× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

অর্থ-বাণিজ্য
The dream reached Nabinagar
hear-news
player
print-icon

নবীনগর পৌঁছে গেল ‘স্বপ্ন’

নবীনগর-পৌঁছে-গেল-স্বপ্ন
সাভার সেনা কমপ্লেক্সে চালু হয়েছে স্বপ্নের আউটলেট। ছবি:সংগৃহীত
স্বপ্নর নির্বাহী পরিচালক সাব্বির হাসান নাসির বলেন, ‘স্বপ্ন এখন দেশের ৪০টি জেলায়। সাভার সেনা কমপ্লেক্সে আমাদের সেবার পরিসর আরও বিস্তৃত হবে।’

দেশীয় রিটেইল চেইন শপ স্বপ্নর নতুন আউটলেট এখন সাভার সেনা কমপ্লেক্সে।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টা থেকে নবীনগরে যাত্রা করে প্রতিষ্ঠানটির নতুন এই আউটলেট।

উদ্বোধনের সময় উপস্থিত ছিলেন স্বপ্নর অপারেশনস ডিরেক্টর আবু নাছের, রিজিওনাল সেলস ম্যানেজার সাজিদ আহমেদ, আউটলেট ম্যানেজার হাসান আহমেদসহ আরও অনেকে।

স্বপ্নর নির্বাহী পরিচালক সাব্বির হাসান নাসির বলেন, ‘স্বপ্ন এখন দেশের ৪০টি জেলায়। সাভার সেনা কমপ্লেক্সে আমাদের সেবার পরিসর আরও বিস্তৃত হবে।’

সেনা শপিং কমপ্লেক্সে অনেক দিন ধরে একটি অত্যাধুনিক আউটলেট করার পরিকল্পনা ছিল জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আশা করছি স্বাস্থ্যসম্মত এবং নিরাপদ পরিবেশে এখানে সব গ্রাহক স্বপ্নতে নিয়মিত বাজার করবেন।’

প্রতিষ্ঠানের অপারেশনস ডিরেক্টর আবু নাছের জানান, নতুন এই আউটলেটে থাকছে মাসব্যাপী নানা অফার এবং হোম ডেলিভারি সেবা।

ঢাকার নবীনগরের সেনা শপিং কমপ্লেক্স যাত্রা শুরু করা স্বপ্ন আউটলেট থেকে হোম ডেলিভারি সেবা পেতে ০১৩১৩-০৫৪৮৯২ নম্বরে যোগাযোগের পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন:
স্বপ্ন এখন সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে
সিলেটের বন্যাদুর্গতের পাশে ‘স্বপ্ন’
গ্রাহকসেবা বাড়াতে স্বপ্নের সঙ্গে সাকিবের মোনাক মার্ট
‘স্বপ্ন’র এক্সপোর্ট শুরু

মন্তব্য

আরও পড়ুন

অর্থ-বাণিজ্য
United States and Canada are joining Bhasanchar

ভাসানচরে যোগ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা

ভাসানচরে যোগ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা রোহিঙ্গা পুনর্বাসনের কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে ভাসানচর। ছবি: নিউজবাংলা
পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘জাতিসংঘ ও জাপানের পর এবার ভাসানচরে যোগ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা। দেশ দুটি ভাসানচরে যুক্ত হওয়ার বিষয়টি ঢাকাকে লিখিতভাবে জানিয়েছে। এতে বাংলাদেশের ওপর প্রেশার অনেকটা কমবে।’

ভাসানচরে সরকারের রোহিঙ্গা পুনর্বাসনের কাজে অংশীদার হিসেবে যোগ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা। এর আগে এই উদ্যোগে শরিক হয়েছিল জাতিসংঘ ও জাপান।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম বৃহহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘জাতিসংঘ ও জাপানের পর এবার ভাসানচরে যোগ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা। দেশ দুটি ভাসানচরে যুক্ত হওয়ার বিষয়টি ঢাকাকে লিখিতভাবে জানিয়েছে। এতে বাংলাদেশের ওপর প্রেশার অনেকটা কমবে।

‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে বৃহত্তর সহযোগিতাকারী রাষ্ট্র যুক্তরাষ্ট্র আমাদের লিখিতভাবে জানিয়েছে। তারা এখন থেকে ভাসানচরে সহায়তা দেবে। কানাডা জানিয়েছে, তারাও ভাসানচরে সহায়তা দেবে।’

তিনি বলেন, ‘জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য সংস্থার (ডব্লিউএফপি) কার্যক্রম এখনও ভাসানচরে শুরু হয়নি। ফলে ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশের ওপর একভাবে চাপ পড়ছিল। তাদের এই নতুন সহযোগিতা নিশ্চয়তার মধ্য দিয়ে সেটা অনেকংশে লাঘব হবে।’

আরও পড়ুন:
ভাসানচরের পথে আরও হাজার রোহিঙ্গা
ভাসানচরে আরও ২৯৮২ রোহিঙ্গা

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
DNCC will register two lakh rickshaws

দুই লাখ রিকশার নিবন্ধন দেবে ডিএনসিসি

দুই লাখ রিকশার নিবন্ধন দেবে ডিএনসিসি রাজধানীতে দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ ব্যাটারিচালিত রিকশা। ছবি: পিয়াস বিশ্বাস/নিউজবাংলা
‘স্মার্ট নগরী’ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘আপনারা যদি কোথাও ম্যানহোলের ঢাকনা খোলা, ফুটপাতে ময়লা, জলাবদ্ধতাসহ অন্য সমস্যা দেখেন, তখন ছবি তুলে সবার ঢাকা অ্যাপে আপলোড করুন। কথা দিচ্ছি, আমরা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সেটা সমাধানের ব্যবস্থা নেব।’

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম ঘোষণা দিয়েছেন রাজধানীতে চলাচল করা ব্যাটারিচালিত রিকশা তুলে দেয়া হবে। এর বিপরীতে নতুন করে কিউআর কোডযুক্ত দুই লাখ রিকশা নিবন্ধন দেয়া হবে।

রাজধানীর গুলাশানে নগর ভবনের এক অনুষ্ঠানে বুধবার তিনি এ তথ্য জানান।

রিকশা প্রসঙ্গে মেয়র আতিক বলেন, ‘ঢাকা শহরে ২৮ হাজার রিকশার লাইসেন্স দেয়া ছিল, যার এখন মেয়াদ নেই। অথচ এ শহরে ১০ লাখের বেশি রিকশা চলছে। এগুলো শৃঙ্খলার মধ্যে নেই, কোনো ডেটাবেজ নেই।

‘আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আগের অনিবন্ধিত রিকশা তুলে দেয়া হবে। নতুন করে কিউআর কোডযুক্ত দুই লাখ রিকশার নিবন্ধন আমরা দেব।’

ব্যাটারিচালিত রিকশার ব্যাপারে ক্ষোভ প্রকাশ করে মেয়র বলেন, ‘বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের জন্য আমরা বিভিন্নভাবে কাজ করে যাচ্ছি। কিন্তু ব্যাটরিচালিত রিকশা সেই বিদ্যুৎ অপচয় করছে। ব্যাটারিচালিত রিকশার বিরুদ্ধে অভিযান চালাতে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি। অনুমতি ছাড়া চলাচল করা এ ধরনের রিকশা রাজধানীতে অনেক দুর্ঘটনার জন্য দায়ী।’

‘স্মার্ট হাট, স্মার্ট বাংলাদেশ ফলাফল ঘোষণা ও অভিজ্ঞতা বিনিময়’ শিরোনামের অনুষ্ঠানে

মেয়র আতিক বলেন, ‘পাইলট প্রকল্প হিসেবে ডিএনসিসি স্মার্ট হাট চালু করেছে। প্রথমবারের এ আয়োজনে বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের চ্যানেলে ৩৩ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে।

‘ডিজিটাল মাধ্যমে হাটের ব্যবস্থাপনা ও পরিসর ভবিষ্যতে বাড়ানো হবে। গাবতলীর পশুর হাটকেও ডিজিটাল লেনদেনের আওতায় আনা হবে। সারা বছর ধরে চলা এ হাটকে আমরা স্মার্ট করতে চাই। মানুষ এর সুফল পাবে।’

অনলাইনভিত্তিক সেবাসমূহ গ্রহণ করে ডিএনসিসিকে একটি ‘স্মার্ট নগরী’ হিসেবে গড়ে তোলার আহ্বান জানান মেয়র।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আপনারা যদি কোথাও ম্যানহোলের ঢাকনা খোলা, ফুটপাতে ময়লা, জলাবদ্ধতাসহ অন্য সমস্যা দেখেন, তখন ছবি তুলে সবার ঢাকা অ্যাপে আপলোড করুন। কথা দিচ্ছি, আমরা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সেটা সমাধানের ব্যবস্থা নেব।’

বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে স্মার্ট এলইডি লাইট ব্যাপকভাবে কাজে লাগছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘লাইটগুলো ডিমিং করে রাত ৮টা থেকে ১২টা পর্যন্ত ৫০ শতাংশ এবং রাত ১২টা থেকে ৪টা পর্যন্ত ৬৫ শতাংশ বিদ্যুৎ সাশ্রয় করছি।’

গুলশান-বনানীতে পরীক্ষামূলকভাবে ৫০০টি গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য ‘অন স্ট্রিট স্মার্ট পার্কিং’ ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান মেয়র আতিক।

নগর ভবনের অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক খুরশীদ আলম, স্মার্ট হাটে অংশ নেয়া ছয়টি ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিকাশ, মাস্টারকার্ড, ভিসাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, ছয়টি পশুর হাটের ইজারাদার ও ডিএনসিসির কাউন্সিলররা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:
গুলশান-বনানীর বাড়ি মালিকদের মেয়র আতিকুলের হুঁশিয়ারি
অভিজাত এলাকার পয়োবর্জ্যের সংযোগ ড্রেনে নয়: আতিক
১২ ঘণ্টায় কোরবানির বর্জ্য সরাবে ডিএনসিসি
মশার উৎস খুঁজতে ড্রোন অভিযান
এবার স্মার্ট পশুর হাট, রিকশায় ডিজিটাল নম্বর প্লেট

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
24500 brave freedom fighters are getting smart ID

সাড়ে ২৪ হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধা পাচ্ছেন স্মার্ট আইডি

সাড়ে ২৪ হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধা পাচ্ছেন স্মার্ট আইডি বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডি কার্ড দিচ্ছে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়। ছবি: সংগৃহীত
মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, জীবিত মুক্তিযোদ্ধারা পাচ্ছেন ডিজিটাল আইডি কার্ড। যেসব মুক্তিযোদ্ধা মারা গেছেন, তাদের পরিবার ডিজিটাল সার্টিফিকেট পাবে।

দেশের ১৭ জেলার ২৪ হাজার ৭৬১ বীর মুক্তিযোদ্ধাকে ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডি কার্ড দিচ্ছে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়। ক্রমান্বয়ে দেশের অন্য জেলাগুলোতেও এই ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডি কার্ড দেয়া হবে।

বৃহস্পতিবার মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

তিনি জানান, প্রথমে কিশোরগঞ্জ, গোপালগঞ্জ, গাজীপুর, মাদারীপুর, নড়াইল, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা, যশোর, ঝিনাইদহ, মাগুরা, ঢাকা, শরীয়তপুর, মেহেরপুর, নারায়ণগঞ্জ-এই ১৭ জেলার মুক্তিযোদ্ধারা এই কার্ড পাবেন।

বাকি ৪৭টি জেলার ডিজিটাল সার্টিফিকেট এবং স্মার্ট আইডি কার্ডের প্রিন্টিংয়ের কাজ শেষ হতে আরও দেড় মাস সময় লাগবে বলেও জানান মন্ত্রী।

মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, জীবিত মুক্তিযোদ্ধারা পাচ্ছেন ডিজিটাল আইডি কার্ড। যেসব মুক্তিযোদ্ধা মারা গেছেন, তাদের পরিবার ডিজিটাল সার্টিফিকেট পাবে।

১৭ জেলায় মোট ডিজিটাল সার্টিফিকেট পাওয়া মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা ৪৬ হাজার ৮০৩ জন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়ের সচিব খাজা মিয়া বলেন, ‘বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডি কার্ড সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসার, মহানগরের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের মাধ্যমে বিতরণ করা হবে। জেলাভিত্তিক ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডি কার্ড সর্বশেষ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সমন্বিত তালিকা যাচাই করে বিতরণ করতে হবে।’

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েব সাইটে প্রকাশিত সমন্বিত তালিকায় নাম না থাকলে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নামে প্রেরিত ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডি কার্ড বিতরণ স্থগিত রাখতে হবে। সমন্বিত তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত হয়নি এমন বীর মুক্তিযোদ্ধাদেরকে সমন্বিত তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত সাপেক্ষে পরবর্তীতে ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডি কার্ড দেয়া হবে।

সচিব জানান, ‘যাদের নাম সমন্বিত তালিকায় থাকা সত্ত্বেও ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডি কার্ড প্রিন্ট হয়নি তাদের এমআইএস নম্বরসহ নামের তালিকা উপজেলা নির্বাহী অফিসাররা মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবর পাঠানোর পর পরবর্তীতে তাদের নামে ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডি কার্ড পাঠানো হবে।

কোনো মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলে শুনানির জন্য থাকলে তার কার্ড বিতরণ বন্ধ রাখা হবে বলেও জানান তিনি।

আরও পড়ুন:
ব্যবহার হচ্ছে না ঝিনাইদহের মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সগুলো
বিএনপি রাজাকারদের মুক্তিযোদ্ধা বানিয়েছিল: শাজাহান
২২ হাসপাতালে মুক্তিযোদ্ধাদের বিনা মূল্যে চিকিৎসা
মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে আবেদন শুধু ২ ক্যাটাগরিতে
মুক্তিযোদ্ধা, বৃদ্ধ ও বিধবাদের ব্যাংকে অগ্রাধিকার

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
Basic Facebook Marketing Workshop organized by BITM TMGB

বিআইটিএম-টিএমজিবির উদ্যোগে ‘বেসিক ফেসবুক মার্কেটিং’ কর্মশালা

বিআইটিএম-টিএমজিবির উদ্যোগে ‘বেসিক ফেসবুক মার্কেটিং’ কর্মশালা টিএমজিবি ও বিআইটএমের যৌথ উদ্যোগে কর্মশালা। ছবি: সংগৃহীত
টিএমজিবির সভাপতি মোহাম্মদ কাওছার উদ্দীন বলেন, ‘এটা বিআইটিএম এবং টিএমজিবির একসাথে কাজ করার প্রথম অভিজ্ঞতা, শীঘ্রই এমন প্রচেষ্টা নিয়ে  আমরা  আবারও একসাথে অগ্রসর হব।’

বেসিস ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট এবং তথ্যপ্রযুক্তি-নিউ মিডিয়া বিষয়ক সাংবাদিকদের সংগঠন টিএমজিবির যৌথ উদ্যোগে এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিআইটিএমের নিজস্ব ক্যাম্পাসে শনিবার দিনব্যাপী ‘বেসিক ফেসবুক মার্কেটিং (টিপস অ্যান্ড ট্রিক্‌স)’ শীর্ষক কর্মশালাটি অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন টিএমজিবির ৩০ জন সদস্য। এতে প্রশিক্ষক ছিলেন সাবা চৌধুরী। তিনি বিআইটিএমে ট্রেনার এবং সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং স্পেশালিস্ট হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

কর্মশালা সম্পর্কে টিএমজিবির সভাপতি মোহাম্মদ কাওছার উদ্দীন বলেন, ‘এটা বিআইটিএম এবং টিএমজিবির একসাথে কাজ করার প্রথম অভিজ্ঞতা, শীঘ্রই এমন প্রচেষ্টা নিয়ে আমরা আবারও একসাথে অগ্রসর হব।’

বিআইটিএমের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তালুকদার মোহাম্মদ সাব্বির বলেন, ‘টিএমজিবির সদস্যরা সবসময় বিআইটিএমের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন, আমরা কর্মশালাটা করাতে পেরে আনন্দিত। ভবিষ্যতেও একসাথে কাজ করার আগ্রহ রয়েছে আমাদের।’

প্রশিক্ষণ শেষে অংশগ্রহণকারীদের সনদ দেয়া হয়।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অফ সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) সভাপতি রাসেল টি আহমেদ সনদ বিতরণ করেন।

আরও পড়ুন:
নীলফামারীতে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ কর্মশালা
প্রকল্পে বাড়বে খাদ্য নিরাপত্তা: সচিব
বঙ্গবন্ধুর ছবি আঁকার কর্মশালা
মোবাইলফোনে সাংবাদিকতার কর্মশালা
‘ভরত নাট্যশাস্ত্রের’ অভিনয় কর্মশালা সমাপ্ত

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
I added Pre Departure Orientation to the Pravasi app

‘আমি প্রবাসী অ্যাপে’ যুক্ত হলো প্রি-ডিপার্চার ওরিয়েন্টেশন

‘আমি প্রবাসী অ্যাপে’ যুক্ত হলো প্রি-ডিপার্চার ওরিয়েন্টেশন
অ্যাপটি ডাউনলোড করতে নিচের ঠিকানায় ক্লিক করতে হবে- গুগল প্লে স্টোর: cutt.ly/MToskR3, আইওএস অ্যাপ স্টোর: cutt.ly/GLP3bG2।

প্রবাসী কর্মীদের বাধ্যতামূলক কাজগুলো সহজে পরিচালিত করার জন্য ডিজিটাল ব্যবস্থাপনার আওতায় আনা হচ্ছে। আর এই প্রক্রিয়ার একটি কার্যকর ও গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো ‘আমি প্রবাসী অ্যাপ’। এবার এই প্রক্রিয়ায় যুক্ত হলো প্রি-ডিপার্চার ওরিয়েন্টেশন (পিডিও) সেশনের বুকিং, যা সহজ কিছু ধাপ অনুসরণ করেই ‘আমি প্রবাসী অ্যাপ’-এর মাধ্যমে সম্পন্ন করা যাচ্ছে।

এর জন্য আমি প্রবাসী অ্যাপে প্রি-ডিপার্চার ওরিয়েন্টেশন সিলেক্ট করতে হবে। এরপর গন্তব্য দেশ, টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার (টিটিসি), তারিখ ও সময় সিলেক্ট করতে হবে।

পেমেন্টের পর কিউআর কোড-সংবলিত এনরোলমেন্ট কার্ড দেয়া হবে। এনরোলমেন্ট কার্ডে ছবি যোগ করে পিডিও ক্লাসে উপস্থিতি দিতে কার্ডটি স্ক্যান করতে হবে।

ট্রেনিং শেষে কিউআর কোড-সংবলিত সার্টিফিকেট ডাউনলোড করা যাবে। বিদেশে যেতে এই সার্টিফিকেট আবশ্যক।

অ্যাপটি ডাউনলোড করতে নিচের ঠিকানায় ক্লিক করতে হবে- গুগল প্লে স্টোর: cutt.ly/MToskR3, আইওএস অ্যাপ স্টোর: cutt.ly/GLP3bG2।

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
Feast on homemade food

ঘরে তৈরি খাবার নিয়ে উৎসব

ঘরে তৈরি খাবার নিয়ে উৎসব উদ্যোক্তাদের ঘরে তৈরি খাবার নিয়ে মেলা। ছবি: সংগৃহীত
পপ অফ কালারের প্রতিষ্ঠাতা টিঙ্কার জান্নাত মিম বলেন, ‘শেফস বিয়ন্ড হোড ফুড ফেস্টিভ্যালটি মূলত সেইসব নারীদের জন্য, যারা রান্নায় পারদর্শী এবং যারা রান্নাকে পেশা হিসেবে নিয়েছেন বা নিতে চান। যারা অনলাইনে খাবার নিয়ে কাজ করছেন তাদেরকে আরও বড় পরিসরে সবার সাথে পরিচয় করিয়ে দিতেই আমাদের এই আয়োজন।’

রাজধানী ঢাকার যেকোনো এলাকায় এখন ঘরে তৈরি খাবার পাওয়া যায় অনলাইনে। ঘরে তৈরি সেসব খাবার নিয়ে অনুষ্ঠিত হলো ভিন্নধর্মী উৎসব ‘শেফস বিয়ন্ড হোম’।

ফার্ম ফ্রেশের সৌজন্যে এবং জনপ্রিয় ফিমেল কমিউনিটি পপ অফ কালারের আয়োজন দুই দিনের এই খাবার উৎসব শেষ হচ্ছে শনিবার।

রাজধানীর ধানমন্ডির মাইডাস সেন্টারে ওই আয়োজনে পাবলিকেশন পার্টনার হিসেবে রয়েছে সূচি শৈলি।

উৎসবে ১৫ জনের বেশি রন্ধন শিল্পী ও হোমমেড ফুড উদ্যোক্তারা অংশ নিয়েছেন। তারা তাদের বাসায় তৈরি খাবার এবং সরাসরি রান্না করা খাবার সেখানে প্রদর্শন ও বিক্রি করছেন।

শেফস বিয়ন্ড উৎসবে উপস্থিত থাকবেন দেশের বিভিন্ন সেক্টরের তারকা ব্যক্তিরা। আয়োজনে থাকছে মেহেদি কর্নার, অতিথিদের জন্য বিশেষ ছাড়ের ব্যবস্থা এবং বিভিন্ন ডিসকাউন্ট কুপন।

উদ্যোক্তাদের পক্ষ থেকে দর্শনার্থীদের এই কুপন দেয়া হচ্ছে।

এ ছাড়া উৎসবে রয়েছে বায়োস্কোপ, হাতে রঙের ছাপ দেয়া, হাওয়াই মিঠাই, সনপাঁপড়ি, কটকটির মতো ঐহিত্যবাহী গ্রামীণ খাবার।

উৎসব শেষে সেরা রিভিউ দাতাদের পুরস্কৃত করবে পপ অফ কালার।

পাশাপাশি, ঘরে তৈরি খাবার নিয়ে কাজ করা উদ্যোক্তাদের অনুপ্রাণিত করতে পাঁচজন অংশগ্রহণকারী উদ্যোক্তাকে পাঁচ ক্যাটাগরিতে সম্মাননাও দেবে তারা।

পপ অফ কালারের প্রতিষ্ঠাতা টিঙ্কার জান্নাত মিম বলেন, ‘শেফস বিয়ন্ড হোড ফুড ফেস্টিভ্যালটি মূলত সেইসব নারীদের জন্য, যারা রান্নায় পারদর্শী এবং যারা রান্নাকে পেশা হিসেবে নিয়েছেন বা নিতে চান।

‘যারা অনলাইনে খাবার নিয়ে কাজ করছেন তাদেরকে আরও বড় পরিসরে সবার সাথে পরিচয় করিয়ে দিতেই আমাদের এই আয়োজন।’

আরও পড়ুন:
নারী উদ্যোক্তাদের জুসি ফেস্ট শনিবার
গুলশান লেডিস ক্লাবে তিন দিনের বৈশাখী মেলা
নিজের সঙ্গে ৩০ নারীকে এগিয়ে এনেছেন শিমু
প্রযুক্তি উদ্যোক্তা লুনা সামসুদ্দোহাকে স্মরণ
ছোট উদ্যোক্তাদের ঋণ পরিশোধে বিশেষ সুবিধা

মন্তব্য

p
উপরে