কেন্দ্রীয় ডেটাবেইজের আওতায় আসছে ঢাবি শিক্ষার্থীরা

কেন্দ্রীয় ডেটাবেইজের আওতায় আসছে ঢাবি শিক্ষার্থীরা

‘দেশ ডিজিটালে রূপান্তরিত হচ্ছে। এখন কোনো কাজ করতে গেলেই জাতীয় তথ্য ভাণ্ডারে শিক্ষার্থীদের তথ্য দেয়ার প্রয়োজন হয়। সেজন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ হলভিত্তিক সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রণয়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীদের একাডেমিক এবং আবাসিক হলের সব তথ্য কেন্দ্রীয় ডেটাবেইজের আওতায় আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ।

বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভোস্ট স্ট্যান্ডিং কমিটির এক সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্ব সভায় অন্যান্যের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. একে এম গোলাম রাব্বানী, প্রভোস্ট স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাপতি আবদুল বাছিরসহ বিভিন্ন আবাসিক হলের প্রাধ্যক্ষরা উপস্থিত ছিলেন।

সভার বিষয়ে সলিমুল্লাহ মুসলিম (এস এম) হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যপক মুজিবুর রহমান নিউজবাংলাকে বলেন, ‘দেশ ডিজিটালে রূপান্তরিত হচ্ছে। এখন কোনো কাজ করতে গেলেই জাতীয় তথ্য ভাণ্ডারে শিক্ষার্থীদের তথ্য দেয়ার প্রয়োজন হয়। সেজন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ হলভিত্তিক সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রণয়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

‘প্রাথমিকভাবে তিনটি হলকে তথ্য সমন্বয়ের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। সে তিনটি হল হলো শামসুন্নাহার হল, সলিমুল্লাহ মুসলিম (এস এম) হলও বিজয় একাত্তর হল। এ সব হলে পরীক্ষামূলকভাবে কার্যক্রম চালানো হবে। এরপর যে সফটওয়্যার ডেভলপ করা হবে তাতে কোনো ধরনের সমস্যা তৈরি হয় কিনা তা পরীক্ষা করে দেখা হবে।’

সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল সংস্কারের বিষয়েও আলোচনা হয়েছে। এ বিষয়ে মুজিবুর রহমান বলেন, সম্প্রতি দেশে ডেঙ্গুর সংক্রমণ বাড়ছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিরাপদ রাখার জন্য হলগুলো দ্রুততর সময়ের মধ্যে সংস্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ২৩ তারিখে কঠোর লকডাউন দেয়ার আগে এসব কাজ শেষ করতে হল কতৃপক্ষকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে, যাতে পরবর্তীতে কোন ধরনের সমস্যায় পড়তে না হয়।

শেয়ার করুন

মন্তব্য