20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
করোনায় শিক্ষার বাইরে এক তৃতীয়াংশ পরিবার

রাজধানীর ডেমরা এলাকায় নিম্ন আয়ের একটি পরিবারে লেখাপড়া করছে শিশুরা। ছবি: সাইফুল ইসলাম

করোনায় শিক্ষার বাইরে এক তৃতীয়াংশ পরিবার

শহর অঞ্চলে চালানো এক জরিপে দেখা গেছে, ৯৪ শতাংশ পরিবার সংসদ টিভিতে ক্লাসের কথা জানে। তবে ক্লাসে অংশ নেয় মাত্র ১১ শতাংশ।

করোনা মহামারিতে স্কুল বন্ধ করে টেলিভিশনে ক্লাস নিতে সরকারের উদ্যোগ যে ফলপ্রসু হচ্ছে না তা উঠে এসেছে একটি জরিপে।

অনলাইনের নানা মাধ্যমে পড়ালেখার যে ব্যবস্থা সরকার করেছে, তার বাইরে রয়ে গেছে ৩৭ শতাংশ শিক্ষার্থী।

কেবল শহর অঞ্চলে, যেখানে টেলিভিশনের সংখ্যা, শিক্ষা নিয়ে পারিবারিক সচেতনতাও বেশি বলে ধারণা করা হয়, সেখানেই ১০০ জনের মধ্যে মাত্র ১১ জন শিক্ষার্থী সংসদ টিভির ক্লাস দেখে।

শিক্ষা বিটের সাংবাদিকদের সংগঠন ‘বাংলাদেশ এডুকেশন রিপোর্টার্স ফোরামের-বিইআরএফ এই জরিপ পরিচালনা করেছে।

ফোনে যোগাযোগ করে এক হাজার ১২৬ জন শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বলে এই জরিপটি করা হয়েছে। আটটি বিভাগেরই বেশ কয়েকটি শহরে এই জরিপ চালানো হয়।

করোনা ভাইরাসের কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ ঘোষণা করা হয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। শিক্ষার্থীরা যেন শিক্ষার বাইরে চলে না যায়, সে জন্য অনলাইনে ক্লাসের ব্যবস্থা করা হয়। পাশাপাশি সরকারি বিটিভি ও সংসদ টিভিতে ক্লাস নেয়া হচ্ছে।

কিন্তু এই ব্যবস্থা কতটা কার্যকর হবে, শুরু থেকেই প্রশ্ন ছিল। কারণ, দেশের জনসংখ্যার একটি বড় অংশেরই অনলাইনে ক্লাস করার মতো কারিগরি জ্ঞান নেই, নেই আর্থিক সামর্থ্য।

নিম্ন আয়ের পরিবারে টেলিভিশন স্বল্পতা, শিক্ষা নিয়ে সচেতনতার বিষয়গুলো কীভাবে মোকাবেলা করা হবে, সে কৌশল নেয়া হয়নি। ফলে শিক্ষা নিয়ে বৈষম্য বেড়েছে বলে বিভিন্ন জরিপে দেখা গেছে।

করোনায় শিক্ষার বাইরে এক তৃতীয়াংশ শিক্ষার্থী
করোনা ভাইরাসের কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাকের এক জরিপে দেখা গেছে, ৬৩ শতাংশ শিশুই করোনাকালে শিক্ষার বাইরে রয়ে গেছে। বিশ্বব্যাংকের আরেক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে ৩৯ শতাংশ শিক্ষার্থীর অনলাইনে ক্লাস করার সামর্থ্যই নেই।

বিইআরএফ এর জরিপের ফল প্রকাশ করে বলা হয়, সংসদ টিভিতে পাঠদানে ৮৯ শতাংশ শিক্ষার্থী দেখে না। তবে ক্লাস হচ্ছে, সেটা আবার জানে ৯৪ শতাংশ।

জরিপে দেখা গেছে, করোনাকালে অনলাইনে ক্লাসেও অংশ নেয়নি ৩৭ শতাংশ শিক্ষার্থী। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছে ২১ শতাংশ।

জরিপে অংশ নেয়া পরিবারগুলোর ৯৭ শতাংশই জানিয়েছে করোনাকালে তাদের আয় কমেছে।

ক্লাস পরীক্ষা বন্ধ থাকলেও ৯৩ শতাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান টিউশন ফি নিয়েছে বলেও জানিয়েছেন অভিভাবকরা।

জরিপে যারা অংশ নিয়েছে, তাদের মধ্যে ৯৮ শতাংশই গাইড বইয়ের সহযোগিতা নিয়ে পড়াশোনা করছে বলেও জানিয়েছে।

করোনায় শিক্ষার বাইরে এক তৃতীয়াংশ পরিবার
করোনার প্রাদুর্ভাবের পর এই দৃশ্যগুলো আর দেখা যায় না

বুধবার বিকালে ঢাকায় সংগঠনের আয়োজনে এক ভার্চুয়ালআলোচনা জরিপটি উপস্থাপন করেন ফোরামের সভাপতি ও চ্যানেল আই এর বিশেষ প্রতিনিধি মোস্তফা মল্লিক।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য