20201002104319.jpg
কিন্ডারগার্টেন খোলার দাবি নিয়ে হাইকোর্টে যাবেন শিক্ষকরা

কিন্ডারগার্টেন খোলার দাবি নিয়ে হাইকোর্টে যাবেন শিক্ষকরা

কিন্ডারগার্টেন স্কুল এন্ড কলেজ ঐক্য পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, ‘শিশু পার্ক, বিনোদন কেন্দ্র, সিনেমা হল খুলে দেওয়া হয়েছে। কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং কওমি মাদ্রসাও খুলে দেয়া হয়েছে। ইংরেজি মাধ্যমের ও লেভেল, এ লেভেল পরীক্ষার অনুমতিও দেয়া হয়েছে।...

করোনাভাইরাসের কারণে আট মাস ধরে বন্ধ থাকা কিন্ডারগার্টেন স্কুল খুলে দেওয়ার দাবিতে হাইকোর্টে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন স্কুল এন্ড কলেজ ঐক্য পরিষদ।

শুক্রবার সংগঠনটির চেয়ারম্যান এম ইকবাল বাহার চৌধুরী নিউজবাংলাকে জানিয়েছেন, আগামী ১ নভেম্বরের পর সরকার স্কুল খুলে না দিলে হাইকোর্টে যাবেন তারা।

তিনি বলেন, ‘দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ার পর ১৮ মার্চ থেকে সব স্কুল বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। দীর্ঘ দিন স্কুল বন্ধ থাকায় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আর্থিক সহায়তা চেয়ে একটি আবেদন করেছিলাম। কিন্তু সরকার থেকে কোনো সহায়তা পাইনি।’

কিন্ডারগার্টেন স্কুল এন্ড কলেজ ঐক্য পরিষদ চেয়ারম্যান ক্ষোভের সুরে বলেন, ‘শিশু পার্ক, বিনোদন কেন্দ্র, সিনেমা হল খুলে দেওয়া হয়েছে। কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং কওমি মাদ্রসাও খুলে দেয়া হয়েছে। ইংরেজি মাধ্যমের ও লেভেল, এ লেভেল পরীক্ষার অনুমতিও দেয়া হয়েছে। অথচ কিন্ডারগার্টেনগুলো বন্ধ রয়েছে।

‘এর ফলে কিন্ডারগার্টেনের মালিক ও সংশ্লিষ্ট শিক্ষকেরা মানবেতর জীবন যাপন করছে। অথচ ১০ লাখ রোহিঙ্গাকে বসিয়ে বসিয়ে খাওয়ানো হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘কিন্ডারগার্টেন খোলার দাবি জানিয়ে আমরা সংবাদ সম্মেলন, মানববন্ধনসহ নানা কর্মসূচি পালন করেছি। কোনো লাভ হয়নি। তাই আমরা উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

বাংলাদেশের ৬০ হাজার কিন্ডারগার্টেন স্কুল ও ১০ লাখ শিক্ষক রয়েছেন বলে জানান ইকবাল বাহার চৌধুরী।

 

শেয়ার করুন

মন্তব্য