‘বঙ্গবন্ধু’: অভিনয়শিল্পীদের অনুভূতি ও প্রস্তুতি

‘বঙ্গবন্ধু’ বায়োপিকের অভিনয়শিল্পীরা

‘বঙ্গবন্ধু’: অভিনয়শিল্পীদের অনুভূতি ও প্রস্তুতি

ফজলুর রহমান বাবু বলেন, ‘আমি খন্দকার মোশতাককে যেমন বোঝার চেষ্টা করছি, তেমন শেকসপিয়ারের ব্রুটাসকেও বোঝার চেষ্টা করছি। তারা কতটুকু খায়, কতটুকু ঘুমায়, কতটুকু চিন্তা করে।’

‘শামসুল হক সাহেব বিয়ের কিছুদিন পর গিয়েছিলেন স্বাধীনতা আন্দোলনে। রাজপথ থেকে ধরে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে তাকেও কারাগারে নিয়ে যায় পাকিস্তানি বাহিনী। জেলে সবাই যখন স্বাধীনতা সংগ্রামের পরিকল্পনা করছেন, তখন শামসুল হক সাহেব কান্নাকাটি করছিলেন আর সৃষ্টিকর্তার নাম নিচ্ছিলেন। কারণ বাড়িতে তিনি তার নতুন বউকে রেখে এসেছেন। তার ধারণা ছিল যে, জেল থেকে বের হওয়ার আগেই স্ত্রী তাকে রেখে চলে যাবে।’

গল্পটি বলছিলেন বিশিষ্ট রাজনীতিক, আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক শামসুল হকের চরিত্রে অভিনয় করতে যাওয়া সিয়াম আহমেদ।

১২ জানুয়ারি মঙ্গলবার হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে তথ্য মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে বঙ্গবন্ধু বায়োপিকের শিল্পীরা নিজেদের চরিত্র নিয়ে কথা বলেন। কিছুদিন আগে তারা গণভবনে কথা বলে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে। প্রধানমন্ত্রী ও তার ছোট বোন শেখ রেহানা বিভিন্ন চরিত্রের বৈশিষ্ট্য তুলে ধরেছেন অভিনয়শিল্পীদের সামনে।

তথ্য মন্ত্রণালয়ের মতবিনিময় অনুষ্ঠানে সেসব গল্পও করেছেন তারা।

শেখ রেহানার চরিত্রে অভিনয় করছেন সাবিলা নূর। তিনি বলেন, ‘আমি তো একবার ছোট আপার (শেখ রেহানা) সঙ্গে কথা বলেছি। আরও একবার কথা বলতে পারলে খুব ভালো হতো। এই চরিত্রের জন্য আমাকে ওজন কমাতে হচ্ছে; চোখে লেন্সও পরতে হবে।’

সম্ভ্রান্ত এবং প্রভাবশালী রাজনীতিক ছিলেন হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী। তার চরিত্রে অভিনয় করছেন তৌকীর আহমেদ। তিনি বলেন, ‘সিনেমায় সোহরাওয়ার্দী সাহেবের চরিত্র যতটুকুই থাকুক, রাজনীতি ও ইতিহাসে তার গুরুত্ব অনেক। সোহরাওয়ার্দী সাহেব ভাঙা বাংলায় কথা বলতেন।

‘একবার সোহরাওয়ার্দী সাহেব প্রধানমন্ত্রীকে জিজ্ঞেস করেছেন- কী পেকিয়োছো? প্রধানমন্ত্রী প্রথমে বুঝতে পারছিলেন না। পরে বুঝতে পেরে তিনি বলেছেন- পরটা পাক করছি।’

সিনেমায় খন্দকার মোশতাকের চরিত্রে অভিনয় করছেন ফজলুর রহমান বাবু। তিনি চরিত্রটিকে নিয়ে ভাবছেন বিভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে। বাবু বলেন, ‘বিশ্বাসঘাতকদের চরিত্রগুলো করা এমনিতেই কঠিন। তার ওপর এটা আবার সত্য ঘটনা অবলম্বনে; সত্যের সঙ্গে শিল্পমানটাও থাকতে হবে এই চরিত্রে। তাই আমি খন্দকার মোশতাককে যেমন বোঝার চেষ্টা করছি, তেমন শেকসপিয়ারের ব্রুটাসকেও বোঝার চেষ্টা করছি। তারা কতটুকু খায়, কতটুকু ঘুমায়, কতটুকু চিন্তা করে।’

বঙ্গবন্ধু চরিত্রে অভিনয় করছেন আরিফিন শুভ। এই অনুষ্ঠানে তিনি উপস্থিত ছিলেন না। তবে বঙ্গবন্ধুর তরুণ বয়সের চরিত্রে অভিনয় করতে যাওয়া দিব্য জ্যোতি উপস্থিত ছিলেন।

তিনি বলেন, ‘অনেকেই বলেছে প্রধানমন্ত্রী মাটির মানুষ। কথাগুলো শুধু শুনেছি, কিন্তু এই প্রথম তাকে কাছে থেকে দেখে আমার তাই মনে হলো। এই সিনেমায় অভিনয় করতে পেরে আমি গর্বিত। এই সিনেমাটি একটি টেক্সট বুক হয়ে থাকবে সবার কাছে। বঙ্গবন্ধুর তরুণ বয়সের চরিত্রে অভিনয় করতে পেরে আমার মনে হয়েছে আমি বঙ্গবন্ধুকে ছুঁয়ে দেখার সুযোগ পেয়েছি।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোট ও বড় বয়সের চরিত্রে অভিনয় করবেন নুসরাত ফারিয়া ও জান্নাতুল হিমি। তাদের কেউ ছিলেন না অনুষ্ঠানে। ছিলেন না বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসার বড় বয়সের চরিত্রে অভিনয় করতে যাওয়া নুসরাত ইমরোজ তিশাও। অনুপস্থিতির জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন তারা।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন খায়রুল আলম সবুজ (লুৎফর রহমান), চঞ্চল চৌধুরী (তরুণ লুৎফর রহমান), দিলারা জামান (সায়েরা খাতুন), সায়েম সামাদ (সৈয়দ নজরুল ইসলাম), শহীদুল আলম সাচ্চু (এ কে ফজলুল হক), প্রার্থনা দীঘি (ছোট রেনু), রাইসুল ইসলাম আসাদ (মওলানা ভাসানী), তৌকীর আহমেদ (সোহরাওয়ার্দী), সিয়াম আহমেদ (শামসুল হক), ফেরদৌস আহমেদ (তাজউদ্দিন আহমেদ), তুষার খান (মানিক মিয়া), সমু চৌধুরী (কামারুজ্জামান) ও খলিলুর রহমান কাদেরি (এম মনসুর আলী)।

ফেরদৌস আহমেদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে জানতে পারলাম তাজউদ্দিন আহমেদ কথা বলার সময় আঙুল ঘোরাতেন। আরও কিছু বিষয় তিনি দেখিয়েছেন।’

অভিনেতা তুষার খান মজা করে বলেন, ‘এই প্রথম মনে হয় আমার মোটা শরীরের কারণে কোনো চরিত্র পেলাম।’

এই সিনেমার সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে সব শিল্পী ও কলাকুশলীই নিজেদের ভাগ্যবান মনে করেন বলে উল্লেখ করেছেন। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান, প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী, এফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুজহাত ইয়াসমিনসহ আরও অনেকে।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন শহীদুল আলম সাচ্চু।

আরও পড়ুন:
‘বঙ্গবন্ধু’ বায়োপিকের মুক্তি পেছাল
প্রধানমন্ত্রীর মুখে বঙ্গবন্ধুর গল্প শুনলেন তারকারা

শেয়ার করুন

মন্তব্য