20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
ব্রেক্সিট পরবর্তী আলোচনায় করোনার হানা

ব্রেক্সিট পরবর্তী আলোচনায় করোনার হানা

ডিসেম্বর থেকেই শুরু হতে যাচ্ছে ‘ব্রেক্সিট ট্রানজিশন’ সময়। জানুয়ারিতে তা শেষ হওয়ার পর যুক্তরাজ্য ও ইইউভুক্ত দেশগুলোর সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্ক কেমন হবে তা নির্ধারণ আলোচনা পর্যায়ে থমকে আছে।

ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের (ইইউ) পক্ষের একজন আলোচক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় যুক্তরাজ্যের সঙ্গে ব্রেক্সিট পরবর্তী শীর্ষ বাণিজ্য আলোচনা স্থগিত করা হয়েছে।

ইইউ’র মিশেল বার্নিয়ের জানান, ‘স্বল্প সময়ের জন্য’ আলোচনা স্থগিতের ব্যাপারে সম্মত হয়েছে তাদের প্রতিপক্ষ যুক্তরাজ্যের লর্ড ডেভিড ফর্স্ট।

বার্নিয়ের জানান, করোনা সংক্রান্ত নিরাপত্তা নির্দেশনা পুরোপুরি মেনেই আলোচনায় চালিয়ে যাবে তাদের দল।

ডিসেম্বর থেকেই শুরু হতে যাচ্ছে ‘ব্রেক্সিট ট্রানজিশন’ সময়। জানুয়ারিতে তা শেষ হওয়ার পর যুক্তরাজ্য ও ইইউভুক্ত দেশগুলোর সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্ক কেমন হবে তা নির্ধারণ আলোচনা পর্যায়ে থমকে আছে।

সাগরে মৎস শিকার অধিকার, বাণিজ্য প্রতিযোগিতা ও যেসব বিষয় নিয়ে দ্বিমত রয়েছে সেসব জায়গায় কোনো চুক্তি কিভাবে কার্যকর করা হবে তা নির্ধারণ আলোচনার অন্যতম ইস্যু।

বৃহস্পতিবার এক টুইট বার্তায় বার্নিয়ের জানান, ব্রাসেলসে চলমান আলোচনায় তাদের পক্ষের এক সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর ফলে আলোচনা স্থগিত করা হয়।

এই সিদ্ধান্তে যুক্তরাজ্য পক্ষের ডেভিড ফর্স্টও মত দিয়েছেন বলে জানান বার্নিয়ের, ‘ফর্স্টকে নিয়ে আমরা স্বল্প সময়ের জন্য আমরা আলোচনা স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

ফর্স্টও জানিয়েছেন, বিষয়টি নিয়ে মিশেল বার্নিয়ারের সঙ্গে ঘনিষ্ট যোগাযোগ রয়েছে তার। বর্তমান পরিস্তিতিতে স্বাস্থ্যগত বিষয়টি বেশি প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে।

ব্রাসেলসের বিবিসি সংবাদদাতা জানিয়েছেন, নিজেদের দলের একজন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর ইইউ পক্ষের শীর্ষ আলোচক বার্নিয়ের বর্তমানে সেলফ আইসোলেশনে আছেন।

আলোচনা কতদিন বন্ধ থাকতে পারে এ ব্যাপারে নিশ্চিত কিছু জানা যায়নি।

তবে জানা গেছে, যুক্তরাজ্য দলের কাউকে আইসোলেশনে যেতে হবে না। বেশিরভাগ সদস্যই দ্রুত লন্ডনে ফিরে আসবেন।

শেয়ার করুন

মন্তব্য