২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত

‘আমাদের এখন আবেদন তেমন পড়ছে না। দিনে ২-৩ টা আবেদন পড়ে। এতে আমাদের খরচ হয়। তাই আবেদনের সময়সীমা ২৫ জুন রাত ১১.৫৯ মিনিট পর্যন্ত করা হয়েছে। এর মাঝে শিক্ষার্থীদের আবেদন করতে হবে।’

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে।

নিউজবাংলার প্রতিবেদকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার আয়োজক কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ও শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফরিদ উদ্দিন।

শুক্রবার এক সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

অধ্যাপক ড. ফরিদ উদ্দিন নিউজবাংলাকে বলেন, ১৯ ও ২৬ জুন এবং আগামী মাসের ৩ তারিখের পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে।

‘আমাদের এখন আবেদন তেমন পড়ছে না। দিনে ২-৩ টা আবেদন পড়ে। এতে আমাদের খরচ হয়। তাই আবেদনের সময়সীমা ২৫ জুন রাত ১১.৫৯ মিনিট পর্যন্ত করা হয়েছে। এর মাঝে শিক্ষার্থীদের আবেদন করতে হবে।’ আবেদনের ওয়েবসাইট- gstadmission.ac.bd

গুচ্ছ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সমন্বিত ভর্তি কমিটির সচিব ওহিদুজ্জামান বলেন, করোনার জন্য এমনিতেই আমাদের কার্যক্রম স্থবির হয়ে আছে।

‘শিক্ষার্থীদের ঝুঁকির মুখে ফেলে আমরা কিছু করব না। এই অবস্থায় কবে এই পরীক্ষা হবে তার তারিখও ঘোষণা করা যাচ্ছে না। তাই আজ সভা করে পরীক্ষা স্থগিতের কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ও সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষাবিষয়ক টেকনিক্যাল সাব-কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতি অনুকূলে না আসায় দেশের ২০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত করেছে আয়োজক কমিটি।

‘২৫ তারিখ পর্যন্ত প্রাথমিক আবেদনের সময়সীমা রাখা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতি বিচার বিশ্লেষণ করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। পরিস্থিতি বিবেচনায় মেধাক্রমের তালিকা, পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ করে জানিয়ে দেয়া হবে।’

এর আগে সমন্বিত ভর্তি কমিটির প্রাথমিক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ১৯ জুন মানবিক বিভাগের, ২৬ জুন বাণিজ্যের ও ৩ জুলাই বিজ্ঞান বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

এ বছর গুচ্ছভুক্ত ২০টি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহ হচ্ছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাকা), ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (কুষ্টিয়া), শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (সিলেট), খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় (খুলনা), হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (দিনাজপুর), মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (টাঙ্গাইল), পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (পটুয়াখালী), নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোয়াখালী), কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (কুমিল্লা), জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় (ত্রিশাল ময়মনসিংহ), যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যশোর), বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (রংপুর), পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (পাবনা), বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (গোপালগঞ্জ), বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (বরিশাল), রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রাঙ্গামাটি), রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় (সিরাজগঞ্জ), বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি (গাজীপুর), শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় (নেত্রকোনা), বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (জামালপুর)।

শেয়ার করুন

মন্তব্য