ভোজ্যতেল: ৯ টাকা বাড়িয়ে ৪ টাকা কমানোর প্রস্তাব

ভোজ্যতেল: ৯ টাকা বাড়িয়ে ৪ টাকা কমানোর প্রস্তাব

আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার কারণ দেখিয়ে গত কয়েক মাস ধরেই দেশে ভোজ্যতেলের দামে অস্থিরতা দেখা গিয়েছে। গত ২৭ মে সব শেষে তেলের দাম লিটারে ৯ টাকা করে বাড়ানো হয়।

ভোজ্যতেলের দাম লিটারে ৯ টাকা বাড়ানোর এক মাস পর ৪ টাকা কমানো হয়েছে। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বৃহস্পতিবার থেকেই সয়াবিন ও পাম অয়েলের বোতলজাত ও খোলা উভয় তেলের ক্ষেত্রে এই হ্রাসকৃত দাম কার্যকর হবে।

বুধবার বিকেলে লিটার প্রতি ৪ টাকা হারে সব ধরনের তেলের দাম কমানোর প্রস্তাবটি অনুমোদন করেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্তি সচিব (আইআইটি অনুবিভাগ) এ এইচ এম সফীকুজ্জামান নিউজবাংলাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

মন্ত্রীর এই অনুমোদনের ফলে বৃহস্পতিবার থেকে বাজারে প্রতি লিটার বোতলজাত সয়াবিনের দাম হবে ১৪৯ টাকা। বর্তমানে এর দাম লিটারে ১৫৩ টাকা।

একইভাবে ৫ লিটারের বোতলজাত তেলের বর্তমান দাম ৭২৮ টাকা থেকে কমে বিক্রি হবে ৭০৮ টাকা। আর খোলা সয়াবিন বিক্রি হবে প্রতি লিটার ১২৫ টাকায়। বর্তমানে এর দাম ১২৯ টাকা। এছাড়া প্রতি লিটার পাম অয়েল বিক্রি হবে ১০৮ টাকা, যার বর্তমান দাম রয়েছে ১১২ টাকা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে তেল বাজারজাতকরণ প্রতিষ্ঠান সিটি গ্রুপের পরিচালক (অর্থ) বিশ্বজিৎ সাহা বলেন, ‘বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ঈদ সামনে রেখে আমাদের অনুরোধ করেছিল দাম কমাতে। আমরাও ঈদ ও লকডাউন পরিস্থিতি বিবেচনা করে ভোক্তার স্বার্থে সব ধরনের তেলের দাম লিটারে ৪ টাকা করে কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার কারণ দেখিয়ে গত কয়েক মাস ধরেই দেশে ভোজ্যতেলের দামে অস্থিরতা চলছে।

গত ২৭ মে সব শেষে তেলের দাম লিটারে ৯ টাকা করে বাড়ানো হয়। ওই সময় দাম সহনশীল রাখতে সরকার অপরিশোধিত সয়াবিন ও পামঅয়েল তেলের ওপর ৪ শতাংশ অগ্রিম করও প্রত্যাহার করে নেয়।

আরও পড়ুন:
ভোজ্যতেলের দাম লিটারে বাড়ল ৯ টাকা
কমল ভোজ্যতেলের দাম
লাভের গুড় পিঁপড়ে খাচ্ছে
কর ছাড়েও ‘কমবে না’ ভোজ্য তেলের দাম
রমজানে ভোজ্য তেলের দাম কমাতে কর ছাড়

শেয়ার করুন

মন্তব্য