স্থায়ী পে-কমিশন গঠনের দাবি

স্থায়ী পে-কমিশন গঠনের দাবি

মানববন্ধনে ১১ থেকে ২০ গ্রেডের সরকারি চাকরিজীবীদের সম্মিলিত অধিকার আদায় ফোরামের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক পরিষদের সদস্যসচিব মাহমুদুল হাসান বলেন, ‘আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণে ১১-২০ গ্রেডের কর্মচারীরা সব ধরণের আর্থিক সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত। এ বিষয়ে আমরা সরকারকে বলতে চাই, অবিলম্বে স্থায়ী পে-কমিশন গঠন করে ৯ম পে-স্কেল ঘোষণা করুন।’

স্থায়ী পে-কমিশন গঠন করে ৯ম পে-স্কেল ঘোষণাসহ ৮ দফা দাবি জানিয়েছে ১১ থেকে ২০ গ্রেডের সরকারি চাকরিজীবীদের সংগঠন সম্মিলিত অধিকার আদায় ফোরাম।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শুক্রবার আয়োজিত এক মানববন্ধনে এসব দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে ১১ থেকে ২০ গ্রেডের সরকারি চাকরিজীবীদের সম্মিলিত অধিকার আদায় ফোরামের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক পরিষদের সদস্যসচিব মাহমুদুল হাসান বলেন, ‘আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণে ১১-২০ গ্রেডের কর্মচারীরা সব ধরণের আর্থিক সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত। এ বিষয়ে আমরা সরকারকে বলতে চাই, অবিলম্বে স্থায়ী পে-কমিশন গঠন করে ৯ম পে-স্কেল ঘোষণা করুন।’

মানববন্ধন থেকে ঘোষণা করা আট দফা দাবি হলো-

১. এক ও অভিন্ন নিয়োগ বিধি বাস্তবায়ন করা।

২. সব পদে পদোন্নতি বা পাঁচ বছর পর পর উচ্চতর গ্রেড প্রদান ও ব্লক পোস্ট নিয়মিতকরণ।

৩. টাইমস্কেল, সিলেকশন গ্রেড পুনর্বহালসহ বেতনে জ্যেষ্ঠতা বজায় রাখা।

৪. সকল ভাতা বাজার চাহিদা অনুযায়ী নির্ধারণ।

৫. নিম্ন বেতনভোগীদের জন্য ন্যায্যমূল্যে মানসম্মত রেশন প্রদান।

৬. শতভাগ পেনশন আগের মতোই বহাল রাখা।

৭. সচিবালয়ের ন্যায় পদবি ও গ্রেড পরিবর্তন।

৮. কাজের ধরন ও পদ অনুযায়ী বেতনস্কেল প্রদান।

অবিলম্বে দাবি মানা না হলে আরও কঠোর কর্মসূচি ঘোষণার কথা জানায় সরকারি চাকরিজীবীদের সংগঠন সম্মিলিত অধিকার আদায় ফোরামটি।

শেয়ার করুন

মন্তব্য