× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

শিক্ষা
Manik got GPA five by writing with foot
google_news print-icon

পা দিয়ে লিখে জিপিএ ফাইভ পেল মানিক

পা-দিয়ে-লিখে-জিপিএ-ফাইভ-পেল-মানিক
মানিকের মা শিক্ষক মরিয়ম বেগম বলেন, ‘মানিক প্রতিবন্ধী- এটা আমরা মনে করি না। দুটাে হাত না থাকলেও ছােট থেকে আমরা তাকে পা দিয়ে লেখার অভ্যাস করিয়েছি।’ 

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়িতে এসএসসি পরীক্ষায় পা দিয়ে লিখে কেবল জিপিএ ফাইভই নয়, উপজেলায় সর্বোচ্চ নাম্বার পেয়েছেন শারীরিক প্রতিবন্ধী মানিক রহমান। গোটা উপজেলায় এসএসসি পরীক্ষার্থীদের মধ্যে তিনি পেয়েছেন সবচেয়ে বেশি নাম্বার, যা ১২৪২।

ফুলবাড়ি উপজেলা সদর ইউনিয়নের চন্দ্রখানা গ্রামের মানিকের এমন ফলে গর্বিত তার মা-বাবা।

দুই হাত ছাড়াই জন্ম মানিকের। দুই পা থাকলেও একটি লম্বা ও অন্যটি ছোট। পা দিয়ে লিখেই পরীক্ষা দিয়ে এ পর্যন্ত এসেছে। এসএসসি দিয়েছে ফুলবাড়ী জছিমিঞা মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে।

মানিক বলে, ‘এ ফল প্রত্যাশিত ছিল। এখন ঢাকা নটরডেম কলেজে ভর্তির জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। ভবিষ্যতে কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হতে চাই।’

মানিকের মা শিক্ষক মরিয়ম বেগম বলেন, ‘মানিক প্রতিবন্ধী- এটা আমরা মনে করি না। দুটাে হাত না থাকলেও ছােট থেকে আমরা তাকে পা দিয়ে লেখার অভ্যাস করিয়েছি। সমাজের অনেক সুস্থ ও স্বাভাবিক ছেলে-মেয়েদের চেয়েও মানিক পিএসসি ও জেএসসিতে ভাল রেজাল্ট করেছে। এটা আমাদের জন্য গর্বের।’

ছেলের জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন তিনি।

ছেলের লেখাপড়ার জন্য প্রয়োজনীয় সব কিছু সাধ্যমতো করবেন বলে জানালেন গর্বিত বাবা মানিকের বাবা ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান।

মানিকের ফলে গর্বিত তার স্কুলের শিক্ষকরাও।

সহকারী প্রধান শিক্ষক আইয়ুব আলী জানান, শারীরিক প্রতিবন্ধী হওয়ার পরও মানিক অন্যান্য শিক্ষার্থীদের চেয়ে ভাল ফল করেছে। উপজেলার মধ্যে সে সর্বোচ্চ নাম্বার পেয়েছে।

আরও পড়ুন:
পাসের হারে সিলেট কেন তলানিতে
এবার পরীক্ষার্থী কমলেও ফেল বেড়েছে লাখের বেশি
পাসের হারে শীর্ষে যশোর, তলানিতে সিলেট
জিপিএ ফাইভ বেড়েছে প্রায় ১ লাখ, এগিয়ে মেয়েরা
এসএসসিতে পাস কমেছে ৬ শতাংশ

মন্তব্য

আরও পড়ুন

শিক্ষা
Publication of recruitment circular in primary schools in 3 categories

৩ বিভাগে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

৩ বিভাগে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ ফাইল ছবি
আবেদন শুরু হবে আগামী ৩০ মার্চ সকাল সাড়ে ১০টা থেকে। চলবে ১৪ এপ্রিল রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত।

ময়মনসিংহ, খুলনা ও রাজশাহী বিভাগে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ দিতে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শাহ রেজওয়ান হায়াত স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিটি বুধবার প্রকাশ করা হয়। তবে এতে কতজন নিয়োগ পাবেন তা জানানো হয়নি।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, আবেদন শুরু হবে আগামী ৩০ মার্চ সকাল সাড়ে ১০টা থেকে। চলবে ১৪ এপ্রিল রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত।

একযোগে না করে বরং বিভাগভিত্তিক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করছে কর্তৃপক্ষ। এরইমধ্যে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি প্রকাশ করা হয়েছে রংপুর, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের জন্য বিজ্ঞপ্তি।

অধিদপ্তরের একজন কর্মকর্তা জানান, বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে জাতীয় দৈনিক পত্রিকা ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটেও। এই ধাপের বিজ্ঞপ্তির পর ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের বিজ্ঞপ্তি দেয়া হবে।

আরও পড়ুন:
ময়মনসিংহ খুলনা রাজশাহী বিভাগে প্রাথমিকের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি শিগগিরই
প্রধানমন্ত্রীর এসাইনমেন্ট অফিসার হলেন সনজিত দাস
সহকারী শিক্ষক নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি

মন্তব্য

শিক্ষা
British Councils IELTS award was won by 7 Bangladeshis

ব্রিটিশ কাউন্সিলের আইইএলটিএস পুরস্কার পেলেন ৭ বাংলাদেশি  

ব্রিটিশ কাউন্সিলের আইইএলটিএস পুরস্কার পেলেন ৭ বাংলাদেশি  
ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর টম মিশসা বলেন, বাংলাদেশ থেকে যারা এ বছর আইইএলটিএস পুরস্কার পেয়েছেন, তাদের অভিনন্দন। শিক্ষার্থীদের বিশ্বসেরা বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চশিক্ষা গ্রহণে সহায়তার পাশাপাশি আইইএলটিএস পুরস্কার তাদের নতুন দেশ ভ্রমণের, নতুন সংস্কৃতির সাথে পরিচিত হওয়ার এবং বৈশ্বিক আইইএলটিএস কমিউনিটির অংশ হওয়ার সুযোগ করে দেবে।

ব্রিটিশ কাউন্সিলের আইইএলটিএস ২০২২-২৩-এর পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন ইংরেজি ভাষা-ভাষী বিদ্যালয়ে উচ্চশিক্ষা গ্রহণের ক্ষেত্রে আইইএলটিএস পরীক্ষার্থীদের সহায়তা করতে এ পুরস্কার দেয়া হয়। শিক্ষার্থীরা যেন তাদের উচ্চশিক্ষা গ্রহণের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে পারেন, এজন্য এ পুরস্কারের মাধ্যমে তাদের ৩ হাজার পাউন্ডের আর্থিক সহায়তা দেয় ব্রিটিশ কাউন্সিল।

বাংলাদেশ, কলম্বিয়া, ঘানা, কেনিয়া, নাইজেরিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকা- এ ছয়টি দেশের আইইএলটিএস পরীক্ষার্থীদের জন্য এ বছরের প্রতিযোগিতা উন্মুক্ত ছিল।

প্রতিযোগিতামূলক আবেদন প্রতিক্রিয়ার মধ্য দিয়ে এ পুরস্কারের জন্য বাংলাদেশ থেকে সাতজন বিজয়ী নির্বাচিত করা হয়; যারা তাদের উচ্চশিক্ষার জন্য আর্থিক সহায়তা লাভ করবেন। বিজয়ীরা হলেন- সোয়াবিবা সোয়াদ, ইতমাম মির্জা, কাজী রাকিব হাসান, সাজিদ আই আউয়াল, জয়শ্রী চৌধুরী, জাকিয়া নিশাত এবং আহমেদ আল মাহবুব তালুকদার।

ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর টম মিশসা বলেন, বাংলাদেশ থেকে যারা এ বছর আইইএলটিএস পুরস্কার পেয়েছেন, তাদের অভিনন্দন। শিক্ষার্থীদের বিশ্বসেরা বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চশিক্ষা গ্রহণে সহায়তার পাশাপাশি আইইএলটিএস পুরস্কার তাদের নতুন দেশ ভ্রমণের, নতুন সংস্কৃতির সাথে পরিচিত হওয়ার এবং বৈশ্বিক আইইএলটিএস কমিউনিটির অংশ হওয়ার সুযোগ করে দেবে।

বাংলাদেশের আবেদনকারীরা পুরস্কার ও আবেদন প্রক্রিয়াসহ এ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে জানতে ভিজিট করতে পারেন: https://takeielts.britishcouncil.org/take-ielts/study-work-abroad/ielts-prize.

আরও পড়ুন:
ব্রিটিশ কাউন্সিলের স্টাডি ইউকে অ্যালামনাই অ্যাওয়ার্ডস ২০২২-২৩ অনুষ্ঠিত
নারীদের স্টেম বিষয়ে ক্যারিয়ার গড়তে ব্রিটিশ কাউন্সিলের বৃত্তি প্রকল্প
দুবাইয়ে ব্রিটিশ কাউন্সিলের সম্মেলনে শিক্ষায় উদ্ভাবন নিয়ে আলোচনা

মন্তব্য

শিক্ষা
There was no lack of effort Rafsan was the first in medical

চেষ্টার কমতি ছিল না: মেডিক্যালে প্রথম হওয়া রাফসান

চেষ্টার কমতি ছিল না: মেডিক্যালে প্রথম হওয়া রাফসান রাফসান জামান। ছবি: সংগৃহীত
‘ভালো লাগছে। বেশ কষ্টের পর আমি চান্স পেয়েছি। আব্বু-আম্মুও খুশি হয়েছে। আল্লাহতায়ালার কাছে কৃতজ্ঞ। আব্বু-আম্মুর কাছেও। নিজেও রেজাল্ট দেখে বিশ্বাস করতে পারিনি। বাবা-মা অনেক খুশি।’

মেডিক্যাল কলেজের ভর্তি পরীক্ষায় এবার প্রথম হওয়ার কথা কল্পনাও করেননি রাফসান জামান। তবে ঠিকই প্রথম হয়েছেন তিনি। এ নিয়ে কথা বলতে গিয়ে অনেকটা আপ্লুত হয়ে পড়লেন এই শিক্ষার্থী। জানালেন, চেষ্টার কোনো কমতি ছিল না।

২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে সরকারি-বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজের এমবিবিএস কোর্সের ভর্তি পরীক্ষার ফলাফলে প্রথম হওয়া রাফসান রোববার বিকেলে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘ভালো লাগছে। বেশ কষ্টের পর আমি চান্স পেয়েছি। আব্বু-আম্মুও খুশি হয়েছে। আল্লাহতায়ালার কাছে কৃতজ্ঞ। আব্বু-আম্মুর কাছেও। নিজেও রেজাল্ট দেখে বিশ্বাস করতে পারিনি। বাবা-মা অনেক খুশি।’

রাফসান বলেন, ‘আমার টার্গেট ছিল চেষ্টা করব। আমি আমার শুধু সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি। আমার চেষ্টার মধ্যে কোনো কমতি ছিল না। এ ছাড়া স্পেশাল কিছু না।’

এদিন দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সভাকক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে পরীক্ষার ফল ঘোষণা করেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। এতে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে প্রথম স্থান অর্জন করেছেন রাফসান জামান। রাজশাহী ক্যাডেট কলেজের এই শিক্ষার্থীর প্রাপ্ত নম্বর ৯৪.২৫।

এই ভর্তি পরীক্ষায় এবার অংশ নিয়েছিলেন ১ লাখ ৩৫ হাজার ৮০০ জন। পাস করেছেন ৪৯ হাজার ১৯৫ জন। পাসের হার ৩৫ দশমিক ৩৪ শতাংশ। ৩৭টি সরকারি মেডিক্যাল কলেজে সারা দেশে ভর্তির জন্য আসন আছে ৪ হাজার ৩৫০টি।

আরও পড়ুন:
মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় পাস ৪৯ হাজার
মেডিক্যালে ভর্তি প্রতারণায় সাবেক অতিরিক্ত সচিব
জালালাবাদ লিভার ট্রাস্ট, রোটারী ক্লাবের ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প

মন্তব্য

শিক্ষা
No untoward incident occurred during the medical examination Health Minister

এবারও ছাত্রী বেশি মেডিক্যাল পরীক্ষায়

এবারও ছাত্রী বেশি মেডিক্যাল পরীক্ষায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবনে কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে শুক্রবার সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক। ছবি: নিউজবাংলা
স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক বলেন, ‘গত বছরের তুলনায় এবার পরীক্ষার্থীর সংখ্যা সাড়ে চার হাজার কম রয়েছে। এবারও পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্রী সংখ্যা বেশি। মোট আবেদনকারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৫৪ শতাংশ মেয়ে আর ৪৬ শতাংশ ছেলে।পাশের ক্ষেত্রেও নারীরা এগিয়ে আছে। এর মাধ্যমে বুঝা যায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের নারীরা সবদিকে এগিয়ে যাচ্ছে।’

দেশের সরকারি ও বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজে ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএস প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় এবারও ছাত্রী সংখ্যা বেশি বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবনে কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে শুক্রবার সাংবাদিকদের এ বিষয়ে জানান তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক বলেন, ‘আমরা সারা দেশে খোঁজ খবর রেখেছি। কোথাও থেকে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর এখনও আসেনি। পরীক্ষার পরিবেশও চমৎকার।

‘গত বছরের তুলনায় এবার পরীক্ষার্থীর সংখ্যা সাড়ে চার হাজার কম রয়েছে। এবারও পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্রী সংখ্যা বেশি। মোট আবেদনকারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৫৪ শতাংশ মেয়ে আর ৪৬ শতাংশ ছেলে। পাশের ক্ষেত্রেও নারীরা এগিয়ে আছে। এর মাধ্যমে বুঝা যায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের নারীরা সবদিকে এগিয়ে যাচ্ছে।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যারা পিছিয়ে ছিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমলে তারা পাশাপাশি এগিয়ে যাচ্ছে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী সেই লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছেন।’

তিনি জানান, বিশেষজ্ঞ কমিটি যে প্রশ্নপত্র তৈরি করেছে ডিজিটাল পদ্ধতিতে ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে সারা বাংলাদেশে পৌঁছে দেয়া হয়েছে। পৌঁছাবার সময় কোনো ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়নি।

তিনি বলেন, ‘আমাদের শিক্ষার্থী বন্ধু এবং অভিভাবকদের অনুরোধ করব তারা যেন হুজুগে কান না দেয়। রিউমারে কান না দিয়ে যদি তারা ভালোভাবে পড়াশোনা করে তাহলে ভালো রেজাল্ট করতে পারবে বলে আমার বিশ্বাস। অতিদ্রুত আমরা রেজাল্ট প্রকাশ করব।’

আরও পড়ুন:
কাজে ফেরার ঘোষণা রাজশাহী মেডিক্যাল ইন্টার্নদের
রাবি ছাত্রের মৃত্যুর পর রাজশাহী মেডিক্যালে শিক্ষার্থীদের ভাঙচুর
চাকরি দিচ্ছে আর্মি মেডিক্যাল কলেজ বগুড়া
ডাক্তার ভোগার পর পাল্টাল রংপুর মেডিক্যালের চিত্র
ঢাকা মেডিক্যালে সাততলা থেকে লাফ দেয়া যুবকের মৃত্যু

মন্তব্য

শিক্ষা
Lakhs of students participated in the medical entrance exam

মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিলেন লক্ষাধিক শিক্ষার্থী

মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিলেন লক্ষাধিক শিক্ষার্থী মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় অপেক্ষমাণ পরীক্ষার্থীদের সারি। ফাইল ছবি
রাজধানীর পাঁচটিসহ দেশের ১৯টি কেন্দ্রের ৫৭টি ভেন্যুতে শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে একযোগে এই পরীক্ষা শুরু হয়, যা শেষ হয় বেলা ১১টায়।

দেশের সরকারি ও বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজে ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএস প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা হয়েছে।

রাজধানীর পাঁচটিসহ দেশের ১৯টি কেন্দ্রের ৫৭টি ভেন্যুতে শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে একযোগে এই পরীক্ষা শুরু হয়, যা শেষ হয় বেলা ১১টায়।

স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, এ বছর পরীক্ষায় আবেদনকারীর সংখ্যা ছিল এক লাখ ৩৯ হাজার ২১৭ জন।

সরকারি মেডিক্যালে আসন রয়েছে ৪ হাজার ৩৫০টি। সে হিসাবে আসনপ্রতি লড়েন ৩২ শিক্ষার্থী।

সরকারি-বেসরকারি মিলিয়ে ১০৮ মেডিক্যাল কলেজে আসন ১১ হাজার ১২২টি। সেই হিসাবে প্রতি আসনের বিপরীতে লড়েন ১২ পরীক্ষার্থী।

দেশে সরকারি মেডিক্যাল কলেজ ৩৭টি। সরকারি মেডিক্যালে এমবিবিএসে আসন চার হাজার ৩৫০টি।

এসব আসনে মেধা কোটায় তিন হাজার ৩৮৪, জেলা কোটায় ৮৪৬, বীর মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ৮৭ এবং উপজাতি কোটায় ৩৩ জনের ভর্তির সুযোগ রয়েছে।

৭১টি বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজে ছয় হাজার ৭৭২টি আসন রয়েছে।

যারা আবেদন করতে পেরেছিলেন

২০২২ সালে এইচএসসি ও ২০২০ সালে এসএসসি অথবা ২০২১ সালে এইচএসসি ও ২০১৯ সালে এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে পেরেছেন, তবে শর্ত ছিল যে, এইচএসসি পরীক্ষায় পাসের পূর্ববর্তী দুই বছরের মধ্যে এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।

এসএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগ এবং এইচএসসি পরীক্ষায় জীববিজ্ঞান, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়নসহ উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা আবেদনের যোগ্য বিবেচিত হয়েছেন।

দুটি পরীক্ষায় জিপিএ কমপক্ষে ৯ হওয়ার শর্ত ছিল। উপজাতীয় ও পার্বত্য জেলার অ-উপজাতীয় প্রার্থীরা দুটি পরীক্ষায় মোট জিপিএ আট হলেই ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে নির্বাচিত বলে গণ্য হন, তবে এককভাবে কোনো পরীক্ষায় জিপিএ ৩.৫০–এর কম পাওয়া ভর্তিচ্ছুরা আবেদন করতে পারেননি।

সবার জন্য এইচএসসি পরীক্ষায় জীববিজ্ঞানে ন্যূনতম গ্রেড পয়েন্ট ৪ না থাকলে আবেদন বাতিল বলে গণ্য হয়।

ভর্তি পরীক্ষায় পাওয়া নম্বর এবং এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে মেধাতালিকা করা হবে।

আরও পড়ুন:
রাবি ছাত্রের মৃত্যুর পর রাজশাহী মেডিক্যালে শিক্ষার্থীদের ভাঙচুর
চাকরি দিচ্ছে আর্মি মেডিক্যাল কলেজ বগুড়া
ডাক্তার ভোগার পর পাল্টাল রংপুর মেডিক্যালের চিত্র
ঢাকা মেডিক্যালে সাততলা থেকে লাফ দেয়া যুবকের মৃত্যু
হোটেলের ছাদ থেকে মাথায় পানির ট্যাংক পড়ে মৃত্যু

মন্তব্য

শিক্ষা
Primary scholarship results are available overnight

প্রাথমিকের বৃত্তির ফল রাতের মধ্যেই

প্রাথমিকের বৃত্তির ফল রাতের মধ্যেই ফাইল ছবি
গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয় প্রাথমিকের বৃত্তি পরীক্ষা। প্রায় দুই মাস পর মঙ্গলবার দুপুরে এর ফল প্রকাশ করা হয়। তবে ঘোষণার চার ঘন্টার মধ্যেই কারিগরি ত্রুটির কারণ দেখিয়ে ফল স্থগিত করা হয়।

স্থগিত হওয়া প্রাথমিকের বৃত্তি পরীক্ষার ফল বুধবার রাতের মধ্যেই প্রকাশ করা হবে।

সন্ধ্যায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান তুহিন এ তথ্য জানিয়েছেন।

সফটওয়্যারের টেকনিক্যাল কোডিংয়ে ভুল হওয়ায় মঙ্গলবার প্রকাশিত এই পরীক্ষার ফল স্থগিত রয়েছে।

গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয় প্রাথমিকের বৃত্তি পরীক্ষা। প্রায় দুই মাস পর মঙ্গলবার দুপুরে এর ফল প্রকাশ করা হয়। তবে ঘোষণার চার ঘন্টার মধ্যেই কারিগরি ত্রুটির কারণ দেখিয়ে ফল স্থগিত করা হয়।

বৃত্তির ফল প্রকাশের বিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশিক্ষণ) উত্তর কুমার দাশ বলেন, যেসব সমস্যার কারণে ফল স্থগিত করা হয়েছিল, তা চিহ্নিত করে সমাধান করা হয়েছে। যে কোনো সময় ফল প্রকাশ করতে পারব।

সবকিছু প্রস্তুত থাকার পরও ফল অধিকতর যাচাইয়ের জন্য পরামর্শ চেয়ে বিকেলে মহাপরিচালকের নেতৃত্বে টেকনিক্যাল কমিটি বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) যায়। বুয়েটের পরামর্শ অনুসারে যাচাই-বাছাই শেষে ফল প্রকাশের জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে।

এদিকে ফলের কারিগরি ত্রুটি খতিয়ে দেখতে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব (প্রশাসন) মোছা. নূরজাহান খাতুনকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে কাজ শুরু করেছে কমিটি।

মোছা. নূরজাহান খাতুন বলেন, প্রাথমিক তদন্তে কারও গাফিলতির প্রমাণ আমরা পায়নি। এটা নিছক কারিগরিটির ত্রুটির কারণে হয়েছে বলে ধারণা করছি।

আগেরদিন মঙ্গলবার প্রকাশিত ফলে বৃত্তি পায় ৮২ হাজার ৩৮৩ শিক্ষার্থী। ট্যালেন্টপুলে (মেধা বৃত্তি) ৩৩ হাজার ও ৪৯ হাজার ৩৮৩ জন শিক্ষার্থী সাধারণ বৃত্তি পায়।

আরও পড়ুন:
দুর্গম জনপদে শতভাগ বৃত্তি লাভ
প্রাথমিকের বৃত্তির ফল স্থগিত যে কারণে
৮২ হাজার ৩৮৩ শিক্ষার্থী পেল প্রাথমিকে বৃত্তি

মন্তব্য

শিক্ষা
82 thousand 383 students got scholarships in primary

৮২ হাজার ৩৮৩ শিক্ষার্থী পেল প্রাথমিকে বৃত্তি

৮২ হাজার ৩৮৩ শিক্ষার্থী পেল প্রাথমিকে বৃত্তি ফাইল ছবি
গত বছর থেকে পঞ্চমের সমাপনী পরীক্ষা উঠিয়ে দিয়েছে সরকার। গত ৩০ ডিসেম্বর ৪ লাখ ৮২ হাজার ৯০৪ জন শিক্ষার্থী বাংলা, গণিত, ইংরেজি ও প্রাথমিক বিজ্ঞান বিষয়ে ২ ঘণ্টায় ১০০ নম্বরের প্রাথমিকের বৃত্তি পরীক্ষায় অংশ নেয়।

পঞ্চম শ্রেণিতে বৃত্তি পেয়েছে ৮২ হাজার ৩৮৩ জন শিক্ষার্থী। এরমধ‍্যে ট‍্যালেন্টপুলে ৩৩ হাজার এবং সাধারণ কোটায় ৪৯ হাজার ৩৮৩ জন বৃত্তি পেয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন মঙ্গলবার সচিবালায় এক সংবাদ সম্মেলনে বৃত্তির ফল ঘোষণা করেন।

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা উঠে যাওয়ায় গত বছর আগের মত গতানুগতিক বৃত্তি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল শিক্ষার্থীরা।

ট‍্যালেন্টপুলে বৃত্তিপ্রাপ্তরা মাসে ৩০০ টাকা করে এবং সাধারণ কোটায় বৃত্তিপ্রাপ্তরা মাসের ২২৫ টাকা করে পাবে। এছাড়া বৃত্তি পাওয়া সব শিক্ষার্থী প্রতি বছর ২৫০ টাকা করে এককালীন হিসেবে পাবে। অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত বৃত্তি পাবে তারা।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওযবেসাইট www.dpe.gov.bd, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট www.mopme.gov.bd এবং স্থানীয়ভাবে বিভাগীয় উপ-পরিচালকের কার্যালয়, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের কার্যালয় এবং উপজেলা/থানা শিক্ষা অফিসারের কার্যালয় থেকে বৃত্তি পরীক্ষার ফল জানা যাবে।

করোনার কারণে ২০২০ ও ২০২১ সালে প্রাথমকি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা না হওয়ায় প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের ওই দুই বছর বৃত্তি দেয়া হয়নি। গত বছর থেকে পঞ্চমের সমাপনী পরীক্ষা উঠিয়ে দিয়েছে সরকার। গত ৩০ ডিসেম্বর ৪ লাখ ৮২ হাজার ৯০৪ জন শিক্ষার্থী বাংলা, গণিত, ইংরেজি ও প্রাথমিক বিজ্ঞান বিষয়ে ২ ঘণ্টায় ১০০ নম্বরের প্রাথমিকের বৃত্তি পরীক্ষায় অংশ নেয়।

আরও পড়ুন:
প্রাথমিকের বৃত্তির ফল দুপুরে
প্রাথমিকে বদলি আবেদন শুরু মঙ্গলবার
প্রাথমিকে বৃত্তির ফল মঙ্গলবার, জানবেন যেভাবে

মন্তব্য

p
উপরে