× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

শিক্ষা
Awaiting the commencement of the primary assistant teacher recruitment exam
google_news print-icon

প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা শুরুর অপেক্ষা

প্রাথমিকে-সহকারী-শিক্ষক-নিয়োগ-পরীক্ষা-শুরুর-অপেক্ষা
নিয়োগ পরীক্ষার একটি কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীরা। ফাইল ছবি
প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শাহ রেজওয়ান হায়াত জানান, সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা অনুষ্ঠানের জন্য প্রয়োজনীয় সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। এ সংক্রান্ত সব ধরনের সামগ্রী এরই মধ্যে জেলায় পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০২৩-এর প্রথম গ্রুপের (রংপুর, বরিশাল ও সিলেট বিভাগ) আওতাধীন জেলাগুলোর লিখিত পরীক্ষা হচ্ছে শুক্রবার।

জেলা পর্যায়ে সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত এ পরীক্ষা হবে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শাহ রেজওয়ান হায়াত জানান, সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা অনুষ্ঠানের জন্য প্রয়োজনীয় সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। এ সংক্রান্ত সব ধরনের সামগ্রী এরই মধ্যে জেলায় পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

তিনি সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে পরীক্ষা সম্পাদনের জন্য সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

তিন বিভাগের ১৮টি জেলায় এবার পরীক্ষার্থীর সংখ্যা তিন লাখ ৬০ হাজার ৬৯৭ জন। পরীক্ষার কেন্দ্রের সংখ্যা ৫৩৫টি আর কক্ষের সংখ্যা ৮ হাজার ১৮৬টি।

পরীক্ষা সংক্রান্ত জরুরি প্রয়োজনে সংশ্লিষ্টদের ০২৫৫০৭৪৯৬৯ নম্বরে যোগাযোগের অনুরোধ জানানো হয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে।

আরও পড়ুন:
আইনজীবী তালিকাভুক্তির এমসিকিউতে পাস ৬ হাজার ২২৯ জন
সিলেটের দেড় সহস্রাধিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নেই খেলার মাঠ
ইউটিউবারের উদ্যোগে অবশেষে খাসিয়াপুঞ্জিতে বসল প্রাথমিক বিদ্যালয়
এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় বাড়ল
২৮ অক্টোবরের বাংলাদেশ ব্যাংকের মৌখিক পরীক্ষা স্থগিত

মন্তব্য

আরও পড়ুন

শিক্ষা
Government Primary Recruitment 1st Group Exam Final Results Released

প্রাথমিকে নিয়োগ: প্রথম গ্রুপের পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশ

প্রাথমিকে নিয়োগ: প্রথম গ্রুপের পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশ প্রাথমিক স্কুলের একটি শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে শিক্ষক। ফাইল ছবি
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মাহবুবুর রহমান তুহিন স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট www.mopme.gov.bd এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে www.dpe.gov.bd ফল পাওয়া যাবে। উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীরা মোবাইলেও খুদেবার্তা (এসএমএস) পাবেন।’

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের রাজস্ব খাতভুক্ত ‘সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০২৩’-এর প্রথম গ্রুপের (বরিশাল, সিলেট, রংপুর বিভাগ) লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা হয়েছে।

এ ফলের ভিত্তিতে ২ হাজার ৪৯৭ জন প্রার্থীকে সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগের জন্য প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত করা হয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মাহবুবুর রহমান তুহিন স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট www.mopme.gov.bd এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে www.dpe.gov.bd ফল পাওয়া যাবে। উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীরা মোবাইলেও খুদেবার্তা (এসএমএস) পাবেন।’

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, ২০২৩ সালের ৮ ডিসেম্বর তিন বিভাগের ১৮ জেলায় পরীক্ষা হয়। এতে মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন তিন লাখ ৬০ হাজার ৬৯৭ জন। লিখিত পরীক্ষায় ৯ হাজার ৩৩৭ জন উত্তীর্ণ হন।

গত বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি এ পরীক্ষা সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।

আরও পড়ুন:
জাবিতে ভর্তিযুদ্ধ শুরু
জাবিতে ভর্তি পরীক্ষা শুরু বৃহস্পতিবার
ভর্তি পরীক্ষার আয়-ব্যয়ের হিসাব সাধারণ শিক্ষকরা জানেন না
দাখিল পরীক্ষায় প্রক্সির অভিযোগ, কেন্দ্র সচিবসহ ৫৯ পরীক্ষার্থী আটক
এসএসসির প্রথম দিন অনুপস্থিত ১৯৩৫৯, বহিষ্কার ২৫

মন্তব্য

শিক্ষা
Banshkhali SSC candidates stuck in traffic jam

যানজটে নাকাল বাঁশখালীর এসএসসি পরীক্ষার্থীরা

যানজটে নাকাল বাঁশখালীর এসএসসি পরীক্ষার্থীরা অপ্রশস্ত সড়কের বেশিরবাগ জায়গা দখল হয়ে আরও সংকীর্ণ হয়ে পড়েছে। ছবি: নিউজবাংলা
সড়কটি খুব বেশি প্রশস্ত না হলেও উভয়পাশ থেকে তাকে চেপে ধরেছে বাজার ও অস্থায়ী দোকানপাট। ফুটপাতও গিয়েছে অস্থায়ী ব্যবসায়ীদের দখলেই। ফলে সংকীর্ণ ওই রাস্তা দিয়েই পথচারী, সাইকেল-মোটরসাইকেল আরোহীসহ বিভিন্ন যানবাহন নিয়ে চলাচল করতে হয় স্থানীয়দের।

চলমান মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষায় চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলা থেকে অংশ নিয়েছে প্রায় ছয় হাজার শিক্ষার্থী। উপজেলায় ১০টি কেন্দ্রে গিয়ে নিয়মিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে এসএসসি, দাখিল ও কারিগরির এসব পরীক্ষার্থীরা। তবে পরীক্ষার দিন সকালে কেন্দ্রে পৌঁছানো তাদের জন্য হয়ে দাঁড়িয়েছে বড় দুশ্চিন্তার বিষয়।

এ অবস্থায় এখন পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সব দুশ্চিন্তা কক্সবাজারের এবিসি (আনোয়ারা-বাশঁখালী- চকোরিয়া) সড়কটি ঘিরে। পরীক্ষাকেন্দ্রগুলোতে যাওয়ার জন্য এই সড়কটিই প্রধান যাতায়তের পথ। জেলার পেকুয়া, কুতুবদিয়া ও মহেশখালী উপজেলার মানুষের জন্যও যোগাযোগের প্রধান সড়কপথ এটি।

যানজটে নাকাল বাঁশখালীর এসএসসি পরীক্ষার্থীরা

সড়কটি খুব বেশি প্রশস্ত না হলেও উভয়পাশ থেকে একে চেপে ধরেছে বাজার ও অস্থায়ী দোকানপাট। ফুটপাতও গিয়েছে অস্থায়ী ব্যবসায়ীদের দখলেই। ফলে সংকীর্ণ ওই রাস্তা দিয়েই পথচারী, সাইকেল-মোটরসাইকেল আরোহীসহ বিভিন্ন যানবাহন নিয়ে চলাচল করতে হয় স্থানীয়দের।

এতে সকাল-বিকেল সড়কটিতে চলাচলকারীদের পড়তে হয় ভোগান্তিতে। সড়ক দিয়ে দুটি গাড়িও অনেক সময় একে অপরকে ক্রস করতে পারে না। এতে সৃষ্টি হয় যানজট।

যানজটে নাকাল বাঁশখালীর এসএসসি পরীক্ষার্থীরা

রোববার সকালে উপজেলার টাইম বাজার, চাম্বল বাজার, গুনাগরি বাজার ঘুরে দেখা যায়, সড়কটিতে সারি সারি সিএনজি অটোরিকশা; দূরপাল্লার যানবাহনের দীর্ঘ সারি। সকাল দশটায় পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও তিন ঘণ্টা আগে বের হয়ে সিএনজি, অটোরিকশা ও টমটমে অসহায়ের মতো বসে আছে এসএসসি পরীক্ষার্থীরা।

জানতে চাইলে হতাশা আর ক্ষোভ ঝরে তাদের কণ্ঠে। তারা জানায়, পরীক্ষার দিন সকালে এক ঘণ্টারও বেশি সময় রাস্তায় বসেই পার করতে হয় তাদের। আবার অনেক সময় তার চেয়েও বেশি সময় থাকতে হয় যানজটে। এতে পরীক্ষা শুরু হওয়ার আগে কেন্দ্রে পৌঁছানো নিয়ে অনিশ্চয়তায় পড়তে হয় তাদের।

পরীক্ষার্থীরা বলে, সে সময়টা ভীষণ দুশ্চিন্তা মাথায় নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে বসে থাকতে হয়। ফলে পরীক্ষার বিষয়ে মনোসংযোগ করতে কষ্ট হয়। পরীক্ষার হলেও এর রেশ থাকে বেশ কিছু সময়।

যানজটে নাকাল বাঁশখালীর এসএসসি পরীক্ষার্থীরা

যেকোনো মূল্যে সন্তানদের এ মানসিক অস্তিরতা থেকে মুক্তি চান অভিভাবকরা। তাদের ভাষ্য, শুধু পরীক্ষার্থী কেন, সকল শ্রেণির মানুষই প্রতিদিন যানজটে নাকাল হচ্ছেন। প্রত্যন্ত এলাকায় এমন যানজট কোনোভাবেই কাম্য নয়।

সড়কের দখলমুক্ত ও প্রশস্ত করে যানজট নিরসনে প্রশাসনসহ কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা কামনা করেন তারা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম অঞ্চলের আঞ্চলিক উপ-পরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) উত্তম খীসা বলেন, ‘ট্রাফিকের বিষয়টা তো আমাদের হাতে নেই। এগুলো সিভিল প্রশাসন দেখে। তারপরও বিষয়টি আমি সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলদের নজরে আনার চেষ্টা করব।’

যানজটে নাকাল বাঁশখালীর এসএসসি পরীক্ষার্থীরা

চট্টগ্রাম ট্রাফিক বিভাগের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এএনএম ওয়াসিম ফিরোজ বলেন, আমাদের জনবল সংকট আছে। সীমিত জনবল নিয়ে কাজ চালাতে হচ্ছে। এরপরও সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা হবে।’

যানজটপ্রবণ এলাকাগুলোতে ট্রাফিক সদস্য মোতায়েন করা হবে বলে তিনি আশ্বাস দিয়েছেন।

মন্তব্য

শিক্ষা
Batch application time increased

গুচ্ছে আবেদনের সময় বাড়ল

গুচ্ছে আবেদনের সময় বাড়ল গুচ্ছ ভিত্তিক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে শিক্ষার্থীদের লাইন। ফাইল ছবি
ভর্তির আবেদন চলাকালে কারিগরি ত্রুটির কারণে একদিন আবেদন কার্যক্রম বিঘ্নিত হয়। এ বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে সভায় ভর্তিচ্ছুদের সুবিধার্থে আবেদনের সময়সীমা আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত একদিন বৃদ্ধি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে গুচ্ছভুক্ত সমন্বিত ভর্তি কমিটি।

জিএসটি গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার আবেদনের সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আবেদনের শেষ সময় একদিন বাড়িয়ে ২৭ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত করা হয়েছে।

গুচ্ছভুক্ত সমন্বিত ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক এবং যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন নিউজবাংলাকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

উপাচার্য অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘জিএসটি গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের ভর্তি পরীক্ষার কোর (কেন্দ্রীয়) কমিটির গত ২২ ফেব্রুয়ারি অনলাইনে অনুষ্ঠিত তৃতীয় সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী, গত ১২ ফেব্রুয়ারি দুপুর ১২টা ০১ মিনিট থেকে ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারতেন। তবে ভর্তির আবেদন চলাকালে কারিগরি ত্রুটির কারণে একদিন আবেদন কার্যক্রম বিঘ্নিত হয়। এ বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে সভায় ভর্তিচ্ছুদের সুবিধার্থে আবেদনের সময়সীমা আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত একদিন বৃদ্ধি করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।’

উল্লেখ্য, আগামী ২৭ এপ্রিল ‘এ’ ইউনিট (বিজ্ঞান), ৩ মে ‘বি’ ইউনিট (মানবিক) এবং ১০ মে ‘সি’ ইউনিটের (বাণিজ্য) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা দুপুর ১২টা থেকে ১টা এবং অন্য দুই ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

মন্তব্য

শিক্ষা
36 people will compete for each seat in the admission test of DUs business education unit

ঢাবির ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু, আসনপ্রতি পরীক্ষার্থী ৩৬

ঢাবির ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু, আসনপ্রতি পরীক্ষার্থী ৩৬ ঢাবি ভর্তি পরীক্ষার একটি কেন্দ্র। ফাইল ছবি
উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল বেলা সোয়া ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ ভবনের পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষের ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

ঢাকাসহ দেশের আটটি বিভাগীয় শহরে একযোগে শনিবার বেলা ১১টার দিকে শুরু হয় এ ইউনিটের পরীক্ষা, যার আগের নাম ‘গ’ ইউনিট।

ভর্তি পরীক্ষা চলবে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত। এ ইউনিটে মোট আসন এক হাজার ৫০টি।

এ ইউনিটে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ৯৫টি, মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ২৫টি এবং বাণিজ্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ৯৩০টি আসন বরাদ্দ রয়েছে।

ইউনিটের মোট আসনের বিপরীতে ৩৭ হাজার ৬৮১ জন শিক্ষার্থীর আবেদন জমা পড়েছে। যদি আবেদন করা সবাই ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেন, তাহলে প্রতিটি আসনের বিপরীতে লড়তে হবে ৩৬ জন শিক্ষার্থীকে।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল বেলা সোয়া ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ ভবনের পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এবারের ভর্তি পরীক্ষায় চারটি ইউনিটে আসন পাঁচ হাজার ৯৬৫টি। এসব আসনের বিপরীতে ২ লাখ ৭৮ হাজার ৯৯৬ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেন।

ইউনিটের সংখ্যা ও নাম পরিবর্তনের আগে পাঁচ ইউনিটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতো, কিন্তু গত বছর থেকে শুধু চারটি ইউনিটেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে এই ভর্তি পরীক্ষা। বাদ দেয়া হয়েছে আগের ‘ঘ’ ইউনিট। গত বছর ইউনিটগুলোর নামও পরিবর্তন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

ইউনিটের সংখ্যা ও নাম পরিবর্তন

আগের ‘ক’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে বিজ্ঞান ইউনিট, ‘খ’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে কলা, আইন ও সামাজিক বিজ্ঞান ইউনিট। এ ছাড়া ‘গ’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিট এবং ‘চ’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে চারুকলা ইউনিট করা হয়েছে।

নম্বর বণ্টন

প্রতি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার সময় দেড় ঘণ্টা। এর মধ্যে চারুকলা ইউনিট ছাড়া বাকি সব ইউনিটে ৬০ নম্বরের বহুনির্বাচনি ও ৪০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা হবে। শুধু চারুকলা ইউনিটের পরীক্ষায় ৪০ নম্বরের বহুনির্বাচনি ও ৬০ নম্বরের অংকন পরীক্ষা ছিল।

এই ইউনিটে (চারুকলা) বহুনির্বাচনি পরীক্ষার জন্য ৩০ মিনিট ও অংকন পরীক্ষার জন্য ৬০ মিনিট সময় থাকবে। আর অন্যান্য ইউনিটের বহুনির্বাচনি পরীক্ষার জন্য ৪৫ মিনিট ও লিখিত পরীক্ষার জন্য ৪৫ মিনিট সময় থাকবে।

ভর্তি পরীক্ষায় মোট ১২০ নম্বরের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করা হবে। এর মধ্যে ভর্তি পরীক্ষায় ১০০ এবং এসএসসি ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফলের ওপর থাকবে ২০ নম্বর।

এর আগে গত ১৮ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন শুরু হয়। শিক্ষার্থীরা ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত আবেদন করতে পেরেছেন।

আরও পড়ুন:
দাখিল পরীক্ষায় প্রক্সির অভিযোগ, কেন্দ্র সচিবসহ ৫৯ পরীক্ষার্থী আটক
শহীদ মিনারে থাকবে প্রধানমন্ত্রীর ২১টি পুস্পস্তবকের দুর্লভ ছবির প্রদর্শনী
মেয়াদ শেষ হওয়ার ২ মাস পর পূর্ণাঙ্গ হলো ঢাবি ছাত্রলীগের কমিটি
এসএসসির প্রথম দিন অনুপস্থিত ১৯৩৫৯, বহিষ্কার ২৫
এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু আজ

মন্তব্য

শিক্ষা
Leaving the office assistant to inspect the room the teachers notebook disappeared during the banquet
এসএসসি পরীক্ষা

অফিস সহকারীকে কক্ষ পরিদর্শনে রেখে বনভোজনে শিক্ষক, খাতা উধাও

অফিস সহকারীকে কক্ষ পরিদর্শনে রেখে বনভোজনে শিক্ষক, খাতা উধাও বৃহস্পতিবার শেরপুরের আয়শা আইন উদ্দিন মহিলা কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। ছবি: নিউজবাংলা
কেন্দ্রের সহকারী সচিব বানিবাইদ এএএমপি উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিম বলেন, ‘যে শিক্ষকের ডিউটি ছিল, তিনি বনভোজনে গিয়েছিলেন। পরে শিক্ষক না থাকায় অফিস সহকারী মাছুদাকে দিয়ে পরীক্ষাকেন্দ্রের দায়িত্ব পালন করানো হয়েছে।’

শেরপুরের শ্রীবরদীতে নিয়ম বহির্ভূতভাবে এসএসসি পরীক্ষার কেন্দ্রে এক বিদ্যালয়ের অফিস সহকারীকে দিয়ে কক্ষ পরিদর্শকের দায়িত্ব পালন করানোর পর এক পরীক্ষার্থীর খাতা হারিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় চার কক্ষ পরিদর্শককে অব্যহতি দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার আয়শা আইন উদ্দিন মহিলা কলেজ কেন্দ্রের ১৫ নম্বর কক্ষে এ ঘটনা ঘটে। পরে রাতেই চারজনের নাম উল্লেখ করে কেন্দ্র সচিব সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে শ্রীবরদী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

শুক্রবার সন্ধায় বিষয়টি জানাজানি হয়। পরে শ্রীবরদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফৌজিয়া নাজনীন নিউজবাংলাকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

কক্ষ পরিদর্শকের দায়িত্ব পালনকারী অফিস সহকারীর নাম মাছুদা আক্তার। তিনি বানিবাইদ আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ে কর্মরত।

পরীক্ষাকেন্দ্র সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার শ্রীবরদীর ওই কেন্দ্রের ১৫ নম্বর কক্ষে ৭৯ জন্য পরীক্ষার্থী ইংরেজি দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষায় অংশ নেয়। পরীক্ষা শেষে দায়িত্বরত কক্ষ পরিদর্শকরা সহকারী কেন্দ্র সচিবের কাছে ৭৯টি ওএমআর শিট জমা দিলেও খাতা জমা দেন ৭৮টি। তবে কোন পরীক্ষার্থীর খাতা হারিয়েছে, তা জানা যায়নি।

কেন্দ্রের দায়িত্বে ছিলেন বানিবাইদ আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোছা. মারুফা আক্তার, সহকারী শিক্ষক সাইফুল ইসলাম, অফিস সহকারী মাছুদা আক্তার ও গোপালখিলা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক কারিমা খাতুন।

কেন্দ্রের সহকারী সচিব বানিবাইদ এএএমপি উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিম বলেন, ‘যে শিক্ষকের ডিউটি ছিল, তিনি বনভোজনে গিয়েছিলেন। পরে শিক্ষক না থাকায় অফিস সহকারী মাছুদাকে দিয়ে পরীক্ষাকেন্দ্রের দায়িত্ব পালন করানো হয়েছে।’

কেন্দ্র সচিব মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘খাতা হারানোর বিষয়টি জানার পর আমরা কেন্দ্রের দায়িত্বরত চারজনকে অব্যহতি দিয়েছি। তাদের নামে রাতে থানায় জিডিও করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘তবে অফিস সহকারী যে ডিউটি করছিলেন, বিষয়টি আমার জানা ছিল না। সহকারী কেন্দ্র সচিব আমাকে লিখিত দিয়েছিলেন, অফিস সহকারী মাছুদা আক্তার একজন সহকারী শিক্ষক।’

শ্রীবরদী ইউএনও ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফৌজিয়া নাজনীন বলেন, ‘দায়িত্বে অবহেলার কারণে ১৫ নম্বর কক্ষে দায়িত্বরত চার শিক্ষককে এসএসসি পরীক্ষার পরবর্তী সকল কার্যক্রম থেকে অব্যহতি দেয়া হয়েছে। তাদের নামে থানায় জিডি করা হয়েছে।’

এছাড়া বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানান এ কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন:
জাল প্রবেশপত্রে এসএসসি পরীক্ষা দিতে গিয়ে গ্রেপ্তার
বাবার মরদেহ বাসায় রেখে এসএসসির কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী
ডিসির অনুরোধে পরীক্ষার আগের রাতে প্রবেশপত্র পেলেন ১৪ শিক্ষার্থী

মন্তব্য

শিক্ষা
DU admission war starts on Friday

ঢাবিতে ভর্তিযুদ্ধ শুরু

ঢাবিতে ভর্তিযুদ্ধ শুরু ঢাবির ভর্তি পরীক্ষার একটি কেন্দ্র। ফাইল ছবি
বেলা ১১টা থেকে ঢাকাসহ দেশের আটটি বিভাগীয় শহরে একযোগে শুরু হয় কলা, আইন ও সামাজিক বিজ্ঞান ইউনিটের পরীক্ষা। চলবে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত।

কলা, আইন ও সামাজিক বিজ্ঞান ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এবারের ভর্তিযুদ্ধ।

ইউনিটটির আগের নাম ‘খ’ ইউনিট। সম্প্রতি প্রতিটি ইউনিটের নাম পরিবর্তন করেছে ঢাবি।

সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্রবার বেলা ১১টা থেকে ঢাকাসহ দেশের আটটি বিভাগীয় শহরে একযোগে শুরু হয় এ ইউনিটের পরীক্ষা। পরীক্ষা চলবে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত।

আসন, আবেদনকারী ও কেন্দ্র

ইউনিটটিতে আসনের সংখ্যা দুই হাজার ৯৩৪টি। এর বিপরীতে ১ লাখ ২২ হাজার ২৭৯ জন শিক্ষার্থীর আবেদন জমা পড়েছে। যদি আবেদন করা সবাই ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেয়, তখন প্রতিটি আসনের বিপরীতে লড়তে হবে ৪২ জন শিক্ষার্থীকে।

ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল বেলা সোয়া ১১টার দিকে ঢাবির সামাজিক বিজ্ঞান ভবন কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।

ঢাকা বিভাগের পরীক্ষা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে, চট্টগ্রাম বিভাগের চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে, রাজশাহী বিভাগের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে, খুলনা বিভাগের খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে, সিলেট বিভাগের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে, রংপুর বিভাগের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে, বরিশাল বিভাগের বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ও ময়মনসিংহ বিভাগের পরীক্ষা বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এ বছর ৮০টি কেন্দ্রে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এবারের ভর্তি পরীক্ষায় চারটি ইউনিটে আসনসংখ্যা ৫ হাজার ৯৬৫টি। এসব আসনের বিপরীতে ২ লাখ ৭৮ হাজার ৯৯৬ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেছেন।

ইউনিটের সংখ্যা ও নাম পরিবর্তন

আগে পাঁচ ইউনিটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হলেও গত বছর থেকে শুধু চারটি ইউনিটেই হচ্ছে এ পরীক্ষা। বাদ দেয়া হয়েছে আগের ‘ঘ’ ইউনিট।

গত বছর ইউনিটগুলোর নামও পরিবর্তন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

আগের ‘ক’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে বিজ্ঞান ইউনিট। ‘খ’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে কলা, আইন ও সামাজিক বিজ্ঞান ইউনিট, ‘গ’ ইউনিটের নাম বদলে ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিট এবং ‘চ’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে চারুকলা ইউনিট করা হয়েছে।

নম্বর বণ্টন

প্রতিটি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার সময় দেড় ঘণ্টা। এর মধ্যে চারুকলা ইউনিট ছাড়া বাকি সব ইউনিটে ৬০ নম্বরের বহুনির্বাচনি ও ৪০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা হবে। শুধু চারুকলা ইউনিটের পরীক্ষায় ৪০ নম্বরের বহুনির্বাচনি ও ৬০ নম্বরের অংকন পরীক্ষা ছিল। এই ইউনিটে (চারুকলা) বহুনির্বাচনি পরীক্ষার জন্য ৩০ মিনিট ও অংকন পরীক্ষার জন্য ৬০ মিনিট সময় থাকবে।

আর অন্যান্য ইউনিটের বহুনির্বাচনি পরীক্ষার জন্য ৪৫ মিনিট ও লিখিত পরীক্ষার জন্য ৪৫ মিনিট সময় থাকবে।

ভর্তি পরীক্ষায় ১২০ নম্বরের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করা হবে। এর মধ্যে ভর্তি পরীক্ষায় ১০০ এবং এসএসসি বা সমমান ও উচ্চমাধ্যমিক বা সমমান পরীক্ষার ফলের ওপর থাকবে ২০ নম্বর।

কলা, আইন ও সামাজিক বিজ্ঞান ইউনিটের পর ২৪ ফেব্রুয়ারি ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিট, ১ মার্চ বিজ্ঞান ইউনিট এবং ৯ মার্চ চারুকলা ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে গত ১৮ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন শুরু হয়। ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পেরেছেন।

আরও পড়ুন:
মেয়াদ শেষ হওয়ার ২ মাস পর পূর্ণাঙ্গ হলো ঢাবি ছাত্রলীগের কমিটি
এসএসসির প্রথম দিন অনুপস্থিত ১৯৩৫৯, বহিষ্কার ২৫
এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু আজ
যৌন নিপীড়নের অভিযোগ: বাধ্যতামূলক ছুটিতে ঢাবি অধ্যাপক জুনাইদ
সৈয়দপুরের এক কলেজ থেকে মেডিক্যালে সুযোগ ৫১ শিক্ষার্থীর

মন্তব্য

শিক্ষা
The admission war has started in Jabi

জাবিতে ভর্তিযুদ্ধ শুরু

জাবিতে ভর্তিযুদ্ধ শুরু জাবিতে ভর্তি পরীক্ষার একটি কেন্দ্র। ছবি: নিউজবাংলা
সপ্তাহের শেষ কর্মদিবস বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় ‘এ’ ইউনিটভুক্ত গাণিতিক ও পদার্থবিষয়ক অনুষদ এবং ইন্সটিটিউট অফ ইনফরমেশন টেকনোলজির (আইআইটি) পরীক্ষার মধ্য দিয়ে শুরু হয় জাবিতে ভর্তিযুদ্ধ।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়েছে, যা চলবে ২৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

সপ্তাহের শেষ কর্মদিবস বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় ‘এ’ ইউনিটভুক্ত গাণিতিক ও পদার্থবিষয়ক অনুষদ এবং ইন্সটিটিউট অফ ইনফরমেশন টেকনোলজির (আইআইটি) পরীক্ষার মধ্য দিয়ে শুরু হয় জাবিতে ভর্তিযুদ্ধ।

বিকেল ৫টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত সর্বমোট ছয়টি পর্বে চলবে এই ইউনিটের পরিক্ষা। এর মধ্যে প্রথম দুই পর্বে ছাত্রীদের ও শেষ চার পর্বে ছাত্রদের পরীক্ষা হবে।

চলতি বছর ‘এ’ ইউনিটে ছাত্রদের ২২৩টি এবং ছাত্রীদের ২২৩টি আসনের বিপরীতে ৩৩ হাজার ৭০৫ জন ছাত্র এবং ১৬ হাজার ৭১১ জন ছাত্রী আবেদন করেছেন।

দ্বিতীয় পর্বের পরীক্ষা পরিদর্শন শেষে উপাচার্য অধ্যাপক ড. নূরুল আলম বলেন, ‘সুন্দর পরিবেশে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। উপস্থিতির হার ৭০ থেকে ৮০ শতাংশ।

‘আমরা এ বছর ভাসমান কোনো দোকান বসতে দেয়নি। এ কারণে ভিড়ও কম আছে। নির্বিঘ্নে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।’

আগামী রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টায় হবে প্রথম পর্বে ‘সি-১’ ইউনিটের পরীক্ষা। পরে সকাল ১০টা ২৫ মিনিট থেকে ‘সি’ ইউনিটের বাকি পর্বের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে।

আগামী মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) ও বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুই দিনে চার পর্ব করে ‘ডি’ ইউনিটের পরীক্ষা হবে। পরবর্তী সময়ে বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টায় দুটি পর্বে ‘বি’ ইউনিটের পরীক্ষা শুরু হবে। পরে বেলা ১১টা ৫০ মিনিটে তৃতীয় পর্বে ইনস্টিটিউট অফ বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (আইবিএ) পরীক্ষা হবে। ওই দিন শেষ দুই পর্বে হবে ‘ই’ ইউনিটের পরীক্ষা।

আরও পড়ুন:
জাবিতে ভর্তি পরীক্ষা শুরু বৃহস্পতিবার
ভর্তি পরীক্ষার আয়-ব্যয়ের হিসাব সাধারণ শিক্ষকরা জানেন না
যৌন নিপীড়নে অভিযুক্ত জাবি শিক্ষক জনি বরখাস্ত
দাখিল পরীক্ষায় প্রক্সির অভিযোগ, কেন্দ্র সচিবসহ ৫৯ পরীক্ষার্থী আটক
ধর্ষণকারী যৌন নিপীড়কদের বিচার দাবিতে জাবিতে কুশপুত্তলিকা দাহ

মন্তব্য

p
উপরে