কঠোর লকডাউনেও ৭ জেলায় ব্যাংক খোলা

কঠোর লকডাউনেও ৭ জেলায় ব্যাংক খোলা

জরুরি সেবা ছাড়া সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, বিপণিবিতান এমনকি সব ধরনের যানবাহন বন্ধ রেখে কঠোর লকডাউন দেয়া হলেও স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে ব্যাংক খোলা রাখা যাবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

সরকারের ঘোষিত ৭ জেলায় কঠোর লকডাউনের মধ্যে স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে ব্যাংক খোলা রাখা যাবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত এক সপ্তাহের জন্য ঢাকার আশপাশের ৪ জেলাসহ দেশের ৭ জেলায় কঠোর লকডাউনের সিদ্ধান্ত দেয় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর, মুন্সিগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, মাদারীপুর, গোপালগঞ্জ ও রাজবাড়ী এ ৭ জেলাতে লকডাউনের প্রজ্ঞাপনও জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। এসব জেলায় সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

জরুরি সেবা ছাড়া সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, বিপণিবিতান এমনকি সব ধরনের যানবাহন বন্ধ রেখে কঠোর লকডাউন দেয়া হলেও স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে ব্যাংক খোলা রাখা যাবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

ব্যাংকিং ব্যবস্থাকে জরুরি সেবা হিসেবেই দেখার কথা জানিয়েছে ব্যাংক ও আর্থিক খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

এর আগে ২৫ মে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অফসাইট সুপারভিশন বিভাগ এ-সংক্রান্ত সার্কুলার জারি করে।

ওই সার্কুলারে বলা হয়, ‘কোভিড-১৯-এর বিস্তার রোধকল্পে মহানগর/জেলা প্রশাসন কর্তৃক স্থানীয়ভাবে লকডাউন ঘোষিত হলে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনাক্রমে ব্যাংকিং লেনদেন কার্যক্রম পরিচালনা করা যাবে।’

‘এ ক্ষেত্রে শাখার কর্মকর্তা/কর্মচারীদের যাতায়াত নির্বিঘ্ন রাখার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে অবহিত রাখতে হবে।’

এর মধ্যে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু প্রতিদিনই রেকর্ড করতে থাকায় সরকার কঠোর অবস্থানে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

চলমান বিধিনিষেধের মধ্যে ব্যাংকের লেনদেন চলছে সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ৩টা পর্যন্ত। অফিসের অন্যান্য কার্যক্রম চলছে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

শেয়ার করুন

মন্তব্য