ওটিসিতে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ

ওটিসিতে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ

স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত অস্তিত্বহীন ও দুর্বল কোম্পানিগুলোকে নিয়ন্ত্রক সংস্থার নির্দেশে মূলবাজার থেকে আলাদা করে ওটিসি বাজারে স্থানান্তর করা হয়।

ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় মূল পুঁজিবাজার থেকে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ লিমিটেডকে। এখন থেকে কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হবে ওভার দ্য কাউন্টার মার্কেটে (ওটিসি)।

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াত-উল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক নির্দেশনায় মঙ্গলবার দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জকে তা জানিয়ে দেয়া হয়েছে।

এতে বলা হয়, দুর্বল মৌলভিত্তি ও উচ্চ ঝুঁকি বিবেচনায় ইউনাইটেড এয়ারওয়েজকে ওটিসি মার্কেটে প্রেরণ করা হলো, যা বুধবার থেকে কার্যকর হবে।

স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত অস্তিত্বহীন ও দুর্বল কোম্পানিগুলোকে নিয়ন্ত্রক সংস্থার নির্দেশে মূলবাজার থেকে আলাদা করে ওটিসি বাজারে স্থানান্তর করা হয়।

২০১০ সালে তালিকাভুক্ত হওয়ার পর থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে বিনিয়োগকারীদের লভ্যাংশ প্রদান করেছে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ।

এরপর থেকেই স্থবির হয়ে পরে কোম্পানিটি। তালিকাভুক্তির এক বছরের ব্যবধানে একটি শেয়ারের বিপরীতে একটি শেয়ার (রাইট) ইস্যু করে পুঁজিবাজার থেকে অর্থ উত্তোলন করা হয়েছিল।

বতর্মানে কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধনের পরিমাণ ৮২৩ কোট টাকা। মোট শেয়ারের ৮৬.৪৩ শতাংশ শেয়ার রয়েছে বিনিয়োগকারীদের হাতে।

আরও পড়ুন:
অস্বাভাবিক লেনদেন ও দাম বৃদ্ধি তদন্তের নির্দেশ বিএসইসির
দুই বছরের সর্বোচ্চ অবস্থানে পুঁজিবাজার
২২ মাসের সর্বোচ্চ অবস্থানে পুঁজিবাজার
পুঁজিবাজারে লেনদেন কমল হাজার কোটি টাকা
শেয়ারের দাম অস্বাভাবিক বাড়ায় তিন প্রতিষ্ঠানকে নোটিশ

শেয়ার করুন

মন্তব্য