নগ্নতা নিয়ে মুখ খুললেন রাধিকা

রাধিকা আপ্তে বলেন, ‘‘‌আমি এগুলো এড়িয়ে যাই। এরপর আমি যখন ‘‌পার্চড' ছবিতে পোশাক খুলি, তখন মনে হলো আমার আর লুকিয়ে রাখার মতো কিছু নেই।’

বলিউড এমনকি টালিগঞ্জে অভিনয় করে বেশ নাম কুড়িয়েছেন মারাঠি কন্যা রাধিকা আপ্তে। বিভিন্ন সময় খুব ‘সাহসী’ অভিনেত্রী হিসেবে পর্দায় দেখা গেছে তাকে।

তবে একটি নগ্ন ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে বেশ বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয় তাকে। ট্রমার মধ্য দিয়ে যেতে হয় তাকে। টানা চার দিন বাড়ির বাইরেও বের হননি রাধিকা। অবশ্য ট্রমা কাটিয়ে নতুন করে ফিরেছেন রাধিকা।

নগ্নতাকে ভয় পান না বলে সাফ জানিয়েছে দিয়েছেন, ‘আমার আর লুকিয়ে রাখার মতো কিছু নেই।’

নগ্নতা নিয়ে মুখ খুললেন রাধিকা

যে নগ্ন সেলফির ছবি নেট দুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়ায় রাধিকাকে ট্রমার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছিল, সেই নারী তিনি নন বলেও দাবি করেছেন রাধিকা। ছবিটি ‘ক্লিন শেভেন’ সিনেমার একটি ক্লিপের।

এক পত্রিকায় দেয়া সাক্ষাৎকারে রাধিকা বলেন, ‘আমি যখন ক্লিন শেভেন-এর জন্য শুট করছিলাম, তখন আমার নগ্নতার একটি ক্লিপ ছড়িয়ে পড়ে। আমাকে বাজেভাবে ট্রল করা হয়েছিল। সেই ঘটনাটি আমার মনে প্রভাব ফেলেছিল।

নগ্নতা নিয়ে মুখ খুললেন রাধিকা

আমি বাড়ি থেকে চার দিনের জন্য বের হতে পারিনি। সংবাদমাধ্যম আমায় নিয়ে কী বলছে, সেসব নিয়ে ভাবিনি। কিন্তু আমার গাড়িচালক, চৌকিদার প্রত্যেকে আমাকে ওই ছবিগুলো দিয়ে চিনেছিল।’

নগ্নতা নিয়ে মুখ খুললেন রাধিকা

রাধিকা বলেন, ‘‘‌বিতর্কিত ছবিগুলো পোশাকহীন অবস্থায় তোলা সেলফি। ভালো দৃষ্টিসম্পন্ন যেকোনো মানুষ বলতে পারবেন, ছবিগুলোতে থাকা ব্যক্তি আসলে আমি নই। আমার মনে হয় না এই বিষয়গুলোতে কিছু করার আছে বা করা উচিত।

আমি এগুলো এড়িয়ে যাই। এরপর আমি যখন ‘পার্চড’ ছবিতে পোশাক খুলি, তখন মনে হলো আমার আর লুকিয়ে রাখার মতো কিছু নেই।’’

নগ্নতা নিয়ে মুখ খুললেন রাধিকা

এখন সব বিতর্ক উড়িয়ে দিয়ে আবারও হাজির হয়েছেন পর্দায়। নেটফ্লিক্সে গত বছর মুক্তি পাওয়া তার রাত অ্যাকেলি হ্যায় সিনেমায় অভিনয় দিয়ে প্রশংসা কুড়িয়েছেন, করেছেন দর্শকদের মুগ্ধ।

শেয়ার করুন

মন্তব্য

জয়ার প্রযোজনায় সুমন, অনুদান পেলেন অমিতাভ, পিপলু

জয়ার প্রযোজনায় সুমন, অনুদান পেলেন অমিতাভ, পিপলু

জয়ার প্রযোজনায় সিনেমা নির্মাণ করবেন সুমন। অমিতাভ রেজাও পেয়েছেন সরকারি অনুদান। ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা

রইদ নামের সিনেমা প্রযোজনা করবেন জয়া আর পরিচালনা করবেন মেজবাউর রহমান সুমন। অমিতাভ রেজা নির্মাণ করবেন পেন্সিলে আঁকা পরী নামের সিনেমা।

রুচিশীল ও শিল্পমানসমৃদ্ধ পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা ও সহায়তা দিয়ে আসছে সরকার। তারই ধারবাহিকতায় ২০২০-২১ অর্থবছরে অনুদানপ্রাপ্তদের নাম প্রকাশ করেছে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়।

পূর্ণদৈর্ঘ্য ২০টি চলচ্চিত্রকে অনুদানের জন্য বিবেচনা করা হয়েছে যাদের, তারা হলেন-

মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সিনেমা ক্ষমা নেই। প্রযোজক ও পরিচালক জাহাঙ্গীর হোসেন মিন্টু ( ইমি)।

মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সিনেমা সাড়ে তিন হাত ভূমি। প্রযোজক ও পরিচালক নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল।

মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সিনেমা মৃত্যুঞ্জয়ী। প্রযোজক বেগম বদরুন নেছা খানম, পরিচালক উজ্জ্বল কুমার মণ্ডল।

শিশুতোষ সিনেমা মাইক । প্রযোজক এফ এম শাহীন, পরিচালক হাসান জাফরুল ও এফ এম শাহীন।

শিশুতোষ সিনেমা নুলিয়াছড়ির সোনার পাহাড়। প্রযোজক ও পরিচালক লুবানা শারমিন।

সাধারণ শাখায় জয় বাংলা। প্রযোজক মিটু শিকদার, পরিচালক কাজী হায়াৎ।

সাধারণ শাখার সিনেমা জামদানী। প্রযোজক মো. জানে আলম, পরিচালক অনিরুদ্ধ রাসেল।

চাঁদের অমাবস্যা (সাধারণ শাখা)। পরিচালক ও প্রযোজক জাহিদুর রহিম অঞ্জন।

রইদ (সাধারণ শাখা)। প্রযোজক জয়া আহসান, পরিচালক মেজবাউর রহমান সুমন।

পেন্সিলে আঁকা পরী (সাধারণ শাখা)। প্রযোজক মাহজাবিন রেজা চৌধুরী, আসাদুজ্জামান, অমিতাভ রেজা। সিনেমাটি পরিচালনা করবেন অমিতাভ রেজা।

জলে জ্বলে (সাধারণ শাখা)। প্রযোজক ও পরিচালক অরুণ চৌধুরী।

অসম্ভব (সাধারণ শাখা)। পরিচালক ও প্রযোজক অরুণা বিশ্বাস।

ভাঙন (সাধারণ শাখা)। প্রযোজক ও পরিচালক মীর্জা শাখাওয়াত হোসেন।

দাওয়াল (সাধারণ শাখা)। প্রযোজক ও পরিচালক রকিবুল হাসান চৌধুরী (পিকলু)।

বলি (সাধারণ শাখা)। প্রযোজক রেজাউর রহমান খান (পিপলু আর খান) পরিচালক ইকবাল হোসাইন চৌধুরী।

শ্রাবণ জোৎস্নায় (সাধারণ শাখা)। প্রযোজক তামান্না সুলতানা, পরিচালক আব্দুস সামাদ খোকন।

দেশান্তর (সাধারণ শাখা)। প্রযোজক ও পরিচালক আশুতোষ ভট্টাচার্য (আশুতোষ সুজন)

গলুই (সাধারণ শাখা)। প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু, পরিচালক এস এ হক অলিক।

দেয়ালের দেশ (সাধারণ শাখা)। প্রযোজক মাহফুজুর রহমান, পরিচালক ইব্রাহিম খলিল মিশু।

জলরঙ (সাধারণ শাখা)। প্রযোজক দেলোয়ার হোসেন দিলু, পরিচালক কবিরুল ইসলাম রানা (অপূর্ব রানা)।

২০টি সিনেমার মধ্যে সর্বোচ্চ ৭০ লাখ টাকা পাচ্ছেন চাঁদের অমাবস্যা সিনেমার জন্য পরিচালক ও প্রযোজক জাহিদুর রহিম অঞ্জন। ৫০ লাখ টাকা পাবে মাইক সিনেমাটি। এছাড়া মৃত্যুঞ্জয়ী, জয় বাংলা, জামদানীদাওয়াল সিনেমা সংশ্লিষ্টরা পাবেন ৬৫ লাখ টাকা করে। আর বাকিরা সবাই পাবেন ৬০ লাখ টাকা করে। ২০টি সিনেমার মোট বাজেট ১২ কোটি ২০ লাখ টাকা।

শেয়ার করুন

প্রটোকলের আশা ছিল, পাইনি: পরীমনি

প্রটোকলের আশা ছিল, পাইনি: পরীমনি

ডিবি কার্যালয়ের উদ্দেশে বাসা থেকে বের হওয়ার সময় ক্যামেরাবন্দি হন পরীমনি। ছবি: নিউজবাংলা

‘আমি অপেক্ষা করছিলাম যে, কেউ আমাকে প্রোটোকল দিয়ে নেয় কিনা। আসলে কেউ আসে নাই। সো আমারই যেতে হচ্ছে। কারণ আমার তো যাইতে হবে। কথা বলতে হবে তাদের সাথে।’

আলোচিত চলচ্চিত্র অভিনেত্রী পরীমনি মঙ্গলবার নিজ বাসা থেকে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) কার্যালয়ে যাওয়ার পথে পুলিশি প্রটোকল পাওয়ার আশা করেছিলেন। তবে সেটা না পেয়ে শেষপর্যন্ত নিজের ব্যক্তিগত গাড়িতে চড়েই বনানী থেকে রওনা হন মিন্টো রোডের উদ্দেশে।

ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে মামলায় প্রধান অভিযুক্তরা গ্রেপ্তার হওয়ার পরদিন পরীমনিকে ডিবি কার্যালয়ে ডেকে পাঠানো হয়। ডিবির কর্মকর্তারা জানান, মামলার তদন্তের জন্য পরীমনির বক্তব্য দরকার। আর সে জন্যই ডাকা হয় পরীমনিকে।

এতে সাড়া দিয়ে বেলা সোয়া ৩টার দিকে নিজের বাসা থেকে একটি সাদা রংয়ের প্রাইভেট কারে বেরিয়ে যান পরীমনি। এ সময় তিনি নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমি অপেক্ষা করছিলাম যে, কেউ আমাকে প্রোটোকল দিয়ে নেয় কিনা। আসলে কেউ আসে নাই। সো আমারই যেতে হচ্ছে। কারণ আমার তো যাইতে হবে। কথা বলতে হবে তাদের সাথে।’

কোথায় যাচ্ছেন জানতে চাইলে তিনি শুরুতে বলেন, ‘ডিসি অফিস।’ পরে সংশোধন করে বলেন, ‘ডিবি অফিস।’

পরীমনিকে পুলিশের নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল কিনা, জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল না। তবে আমি আশা করছিলাম যে, আমি একটা প্রোটোকল পাব।’

তাহলে প্রোটোকল ছাড়াই যাচ্ছেন কেন- এমন প্রশ্নে পরীমনি বলেন, ‘আমার তো এখন সাংবাদিক ভায়েরা আছেন। আপনারা আছেন। তবে আমি কোনো প্রোটোকল চাইনি। আসলে মনে মনে আশা করছিলাম, কিন্তু মনে মনে চাইলে তো আর হয় না। আমি বলিনি তাদেরকে।

‘এখন তো আমার মনে হয় রাস্তায় হঠাৎ করে আমাকে কেউ আক্রমণ করবে না। আমি এখন নিরাপদ আমার মনে হয়। কারণ সবাই এখন জানে জিনিসটা।’

বাসা থেকে বের হওয়ার প্রায় পৌনে দুই ঘণ্টা পর মিন্টো রোডের গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে পৌঁছান পরীমনি। এর প্রায় দুই ঘণ্টা পর বেরিয়ে তিনি পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ ও পুলিশের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

পরীমনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আপনারা দেখতে পাচ্ছেন আমি আসলে মেন্টালি কতটা স্ট্রং হয়ে গেছি। সবাই এত সাপোর্ট দিয়েছেন…।’

এর আগে রোববার রাতে এক ফেসবুক পোস্টে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ তুলে দেশজুড়ে আলোচনার জন্ম দেন পরীমনি। ওই পোস্টে তিনি লেখেন, ‘এই বিচার কই চাইব আমি? কোথায় চাইব? কে করবে সঠিক বিচার? আমি খুঁজে পাইনি গত চার দিন ধরে। থানা থেকে শুরু করে আমাদের চলচ্চিত্রবন্ধু বেনজীর আহমেদ আইজিপি স্যার! আমি কাউকে পাই না মা (প্রধানমন্ত্রী)।’

তবে ডিবি কার্যালয় থেকে বেরিয়ে পুলিশের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা ছিল পরীমনির কণ্ঠে।

আইজিপি বেনজীর আহমেদের বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পরীমনি বলেন, ‘আমার একমাত্র ভরসা উনিই ছিলেন। আমি সে পর্যন্ত পৌঁছাতে পারতেছিলাম না বলেই এসব কথা। তিনি যখন জেনেছেন এই কথাটা, বেনজীর স্যার যখন জেনেছেন, তার কান অবধি গেছে, কান অবধি পৌঁছাতে পেরেছি, তখন তো আপনারা দেখলেন, কয়েক ঘণ্টা লাগছে মাত্র।

‘আমার তো মূল বিশ্বাসটা ওইটাই ছিল, তার কান অবধি পৌঁছালে সে একদম সেটা নিজের মতো করে দেখে নেবে।’

পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রথম দিকে হতাশার কারণ জানতে চাইলে পরীমনি বলেন, ‘আমি ওই পর্যন্ত যেতে পারছিলাম না, এটা নিয়েই তো এতক্ষণ কথা বলছি।’

ডিবি কার্যালয়ে যাওয়ার অভিজ্ঞতা জানিয়ে পরীমনি বলেন, ‘এখানে এসে আমি আসলে মেন্টালি অনেক রিফ্রেশড। আমি যে কাজে ফিরব, এটা কেউ আমাকে কিন্তু বলেনি। আমার আশপাশে যারা ছিল তারা সবাই আমাকে সান্ত্বনা দেয়ার চেষ্টা করেছে কিন্তু আমার যে কাজে ফিরতে হবে, আমাকে এই শক্তিটা তারা (পুলিশ) জুগিয়েছেন এতক্ষণ ধরে।’

গোয়েন্দা পুলিশ কার্যালয়ে কী বিষয়ে কথা হয়েছে জানিয়ে এই অভিনেত্রী বলেন, ‘আমার কাজ নিয়ে কথা বলেছে, আমাকে নানা রকম গুড ভাইভ দেয়া হচ্ছে। আমার নরমাল লাইফে কীভাবে ফিরে যাব। আমি এতটা তাদের কাছে আশা করিনি। তারা এতটা বন্ধুসুলভ, একটা ম্যাজিকের মতো হয়ে গেছে।

গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার হারুন-অর-রশিদেরও প্রশংসা করেন পরীমনি। বলেন, ‘এত তাড়াতাড়ি হারুন স্যার যেভাবে ম্যাজিকের মতো কয়েক ঘণ্টার মধ্যে…। ঘুমিয়ে মানুষ জাগে সকালে, সেইটাও আমি সুযোগটা পাইনি। মানে ঘুমানোরই আমি টাইম পাইনি। তার আগেই দেখলাম যে এত দ্রুত কাজগুলো (আসামিদের গ্রেপ্তার) হয়ে গেছে।’

শেয়ার করুন

বিরক্ত পরীমনি বললেন শিল্পী সমিতি পাশে নেই

বিরক্ত পরীমনি বললেন শিল্পী সমিতি পাশে নেই

শিল্পী সমিতি নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন পরীমনি। ছবি: সংগৃহীত

পরীমনির সংবাদ সম্মেলনের পর বিষয়টি নিয়ে তৎপর হয় পুলিশ। অভিযোগের দুইদিন পর নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দেয় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি।

আলোচিত চলচ্চিত্র অভিনেত্রী পরীমনি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির উপর এখনও হতাশ ও বিরক্ত।

গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কার্যালয় থেকে বেরিয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

আপনার সংগঠন চলচ্চিত্র সমিতি নিয়ে তো হতাশা প্রকাশ করেছিলেন, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে পরীমনি বলেন, ‘জ্বী, আমি এখনও করি।’

শিল্পী সমিতি আমাদের কাছে ক্লিয়ার করেছে যে আপনি… সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের শেষ না করতেই বিরক্ত পরীমনি বলেন, ‘আপনারা কী আমার কাছে ক্লিয়ারেন্স চেয়েছেন যে, আমি দেব। এখন আমার দিতে হবে প্রমাণ? তার (শিল্পী সমিতি সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান) সঙ্গে আমার চ্যাটিং ট্যাটিং সব দিবো?’

পরীমনি বলেন, ‘আমি প্রথমেই তাকে বলেছিলাম আমাকে তুমি হেল্প করো জায়েদ, আমি স্যারের সঙ্গে একটু বসতে চাই শিল্পী সমিতি থেকে। বেনজীর স্যারের সাথে আমি একটু বসতে চাই। তোমরা একটু ব্যবস্থা করে দাও শিল্পী সমিতির হয়ে। আমি মামলা করতে চাই। এই লাইনগুলো কিন্তু প্রথম দিনেই তাকে বলেছি। সে আমাকে বলেছে, ডিটেইলটা বলার জন্য তোমাকে তো একটু আসতে (শিল্পী সমিতিতে) হবে। তুমি আসো, আমরা বসে কথা বলি, ঠিক করে ফেলি। ঠিক তো করার নেই এখানে কিছু।’

পরীমনি ৯ জুন রাতে ফেসবুক স্ট্যাটাসে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ আনার কয়েক ঘণ্টা পর বিষয়টির বিস্তারিত নিয়ে গণমাধ্যমের সামনে আসেন। সংবাদ সম্মেলনে পরীমনি অভিযোগ করেন সমিতির সহায়তা চেয়েও পাননি তিনি।

পরীমনির সংবাদ সম্মেলনের পর বিষয়টি নিয়ে তৎপর হয় পুলিশ। অভিযোগের দুইদিন পর নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দেয় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি।

সোমবার মধ্যরাতে গণমাধ্যমে পাঠানো সেই বিবৃতিতে বলা হয়, ‘সম্প্রতি সাভারের বিরুলিয়া এলাকায় বোট ক্লাবে চিত্রনায়িকা পরীমনির সঙ্গে ঘটে যাওয়া অপ্রীতিকর ঘটনার প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছে।’

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, ‘এ বিষয়ে ইতোমধ্যেই মামলা রুজু হয়ে গেছে এবং কিছু আসামি গ্রেপ্তার হয়েছে। উক্ত মামলায় দোষী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

‘বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি পরীমনির সার্বিক সহযোগিতা করতে দৃঢ় অঙ্গীকারবদ্ধ।’

ঘটনার এতো পরে কেন নিন্দা জানানো হলো জানতে চাইলে নিউজবাংলাকে জায়েদ বলেন, ‘পরীমনি শিল্পী সমিতির মাধ্যমে পুলিশের মহাপরিচালক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদের সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলেন। আমি এর ব্যবস্থা করব বলে পরীমনিকে জানিয়েছিলাম। কিন্তু কাজটি করার সময় না দিয়েই পরীমনি তার নিজের সিদ্ধান্তে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছেন।

‘যেহেতু আমি পরীমনিকে দেয়া প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী কাজটি করছিলাম তাই নিন্দা জ্ঞাপন করিনি। কিন্তু যখন দেখলাম, আমাদের কিছু করার সুযোগ না দিয়েই তিনি এগোচ্ছেন তখনই আমরা নিন্দা জ্ঞাপন করেছি।’

জায়েদ খান আরও বলেন, ‘পরীমনি কিন্তু সমিতিকে জানিয়ে কিছু করেননি। সমিতি যদি তার পদক্ষেপ সম্পর্কে জানত, তাহলে আরও অনেক অ্যাকশন নিত। তাছাড়া তিনি কিন্তু কোনো অভিযোগ করেনি সমিতিতে। তিনি শুধু আইজিপির সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছেন।’

শেয়ার করুন

আমি রিফ্রেশড: পরীমনি

আমি রিফ্রেশড: পরীমনি

ডিবি কার্যালয় থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন পরীমনি। ছবি: নিউজবাংলা

পরীমনি বলেন, ‘এত দ্রুত কাজগুলো হয়ে যাবে আমি ভাবিনি। সবকিছু ম্যাজিকের মতো হয়েছে…আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আশা করছি, সুষ্ঠু বিচার পাব।’

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) কার্যালয় থেকে বের হয়ে পরীমনি বলেছেন, তিনি এখন ‘রিফ্রেশড’। নিজের মানসিক স্বস্তি ফিরে পাওয়ার প্রসঙ্গটি জানাতে গিয়ে এ কথা বলেন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী।

ধর্ষণ এবং হত্যাচেষ্টার অভিযোগে মামলা ও প্রধান অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের পর মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে পরীমনিকে ডিবি কার্যালয়ে ডেকে পাঠানো হয়।

সোয়া ৬টার দিকে বের হয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘এখানে (ডিবি অফিসে) এসে আমি আসলে এখন মেন্টালি অনেক রিফ্রেশড। আমি যে কাজে ফিরব, এটা কেউ আমাকে কিন্তু বলেনি। আমার আশপাশে যারা ছিল তারা সবাই আমাকে সান্ত্বনা দেয়ার চেষ্টা করেছে। কিন্তু আমার যে কাজে ফিরতে হবে, আমার এই শক্তিটা তারা (ডিবি কর্মকর্তারা) জুগিয়েছেন এতক্ষণ ধরে।’

পরীমনি বলেন, ‘আমার কাজ নিয়ে কথা বলেছে, আমাকে নানা রকম গুড ভাইভ দেয়া হচ্ছে- আমার নরমাল লাইফে কীভাবে ফিরে যাব। আমি এতটা তাদের কাছে আশা করিনি। তারা এতটা বন্ধুসুলভ, একটা ম্যাজিকের মতো হয়ে গেছে।’

পরীমনি গত রোববার রাতে ফেসবুক স্ট্যাটাসে জানান, ঢাকা বোট ক্লাবে তাকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা করা হয়েছিল। নাসির উদ্দিন নামে একজন তাকে নেশাদ্রব্য খাইয়ে এই ঘটনা ঘটাতে চেয়েছিলেন। এ ঘটনায় জীবনাশঙ্কায় আছেন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে সহায়তা চান।

পরীর এমন স্ট্যাটাসের পর তার বিষয়টি নিয়ে তৎপর হয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এই নায়িকার করা ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা মামলায় রাজধানীর উত্তরা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী অমিসহ আরও তিন নারীকে।

পরীর মামলায় গ্রেপ্তারের পর মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে তাদের বিরুদ্ধে বিমানবন্দর থানায় একটি মামলা করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। এই মামলায় নাসির উদ্দিন ও অমিকে সাত দিনের রিমান্ড ও তিন নারীকে তিন দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে ঢাকার মুখ্য মহানগর আদালতের (সিএমএম) হাকিম নিভানা খায়ের জেসী।

আসামিরা গ্রেপ্তার হওয়ায় স্বস্তি প্রকাশ করেছেন পরীমনি। বলেন, ‘তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এখন শুধু আমার… আমার বিশ্বাস যে আমি আসলে সঠিক বিচারটা পাব।’

শেয়ার করুন

যৌন হয়রানির শিকার বলিউডের যেসব তারকা

যৌন হয়রানির শিকার বলিউডের যেসব তারকা

বলিউডের উঠতি অভিনেত্রী জাইরা ওয়াসিম মধ্যবয়স্ক এক ব্যক্তির হাতে যৌন হয়রানির শিকার হওয়ার কথা জানান। তিনি বলেন, ‘তখন আমি আধো ঘুমে ছিলাম। এই সুযোগে লোকটা পা দিয়ে আমার স্পর্শকাতর জায়গায় স্পর্শ করে।’

ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়িকা পরীমনি ধর্ষণচেষ্টার যে অভিযোগ করেছেন, তা নিয়ে তুমুল আলোচনা চলছে চলচ্চিত্রাঙ্গনসহ বিভিন্ন মহলে। তবে শোবিজ মিডিয়ায় এ ধরনের ঘটনা নতুন নয়।

বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের তারকারা যৌন নিপীড়নের শিকার হওয়া নিয়ে খোলাখুলি কথা বলেছেন। ভারতের প্রভাবশালী হিন্দি চলচ্চিত্রশিল্প বলিউডের বেশ কিছু তারকা জীবনের বিভিন্ন পর্যায়ে যৌন হেনস্তার শিকার হওয়ার অভিযোগ করেছেন।

প্রথমেই আসা যাক দীপিকা পাডুকোনের কথায়। ‘পদ্মাবত’ খ্যাত এই অভিনেত্রী মাত্র ১৪ থেকে ১৫ বছর বয়সে যৌন হয়রানির শিকার হওয়ার কথা জানান।

সে সময়ের অভিজ্ঞতা নিয়ে দীপিকা বলেন, ‘ঘটনাটা আমার স্পষ্ট মনে আছে। একটা রেস্তোরাঁয় খেয়ে পরিবারের সঙ্গে রাস্তায় হাঁটছিলাম। বাবা ও আমার ছোট বোন সামনে ছিল। আমি পেছনে মায়ের সঙ্গে ছিলাম। এমন সময় একটা লোক খুব দ্রুত আমার কাছে চলে আসে এবং যৌন হয়রানি করে।

‘আমি ঘটনাটা এড়িয়ে যেতে পারতাম, ভুলে যেতে পারতাম। কিন্তু আমি তেমনটা করিনি। আমি সেই লোকটার পেছন পেছন যাই এবং তার কলার চেপে ধরি। মাঝরাস্তায় সবার সামনে আমি তাকে চড় মেরে স্বাভাবিকভাবেই ফিরে আসি।’

মাত্র ১৫ বছর বয়সের এক কিশোরের কাছে যৌন হয়রানির শিকার হওয়ার কথা জানান সুস্মিতা সেন। একটা অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে ছিলেন সেদিন।

ওই ছেলেটিকে ঘাড় ধরে বাইরে নিয়ে এসে শাসিয়ে দিয়েছিলেন সুস্মিতা।

দীপিকা যে বয়সে যৌন হয়রানির শিকার হন, ঠিক তার কাছাকাছি বয়সে একই অভিজ্ঞতায় পড়ার কথা জানান সোনম কাপুর। তখন তার বয়স ১৩।

সোনম বলেন, ‘সেদিন আমি মুম্বাইয়ের গাইতি গ্যালাক্সি থিয়েটারে ছিলাম। পেছন থেকে একটা লোক এসে আমার স্তনে হাত দেয়। ঘটনার আকস্মিকতায় আমি কাঁপতে শুরু করি। বুঝতে পারছিলাম না কী হচ্ছে। একসময় কেঁদে ফেলি।’

বলিউডের উঠতি অভিনেত্রী জাইরা ওয়াসিম মধ্যবয়সী এক ব্যক্তির হাতে যৌন হয়রানির শিকার হওয়ার অভিযোগ করেন।

জাইরা জানান, তিনি বিমানে করে দিল্লি থেকে মুম্বাই যাচ্ছিলেন।

‘তখন আমি আধো ঘুমে ছিলাম। এই সুযোগে লোকটা পা দিয়ে আমার স্পর্শকাতর জায়গায় স্পর্শ করে।’

টিভি সিরিজ রাসভারি করে সবার পরিচিত মুখ এখন স্বরা ভাস্কর। সালমান খানের ‘প্রেম রতন ধন পায়ো’ সিনেমায় শুটিং করার জন্য রাজকোট এয়ারপোর্টে ছিলেন তিনি। এ সময় যৌন হয়রানির ঘটনা ঘটে। অনুপম খের এগিয়ে এসে স্বরাকে রক্ষা করেন।

জনপ্রিয় অভিনেত্রী বিপাশা বসুও যৌন হয়রানির অভিজ্ঞতার কথা জানান। মুম্বাইয়ের একটি নাইট ক্লাবে ‘জিসম’ মুভির প্রমোশনে গিয়েছিলেন তিনি।

হঠাৎ এক ব্যক্তি বিপাশাকে যৌন হয়রানি করে পালানোর চেষ্টা করে। অভিনেতা জন আব্রাহাম তখন সঙ্গে ছিলেন। তিনি ওই ব্যক্তিকে আটকে মারধর করে ছেড়ে দেন।

কাল্কি কোচলিন এক টিভি ইন্টারভিউতে বলেন, মাত্র ৯ বছর বয়সে তিনি যৌন হয়রানির শিকার হয়েছিলেন।

‘দঙ্গল’ খ্যাত অভিনেত্রী ফাতিমা সানা শেখ মাত্র তিন বছর বয়সে এই অভিজ্ঞতায় পড়ার কথা জানান।

শেয়ার করুন

প্রায় দশ মিনিট বাদ দিয়ে ছাড়পত্র পেল নবাব এলএলবি

প্রায় দশ মিনিট বাদ দিয়ে ছাড়পত্র পেল নবাব এলএলবি

নবার এলএলবির পোস্টার। ছবি: সংগৃহীত

এর আগে গত ১০ জুন সিনেমাটি সেন্সর পাওয়ার খবরে অনুভূতি জানিয়ে অনন্য মামুন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘একটা সিনেমায় যখন কর্তন হয় তখন সেটা পরিচালকের জন্য দুঃখজনক বিষয়। অন্যদিকে যদি চিন্তা করেন, আমার কাছে বিষয়টা অনেক বেশি আনন্দের।’

বহু ঝামেলা পেরিয়ে অবশেষে নবাব এলএলবি সিনেমাটি ৯ মিনিটি ৪৩ সেকেন্ড কেটে বাদ দিয়ে সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র হাতে পেলেন পরিচালক অনন্য মামুন।

মঙ্গলবার বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন পরিচালক অনন্য মামুন নিজেই।

তিনি নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমরা আজকেই ছাত্রপত্র হাতে পেয়েছি। আগামী ২৫ জুন সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি।’

কতোগুলো হলে সিনেমাটি মুক্তি পাবে জানতে চাইলে এই নির্মাতা বলেন, ‘হল বুকিং চলছে। এখনই বলা যাচ্ছে না কতগুলো হলে মুক্তি পাবে।

এর আগে গত ১০ জুন সিনেমাটি সেন্সর পাওয়ার খবরে অনুভূতি জানিয়ে অনন্য মামুন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘একটা সিনেমায় যখন কর্তন হয় তখন সেটা পরিচালকের জন্য দুঃখজনক বিষয়। অন্যদিকে যদি চিন্তা করেন, আমার কাছে বিষয়টা অনেক বেশি আনন্দের।

‘এই সিনেমাটি তিনবার রিভিউ করা হয়েছে। তারচেয়ে বড় কথা, এই সিনেমাটির জন্য আমি জেলও খেটেছি।’

গত বছর ১৬ ডিসেম্বর দেশীয় ওটিটি প্ল্যাটফর্ম আই থিয়েটারে মুক্তি দেয়া হয় নবাব এলএলবি সিনেমাটি।

প্রায় দশ মিনিট বাদ দিয়ে ছাড়পত্র পেল নবাব এলএলবি
নবার এলএলবির দৃশ্যে শাকিব খান ও মাহিয়া মাহি। ছবি: সংগৃহীত

মুক্তির পর সিনেমার একটি সংলাপের কারণে পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা হয় পরিচালক অনন্য মামুন ও অভিনেতা শাহীন মৃধার বিরুদ্ধে।

এরপর ২৫ ডিসেম্বর তাদের কারাগারে পাঠানো হয়। পরে তারা ১১ জানুয়ারি জামিনে মুক্ত হন।

প্রায় দশ মিনিট বাদ দিয়ে ছাড়পত্র পেল নবাব এলএলবি
নবার এলএলবির দৃশ্যে শাকিব খান। ছবি: সংগৃহীত

এরপরই সেন্সরে জমা দেয়া হয় নবাব এলএলবি। ওটিটি ফিল্ম হিসেবে সেন্সরে জমা পড়া এটিই প্রথম সিনেমা।

প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির জন্য নয় বরং পরবর্তীতে সিনেমাটি কোনো মাধ্যমে মুক্তি বা প্রদর্শনে যেন সমস্যা না হয় সে জন্যই সেন্সর বোর্ডে জমা দেয়া হয় সিনেমাটি।

প্রায় দশ মিনিট বাদ দিয়ে ছাড়পত্র পেল নবাব এলএলবি
নবার এলএলবির দৃশ্যে শাকিব খান ও মাহিয়া মাহি। ছবি: সংগৃহীত

সিনেমাটিতে অভিনয় করেছেন শাকিব খান, মাহিয়া মাহি, অর্চিতা স্পর্শিয়াসহ অনেকে।

শেয়ার করুন

ডিবিতে পরীমনি

ডিবিতে পরীমনি

ডিবি কার্যালয়ের উদ্দেশে বাসা থেকে বের হওয়ার সময় ক্যামেরাবন্দি হন পরীমনি। ছবি: নিউজবাংলা

বেলা সাড়ে ৩টার দিকে পরীমনিকে বাসা থেকে বের হতে দেখেন গণমাধ্যমকর্মীরা। ৪টার পর ডিবি কার্যালয়ে ঢুকতে দেখা যায় তাকে। 

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) কার্যালয়ে গেছেন ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ করে দেশজুড়ে আলোচনায় থাকা চিত্রনায়িকা পরীমনি।

বেলা ৪টার পর ডিবি কার্যালয়ে ঢুকতে দেখা যায় তাকে।

এর আগে পরীমনি সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে তাকে ডিবি থেকে কল করা হয়। বেলা ২টায় তাকে ডিবি কার্যালয়ে ডাকা হয়।

তবে বেলা সাড়ে ৩টার দিকে পরীমনিকে রাজধানীর বনানীর বাসা থেকে বের হতে দেখেন গণমাধ্যমকর্মীরা।

পরীমনিকে ডাকার বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ডিবির এক কর্মকর্তা নিউজবাংলাকে বলেছিলেন, ‘পরীমনি ৪টার দিকে ডিবি কার্যালয়ে আসবেন। মামলার তদন্তের জন্য পরীমনির বক্তব্য দরকার। সে জন্যই পরীমনিকে ডাকা হয়েছে।’

ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ রোববার সামনে আনেন পরীমনি। সোমবার এসব অভিযোগে সাভার থানায় মামলা করেন তিনি।

এ ঘটনায় নাসির ইউ আহমেদ ও অমিসহ পাঁচজনকে উত্তরার ১ নম্বর সেক্টর থেকে আটক করে পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। পরে তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয় মামলায়।

এদিকে মামলায় গ্রেপ্তার আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ করতে আদালতে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন জানিয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা।

আসামি নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী অমিকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় সাভার থানা পুলিশ।

ঢাকা জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহেল কাফি নিউজবাংলাকে জানান, সাভার থানার মামলায় নাসির ও অমিকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। তাদের দুজনকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আবেদন করা হয়েছে আদালতের কাছে।

শেয়ার করুন