

ফখরুল বাশার মাসুম: লকডাউনে এমন হয়েছিল। অনেকদিন ঘরে থাকতে হয়েছে। তখন সিনেমা দেখেছি, এখনও দেখি। খেলা হলে খেলা দেখি, বই পড়ি।

আমার স্ত্রী ঘরের কাজ করে আনন্দ পায়। সে চমৎকার রান্না করে। কাজ না থাকলে তিনি নিজেই রান্না করেন, আমরা সেগুলো গোগ্রাসে খাই আর ওয়েট বাড়াই।

পুরুষের বয়স বাড়লেও তারা বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা, নিয়মিত বাড়ির বাইরে যাওয়াসহ অনেক কাজেও যুক্ত হন। কিন্তু নারীর ক্ষেত্রে তেমনটা একেবারেই কম ঘটে। এই বয়সে কাজ না থকলে নিঃসঙ্গতা অনুভব করেন কি?

মিলি বাশার: না, আমি একদমই নিঃসঙ্গ অনুভব করি না। আমি সংসারের কাজ করতে পছন্দ করি। কখনও গান গাই, ছবি আঁকি, বই পরি- এভাবে সময় কাটে। মেয়েদের সঙ্গে কথা বলাও আমার কাছে আনন্দের। তাছাড়া বড় ছুটি পেলে ঘুরতে যাই।

ফখরুল বাশার মাসুম: আমার স্ত্রী মাঝে মাঝে প্রশ্ন করে, মানুষ বোর হয় কীভাবে। যখন তার কিছুই করার থাকেনা তখন সে হারমনিয়াম টেনে বের করে একটু গান করে কিংবা লেখার চেষ্টা করে আবার ছবি আঁকে। আমি আবার এতো ব্যস্ত হতে পারি না।

তাহলে নিশ্চয়ই আপনারা যৌবনে আরও বেশি গান, কবিতা, ছবি আঁকা নিয়ে সময় কাঁটিয়েছেন?

মিলি বাশার: যৌবনের সময়টা আমরা কাটিয়েছি সৌদি আরবে। সেখানে নানা সীমাবদ্ধতার মধ্যেও গানের অনুষ্ঠান করেছি, নাটক করেছি, কবিতার আসর বসিয়েছি। সেখানে বাচ্চাদের গানের স্কুল করেছিলাম।

ফখরুল বাশার মাসুম: আমরা বিয়ে আগে থেকেই ঢাকা থিয়েটারে যুক্ত ছিলাম। আমি থিয়েটার শুরু করি ১৯৭৪ এ। পরে মিলি জয়েন করে। বিয়ের পর জীবিকার জন্য চলে যায় সৌদি আরব। সেখানে আমরা দিবস কেন্দ্রীক কাজ করতাম। পিকনিক করতাম, বৈশাখী মেলা, পৌষ মেলা করেছি। কখনও কখনও লং ড্রাইভে বের হতাম। ২৬ বছর সেখানে ছিলাম। ২০১২ তে একেবারে দেশে ফিরি।

মা-বাবার চরিত্রে কেমন আছে বাশার দম্পতি

দুই দশকেরও বেশি সময় পর দেশে ফিরে আবার অভিনয় শুরু করা কি কঠিন ছিল?

ফখরুল বাশার মাসুম: কঠিন ছিল তো অবশ্যই। দেশে ফেরার পরদিনই দেখা করতে যাই বন্ধু আফজাল হোসেনের সঙ্গে। সে বলে, কী করবি? আমি বললাম, কী করব জানি না। গতকাল এসেছি, ভেবে দেখি।

আফজাল বলল, এই বয়সে ভাবার কিছু নাই। এখন কেউ তোকে চাকরি দেবে না। আর ব্যবসা করতে গেলে টাকা মেরে দেবে। তখন আমি চিন্তায় পরে গেলাম।

আফজাল বলল, তুই যেটা জানিস, সেটা কর। ঢাকা থিয়েটার এত এত নাটকে অভিনয় করেছিস, বিটিভিতে তালিকাভুক্ত শিল্পী, তুই আবার অভিনয় শুরু কর।

মে মাসে আফজালের কাকা বাবুর শুটিংয়ে অংশ নেই। এরপর শহীদুজ্জামন সেলিম, তানভীর হোসেন প্রবাল, তপু খান, মাতিয়া বানু শুকু আমাকে নিয়ে কাজ করেন।

স্ট্রাগল আসলে সব সময় থাকে। এখনও স্ট্রাগল করছি। এখনকার স্ট্রাগল গ্রহণ ও বর্জনের।

অভিনয়শিল্পী দম্পতি ফখরুল বাশার মাসুম ও মিলি বাশার দম্পতির দুই মেয়ে। বড়জন নাবিলা। তিনি কাজ করেন মাত্রা নামের বিজ্ঞাপনি সংস্থায়। আর ছোট মেয়ে নাজিবা। সাংবাদিকতার পাশাপাশি অভিনয়েও দেখা যায় তাকে।

আরও পড়ুন:
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন
পার্লার ব্যবসায় সালাহউদ্দিন লাভলু!
মনোজ-মৌয়ের বিয়ে দিলেন চয়নিকা!

শেয়ার করুন

মন্তব্য

ডাবিং নিয়ে ভয়ে থাকেন পূজা

ডাবিং নিয়ে ভয়ে থাকেন পূজা

হৃদিতা সিনেমার ডাবিংয়ে পূজা। ছবি: সংগৃহীত

পূজা লেখেন, ‘একটি সিনেমার সবচেয়ে কঠিন কাজ হলো ডাবিং। কোনো ভালো কাজ শুরু করার আগে আমি প্রার্থনা করে নেই, যাতে কাজটি আমি ভালো করতে পারি। কারণ দিনশেষে কাজটি আমার, ভালো হলে দর্শক আমাকে বলবে খারাপ হলে আমাকেই বলবে। তাই ভালোই করতে চাই।’

ঢাকাই সিনেমার হালের নামকরা অভিনেত্রী পূজা চেরী অভিনীত সিনেমা হৃদিতা। সিনেমাটির শুটিং শেষ হয়েছে। এখন চলছে ডাবিং।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে বৃহস্পতিবার রাতে এসব তথ্য জানিয়েছেন অভিনেত্রী পূজা।

পূজা লেখেন, ‘একটি সিনেমা যখন ফাইনাল হয় তখন আমার শুটিং করা সবচেয়ে সহজ মনে হয়; যদিও সহজ না। কিন্তু একটি সিনেমার সবচেয়ে কঠিন কাজ হলো ডাবিং। যেটা কিনা আমি সবচেয়ে ভয়ে থাকি। কারণ আমার মনে হয় স্পটে যতুটুকু অভিনয় করি তার থেকে অনেক গুণ ভালো করতে হয় ডাবিং এ, যাতে অভিনয় আরো ভালো লাগে।’

তিনি আরও লেখেন, ‘সবকিছু ভালোভাবে শেষ করে শুরু হলো সিনেমাটির ডাবিং। কোনো ভালো কাজ শুরু করার আগে আমি প্রার্থনা করে নেই, যাতে কাজটি আমি ভালো করতে পারি। কারণ দিনশেষে কাজটি আমার, ভালো হলে দর্শক আমাকে বলবে খারাপ হলে আমাকেই বলবে। তাই ভালোই করতে চাই ।’

হৃদিতা সিনেমার পরিচালক ইস্পাহানী আরিফ জাহান। তার সঙ্গে হওয়া পূজার কিছু কথা উল্লেখ করে লেখেন, ‘ডাবিং শুরু করার আগে আমাদের পরিচালক ইস্পাহানী আরিফ জাহান স্যার বললেন গানটি দেখবে? আমি অনেক খুশি হয়ে বললাম অবশ্যই। দেখেই মনটা ভালো হয়ে গেলো। তারপর কঠিন কাজটি করতে গেলাম।’

ডাবিং নিয়ে ভয়ে থাকেন পূজা
ডাবিং রুমের বাইরে পূজা চেরী। ছবি: সংগৃহীত

ডাবিংয়ের বর্ণনা দিয়ে পূজা লেখেন, ‘গেলাম মাইক্রোফোনের সামনে। হেডফোনটি কানে পরলাম। মনে মনে বললাম হে ঈশ্বর ডাবিংটা যেনো ভালো হয়। আস্তে আস্তে দেখলাম প্রায় অর্ধেকটা শেষ করে ফেলেছি। ইস্পাহানী আরিফ জাহান স্যারকে জিজ্ঞাস করলাম কেমন হচ্ছে? তারা বললেন খুব ভালো। শুনে খুব খুশি লাগলো। নিজের কোনো কাজ কেউ ভালো বললে আসলেই খুব শান্তি লাগে।’

সবশেষে পূজা জানান, ভালোভাবে সবকিছু শেষ করতে পারলে শিগগিরই প্রেক্ষাগৃহে হৃদিতা সিনেমাটি দেখতে পারবেন দর্শকরা।

কথাসাহিত্যিক আনিসুল হকের উপন্যাস ‘হৃদিতা’ অবলম্বনে নির্মিত হচ্ছে সিনেমাটি। গত বছরের ৯ নভেম্বর সন্ধ্যায় বিএফডিসিতে কেক কেটে ঘরোয়াভাবে অনুষ্ঠিত হয় সিনেমাটির মহরত। এরপর ১১ নভেম্বর রাজধানীর উত্তরার শুরু হয় সিনেমার শুটিং।

আরও পড়ুন:
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন
পার্লার ব্যবসায় সালাহউদ্দিন লাভলু!
মনোজ-মৌয়ের বিয়ে দিলেন চয়নিকা!

শেয়ার করুন

দেড় বছর পর প্রেক্ষাগৃহে শাকিব খান, পরিচালকের ক্ষোভ

দেড় বছর পর প্রেক্ষাগৃহে শাকিব খান, পরিচালকের ক্ষোভ

নবার এলএলবির পোস্টার। ছবি: সংগৃহীত

শুক্রবার দেশের ১৬টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেতে যাচ্ছে নবাব এলএলবি। সিনেমায় অভিনয় করেছেন শাকিব খান, মাহিয়া মাহি, শহীদুজ্জামান সেলিম, স্পর্শিয়া, রাশেদ অপু, শায়েদ আলী, সুমন আনোয়ার।

শাকিব খান প্রযোজিত ও অভিনীত বরী সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছিল ২০২০ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি। গত বছরের শেষ দিকে কিছু সিনেমায় মুক্তি পেলেও ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক শাকিব খানের সিনেমার আর মুক্তি পায়নি।

প্রায় দেড় বছরের বিরতি কাটিয়ে আবারও মুক্তি পেতে যাচ্ছে শাকিব খান অভিনীত সিনেমা নবাব এলএলবি। অনন্য মামুন পরিচালিত সিনেমাটি গত বছরের ডিসেম্বর মাসে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম আই থিয়েটারে মুক্তি পায়। এবার সিনেমাই সিনেমাটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে প্রেক্ষাগৃহে।

শুক্রবার দেশের ১৬টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেতে যাচ্ছে নবাব এলএলবি। সিনেমায় অভিনয় করেছেন শাকিব খান, মাহিয়া মাহি, শহীদুজ্জামান সেলিম, স্পর্শিয়া, রাশেদ অপু, শায়েদ আলী, সুমন আনোয়ার।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে পরিচালক অনন্য মামুন সিনেমার মুক্তির বিষয়টি নিয়ে লেখেন, ‘খুব গালাগালি করতে ইচ্ছা করছে, এত নেতা এত সংগঠন, কাজটা কি আপনাদের? চলচ্চিত্র তো বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে একটা শিল্প। সব শিল্প প্রতিষ্ঠান যদি স্বাস্থ্যবিধি মেনে খোলা থাকতে পারে, তাহলে সিনেমা হল কেন খোলা থাকবে না।

‘জবাব দেয়ার কি কেউ আছে, হলের সংখ্যা ১৬ তে নেমে আসছে। এরপর কী করবেন, নাকি নেতারা কেউ আর সিনেমা বানাবেন না বা প্রযোজনা করবে না। তাই কোনো মাথা ব্যথা নেই। আমি একাই যুদ্ধ করবো।’

দেড় বছর পর প্রেক্ষাগৃহে শাকিব খান, পরিচালকের ক্ষোভ
নবার এলএলবির সিনেমার দৃশ্যে শাকিব খান। ছবি: সংগৃহীত

নবাব এলএলবি সিনেমার মুক্তির কথা জানিয়ে পরিচালক লেখেন, ‘কাল (শুক্রবার) নবাব এলএলবি রিলিজ হবে, আগামী সপ্তাহে কসাই, আর ঈদে অমানুষ। সারা বাংলাদেশ একটা হল খোলা থাকলে একটা হলেই রিলিজ করবো।’

সিনেমাটির প্রায় ১০ মিনিট কেটে সেন্সর ছাড়পত্র দিয়েছে সেন্সর বোর্ড। নারী ধর্ষণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ নিয়েই গড়ে উঠেছে সিনেমার কাহিনি।

আরও পড়ুন:
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন
পার্লার ব্যবসায় সালাহউদ্দিন লাভলু!
মনোজ-মৌয়ের বিয়ে দিলেন চয়নিকা!

শেয়ার করুন

মদ কিনতে গিয়ে প্রতারিত শাবানা আজমি

মদ কিনতে গিয়ে প্রতারিত শাবানা আজমি

বলিউড অভিনেত্রী শাবানা আজমি। ছবি: সংগৃহীত

অনলাইনে কেনাকাটার ক্ষেত্রে এর আগে অনেক তারকাই তাদের তিক্ততার কথা জানিয়েছেন। কিন্তু এবার সরাসরি অনলাইন প্রতারণার শিকার হলেন বর্ষীয়ান অভিনেত্রী শাবানা আজমি।

অনলাইনে মদ কিনতে গিয়ে বিপাকে পড়লেন বলিউডের জাঁদরেল অভিনেত্রী শাবানা আজমি।

অনলাইনে কেনাকাটার ক্ষেত্রে এর আগে অনেক তারকাই তাদের তিক্ততার কথা জানিয়েছেন। কিন্তু এবার সরাসরি অনলাইন প্রতারণার শিকার হলেন বর্ষীয়ান এই অভিনেত্রী।

টুইট করে সে কথা নিজেই জানিয়েছেন অভিনেত্রী।

শাবানা আজমির কথায়, অর্ডার করে পুরো টাকা পেমেন্ট করা হলেও তিনি মদ পান নি। এমনকি যে অনলাইন প্রতিষ্ঠানে মদের অর্ডার করেছিলেন সেখানকার নম্বরে একাধিকবার যোগাযোগ করেও ব্যর্থ হয়েছেন তিনি।

সেই টুইটে শাবানা অভিযোগ তুলেছেন মুম্বাইয়ের ‘লিভিং লিক্যুইড’ নামে একটি স্পষ্ট ও অনলাইন মদ ডেলিভারি প্রতিষ্ঠানের নামে।

হ্যাশটাগ ‘লিভিং লিক্যুইড’ দিয়ে টুইটে অভিনেত্রী লিখেন, ‘সাবধান, আমি এদের কাছে প্রতারিত হয়েছি। মদ কেনার জন্য পুরো টাকা পেমেন্ট করেছি। কিন্তু অর্ডার নেয়ার পর তাদেরকে বারবার ফোন দেয়া হলেও তারা আর আমার ফোন ধরেন নি।’

পাশাপাশি টুইটে ওই প্রতিষ্ঠানের অনলাইন পেমেন্ট নম্বরও শেয়ার করেছেন শাবানা।

শাবানা আজমির এই টুইটের পর রীতিমতো হতবাক অনেকে। কেউ কেউ আবার মদ কেনার জন্য বর্ষীয়ান এই অভিনেত্রীকে নিয়ে রসিকতা করতেও পিছপা হননি।

তবে আবার অনেকেই পরামর্শ দিয়েছেন এই প্রতারণার বিরুদ্ধে পুলিশের দ্বারস্থ হতে।

আরও পড়ুন:
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন
পার্লার ব্যবসায় সালাহউদ্দিন লাভলু!
মনোজ-মৌয়ের বিয়ে দিলেন চয়নিকা!

শেয়ার করুন

পরীমনির অভিমানী ‘স্যরি’

পরীমনির অভিমানী ‘স্যরি’

অভিনেত্রী পরীমনি। ছবি: সংগৃহীত

আমি মাইয়া লোক কিন্তু লুতুপুতু মাইয়া টাইপ আচরণ করিনাই আপনার সঙ্গে, ঘইটা গেল সমস্যা! চিকন সুরে ভাইয়া ভাইয়া করিনাই আপনারে, বিশাল সমস্যা! কাজের ফাঁকে আলগা রসের পিরিতের আলাপ করি নাই, ব্যাস এই তো সমস্যা! কাজে মত প্রকাশের অধিকার দেখাইছি, তাতেই সমস্যা!

ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ করে হঠাৎ আলোচনায় আসা বাংলা চলচ্চিত্রের তারকা পরীমনি তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে লিখেছেন ‘সরি’।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অভিনেত্রী তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে স্যরি লিখে তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লেখা একটি স্ট্যাটাস শেয়ার করেছেন।

কোন পরিপ্রেক্ষিতে তিনি ওই দুঃখ কার কাছে প্রকাশ করেছেন, সেটি স্পষ্ট নয়। তবে স্ট্যাটাসে তার অভিমানের বিষয়টি স্পষ্ট।

আর পুরো স্ট্যাটাসটাই যে তাকে ঘিরে সাম্প্রতিক আলোচনার কারণে লেখা হয়েছে, সেটিও বোঝা যায়। কারণ, তিনি একটি বিষয় সামনে এনেছেন, সেটি হলো তার ঘরে মদের বোতল থাকার প্রসঙ্গ।

একটি গণমাধ্যম সংবাদ প্রকাশ করেছে যে, পরীমনির ঘরে মদের বার। তবে তিনি এগুলোকে শোপিস হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন-

‘সমস্যা হইলো ...

আমি মাইয়া লোক কিন্তু লুতুপুতু মাইয়া টাইপ আচরণ করিনাই আপনার সঙ্গে, ঘইটা গেল সমস্যা!

চিকন সুরে ভাইয়া ভাইয়া করিনাই আপনারে, বিশাল সমস্যা!

কাজের ফাঁকে আলগা রসের পিরিতের আলাপ করিনাই, ব্যাস এইতো সমস্যা!

কাজে মত প্রকাশের অধিকার দেখাইছি, তাতেই সমস্যা!

আপানার চোক্ষের সামনে আরও পাঁচ-দশ জনের মতো না হারাইয়া যাইয়া দিন দিন ক্যারিয়ার বানাইতেছি, নাম কামাইতেছি.. এইখানে হইয়া গেল সমস্যা!

আপনি পরিচালক হইয়া ৫ বছরে একটা সিনেমা বানান আর আমার এক বছরে পাঁচ সিনেমা রিলিজ হয়, আমার তো প্রচুর সমস্যা!

আপনারে প্রযোজক বানাইতে দিলাম না, ওরে সমস্যা!

শুটিং সেটে উহ আহ করা দামরা ধইরা নগদে থাপড়াই, চরম সমস্যা!

কোনোরকম চামচামি না নিয়া আপনার মুখের উপরে তিতা সত্য বইলা দেই, আমারই তো সমস্যা!

তারপর তো বিড়ি খাওয়া, মদ খাওয়া, প্রেম করা, বিদেশে ইচ্ছা মত ঘুরতে যাওয়া, শুয়োরের বাচ্চা-বালছাল বইলা গালিটালি দেয়া, পিরিয়ড নিয়া কথা বলা, এইগুলা তো আছেই!

পরীমনির অভিমানী ‘স্যরি’
অভিনেত্রী পরীমনি। ছবি: সংগৃহীত

পাইছেন কই এইগুলা?

আমিই তো দিছি।

আপনাদের মন ভরে না কেন বলেন তো!?

টুপ কইরা কথায় কথায় চরিত্র হাতাইতে আসেন!

বাসার মধ্যে মদের খালি বোতলের শোপিস দেইখা চরিত্র বুইঝা ফেলেন কেমনে বলেন তো!?

বাসায় যে জায়নামাজ, কোরআন, নামাজের ঘর আছে সেইটা কেন দেখতে পাইলেন না আপনে!?

আহারে একটু জিরান এইবার। ক্ষমা দেন। অন্যায়কে অন্যায় বলতে শেখেন! অপরাধীকে অপরাধী বলতে শেখেন। একটা ন্যায়ের জন্যে লড়াইয়ের সঙ্গে থাকেন। না পারলে এইবার অন্তত নিজের ব্যাক্তিগত হিংসাত্মক আক্রমণ কইরেন না প্লিজ।

এই লড়াই শুধু যে আমার একার না এইটা বোঝার সু-জ্ঞান উদয় হোক সবার।’

১৩ জুন রাতে পরীমনি গণমাধ্যমকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ করেন। ঢাকা বোট ক্লাবে ৯ জুন রাতে সেই ঘটনা ঘটে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

পরীমনির অভিমানী ‘স্যরি’
১৪ জুন রাতে গণমাধ্যমের সামনে কথা বলছেন পরীমনি। ছবি: সংগৃহীত

তার অভিযোগের পর অভিযুক্ত নাসির উদ্দিন মাহমুদ এবং অমিকে আইনের আওতায় নিয়ে আসে ডিবি পুলিশ। ১৫ জুন পরীমনি যান মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে।

অভিযোগের তিন দিন পর অর্থাৎ ১৭ জুন রাজধানীর অল কমিউনিটি ক্লাবে পরীমনির বিরুদ্ধে ভাঙচুরের অভিযোগ আসে। ক্লাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ৭ জুন ক্লাবে মদ্যপ অবস্থায় ভাঙচুর করেন পরীমনি।

অভিযোগের পর এই নায়িকা বলেন, ‘মূল ঘটনা থেকে নজর সরাতেই এসব অভিযোগ আসছে।’

পরীমনির অভিমানী ‘স্যরি’
অল কমিউনিটি ক্লাবের সিসিটিভি ক্যামেরার ছবিতে পরীমনি ও তার সঙ্গীরা। ছবি: সংগৃহীত

এরপর ২২ জুন সকালে বনানী ক্লাব থেকেও জানানো হয়, ছয়-সাত মাস আগে ক্লাবটিতে অপ্রীতিকর আচরণ করেছিলেন পরী।

একই দিন বোট ক্লাবের মধ্যে পরীমনিসহ তার তিন সঙ্গীর সঙ্গে অভিযুক্ত নাসিরের কথা বলার ১০ সেকেন্ডের একটি ভিডিও প্রকাশ পায়। সেখানে দেখা যায়, সঙ্গীদের নিয়ে পরীমনি একটি টেবিলে বসে আছেন। সামনে কয়েকটি কাচের বোতল। আর নাসির উদ্দিন মাহমুদ তার কাছে গিয়ে কিছু একটা বলার পর তিনি ধমকের সুরে বলেন, ‘ওই যা, যা।’

অল কমিউনিটি ক্লাবের অভিযোগের দিনে পরীমনি শেষ গণমাধ্যমের সামনে কথা বলেন। এরপর থেকে তিনি গণমাধ্যমের সামনে আসেননি এবং তার ফোনও বন্ধ রয়েছে।

আরও পড়ুন:
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন
পার্লার ব্যবসায় সালাহউদ্দিন লাভলু!
মনোজ-মৌয়ের বিয়ে দিলেন চয়নিকা!

শেয়ার করুন

‘চিরঞ্জীব মুজিব’ সিনেমার পোস্টার উন্মোচন

‘চিরঞ্জীব মুজিব’ সিনেমার পোস্টার উন্মোচন

বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী অবলম্বনে নির্মিত চলচ্চিত্র ‘চিরঞ্জীব মুজিব’ এর পোস্টার উন্মোচন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: নিউজবাংলা

প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে বৃহস্পতিবার এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে চলচ্চিত্রটির তিনটি পোস্টার উন্মোচন করা হয়। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করছেন প্রধানমন্ত্রীর স্পিচ রাইটার নজরুল ইসলাম। আগামী আগস্ট মাসে চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী অবলম্বনে নির্মিত চলচ্চিত্র ‘চিরঞ্জীব মুজিব’ এর পোস্টার উন্মোচন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে বৃহস্পতিবার এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে চলচ্চিত্রটির তিনটি পোস্টার উন্মোচন করা হয়।

চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করছেন প্রধানমন্ত্রীর স্পিচ রাইটার নজরুল ইসলাম। আগামী আগস্ট মাসে চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

‘চিরঞ্জীব মুজিব’ এর পরিচালক নজরুল ইসলাম এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান, চলচ্চিত্রটি নিবেদন করা হয়েছে বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানাকে। এটি নির্মাণ করা হয়েছে হায়দার এন্টারপ্রাইজের ব্যানারে।

‘চিরঞ্জীব মুজিব’ সিনেমার পোস্টার উন্মোচন

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, চলচ্চিত্রটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন আহমেদ রুবেল, পূর্ণিমা, খায়রুল আলম সবুজ, এস এম মহসীন, দিলারা জামান, আজাদ আবুল কালাম, শতাব্দী ওয়াদুদ, সমু চৌধুরী, আরমান পারভেজ মুরাদ, শাহজাহান সম্রাট, সেলিম আহমেদ, জুয়েল মাহমুদ প্রমুখ।

আরও পড়ুন:
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন
পার্লার ব্যবসায় সালাহউদ্দিন লাভলু!
মনোজ-মৌয়ের বিয়ে দিলেন চয়নিকা!

শেয়ার করুন

রাশ্মিকাকে দেখতে ৯০০ কিলোমিটার পাড়ি দিলেন ভক্ত

রাশ্মিকাকে দেখতে ৯০০ কিলোমিটার পাড়ি দিলেন ভক্ত

দক্ষিণী সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী রাশ্মিকা মান্দানা। ছবি: সংগৃহীত

আকাশ ত্রিপাঠী নামের রাশ্মিকার সেই ভক্ত পাড়ি দিয়েছেন তেলেঙ্গানা থেকে কর্ণাটক । তেলেঙ্গানা থেকে ট্রেনে চেপে মাইশুর, সেখান থেকে একটি মালবাহী অটোতে করে মগগুলা পৌঁছান আকাশ। সেখান থেকে গুগল মানচিত্রের সাহায্যে অভিনেত্রীর জন্মস্থান কর্ণাটকের বিরাজপেটে হাজির হন তিনি।

বর্তমান সময়ে দক্ষিণী চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রীদের মধ্যে অন্যতম একজন রাশ্মিকা মান্দানা। তাকে একনজর দেখতে ৯০০ কিলোমিটার পাড়ি দিয়েছেন তার এক ভক্ত।

আকাশ ত্রিপাঠী নামের রাশ্মিকার সেই ভক্ত পাড়ি দিয়েছেন তেলেঙ্গানা থেকে কর্ণাটক।

তেলেঙ্গানা থেকে ট্রেনে চেপে মাইশুর, সেখান থেকে একটি মালবাহী অটোতে করে মগগুলা পৌঁছান আকাশ।

সেখান থেকে গুগল মানচিত্রের সাহায্যে অভিনেত্রীর জন্মস্থান কর্ণাটকের বিরাজপেটে হাজির হন তিনি।

সেই এলাকায় পথচারীদের জিজ্ঞেস করতে থাকেন অভিনেত্রীর বাড়ির ঠিকানা। এতে একাবাসীর সন্দেহ জাগে অভিনেত্রীর সেই ভক্ত আকাশের ওপর। এ জন্য তারা পুলিশ ডাকে।

পরে পুলিশ এসে আকাশকে বাড়ি ফিরে যাওয়ার পরামর্শ দেন। তাতেও রাজি হননি আকাশ।

এরপর তাকে জানানো হয় অভিনেত্রী এই মুহূর্তে কর্ণাটকে নেই, মুম্বাইয়ে রয়েছেন।

রাশ্মিকাকে দেখতে ৯০০ কিলোমিটার পাড়ি দিলেন ভক্ত
দক্ষিণী সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী রাশ্মিকা মান্দানা। ছবি: সংগৃহীত

২০১৬ সালে কন্নড় সিনেমা কিরিক পার্টি দিয়ে বড় পর্দায় যাত্রা শুরু। এরপর তেলেগু সিনেমায় চুটিয়ে কাজ করছেন রাশ্মিকা।

গীতা গোবিন্দম, চালো, ডিয়ার কমরেড, সারিলেরু নিকেভ্যারুসহ বেশ কিছু সুপারহিট তেলেগু সিনেমা দিয়ে জয় করেন দর্শকের হৃদয়।

রাশ্মিকাকে দেখতে ৯০০ কিলোমিটার পাড়ি দিলেন ভক্ত
দক্ষিণী সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী রাশ্মিকা মান্দানা। ছবি: সংগৃহীত

এখন মিশন মজনু নামের একটি সিনেমা দিয়ে বলিউডে পা রাখতে যাচ্ছেন এই অভিনেত্রী। শুটিংও শুরু হয়েছে সিনেমাটির।

এই সিনেমায় বলিউডের হালের ক্রেজ সিদ্ধার্থ মালহোত্রার বিপরীতে অভিনয় করছেন রাশ্মিকা।

১৯৭০ সালে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যকার এক গোপন অপারেশনের গল্প নিয়ে সিনেমা মিশন মজনু

এ ছাড়া বলিউডের কুইন সিনেমার খ্যাতিমান পরিচালক বিকাশ বহেলের আসন্ন সিনেমাগুডবাইতেও অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে দেখা যাবে রাশ্মিকাকে।

আরও পড়ুন:
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন
পার্লার ব্যবসায় সালাহউদ্দিন লাভলু!
মনোজ-মৌয়ের বিয়ে দিলেন চয়নিকা!

শেয়ার করুন

মাহি প্রযোজিত প্রথম কনটেন্ট আসছে শুক্রবার

মাহি প্রযোজিত প্রথম কনটেন্ট আসছে শুক্রবার

অভিনেত্রী ও প্রযোজক মাহিয়া মাহি। ছবি: সংগৃহীত

মাহি বলেন, ‘রাফি বলল যে, এখন তো বৃষ্টি, কাজ করতে গেলে তোমার লস হবে। তুমি বরং পরে শুট কর। আমি বললাম, আমি এখনই করব, আল্লাহ ভরসা। আমরা পরশুই শুটে যাব। যদি বৃষ্টি হয়, আমরা বসে থাকব। এটাই আমার কপাল।’

চিত্রনায়িকা মাহি প্রথমবারের মতো প্রযোজনা করেছেন। যার নাম এইডা কপাল। এটি মূলত একটি ওয়েব কনটেন্ট। ২৫ জুন কনটেন্টটি মুক্তি পাবে ওয়েব প্ল্যাটফর্ম বায়োস্কোপে। এটি পরিচালনা করেছেন রায়হান রাফি।

৩০ মিনিট দৈর্ঘ্যের কনটেন্টটির টিজার প্রকাশ পায় বেশ আগেই। সম্প্রতি এইডা কপাল নিয়ে কথা বলতে লাইভে এসেছিলেন কনটেন্টের প্রযোজক ও অভিনেত্রী মাহিয়া মাহি।

তিনি বলেন, ‘গত বছর এর শুটিং করেছি আমরা। প্রথমে এটার নাম ছিল ৬৯। পরে হয়েছে এইডা কপাল।’

প্রযোজনা করার ইচ্ছার কারণ জানিয়ে মাহি বলেন, ‘তখন মিমের জন্য রাফি একটা কাজ করেছিল। ওটা দেখে আমারও একটা কাজ করতে ইচ্ছে হয়। রাফিকে বললাম, আমিও একটা কিছু বানাতে চাই।’

নিজের ইউটিউব চ্যানেল খুলে সেখানে কনটেন্টটি প্রকাশের ইচ্ছা ছিল মাহির।

তিনি বলেন, ‘রাফি আমাকে বলল, এখন কেন টাকা খরচ করবা? তাছাড়া টাকা খরচ করে তুমি অপসেট হবা। আমি বললাম, আমি এটা করতে চাই। ভিডিওটা আমার ইউটিউব চ্যানেলে আপ করব। মিমের মতো আমিও একটা ইউটিউব চ্যানেল খুলব এবং সেখানে এক্সক্লুসিভলি এই কনটেন্টটি প্রকাশ করব।’

নির্মাতা রায়হান রাফি রাতের মধ্যেই গল্প রেডি করে মাহিকে শোনান। গল্প পছন্দ হয় মাহির। এক দিন পরেই শুটিংয়ে যেতে চান মাহি। কিন্তু বাদ সাধে বৃষ্টি।

মাহি প্রযোজিত প্রথম কনটেন্ট আসছে শুক্রবার
অভিনেত্রী ও প্রযোজক মাহিয়া মাহি। ছবি: সংগৃহীত

মাহি বলেন, ‘রাফি বলল যে, এখন তো বৃষ্টি, কাজ করতে গেলে তোমার লস হবে। তুমি বরং পরে শুট কর। আমি বললাম, আমি এখনই করব, আল্লাহ ভরসা। আমরা পরশুই শুটে যাব। যদি বৃষ্টি হয়, আমরা বসে থাকব। এটাই আমার কপাল।’

যেদিন শুটিং সেদিন সকাল থেকেই ছিল প্রচণ্ড বৃষ্টি। কিন্তু শুটিং শুরু করার প্রস্তুতি নিতেই বৃষ্টি শেষ হয়ে যায়।

মাহি বলেন, ‘আমার কপাল ভালো, শুটিং করতে বের হতেই বৃষ্টি চলে যায়।’

গল্পের ধারণা দিয়ে মাহি বলেন, ‘এটি একটি রাতের গল্প। সেদিন রাত ১০টা থেকে আমরা শুটিং শুরু করলাম। ভোর ৬টা পর্যন্ত শুটিং হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সকাল ১০টা পর্যন্ত শুটিং করেছি আমরা।

‘আমরা যখন শুটিং করি, তখন নিজেরাই হাসতে হাসতে শেষ। কারণ, আমরা ভাবছিলাম যে, এটা যখন দর্শকরা দেখবে, তারা কিছুই আন্দাজ করতে পারবে না। গল্প কোথা থেকে কোথায় যাচ্ছে সেটা ধরা একরকম অসম্ভব।’

নিজের অভিনয় নিয়ে মাহির ভাষ্য, ‘আমি খুব বাজে অ্যাকটিং করি, আমার অভিনয় দেখলে ভালো লাগবে না। কিন্তু পুরো মেকিংটা অনেক ভালো হয়েছে। আমার সহশিল্পীরা অনেক ভালো অভিনয় করেছেন। থিমটাই অনেক সুন্দর, দর্শকরা দেখলে খুব ভালো লাগবে।’

যদি কনটেন্টটি সবার ভালো লাগে, তাহলে আরও কনটেন্ট বানাবেন বলে আশ্বাস দেন মাহি।

করোনার কারণে অনেক দিন থেকেই শুটিং করছেন না ঢাকাই সিনেমার এ নায়িকা। তবে ১ জুলাই থেকে গ্যাংস্টারের শুট শুরু করার কথা রয়েছে তার।

আরও পড়ুন:
হুমকি দেয়ায় ফারহানের বিরুদ্ধে তরুণীর জিডি
লুকিয়ে থেকে বাবার কাছ থেকে মুক্তিপণ আদায়ের চেষ্টা
নিজের গল্পে নায়ক নিশো, নায়িকা মেহজাবিন
পার্লার ব্যবসায় সালাহউদ্দিন লাভলু!
মনোজ-মৌয়ের বিয়ে দিলেন চয়নিকা!

শেয়ার করুন