× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

অর্থ-বাণিজ্য
Amendment to withdrawal of cash assistance to exports again three new market countries
google_news print-icon

রপ্তানিতে নগদ সহায়তা প্রত্যাহারে সংশোধনী, ফের নতুন বাজারভুক্ত তিন দেশ

রপ্তানিতে-নগদ-সহায়তা-প্রত্যাহারে-সংশোধনী-ফের-নতুন-বাজারভুক্ত-তিন-দেশ
ফাইল ছবি
বাংলাদেশ ব্যাংক ৩০ জানুয়ারি প্রজ্ঞাপন জারি করে পণ্য রপ্তানিতে নগদ সহায়তা কমানোর ঘোষণা দেয়। একইসঙ্গে অস্ট্রেলিয়া, জাপান ও ভারতকে প্রচলিত বাজারের আওতাভুক্ত করা হয়েছিল। এছাড়া যেসব পোশাক পণ্যকে নগদ সহায়তা থেকে বাদ দেয়া হয়েছিল, নতুন সার্কুলারে তা ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে।

নতুন রপ্তানি বাজার হিসেবে আবারও অস্ট্রেলিয়া, জাপান ও ভারতকে অন্তর্ভুক্ত করেছে সরকার। একইসঙ্গে নগদ সহায়তা প্রত্যাহারের পূর্বঘোষিত সার্কুলারে কিছুটা সংশোধনী আনা হয়েছে। সে অনুযায়ী এসব বাজারে রপ্তানিতে ৩ শতাংশ হারে নগদ সহায়তা দেয়া হবে।

অর্থ মন্ত্রণালয় সোমবার নতুন এক সার্কুলারে এই সংশোধনীর কথা জানিয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক এর আগে ৩০ জানুয়ারি প্রজ্ঞাপন জারি করে পণ্য রপ্তানিতে নগদ সহায়তা কমানোর ঘোষণা দেয়। তাতে আলোচিত এই তিনটি রপ্তানি গন্তব্যকে প্রচলিত বাজারের আওতাভুক্ত করা হয়েছিল, যেখানে রপ্তানিতে মাত্র শূন্য দশমিক ৫০ শতাংশ নগদ সহায়তা দেয়া হয়ে থাকে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রজ্ঞাপনটি চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত কার্যকর হবে বলে জানানো হয়েছিল। তবে ওই নির্দেশনার দুই সপ্তাহ পার না হতেই নতুন প্রজ্ঞাপন জারি করা হলো। তবে সোমবার অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের প্রজ্ঞাপনে ওই তারিখ পেছানো হয়েছে। বলা হয়েছে, এটি ১ ফেব্রুয়ারি থেকে কার্যকর করা হবে।

এছাড়া ৩০ জানুয়ারির প্রজ্ঞাপনে যেসব পোশাক পণ্যকে নগদ সহায়তা থেকে বাদ দেয়া হয়েছিল, নতুন সার্কুলারে তা ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে।

৫ এইচএস কোডের পোশাক রপ্তানিতে আর নগদ সহায়তা দেয়া হবে না বলে আগে জানানো হয়।

এসব পণ্যের মধ্যে আছে, পুরুষ ও বাচ্চা ছেলেদের জন্য নিট বা ক্রশেট শার্ট, টি-শার্ট, ভেস্ট, জার্সি, পুলওভার, কার্ডিগান, জ্যাকেট, ব্লেজার, ট্রাউজার, স্যুট ও সমজাতীয় পণ্য। পণ্যগুলোর এইচএস কোডগুলো হলো- ৬১০৫, ৬১০৭, ৬১০৯, ৬১১০ এবং ৬২০৩।

পোশাক প্রস্তত ও রপ্তানিকারকদের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএ-র দেয়া তথ্যমতে, এই পাঁচটি হারমোনাইজড সিস্টেম (এইচএস) কোডভুক্ত আইটেম ২৫.৯৫ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি আয় অর্জনে ভূমিকা রেখেছে, যা গত অর্থবছরে হওয়া মোট রপ্তানির ৪৬ দশমিক ৭১ শতাংশ। মোট তৈরি পোশাক রপ্তানির মধ্যে যা ছিল ৫৫ দশমিক ২২ শতাংশ।

বাংলাদেশ ২০২৬ সালে স্বল্পোন্নত দেশের (এলডিসি) কাতার থেকে উত্তরণ হওয়ার কথা রয়েছে। এই লক্ষ্যে, পর্যায়ক্রমে সব ধরনের রপ্তানি পণ্যে প্রণোদনা কমানোর একটি কৌশলগত পরিকল্পনা ৩০ জানুয়ারি প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে ঘোষণা করা হয়।

তবে এই উদ্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেন রপ্তানিকারকরা।

বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান নতুন বাজারের ক্যাটাগরি থেকে ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও জাপানকে বাদ দেয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে সেসময় বলেন, ‘আমরা এই তিনটি দেশে খুব কষ্ট করে মার্কেট ডেভলপ করেছিলাম। হঠাৎ এই সিদ্ধান্ত আমাদের পুরো শিল্পকে ব্যাপক ঝুঁকির মুখে ফেলবে।’

তবে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আগের সিদ্ধান্তকে তখন ইতিবাচক হিসেবে উল্লেখ করেন বিশ্লেষকরা। তাদের যুক্তি, করদাতাদের টাকা রপ্তানি খাতে প্রণোদনা হিসেবে দেয়ার সুফলটা দিনশেষে পশ্চিমা ক্রেতা প্রতিষ্ঠান ও তাদের ভোক্তারাই পায়। কেননা পশ্চিমা ব্র্যান্ড ও বায়াররা প্রণোদনার হিসাব করেই পণ্যের দাম নির্ধারণ করে দেয়।

পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের ভাইস চেয়ারম্যান সাদিক আহমেদ বলেন, ‘বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার এলডিসি গ্রাজুয়েশন নীতির আলোকে, কয়েক বছর ধরেই পর্যায়ক্রমে রপ্তানিতে প্রণোদনা বন্ধের বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়ে আসছে। আর রপ্তানিকারকরা এখন সুবিধাজনক এক্সচেঞ্জ রেট সুবিধা পাচ্ছেন। সেক্ষেত্রে কোনো ধরনের নগদ সহায়তার প্রয়োজন নেই।’

সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) সম্মানীয় ফেলো অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমানও ধাপে ধাপে রপ্তানি প্রণোদনা প্রত্যাহারের সরকারি সিদ্ধান্তকে সমর্থন করেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা রপ্তানিকারকদের শুধু প্রণোদনার মাধ্যমেই সহায়তা করি না। আরও অনেক জায়গা রয়েছে। সেসব জায়গায় অসুবিধাগুলো কমিয়ে আনতে সরকারকে বিশেষ নজর দিতে হবে।

‘আমাদের অধিকাংশ রপ্তানিকারককে কাস্টমস ক্লিয়ারেন্সের অসুবিধা পোহাতে হয়। চাঁদাবাজিসহ নানা কারণে ব্যবসায়ীদের ব্যবসা পরিচালনার খরচ বেড়ে যায়। আমলাতান্ত্রিক সমস্যাও আছে। এসব জায়গায় সরকার কাজ করতে হবে।’

আরও পড়ুন:
সব পণ্যের রপ্তা‌নি‌তে নগদ সহায়তা কমিয়েছে সরকার

মন্তব্য

আরও পড়ুন

অর্থ-বাণিজ্য
The third death anniversary of Khondkar Ibrahim Khaled

খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী কাল

খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী কাল
কর্মজীবনে অগ্রণী ব্যাংক, সোনালী, কৃষি ও পূবালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেছেনখোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ। দীর্ঘদিন তিনি কৃষি ব্যাংকের চেয়ারম্যান ছিলেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর, ব্যাংকিং অঙ্গনের বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব ও শিশু সংগঠক খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি)।

কর্মজীবনে অগ্রণী ব্যাংক, সোনালী, কৃষি ও পূবালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেছেনখোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ। দীর্ঘদিন তিনি কৃষি ব্যাংকের চেয়ারম্যান ছিলেন।

মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি শিশু-কিশোর সংগঠন কচিকাঁচার মেলার সভাপতির দ্বায়িত্ব পালন করেছেন।

এছাড়া তিনি বিপিএমআই, এমবিএ অ্যাসোসিয়েশন, অর্থনীতি সমিতি, বিএসটিডি, ইনস্টিটিউট অফ ব্যাংকার্স, গবেষণা প্রতিষ্ঠান সমন্বয়সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন।

মৃত্যুদিবস উপলক্ষে মরহুমের জন্মস্থান গোপালগঞ্জের ব্যাংকপাড়ায় খোন্দকার মঞ্জিলে পারিবারিকভাবে দুই দিনের কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
India has given permission to export 50000 tons of onions to Bangladesh

বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি ভারতের

বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি ভারতের ফাইল ছবি
ভারতের ভোক্তাবিষয়ক অধিদপ্তরের সচিব রোহিত কুমার সিং বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ, মরিশাসে এক হাজার ২০০ টন, বাহরাইনে তিন হাজার টন এবং ভুটানে ৫৬০ টন পেঁয়াজ অবিলম্বে রপ্তানির অনুমতি দিয়েছি।’

বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে ভারত।

রপ্তানিকারকরা ৩১ মার্চ পর্যন্ত এই পেঁয়াজ বাংলাদেশে রপ্তানি করতে পারবেন। দ্রুতই রপ্তানি কার্যক্রম শুরু হবে। খবর বাসসের

ভারতের ভোক্তাবিষয়ক অধিদপ্তরের সচিব রোহিত কুমার সিং বৃহস্পতিবার নয়াদিল্লিতে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ, মরিশাসে এক হাজার ২০০ টন, বাহরাইনে তিন হাজার টন এবং ভুটানে ৫৬০ টন পেঁয়াজ অবিলম্বে রপ্তানির অনুমতি দিয়েছি।’

তিনি বলেন, ব্যবসায়ীদের ৩১ মার্চ পর্যন্ত এই পরিমাণ রপ্তানি করার অনুমতি দেয়া হয়েছে এবং এই লক্ষ্যে কাজ চলছে।

সিং সংবাদ সংস্থাকে বলেন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুপারিশের ভিত্তিতে বাংলাদেশে রপ্তানির অনুমতি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

ভারতের অভ্যন্তরীণ সরবরাহ বাড়াতে এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে গত বছরের ডিসেম্বরে পেঁয়াজ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে দেশটি।

এদিকে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এ মাসের শুরুর দিকে ভারত সফরের সময় পবিত্র রমজান মাসের আগে বাংলাদেশের স্থানীয় বাজারে তাদের দাম স্থিতিশীল রাখতে বাংলাদেশে পেঁয়াজসহ কিছু নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার জন্য ভারতকে অনুরোধ করেছিলেন।

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস. জয়শঙ্কর এবং বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের সঙ্গে বৈঠকের সময় ড. হাছান ওই পণ্যগুলো বাংলাদেশে রপ্তানির জন্য আবেদন করেন।

আরও পড়ুন:
চট্টগ্রামে কমছে পেঁয়াজের দাম
বাংলাদেশে সীমিত আকারে পেঁয়াজ রপ্তানি করবে ভারত
ভারতের চিনি-পেঁয়াজ আসতে পারে রোজার আগেই
ভারত থেকে দেড় লাখ টন পেঁয়াজ চিনি কিনতে চায় সরকার
বেনাপোলে পেঁয়াজের দামে আগুন কেন

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
The government withdrew from the decision to increase the price of sugar

চিনির মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত থেকে সরে এলো সরকার

চিনির মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত থেকে সরে এলো সরকার প্রতি কেজি চিনির খুচরা মূল্য ১৪০ টাকা‍ই থাকছে। ফাইল ছবি
এর আগে সকালে বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন (বিএসএফআইসি) চিনি উৎপাদনকারী রাষ্ট্রায়ত্ত মিলগুলোর কেজিতে ২০ টাকা বাড়িয়ে প্রতি কেজির সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য ১৬০ টাকা নির্ধারণ করে দেয়।

পবিত্র রমজানের আগমন ও মানুষের দুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে চিনির দাম বাড়ানোর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে সরকার তার সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে।

শিল্প মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব জাকিয়া সুলতানা স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বৃহস্পতিবার রাতে এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়। খবর ইউএনবির

এতে বলা হয়, প্রতি কেজি চিনির খুচরা মূল্য ১৪০ টাকা আগের মূল্যের ভিত্তিতেই বিক্রি করা হবে।

এর আগে সকালে বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন (বিএসএফআইসি) চিনি উৎপাদনকারী রাষ্ট্রায়ত্ত মিলগুলোর কেজিতে ২০ টাকা বাড়িয়ে প্রতি কেজির সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য ১৬০ টাকা নির্ধারণ করে দেয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিএসএফআইসির উৎপাদিত চিনির আন্তর্জাতিক ও দেশীয় বাজারমূল্যের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে বিক্রয়মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
চিনির দাম কেজিতে ২০ টাকা বাড়ল
নেত্রকোণায় মজুত করা ৪৯৯ বস্তা ভারতীয় চিনি জব্দ
চোরাই পথে আসা ভারতীয় চিনি ঢুকছে সিলেটের বাজারে
চিনি ও সয়াবিন তেলের দাম কমল ৫ টাকা
চিনির দাম বাড়ানো অযৌক্তিক: ক্যাব

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
Walton Services champion Ansar Bahini in both categories of wrestling

ওয়ালটন সার্ভিসেস কুস্তির উভয় বিভাগে চ্যাম্পিয়ন আনসার বাহিনী

ওয়ালটন সার্ভিসেস কুস্তির উভয় বিভাগে চ্যাম্পিয়ন আনসার বাহিনী
শেখ রাসেল রোলার স্কেটিং কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত তিন দিনব্যাপী ওই প্রতিযোগিতার উভয় বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী।

ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসি’র পৃষ্ঠপোষকতায় ও বাংলাদেশ অ্যামেচার রেসলিং ফেডারেশনের ব্যবস্থাপনায় আয়োজিত ‘ওয়ালটন উন্মুক্ত ১২তম জাতীয় সার্ভিসেস (পুরুষ ও মহিলা) কুস্তি প্রতিযোগিতা-২০২৪’ মঙ্গলবার শেষ হয়েছে।

শেখ রাসেল রোলার স্কেটিং কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত তিন দিনব্যাপী ওই প্রতিযোগিতার উভয় বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী।

পুরুষ বিভাগের ১০টি ওজন শ্রেণির পাঁচটিতে স্বর্ণ, ৩টিতে রৌপ্য ও ২টিতে ব্রোঞ্জসহ মোট ১০টি পদক জিতে চ্যাম্পিয়ন হয় তারা। ৩টি স্বর্ণ, ৩টি রৌপ্য ও ৪টি ব্রোঞ্জসহ ১০টি পদক জিতে রানার্স-আপ হয় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। আর ২টি স্বর্ণ, ৪টি রৌপ্য ও ৩টি ব্রোঞ্জসহ মোট ০৯টি পদক জিতে তৃতীয় হয় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।

এদিকে নারী বিভাগের ১০টি ওজন শ্রেণি থেকে ৭টি স্বর্ণ, ২টি রৌপ্য ও ১টি ব্রোঞ্জসহ মোট ১০টি পদক জিতে চ্যাম্পিয়ন হয় আনসার। আর রানার্স-আপ হওয়া বাংলাদেশ সেনাবাহিনী পায় ২টি স্বর্ণ ও ৬টি রৌপ্যসহ মোট ৮টি পদক। তৃতীয় হওয়া বাংলাদেশ পুলিশ পেয়েছে ১টি স্বর্ণ, ১টি রৌপ্য ও ৩টি ব্রোঞ্জসহ মোট ৫টি পদক।

পুরুষ বিভাগে সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জুয়েল (৭৪ কেজি ওজন শ্রেণি)। মহিলা বিভাগে সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশ আনসার দলের রোজিনা (৭৬ কেজি ওজন শ্রেণি)।

টুর্নামেন্টের উভয় বিভাগের চ্যাম্পিয়ন, রানার্স-আপ ও তৃতীয় হওয়া দলকে ট্রফি দেওয়া হয়। সেরা খেলোয়াড় হওয়া দুজনই পেয়েছেন ৫ হাজার টাকা করে নগদ অর্থ পুরস্কার। এছাড়া প্রতিযোগিতায় পদকপ্রাপ্ত খেলোয়াড়দের ওয়ালটনের পক্ষ থেকে হোম অ্যাপ্লায়েন্স পুরস্কার প্রদান করা হয়।

প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটনের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এফ.এম. ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন), বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন ওয়ালটনের মার্কেটিং এন্ড কমিউনিকেশন বিভাগের সিনিয়র ডেপুটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর রবিউল ইসলাম মিলটন ও সিনিয়র ডেপুটি অপারেটিভ ডিরেক্টর মেহরাব হোসেন আসিফ।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফেডারেশনের সহ-সভাপতি এমএ কুদ্দুস খান, সাধারণ সম্পাদক তাবিউর রহমান পালোয়ান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আশিকুর রহমান বাচ্চু ও মেসবাহ উদ্দিন আজাদ প্রমুখ।

এবারের এই প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, বাংলাদেশ পুলিশ, বাংলাদেশ আনসার, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও তিতাস গ্যাসের পক্ষে ১৫০ জন মহিলা ও পুরুষ কুস্তিগীর অংশ নেন। পুরুষ ও মহিলা উভয় বিভাগে ১০টি করে মোট ২০টি ওজন শ্রেণিতে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। পুরুষ বিভাগের ওজন শ্রেণিগুলো ছিল- ৫৭ কেজি, ৬১ কেজি, ৬৫ কেজি, ৭০ কেজি, ৭৪ কেজি, ৭৯ কেজি, ৮৬ কেজি, ৯২ কেজি, ৯৭ কেজি ও ১২৫ কেজি। মহিলাদের ওজন শ্রেণিগুলো ছিল- ৫০ কেজি, ৫৩ কেজি, ৫৫ কেজি, ৫৭ কেজি, ৫৯ কেজি, ৬২ কেজি, ৬৫ কেজি, ৬৮ কেজি, ৭২ কেজি ও ৭৬ কেজি।

অনুষ্ঠানে ওয়ালটনের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এফ.এম. ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন) বলেন, দীর্ঘদিন যাবত খেলাধুলাসহ সব ধরনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানকে উৎসাহিত ও সহযোগিতা করে আসছে ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট ওয়ালটন। খেলাধুলার এসব প্রতিযোগিতায় ওয়ালটনের অংশগ্রহণ থাকবে সবসময়।

ওয়ালটনের মার্কেটিং এন্ড কমিউনিকেশন বিভাগের সিনিয়র ডেপুটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর রবিউল ইসলাম মিলটন বলেন, যেকোনো প্রতিযোগিতায় প্রতিভাবান মুখগুলো সামনে উঠে আসে। এই কুস্তি প্রতিযোগিতাও এর ব্যতিক্রম কিছু নয়। প্রতিযোগিতামুখর এই ইভেন্ট অত্যন্ত সুন্দর ও সফলভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই প্রতিযোগিতায় ওয়ালটনের উপস্থিতি ওয়ালটনকে সম্মানিত করেছে।

উল্লেখ্য, কুস্তি প্রতিযোগিতা-২০২৪ এর ইভেন্ট পার্টনার ছিল দেশের জনপ্রিয় ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড মার্সেল। আর মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিল অনলাইনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রাইজিংবিডি.কম। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
Bashundhara MD received lifetime honor

‘ট্রাব স্মার্ট পারফরম্যান্স অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি আনভীর

‘ট্রাব স্মার্ট পারফরম্যান্স অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি আনভীর বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীর। ছবি: সংগৃহীত
অনুষ্ঠানে বসুন্ধরা গ্রুপের এমডির পক্ষ থেকে পুরস্কার গ্রহণ করেন ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের পরিচালক ও কালের কণ্ঠের প্রধান সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভূমিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ।

আবাসন ও জুয়েলারি শিল্পে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে গ্লোবাল ব্র্যান্ডস ‘ট্রাব স্মার্ট পারফরম্যান্স অ্যাওয়ার্ড-২০২৪’ পেয়েছেন বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীর।

রাজধানীর একটি হোটেলে টেলিভিশন রিপোর্টার্স ইউনিটি অব বাংলাদেশ (ট্রাব) ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও স্মার্ট বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে বুধবার তাকে এ পুরস্কার দেয়।

অনুষ্ঠানে বসুন্ধরা গ্রুপের এমডির পক্ষ থেকে পুরস্কার গ্রহণ করেন ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের পরিচালক ও কালের কণ্ঠের প্রধান সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভূমিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ।

অনুষ্ঠানে সংগীতে অবদান রাখায় বরেণ্য রবীন্দ্র সংগীতশিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা, সংস্কৃতিতে অবদান রাখায় বীর মুক্তিযোদ্ধা আহসান উল্লাহ মনি, মানবকল্যাণে পিরোজপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মহিউদ্দীন মহারাজ, রম্য রচনায় আবু হেনা মোরশেদ জামান, সফল উদ্যোক্তা হিসেবে পান-সুপারির স্বত্বাধিকারী কণা রেজাসহ বিভিন্ন খাতে অবদান রাখা গুণীজনকে সম্মাননা দেয়া হয়।

ওই সময় নারায়ণ চন্দ্র চন্দ বলেন, ‘মাতৃভাষার লড়াই মুক্তিযুদ্ধের সঙ্গে জড়িত। মাতৃভাষার জন্য আন্দোলন শুরু করেছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। মাতৃভাষা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে যাওয়ার কারণ হচ্ছে এটি মানুষের মৌলিক অধিকার।

‘জাতির পিতা সংবিধানেও সেটি উল্লেখ করেন। সেই ভাষা কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সব ভাষা এবং সংস্কৃতির সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক থাকবে, তবে নিজের ভাষা-সংস্কৃতি ভোলা যাবে না।’

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
Commemoration of language martyrs with great respect and love in Vienna

ভিয়েনায় পরম শ্রদ্ধা-ভালবাসায় ভাষাশহিদদের স্মরণ

ভিয়েনায় পরম শ্রদ্ধা-ভালবাসায় ভাষাশহিদদের স্মরণ শহিদদের স্মরণে ভিয়েনায় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ছবি: সংগৃহীত
অনুষ্ঠানে এম নজরুল ইসলাম বলেন, ‘একুশে আমাদেরকে ন্যায়ের পক্ষে দৃঢ় থাকতে এবং মাথা নত না করতে শিখিয়েছে। একুশ আমাদের ঐক্য ও শক্তির প্রতীক। একুশের চেতনায়ই আজ এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।’

অসাম্প্রদায়িক চেতনায় আবারও নিজেদের শাণিত করে পরম শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় ভাষাশহিদদের স্মরণ করলেন অস্ট্রিয়ার প্রবাসী বাঙালিরা।

দেশটির রাজধানী ভিয়েনার হেলবেগটাসে অস্ট্রিয়া আওয়ামী লীগের নিজস্ব কার্যালয়ে বুধবার বিকেলে অস্থায়ীভাবে নির্মিত শহীদ মিনারের বেদিতে পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ করা হয়।

পুষ্পাঞ্জলি অর্পণের পর শহিদদের স্মরণে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অস্ট্রিয়া আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি খন্দকার হাফিজুর রহমান নাসিম। সঞ্চালনা করেন, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান শ্যামল।

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি, অস্ট্রিয়া প্রবাসী মানবাধিকার কর্মী, লেখক, সাংবাদিক এম. নজরুল ইসলাম।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অস্ট্রিয়া বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি রবিন মোহাম্মদ আলী, অস্ট্রিয়া আওয়ামী লীগের সহসভাপতি শ্রী রুহী দাস সাহা, শফিকুর রহমান বাবুল, মনোয়ার পারভেজ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব খান শামীম, সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম কাঞ্চন, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক জহির তুহিন।

অনুষ্ঠানে এম নজরুল ইসলাম বলেন, ‘একুশে আমাদেরকে ন্যায়ের পক্ষে দৃঢ় থাকতে এবং মাথা নত না করতে শিখিয়েছে। একুশ আমাদের ঐক্য ও শক্তির প্রতীক। একুশের চেতনায়ই আজ এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।’

খন্দকার হাফিজুর রহমান নাসিম বলেন, ‘এই একুশে বরকত, সালাম, জব্বার, রফিকরা ভাষার দাবিতে রক্ত দিয়েছিল। একুশ আমাদেরকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে শিখিয়েছে।’

বিপুলসংখ্যক প্রবাসী বাঙালির উপস্থিতিতে অনুষ্ঠানে অমর একুশের গান, মুক্তিযুদ্ধের গান ও দেশাত্মবোধক গান পরিবেশন করেন স্থানীয় শিল্পীরা।

আরও পড়ুন:
মাতৃভাষা দিবসে ইংরেজি ব‌্যানারে শোভাযাত্রা, বরিশালে তোলপাড়

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
Onion price is decreasing in Chittagong

চট্টগ্রামে কমছে পেঁয়াজের দাম

চট্টগ্রামে কমছে পেঁয়াজের দাম ফাইল ছবি
সোমবার পেঁয়াজ রপ্তানির ওপর দেয়া নিষেধাজ্ঞা বাংলাদেশসহ ছয় দেশের জন্য নমনীয় করে ভারত। এরপর দেশটির থেকে পেঁয়াজ আমদানির ঘোষণা দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এ কারণে দাম পড়তির দিকে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

চট্টগ্রামে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম। পাইকারি ও খুচরা উভয় বাজারেই দাম কমছে।

মঙ্গলবার এক দিনেই কেজিতে কমেছে ১৫ টাকা। ব্যবসায়ীরা বলছেন, দাম আরও কমতে পারে।

সোমবার পেঁয়াজ রপ্তানির ওপর দেয়া নিষেধাজ্ঞা বাংলাদেশসহ ছয় দেশের জন্য নমনীয় করে ভারত। এরপর দেশটির থেকে পেঁয়াজ আমদানির ঘোষণা দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এ কারণে দাম পড়তির দিকে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

দেশের অন্যতম বৃহৎ ভোগ্যপণ্যের পাইকারি বাজার চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জ ঘুরে দেখা যায়, প্রায় প্রতিটি আড়তই পেঁয়াজে ভর্তি। সেখানে পাইকারিতে কেজি প্রতি ১৫ টাকা পর্যন্ত দাম কমেছে।

মঙ্গলবার ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৯০ থেকে ৯৫ টাকা কেজি, যা আগের দিন বিক্রি হয়েছিল ১০৫ থেকে ১১০ টাকায়। অন্যদিকে দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৮০ থেকে ৮৫ টাকায়, যা আগেরদিন বিক্রি হয় ১০০ টাকার ওপরে।

নগরীর রিয়াজুদ্দিন বাজার, কাজির দেউরি বাজার, চকবাজার, টেরিবাজারসহ বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, খুচরা দোকানেও পেঁয়াজের দাম কমেছে। খুচরা মূল্যে প্রতি কেজি ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১১০ টাকায়, দেশি পেঁয়াজ ১০০ টাকা এবং মেহেরপুরের পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকা থেকে ৭৫ টাকায়, যা আগের দিনের চাইতে প্রত্যেকটিতেই কেজি প্রতি ১০ থেকে ১৫ টাকা করে কম।

চাক্তাই খাতুনগঞ্জ আড়তদার কল্যাণ সমিতির সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর আলম নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আড়তদাররা দাম নির্ধারণ করেন না। আমদানিকারকরা যে দাম বলেন, সে দামেই বিক্রি করেন। দাম বাড়া-কমায় আমাদের কোনো হাত নেই।’

তিনি বলেন, ‘গত দুদিন থেকে পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে। ভারত সরকার পেঁয়াজ রপ্তানির ঘোষণা দেয়ার পর বাজারে এর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। দাম আরও কমতে পারে।’

ভারত থেকে আমদানি শুরু হলে দাম কমতে থাকবে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন:
বাংলাদেশে সীমিত আকারে পেঁয়াজ রপ্তানি করবে ভারত

মন্তব্য

p
উপরে