× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

শিক্ষা
A passerby took 50 HSC books to the police station from the beggar
google_news print-icon

ভিক্ষুকের কাছে এইচএসসির ৫০টি খাতা, থানায় নিয়ে গেলেন পথচারী

ভিক্ষুকের-কাছে-এইচএসসির-৫০টি-খাতা-থানায়-নিয়ে-গেলেন-পথচারী
রাস্তায় পাওয়া এইচএসসির খাতা। ছবি: সংগৃহীত
মেয়েকে বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌঁছে দিতে গিয়ে পথে মুরাদ হোসেন খাতাগুলো দেখতে পান। প্রথমে সন্দেহ হলে ভালো করে যাচাইয়ের পর তিনি বুঝতে পারেন, এগুলো চলমান এইচএসসি পরীক্ষার খাতা।

রাস্তায় ভিক্ষুকের কাছে পাওয়া এবারের উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) পরীক্ষার ইংরেজি প্রথম পত্রের ৫০টি খাতা সংগ্রহ করে তা থানায় জমা দিয়েছেন এক পথচারী।

বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে পাওয়া ওই খাতাগুলো রাজধানীর কাফরুল থানায় জমা দেন দেন তিনি। ঢাকা শিক্ষা বোর্ড থানা থেকে খাতা সংগ্রহের জন্য লোক পাঠিয়েছে।

মেয়েকে বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌঁছে দিতে গিয়ে পথে মুরাদ হোসেন খাতাগুলো দেখতে পান। প্রথমে সন্দেহ হলে ভালো করে যাচাইয়ের পর তিনি বুঝতে পারেন, এগুলো চলমান এইচএসসি পরীক্ষার খাতা।

মুরাদ হোসেন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘মেয়েকে বাসে তুলে দেয়ার জন্য মিরপুর গোল চত্বরে আসার পর আমি একটা জটলা দেখে এগিয়ে যাই। এরপর দেখি কিছু ভিক্ষুক এক বান্ডিল মতো খাতা নিয়ে তা বিক্রি করার জন্য আলোচনা করছে। তারা আমাকে জানায় এগুলো রাস্তায় কুড়িয়ে পেয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমি তাদের কাছ থেকে খাতাগুলো নিয়ে যাচাই করে দেখি এখানে তারিখ অনুযায়ী তা এ বছর চলমান এইচএসসি পরীক্ষার খাতা। খাতার ওপরে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কাগজ দিয়ে বাঁধা ছিল। সেই সঙ্গে ইংরেজি প্রথম পত্রের কোড নম্বর দেয়া ছিল। খাতার বান্ডিলে ৫০টি খাতা, এটাও উল্লেখ করা ছিল।’

মুরাদ হোসেন বলেন, ‘কী করব ওই মুহূর্তে বুঝতে না পেরে আমি আমার এক অধ্যক্ষ বন্ধুকে ফোন দিয়ে বিস্তারিত বলি। এরপর খাতাগুলো নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিলে আমার সঙ্গে ঢাকা বোর্ড থেকে যোগাযোগ করা হয়।’

ঢাকা বোর্ডের একজন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মুরাদ হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করেন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘তারা আমাকে নিকটস্থ থানায় সাধারণ ডায়েরি করে তা জমা দিতে বলেন। আমি কাফরুল থানায় খাতাগুলো জমা দিয়ে আসি।’

এ বছর এইচএসসি পরীক্ষার ইংরেজি প্রথম পত্রের পরীক্ষা হয়েছিল ১০ নভেম্বর। এইচএসসির পরীক্ষা এখনও চলমান রয়েছে।

কাফরুল থানার ডিউটি অফিসার রুমি নিউজবাংলাকে বলেন, ‘থানায় খাতার একটা বান্ডিল জমা দেওয়া হয়েছে। একজন পথচারী খাতাগুলো রাস্তায় কুড়িয়ে পেয়ে থানায় জমা দিয়েছেন। আমাদের অফিসারদের সঙ্গে বোর্ড থেকে যোগাযোগ করা হয়েছে। তারা এসে খাতা নিয়ে যাবে বলে জানিয়েছে।’

ঢাকা বোর্ডের উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (উচ্চ মাধ্যমিক) মো. জাহিদ বক্ত চৌধুরী নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমরা খাতার বিষয়ে তথ্য পেয়েছি। আমি ইতোমধ্যে একজনকে থানায় পাঠিয়েছি খাতাগুলো নিয়ে আসার জন্য।’

তিনি বলেন, ‘যে ব্যক্তি খাতাগুলো পেয়েছিলেন তাকে আমরা সাধারণ ডায়েরি করে খাতা থানায় জমা দিতে বলেছিলাম। তিনিও তা-ই করেছেন। এ বিষয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যানের কাছে বিস্তারিত বলা হয়েছে। তিনি পরবর্তী নির্দেশ বা ব্যবস্থা নেয়া হবে তা জানাবেন।’

ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সন্ধ্যায় বলেন, ‘আমরা খাতাগুলো থানা থেকে এনেছি। দোষী পরীক্ষককে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট সব দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।’

বোর্ড সূত্রে জানা যায়, উত্তরপত্রগুলোর দায়িত্বপ্রাপ্ত পরীক্ষক শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব সরকারি মহিলা কলেজের প্রভাষক মো. ইব্রাহীম হুসাইন।

আরও পড়ুন:
‘ঘটা করে’ এসএসসি, এইচএসসির ফল প্রকাশ নিয়ে প্রশ্ন
প্রশ্নে সাম্প্রদায়িক উসকানি: ৫ শিক্ষককে শাস্তি যশোর বোর্ডের
আমিনুলের জায়গায় আনিসুল: তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা

মন্তব্য

আরও পড়ুন

শিক্ষা
Applying for admission in a batch of three lakh centers is the top choice position

গুচ্ছে ভর্তির আবেদন তিন লক্ষাধিক, কেন্দ্র পছন্দের শীর্ষে জবি

গুচ্ছে ভর্তির আবেদন তিন লক্ষাধিক, কেন্দ্র পছন্দের শীর্ষে জবি জবিকে পরীক্ষার কেন্দ্র হিসেবে পছন্দ করেছেন ৯০ হাজার ৮৪১ জন শিক্ষার্থী। ছবি: নিউজবাংলা
আগামী ২৭ এপ্রিল শনিবার (এ ইউনিট-বিজ্ঞান), ৩ মে শুক্রবার (বি ইউনিট-মানবিক) এবং ১০ মে শুক্রবার (সি ইউনিট-বাণিজ্য) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা দুপুর ১২টা থেকে ১টা এবং অন্য দুই ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

দেশের ২৪টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক ও বিবিএ প্রথম বর্ষে শিক্ষার্থীদের ভর্তি পরীক্ষার আবেদন গ্রহণ শেষ হয়েছে।

এবার মোট ৩ লাখ ৫ হাজার ৩৪৬ আবেদন জমা হয়েছে। এদিকে শিক্ষার্থীদের পছন্দের পরীক্ষার কেন্দ্র হিসেবে ২২টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে শীর্ষে।

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার টেকনিক্যাল কমিটির আহ্বায়ক এবং চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাছিম আখতার শনিবার নিউজবাংলাকে এসব তথ্য জানান।

উপাচার্য অধ্যাপক নাছিম আখতার জানান, ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে গুচ্ছ ভর্তি ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদন প্রক্রিয়া আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিটে শেষ হয়েছে। এবার মোট ৩ লাখ ৫ হাজার ৩৪৬টি আবেদন জমা পড়েছে। এর মধ্যে বিজ্ঞান শাখার ‘এ’ ইউনিটে ১ লাখ ৭০ হাজার ৫৯৯টি, মানবিক শাখার ‘বি’ ইউনিটে ৯৪ হাজার ৬৩১টি ও ব্যবসায় শিক্ষা শাখার ‘সি’ ইউনিটে ৪০ হাজার ১১৬টি আবেদন জমা পড়েছে।

তিনি জানান, ‘আবেদনকারীদের মধ্যে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা দেয়ার জন্য কেন্দ্র হিসেবে পছন্দ করেছেন ৯০ হাজার ৮৪১ জন শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে ‘এ’ ইউনিটে ৫৩ হাজার ৮৩২ জন, ‘বি’ ইউনিটে ১৯ হাজার ৭৭০ জন, ‘সি’ ইউনিটে ১৭ হাজার ২৩৯ জন শিক্ষার্থী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা দিবে।’

এর আগে ১২ ফেব্রুয়ারি দুপুর ১২টা ০১ মিনিট থেকে ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা আবেদন করার সুযোগ পান। পরবর্তীতে ভর্তির আবেদন চলাকালীন কারিগরি ত্রুটির কারণে একদিন আবেদন কার্যক্রম বিঘ্নিত হওয়ায় ভর্তিচ্ছুদের সুবিধার্থে আবেদনের সময়সীমা আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত একদিন বৃদ্ধি করা হয়।

এদিকে গুচ্ছ ভর্তিতে প্রাথমিক আবেদনের সময় আর বাড়ানো হবে না বলে ভর্তি কমিটির একাধিক সদস্য জানিয়েছেন।

জিএসটি গুচ্ছভুক্ত সমন্বিত ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক ও যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন জানান, ‘প্রাথমিক আবেদনের সময় শেষ হয়েছে। এখন আর নতুন করে আবেদনের সময় বাড়ানো হবে না। এখন আমরা পরবর্তী ধাপের কাজ শুরু করব।’

আগামী ২৭ এপ্রিল শনিবার (এ ইউনিট-বিজ্ঞান), ৩ মে শুক্রবার (বি ইউনিট-মানবিক) এবং ১০ মে শুক্রবার (সি ইউনিট-বাণিজ্য) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা দুপুর ১২টা থেকে ১টা এবং অন্য দুই ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

২৪টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ২২টি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্র ঠিক করা হয়। তন্মধ্যে শিক্ষার্থীদের যেকোনো একটি কেন্দ্র নির্বাচন করতে হয়েছে। শিক্ষার্থীরা পরবর্তীতে ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্র পরিবর্তন করতে পারবে না বলেও কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

ভর্তি পরীক্ষার সব তথ্য গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

এর আগে ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে তিনটি ইউনিটে সর্বমোট ৩ লাখ ৩ হাজার ২৩১টি আবেদন জমা পড়ে।

গুচ্ছভুক্ত ২৪টি উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান হলো- জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাকা), ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (কুষ্টিয়া), শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (সিলেট), খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় (খুলনা), হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (দিনাজপুর), মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (টাঙ্গাইল), নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোয়াখালী), কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (কুমিল্লা), জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় (ময়মনসিংহ), যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যশোর), বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (রংপুর), পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (পাবনা), বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (গোপালগঞ্জ), বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (বরিশাল), রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রাঙ্গামাটি), রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ (সিরাজগঞ্জ), বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি (গাজীপুর), শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় (নেত্রকোণা), বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (জামালপুর), পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (পটুয়াখালী), কিশোরগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কিশোরগঞ্জ) এবং চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চাঁদপুর), সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (সুনামগঞ্জ) এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (পিরোজপুর)

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় আবেদনের যোগ্যতা

২০১৯, ২০২০ ও ২০২১ সালের এসএসসি বা সমমান এবং ২০২২ ও ২০২৩ সালের এইচএসসি বা সমমান, ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স, বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এইচএসসি (ভোকেশনাল), এ লেভেল এবং অন্যান্য সমমান পরীক্ষায় (সমমান নির্ধারণ কমিটি কর্তৃক অনুমোদনক্রমে) উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরাই কেবল ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবে। বিজ্ঞান, মানবিক ও বাণিজ্য শাখা হতে এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা নির্ধারিত যোগ্যতা সাপেক্ষে যথাক্রমে ইউনিট এ, ইউনিট বি ও ইউনিট সি-তে আবেদন করতে পারবে।

ইউনিট এ তে বিজ্ঞান শাখা হতে এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আবেদনকারীদের এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান উভয় পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ সহ সর্বমোট জিপিএ কমপক্ষে ৮.০০ থাকতে হবে। সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের বিজ্ঞান শাখাসহ মাদ্রাসা বোর্ড (বিজ্ঞান) এবং ভোকেশনাল (এইচএসসি) বিজ্ঞান শাখা হিসেবে বিবেচিত হবে।
ইউনিট বি তে মানবিক শাখা হতে এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আবেদনকারীদের এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান উভয় পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ ন্যূনতম জিপিএ ৩.০০ সহ সর্বমোট জিপিএ কমপক্ষে ৬.০০ থাকতে হবে। সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের মানবিক শাখাসহ মিউজিক, গার্হস্থ্য অর্থনীতি এবং মাদ্রাসা বোর্ড (সাধারণ, মুজাব্বিদ) মানবিক শাখা হিসেবে বিবেচিত হবে।

ইউনিট সি তে বাণিজ্য শাখা হতে এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আবেদনকারীদের এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান উভয় পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ ন্যূনতম জিপিএ ৩.০০ সহ সর্বমোট জিপিএ কমপক্ষে ৬.৫০ থাকতে হবে। সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের বাণিজ্য শাখাসহ ডিপ্লোমা ইন বিজনেস স্টাডিজ, ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা (এইচএসসি) এবং ডিপ্লোমা ইন কমার্স বাণিজ্য শাখা হিসেবে বিবেচিত হবে।

জিসিই-এর ক্ষেত্রে আইজিসিএসই (ও লেভেল) পরীক্ষায় কমপক্ষে তিনটি বিষয়ে বি গ্রেডসহ ৫টি বিষয়ে পাস এবং আইএএল (এ লেভেল) পরীক্ষায় কমপক্ষে দুইটি বিষয়ে বি গ্রেডসহ তিনটি বিষয়ে পাস থাকতে হবে। এক্ষেত্রে অনলাইনে সংশ্লষ্টি নম্বরপত্র আপলোডসহ আবেদনের পর সমমান ও যোগ্যতা নির্ধারণ কমিটি কর্তৃক অনুমোদনক্রমে আবেদন করতে হবে।

আরও পড়ুন:
শ্রুতি লেখক পরিবর্তনের অভিযোগে জাবিতে ছয়জনের উত্তরপত্র বাতিল, গ্রেপ্তার ১
জবির নতুন ক্যাম্পাসের ঘাট-ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন
গুচ্ছে আবেদনের সময় বাড়ল
পৌনে ২০০ বছরের স্কুলের ভবন ভেঙে বহুতল ভবন নির্মাণের অভিযোগ
ঢাবির ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু, আসনপ্রতি পরীক্ষার্থী ৩৬

মন্তব্য

শিক্ষা
49 candidates per seat started on Saturday in Chabi

চবিতে ভর্তিযুদ্ধ শুরু শনিবার, আসনপ্রতি প্রার্থী ৪৯

চবিতে ভর্তিযুদ্ধ শুরু শনিবার, আসনপ্রতি প্রার্থী ৪৯
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারটি ইউনিট ও দুটি উপ-ইউনিটে চার হাজার ৯২৬টি আসনের জন্য চূড়ান্তভাবে আবেদন করেছেন ২ লাখ ৪৩ হাজার ৫৫৫ জন শিক্ষার্থী। এবার নিজ ক্যাম্পাস ছাড়াও ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগে চবির ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষ (সম্মান) ভর্তি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে ২ মার্চ শনিবার। এবার চট্টগ্রাম, ঢাকা ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে একযোগে চবির ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ক্যাম্পাসে জোরদার করা হয়েছে নিরাপত্তা ও নজরদারি।

এদিকে ভর্তি ফরম বিক্রির টাকা কোন খাতে ব্যয় হয় প্রশাসন থেকে এর যথাযথ ব্যাখ্যা না পাওয়া পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষায় দায়িত্ব পালন করলেও সম্মানী (ভাতা) না নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষক সমিতি।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, এবারের ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি আসনের বিপরীতে লড়বেন ৪৯ জন ভর্তিচ্ছু। চারটি ইউনিট ও দুটি উপ-ইউনিটে চার হাজার ৯২৬টি আসনের জন্য চূড়ান্তভাবে আবেদন করেছেন ২ লাখ ৪৩ হাজার ৫৫৫ জন শিক্ষার্থী।

আইসিটি সেল সূত্রে জানা যায়, ‘এ’ ইউনিটে ১ হাজার ২১৫টি আসনের বিপরীতে আবেদন করেছেন ৯৯ হাজার ৫২১ জন শিক্ষার্থী। এই ইউনিটে প্রতি আসনের বিপরীতে ভর্তিচ্ছুর সংখ্যা ৮২ জন।

‘বি’ ইউনিটে ১ হাজার ২২১টি আসনের বিপরীতে আবেদন পড়েছে ৬৫ হাজার ২৬৭টি।

এই ইউনিটে প্রতি আসনের বিপরীতে ভর্তির জন্য লড়বেন ৫৪ জন।

‘সি’ ইউনিটে ৬৪০টি আসনের বিপরীতে আবেদন করেছেন ১৭ হাজার ৩০০ জন শিক্ষার্থী। এই ইউনিটে প্রতি আসনে ভর্তির জন্য লড়বেন ২৭ জন।

‘ডি’ ইউনিটে ৯৫৮টি আসনের বিপরীতে ৫৭ হাজার ৮০৪ জন আবেদন করেছেন। সম্মিলিত এই ইউনিটে প্রতি আসনের বিপরীতে ৬০ জন লড়বেন।

দুটি উপ-ইউনিটের মধ্যে ‘বি-১’ ইউনিটে ১২৫টি আসনের বিপরীতে আবেদন পড়েছে ১ হাজার ৬৬৯টি। এই উপ-ইউনিটে প্রতি আসনের বিপরীতে ভর্তির জন্য লড়ছেন ১৩ জন।

আর ‘ডি-১’ উপ-ইউনিটে ৩০টি আসনের বিপরীতে ১ হাজার ৯৯৪ জন প্রার্থী আবেদন করেছেন। অর্থাৎ এই উপ-ইউনিটে প্রতি আসনের জন্য লড়বেন ৬৭ জন শিক্ষার্থী।

সম্মানী ছাড়াই দায়িত্ব পালনের সিদ্ধান্ত শিক্ষকদের

ভর্তি ফরম বিক্রির টাকা কোন খাতে ব্যয় হয় প্রশাসন থেকে এর যথাযথ ব্যাখ্যা না পাওয়া পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষায় দায়িত্ব পালন করলেও সম্মানী (ভাতা) না নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে চবি শিক্ষক সমিতি।

বুধবার রাতে শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আব্দুল হকের সই করা এক জরুরি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। ২২ ফেব্রুয়ারি শিক্ষক সমিতির এক সাধারণ সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়-ব্যয়ের হিসাব নিয়ে সংসদে প্রশ্ন ওঠায় চবি শিক্ষক সমিতি জরুরি সভা ডেকে এই সিদ্ধান্ত নেয়।

ভর্তি পরীক্ষা হবে ঢাকা-রাজশাহীতেও

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা এবার নিজ ক্যাম্পাস ছাড়াও ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগে অনুষ্ঠিত হবে। ঢাকা বিভাগের কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ও রাজশাহী বিভাগের কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ক্যাম্পাস।

সি ইউনিটে পরীক্ষা নতুন নিয়মে

ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদভুক্ত ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় এবার বেশকিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে। অন্যান্যবার ব্যবসায় শিক্ষা, বিজ্ঞান ও মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের আলাদা প্রশ্নে পরীক্ষা হলেও এবার সব বিভাগ থেকে পাস করা শিক্ষার্থীদের অভিন্ন প্রশ্নে পরীক্ষা নেয়া হবে। এবার ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ থেকে পাস করা শিক্ষার্থীদের জন্য ৩২০টি, বিজ্ঞান বিভাগের জন্য ২৫৬টি ও মানবিক বিভাগ থেকে পাস করা শিক্ষার্থীদের জন্য ৩২টি আসন বরাদ্দ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

এছাড়া নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় ইংরেজিতে ৪০, বিশ্লেষণ দক্ষতায় ৩০ ও সমস্যা সমাধান (প্রবলেম সলভিং) অংশে ৩০ নম্বর থাকবে।

পরীক্ষার সময়সূচি

শনিবার ২ মার্চ ‘এ’ ইউনিটের পরীক্ষা দিয়ে শুরু হবে ভর্তিযুদ্ধ। ৮ মার্চ ‘বি’ ইউনিট, ৯ মার্চ ‘সি’ ইউনিট এবং ১৬ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে ‘ডি’ ইউনিটের পরীক্ষা।

এছাড়া ‘বি-১’ উপ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ৩ মার্চ ও ‘ডি-১’ উপ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ৪ মার্চ, ‘বি-১’ উপ-ইউনিটের ব্যবহারিক পরীক্ষা ১২, ১৩ ও ১৪ মার্চ এবং ‘ডি-১’ উপ-ইউনিটের ব্যবহারিক পরীক্ষা ১০ ও ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে।

পরীক্ষা পদ্ধতি

ভর্তি পরীক্ষা বরাবরের মতোই ১২০ নম্বরে অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে ১০০ নম্বর লিখিত পরীক্ষা (বহু নির্বাচনি) এবং বাকি ২০ নম্বর এসএসসি ও এইচএসসি জিপিএ থেকে যুক্ত হবে। বহু নির্বাচনী পদ্ধতির এই ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা যাবে।

বিশেষ শাটল ট্রেন

ভর্তি পরীক্ষার্থীদের যাতায়াতের সুবিধার্থে বিশেষ শাটল ট্রেনের ব্যবস্থা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ভর্তি পরীক্ষার দিনগুলোতে এই বিশেষ শাটল সার্ভিস চলবে।

নগরীর বটতলী রেলস্টেশন থেকে যথাক্রমে সকাল ৬টা, সাড়ে ৬টা, ৮টা ১৫ মিনিট, ৮টা ৪০ মিনিট, বেলা ২টা ৫০ মিনিট, ৩টা ৫০ মিনিট ও রাত সাড়ে ৮টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে এই বিশেষ শাটল ট্রেন।

অন্যদিকে বিশ্ববিদ্যালয় স্টেশন থেকে যথাক্রমে সকাল ৭টা ৫ মিনিট, ৭টা ৩৫ মিনিট, দুপুর ১টা, দুপুর দেড়টা, বিকেল ৪টা, ৫টা, সাড়ে ৫টা ও রাত সাড়ে ৯টায় নগরীর বটতলীর উদ্দেশে ছেড়ে যাবে ট্রেন।

সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. নূরুল আজিম সিকদার বলেন, ‘ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও নির্বিঘ্নে সুসম্পন্ন করতে ক্যাম্পাসের সার্বিক নিরাপত্তায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাত শতাধিক সদস্য নিয়োজিত থাকবেন। যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে প্রক্টরিয়াল বডি সতর্ক অবস্থানে থাকবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ভর্তি পরীক্ষার সময় শহর থেকে ক্যাম্পাসে আসার রাস্তা যানজটমুক্ত রাখা হবে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ শাটল ট্রেন চলবে।’

আরও পড়ুন:
ভর্তি পরীক্ষার আয়-ব্যয়ের হিসাব সাধারণ শিক্ষকরা জানেন না
চবিতে দফায় দফায় সংঘর্ষ: কঠোর ব্যবস্থা নিতে বললেন শিক্ষামন্ত্রী
ধর্ষণচেষ্টায় অভিযুক্ত চবি শিক্ষককে অপসারণের সিদ্ধান্ত
চবিতে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ থামছেই না, এবার পুলিশসহ আহত ১৩
ফের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র চবি, আহত ৭

মন্তব্য

শিক্ষা
DUs science unit admission test starts 66 candidates per seat

ঢাবির বিজ্ঞান ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত, আসনপ্রতি পরীক্ষার্থী ৬৬

ঢাবির বিজ্ঞান ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত, আসনপ্রতি পরীক্ষার্থী ৬৬ ঢাবি ক্যাম্পাস ও লোগো। ফাইল ছবি
গত বছর ইউনিটগুলোর নামও পরিবর্তন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। আগের ‘ক’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে বিজ্ঞান ইউনিট, ‘খ’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে কলা, আইন ও সামাজিক বিজ্ঞান ইউনিট, ‘গ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিট এবং ‘চ’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে চারুকলা ইউনিট।

আজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বিজ্ঞান ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পূর্বে যেটির নাম ছিল ‘ক’ ইউনিট। সম্প্রতি প্রতিটি ইউনিটের নাম পরিবর্তন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

বেলা ১১টা থেকে ঢাকাসহ দেশের আটটি বিভাগীয় শহরে একযোগে শুরু হয় এই ইউনিটের পরীক্ষা। চলে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল বেলা ১১টা পনেরো মিনিটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হল কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।

আসন, আবেদনকারী ও কেন্দ্র

এই ইউনিটে মোট আসন সংখ্যা রয়েছে ১ হাজার ৮৫১টি।। এর মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ১ হাজার ৭৭৫টি, মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ৫১টি এবং বাণিজ্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ২৫টি আসন বরাদ্দ রয়েছে।

বিজ্ঞান ইউনিটের মোট আসনের বিপরীতে ১ লক্ষ ২২ হাজার ৮২ জন শিক্ষার্থীর আবেদন জমা পড়েছে। যদি আবেদন করা সবাই ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেয় তখন প্রতিটি আসনের বিপরীতে লড়তে হবে ৬৬ জন শিক্ষার্থীকে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এবারের ভর্তি পরীক্ষায় চারটি ইউনিটে মোট আসনসংখ্যা ৫ হাজার ৯৬৫। এসব আসনের বিপরীতে মোট ২ লাখ ৭৮ হাজার ৯৯৬ শিক্ষার্থী আবেদন করেছেন।

ইউনিটের সংখ্যা ও নাম পরিবর্তন

আগে পাঁচ ইউনিটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হলেও গত বছর থেকে শুধু চারটি ইউনিটেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে এই ভর্তি পরীক্ষা। বাদ দেয়া হয়েছে পূর্বের ঘ ইউনিট।

গত বছর ইউনিটগুলোর নামও পরিবর্তন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

আগের ‘ক’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে বিজ্ঞান ইউনিট, ‘খ’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে কলা, আইন ও সামাজিক বিজ্ঞান ইউনিট, ‘গ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিট এবং ‘চ’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে চারুকলা ইউনিট।

গত ২৩ ফেব্রুয়ারি কলা, আইন ও সামাজিক বিজ্ঞান ইউনিটের পরীক্ষার মাধ্যমে শুরু হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিযুদ্ধ।

আরও পড়ুন:
ঢাবির ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু, আসনপ্রতি পরীক্ষার্থী ৩৬
অফিস সহকারীকে কক্ষ পরিদর্শনে রেখে বনভোজনে শিক্ষক, খাতা উধাও
ঢাবিতে ভর্তিযুদ্ধ শুরু
জাবিতে ভর্তিযুদ্ধ শুরু
জাবিতে ভর্তি পরীক্ষা শুরু বৃহস্পতিবার

মন্তব্য

শিক্ষা
Government Primary Recruitment 1st Group Exam Final Results Released

প্রাথমিকে নিয়োগ: প্রথম গ্রুপের পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশ

প্রাথমিকে নিয়োগ: প্রথম গ্রুপের পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশ প্রাথমিক স্কুলের একটি শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে শিক্ষক। ফাইল ছবি
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মাহবুবুর রহমান তুহিন স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট www.mopme.gov.bd এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে www.dpe.gov.bd ফল পাওয়া যাবে। উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীরা মোবাইলেও খুদেবার্তা (এসএমএস) পাবেন।’

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের রাজস্ব খাতভুক্ত ‘সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০২৩’-এর প্রথম গ্রুপের (বরিশাল, সিলেট, রংপুর বিভাগ) লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা হয়েছে।

এ ফলের ভিত্তিতে ২ হাজার ৪৯৭ জন প্রার্থীকে সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগের জন্য প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত করা হয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মাহবুবুর রহমান তুহিন স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট www.mopme.gov.bd এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে www.dpe.gov.bd ফল পাওয়া যাবে। উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীরা মোবাইলেও খুদেবার্তা (এসএমএস) পাবেন।’

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, ২০২৩ সালের ৮ ডিসেম্বর তিন বিভাগের ১৮ জেলায় পরীক্ষা হয়। এতে মোট পরীক্ষার্থী ছিলেন তিন লাখ ৬০ হাজার ৬৯৭ জন। লিখিত পরীক্ষায় ৯ হাজার ৩৩৭ জন উত্তীর্ণ হন।

গত বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি এ পরীক্ষা সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।

আরও পড়ুন:
জাবিতে ভর্তিযুদ্ধ শুরু
জাবিতে ভর্তি পরীক্ষা শুরু বৃহস্পতিবার
ভর্তি পরীক্ষার আয়-ব্যয়ের হিসাব সাধারণ শিক্ষকরা জানেন না
দাখিল পরীক্ষায় প্রক্সির অভিযোগ, কেন্দ্র সচিবসহ ৫৯ পরীক্ষার্থী আটক
এসএসসির প্রথম দিন অনুপস্থিত ১৯৩৫৯, বহিষ্কার ২৫

মন্তব্য

শিক্ষা
Banshkhali SSC candidates stuck in traffic jam

যানজটে নাকাল বাঁশখালীর এসএসসি পরীক্ষার্থীরা

যানজটে নাকাল বাঁশখালীর এসএসসি পরীক্ষার্থীরা অপ্রশস্ত সড়কের বেশিরবাগ জায়গা দখল হয়ে আরও সংকীর্ণ হয়ে পড়েছে। ছবি: নিউজবাংলা
সড়কটি খুব বেশি প্রশস্ত না হলেও উভয়পাশ থেকে তাকে চেপে ধরেছে বাজার ও অস্থায়ী দোকানপাট। ফুটপাতও গিয়েছে অস্থায়ী ব্যবসায়ীদের দখলেই। ফলে সংকীর্ণ ওই রাস্তা দিয়েই পথচারী, সাইকেল-মোটরসাইকেল আরোহীসহ বিভিন্ন যানবাহন নিয়ে চলাচল করতে হয় স্থানীয়দের।

চলমান মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষায় চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলা থেকে অংশ নিয়েছে প্রায় ছয় হাজার শিক্ষার্থী। উপজেলায় ১০টি কেন্দ্রে গিয়ে নিয়মিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে এসএসসি, দাখিল ও কারিগরির এসব পরীক্ষার্থীরা। তবে পরীক্ষার দিন সকালে কেন্দ্রে পৌঁছানো তাদের জন্য হয়ে দাঁড়িয়েছে বড় দুশ্চিন্তার বিষয়।

এ অবস্থায় এখন পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সব দুশ্চিন্তা কক্সবাজারের এবিসি (আনোয়ারা-বাশঁখালী- চকোরিয়া) সড়কটি ঘিরে। পরীক্ষাকেন্দ্রগুলোতে যাওয়ার জন্য এই সড়কটিই প্রধান যাতায়তের পথ। জেলার পেকুয়া, কুতুবদিয়া ও মহেশখালী উপজেলার মানুষের জন্যও যোগাযোগের প্রধান সড়কপথ এটি।

যানজটে নাকাল বাঁশখালীর এসএসসি পরীক্ষার্থীরা

সড়কটি খুব বেশি প্রশস্ত না হলেও উভয়পাশ থেকে একে চেপে ধরেছে বাজার ও অস্থায়ী দোকানপাট। ফুটপাতও গিয়েছে অস্থায়ী ব্যবসায়ীদের দখলেই। ফলে সংকীর্ণ ওই রাস্তা দিয়েই পথচারী, সাইকেল-মোটরসাইকেল আরোহীসহ বিভিন্ন যানবাহন নিয়ে চলাচল করতে হয় স্থানীয়দের।

এতে সকাল-বিকেল সড়কটিতে চলাচলকারীদের পড়তে হয় ভোগান্তিতে। সড়ক দিয়ে দুটি গাড়িও অনেক সময় একে অপরকে ক্রস করতে পারে না। এতে সৃষ্টি হয় যানজট।

যানজটে নাকাল বাঁশখালীর এসএসসি পরীক্ষার্থীরা

রোববার সকালে উপজেলার টাইম বাজার, চাম্বল বাজার, গুনাগরি বাজার ঘুরে দেখা যায়, সড়কটিতে সারি সারি সিএনজি অটোরিকশা; দূরপাল্লার যানবাহনের দীর্ঘ সারি। সকাল দশটায় পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও তিন ঘণ্টা আগে বের হয়ে সিএনজি, অটোরিকশা ও টমটমে অসহায়ের মতো বসে আছে এসএসসি পরীক্ষার্থীরা।

জানতে চাইলে হতাশা আর ক্ষোভ ঝরে তাদের কণ্ঠে। তারা জানায়, পরীক্ষার দিন সকালে এক ঘণ্টারও বেশি সময় রাস্তায় বসেই পার করতে হয় তাদের। আবার অনেক সময় তার চেয়েও বেশি সময় থাকতে হয় যানজটে। এতে পরীক্ষা শুরু হওয়ার আগে কেন্দ্রে পৌঁছানো নিয়ে অনিশ্চয়তায় পড়তে হয় তাদের।

পরীক্ষার্থীরা বলে, সে সময়টা ভীষণ দুশ্চিন্তা মাথায় নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে বসে থাকতে হয়। ফলে পরীক্ষার বিষয়ে মনোসংযোগ করতে কষ্ট হয়। পরীক্ষার হলেও এর রেশ থাকে বেশ কিছু সময়।

যানজটে নাকাল বাঁশখালীর এসএসসি পরীক্ষার্থীরা

যেকোনো মূল্যে সন্তানদের এ মানসিক অস্তিরতা থেকে মুক্তি চান অভিভাবকরা। তাদের ভাষ্য, শুধু পরীক্ষার্থী কেন, সকল শ্রেণির মানুষই প্রতিদিন যানজটে নাকাল হচ্ছেন। প্রত্যন্ত এলাকায় এমন যানজট কোনোভাবেই কাম্য নয়।

সড়কের দখলমুক্ত ও প্রশস্ত করে যানজট নিরসনে প্রশাসনসহ কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা কামনা করেন তারা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম অঞ্চলের আঞ্চলিক উপ-পরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) উত্তম খীসা বলেন, ‘ট্রাফিকের বিষয়টা তো আমাদের হাতে নেই। এগুলো সিভিল প্রশাসন দেখে। তারপরও বিষয়টি আমি সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলদের নজরে আনার চেষ্টা করব।’

যানজটে নাকাল বাঁশখালীর এসএসসি পরীক্ষার্থীরা

চট্টগ্রাম ট্রাফিক বিভাগের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এএনএম ওয়াসিম ফিরোজ বলেন, আমাদের জনবল সংকট আছে। সীমিত জনবল নিয়ে কাজ চালাতে হচ্ছে। এরপরও সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা হবে।’

যানজটপ্রবণ এলাকাগুলোতে ট্রাফিক সদস্য মোতায়েন করা হবে বলে তিনি আশ্বাস দিয়েছেন।

মন্তব্য

শিক্ষা
Batch application time increased

গুচ্ছে আবেদনের সময় বাড়ল

গুচ্ছে আবেদনের সময় বাড়ল গুচ্ছ ভিত্তিক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে শিক্ষার্থীদের লাইন। ফাইল ছবি
ভর্তির আবেদন চলাকালে কারিগরি ত্রুটির কারণে একদিন আবেদন কার্যক্রম বিঘ্নিত হয়। এ বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে সভায় ভর্তিচ্ছুদের সুবিধার্থে আবেদনের সময়সীমা আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত একদিন বৃদ্ধি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে গুচ্ছভুক্ত সমন্বিত ভর্তি কমিটি।

জিএসটি গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার আবেদনের সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আবেদনের শেষ সময় একদিন বাড়িয়ে ২৭ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত করা হয়েছে।

গুচ্ছভুক্ত সমন্বিত ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক এবং যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন নিউজবাংলাকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

উপাচার্য অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘জিএসটি গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের ভর্তি পরীক্ষার কোর (কেন্দ্রীয়) কমিটির গত ২২ ফেব্রুয়ারি অনলাইনে অনুষ্ঠিত তৃতীয় সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী, গত ১২ ফেব্রুয়ারি দুপুর ১২টা ০১ মিনিট থেকে ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারতেন। তবে ভর্তির আবেদন চলাকালে কারিগরি ত্রুটির কারণে একদিন আবেদন কার্যক্রম বিঘ্নিত হয়। এ বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে সভায় ভর্তিচ্ছুদের সুবিধার্থে আবেদনের সময়সীমা আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত একদিন বৃদ্ধি করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।’

উল্লেখ্য, আগামী ২৭ এপ্রিল ‘এ’ ইউনিট (বিজ্ঞান), ৩ মে ‘বি’ ইউনিট (মানবিক) এবং ১০ মে ‘সি’ ইউনিটের (বাণিজ্য) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা দুপুর ১২টা থেকে ১টা এবং অন্য দুই ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

মন্তব্য

শিক্ষা
36 people will compete for each seat in the admission test of DUs business education unit

ঢাবির ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু, আসনপ্রতি পরীক্ষার্থী ৩৬

ঢাবির ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু, আসনপ্রতি পরীক্ষার্থী ৩৬ ঢাবি ভর্তি পরীক্ষার একটি কেন্দ্র। ফাইল ছবি
উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল বেলা সোয়া ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ ভবনের পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষের ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

ঢাকাসহ দেশের আটটি বিভাগীয় শহরে একযোগে শনিবার বেলা ১১টার দিকে শুরু হয় এ ইউনিটের পরীক্ষা, যার আগের নাম ‘গ’ ইউনিট।

ভর্তি পরীক্ষা চলবে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত। এ ইউনিটে মোট আসন এক হাজার ৫০টি।

এ ইউনিটে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ৯৫টি, মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ২৫টি এবং বাণিজ্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ৯৩০টি আসন বরাদ্দ রয়েছে।

ইউনিটের মোট আসনের বিপরীতে ৩৭ হাজার ৬৮১ জন শিক্ষার্থীর আবেদন জমা পড়েছে। যদি আবেদন করা সবাই ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেন, তাহলে প্রতিটি আসনের বিপরীতে লড়তে হবে ৩৬ জন শিক্ষার্থীকে।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল বেলা সোয়া ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ ভবনের পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এবারের ভর্তি পরীক্ষায় চারটি ইউনিটে আসন পাঁচ হাজার ৯৬৫টি। এসব আসনের বিপরীতে ২ লাখ ৭৮ হাজার ৯৯৬ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেন।

ইউনিটের সংখ্যা ও নাম পরিবর্তনের আগে পাঁচ ইউনিটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতো, কিন্তু গত বছর থেকে শুধু চারটি ইউনিটেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে এই ভর্তি পরীক্ষা। বাদ দেয়া হয়েছে আগের ‘ঘ’ ইউনিট। গত বছর ইউনিটগুলোর নামও পরিবর্তন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

ইউনিটের সংখ্যা ও নাম পরিবর্তন

আগের ‘ক’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে বিজ্ঞান ইউনিট, ‘খ’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে কলা, আইন ও সামাজিক বিজ্ঞান ইউনিট। এ ছাড়া ‘গ’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিট এবং ‘চ’ ইউনিটের নাম পরিবর্তন করে চারুকলা ইউনিট করা হয়েছে।

নম্বর বণ্টন

প্রতি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার সময় দেড় ঘণ্টা। এর মধ্যে চারুকলা ইউনিট ছাড়া বাকি সব ইউনিটে ৬০ নম্বরের বহুনির্বাচনি ও ৪০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা হবে। শুধু চারুকলা ইউনিটের পরীক্ষায় ৪০ নম্বরের বহুনির্বাচনি ও ৬০ নম্বরের অংকন পরীক্ষা ছিল।

এই ইউনিটে (চারুকলা) বহুনির্বাচনি পরীক্ষার জন্য ৩০ মিনিট ও অংকন পরীক্ষার জন্য ৬০ মিনিট সময় থাকবে। আর অন্যান্য ইউনিটের বহুনির্বাচনি পরীক্ষার জন্য ৪৫ মিনিট ও লিখিত পরীক্ষার জন্য ৪৫ মিনিট সময় থাকবে।

ভর্তি পরীক্ষায় মোট ১২০ নম্বরের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করা হবে। এর মধ্যে ভর্তি পরীক্ষায় ১০০ এবং এসএসসি ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফলের ওপর থাকবে ২০ নম্বর।

এর আগে গত ১৮ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন শুরু হয়। শিক্ষার্থীরা ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত আবেদন করতে পেরেছেন।

আরও পড়ুন:
দাখিল পরীক্ষায় প্রক্সির অভিযোগ, কেন্দ্র সচিবসহ ৫৯ পরীক্ষার্থী আটক
শহীদ মিনারে থাকবে প্রধানমন্ত্রীর ২১টি পুস্পস্তবকের দুর্লভ ছবির প্রদর্শনী
মেয়াদ শেষ হওয়ার ২ মাস পর পূর্ণাঙ্গ হলো ঢাবি ছাত্রলীগের কমিটি
এসএসসির প্রথম দিন অনুপস্থিত ১৯৩৫৯, বহিষ্কার ২৫
এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু আজ

মন্তব্য

p
উপরে