বাংলাদেশ থেকে ইতিহাদের ফ্লাইট বন্ধ ২১ জুলাই পর্যন্ত

বাংলাদেশ থেকে ইতিহাদের ফ্লাইট বন্ধ ২১ জুলাই পর্যন্ত

ইতিহাদ বলছে, আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের রিপোর্টে দেখা গেছে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান এবং শ্রীলঙ্কা করোনাভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বেশি ঝুঁকিতে আছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে দেশ চারটিতে ফ্লাইট নিষেধাজ্ঞা আরও বাড়ানো হলো।

করোনাভাইরাসের ডেল্টা ধরনের কারণে বাংলাদেশের ওপর ফ্লাইট নিষেধাজ্ঞা আরও ৩ সপ্তাহ বাড়িয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাতভিত্তিক বিমান সংস্থা ইতিহাদ এয়ারওয়েজ।

বিমান সংস্থাটি বুধবার এক টুইট বার্তায় এ তথ্য জানিয়েছে।

বাংলাদেশের পাশাপাশি ভারত, পাকিস্তান এবং শ্রীলঙ্কা থেকেও এই সময় পর্যন্ত সব ধরনের ফ্লাইট বন্ধ রাখবে ইতিহাদ।

বিমান সংস্থাটি বলছে, আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের রিপোর্টে দেখা গেছে এই চার রাষ্ট্র ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বেশি ঝুঁকিতে আছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ফ্লাইট নিষেধাজ্ঞা আরও বাড়ানো হয়েছে।

করোনারভাইরাসের চলমান ঢেউয়ের মধ্যে এপ্রিলের শেষের দিকে সর্বপ্রথম ভারত থেকে ফ্লাইট পরিচালনা বন্ধের ঘোষণা দেয় ইতিহাদ। আর ২১ মে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা থেকেও ফ্লাইট পরিচালনা বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

মে মাস থেকে নেপালের সঙ্গেও ফ্লাইট বন্ধ ছিল ইতিহাদের। সবশেষ নোটিশে দেশটির সঙ্গে ফ্লাইট যোগাযোগের বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু বলা হয়নি।

বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির লাগাম টানতে বৃহস্পতিবার থেকে আরোপ করা হয়েছে কঠোর লকডাউন, যা শাটডাউন হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। এই সময়ে গণপরিবহন তো বন্ধ রাখা হবেই, নাগরিকদের বাইরে চলাফেলাও কঠোরভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সরকার থেকে বুধবার প্রজ্ঞাপন জারির পর আগামী সাত দিন অভ্যন্তরীণ সব রুটে ফ্লাইট চলাচল বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)।

আরও পড়ুন:
এয়ারওয়েজে হয়রানি: ২ বাংলাদেশিকে ক্ষতিপূরণ দেয়ার রায় প্রকাশ
ইতিহাদ এয়ারের হয়রানি: ২ বাংলাদেশি পাবেন ২ কোটি টাকা

শেয়ার করুন

মন্তব্য