টিকা নিবন্ধনে সমস্যায় পড়া চবি শিক্ষার্থীদের তালিকাভুক্তির নির্দেশ

টিকা নিবন্ধনে সমস্যায় পড়া চবি শিক্ষার্থীদের তালিকাভুক্তির নির্দেশ

প্রতীকী ছবি।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম মনিরুল হাসান বলেন, ‘যাদের এনআইডি কার্ড নেই তাদের বিষয়ে আমরা নির্বাচন কমিশনে যোগাযোগ করব। তাদেরকে বিশেষ ব্যবস্থায় টিকা নিশ্চিত করা হবে।’ 

জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) না থাকায় করোনা প্রতিরোধক টিকার জন্য নিবন্ধন করতে পারছিলেন না চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) অনেক শিক্ষার্থী।

এছাড়া অর্ধেকের বেশি শিক্ষার্থী আগে টিকা প্রাপ্তির জন্য বিশ্ববিদ্যায়ের দেয়া ফরমে নাম ও তথ্য তালিকাভুক্ত করেননি।

এ পরিস্থিতিতে এনআইডি না থাকা শিক্ষার্থী এবং পূর্বে নাম তালিকাভুক্ত না করা শিক্ষার্থীদের নাম ও যাবতীয় তথ্য পুনরায় তালিকাভুক্ত করার নির্দেশ দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এ ক্ষেত্রে যাদের এনআইডি নেই তাদের জন্মনিবনন্ধনের নম্বর দিতে বলা হয়েছে।

শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসানের সই করা এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গুগল ফরম পূরণের মাধ্যমে আবাসিক/অনুমতিপ্রাপ্ত এবং অনাবাসিক শিক্ষার্থী, যারা পূর্বে তথ্য দেননি তাদের নাম ও তথ্য দিবেন। এনআইডি না থাকা শিক্ষার্থীরা জন্মনিবনন্ধনের নম্বর ও যাবতীয় তথ্যাদি দিয়ে আবার ফরম পূরণ করবেন।

পাশাপাশি আগে ফরম পূরণ করা অনাবাসিক শিক্ষার্থী যারা সুরক্ষা অ্যাপে টিকা নিবন্ধন করতে পারছেন না তাদেরকেও পুনরায় তথ্য দিতে বলা হয়ছে। এছাড়া, আবাসিক শিক্ষার্থীদের নিবন্ধন সমস্যা নিরসনে ধৈর্য অপেক্ষা করতে বলেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম মনিরুল হাসান বলেন, ‘যাদের এনআইডি কার্ড নেই তাদের বিষয়ে আমরা নির্বাচন কমিশনে যোগাযোগ করব। তাদেরকে বিশেষ ব্যবস্থায় টিকা নিশ্চিত করা হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘যারা এনআইডি থাকার পরও টিকার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের অনলাইন ফরম পূরণ করতে পারেনি ফরম পূরণ করে নিতে বলা হয়েছে। তাদের তালিকা আবার ইউজিসিতে পাঠাবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।’

এর আগে ৪ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ দুইটি আলাদা গুগল ফরমের মাধ্যমে আবাসিক ও অনাবাসিক শিক্ষার্থীদের তথ্য নেয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের তথ্যমতে, এতে আবাসিক আড়াই হাজার এবং অনাবাসিক প্রায় ১০হাজার শিক্ষার্থী তদের নাম ও তথ্য তালিকাভুক্ত করে।

এ দিকে বৃহস্পতিবার এক ভার্চুয়াল সভায় বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) সচিব ড. ফেরদৌস জামান তুহিন বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করে ইউজিসির পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের যে সব শিক্ষার্থীর এনআইডি নেই তাদের তালিকা দিতে বলা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘এতে করে শিক্ষার্থীরা সুরক্ষা ওয়েবসাইটে গিয়ে নিজেদের নাম, রেজিস্ট্রেশন নাম্বার, ডিপার্টমেন্ট ও বিশ্ববিদ্যালয় নাম দিয়েই করোনা টিকার নিবন্ধন সম্পন্ন করতে পারবে। পরবর্তীতে তাদের ফোনে টিকাদানের স্থান ও সময় সংবলিত ম্যাসেজ পৌঁছে যাবে।’

শেয়ার করুন

মন্তব্য