× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

google_news print-icon

মোবাইল ব্যাংকিংয়ে পরিধি বাড়ছে

মোবাইল-ব্যাংকিংয়ে-পরিধি-বাড়ছে

সব ব্যাংকের হিসাব থেকে যে কোনো মোবাইল ব্যাংকিং হিসাবে টাকা আনা যাবে, আবার পাঠানোও যাবে- এমন সার্বজনীন ব্যবস্থা চালু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এতে করে মোবাইল ব্যাংকিং সেবায় যেমন প্রসার ঘটবে, তেমনি ব্যাংকের সেবায়ও বড় ধরনের পরিবর্তন আসবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম নিউজবাংলাকে বলেন, অনেক দিন ধরেই মোবাইল ব্যাংকিংয়ে আন্তঃলেনদেন চালুর একটা আলোচনা চলে আসছে। সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের একটি আলোচনায় সব ব্যাংক হিসাবের সঙ্গে সব মোবাইল ব্যাংকিং হিসাব যুক্ত করার সিদ্ধান্ত হয়।

এতে ছোট ব্যবসায়ীদের বেশি উপকার হবে উল্লেখ করে সিরাজুল ইসলাম বলেন, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের অনেকেই এখন মোবাইল ব্যাংকিংয়ে পণ্যের মূল্য সংগ্রহ করছেন। নতুন সেবায় ওইসব ব্যবসায়ীরা মোবাইল ব্যাংকিং হিসাবের টাকা নিজেদের ব্যাংক হিসাবে সরাসরি জমা করতে পারবেন। এ প্রক্রিয়া চালু করার জন্য কাজ করছে পেমেন্ট সিস্টেমস বিভাগ।

ব্র্যাক ব্যাংকের সহযোগী প্রতিষ্ঠান বিকাশের করপোরেট কমিউনিকেশন্স বিভাগের প্রধান শামসুদ্দিন হায়দার ডালিম বলেন, ‘শুধু নিজেদের ব্যাংক হিসাবে টাকা জমা নয়, ভবিষ্যতে হয়তো ব্যাংকগুলো সরাসরি মোবাইল ব্যাংকিং হিসাবে ঋণের টাকা ছাড় করতে শুরু করবে। তখন ঋণের কিস্তি পরিশোধও করার সুযোগ থাকবে।’

বর্তমানে বিকাশ নিজ উদ্যোগে অগ্রণী ব্যাংক, ব্র্যাক ব্যাংক ও সিটি ব্যাংকের সঙ্গে চুক্তির মাধ্যমে এ ধরনের সুবিধা চালু করেছে।

তবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে এই সুযোগ সব ব্যাংকের জন্য উন্মুক্ত করা হলে এ ধরনের চুক্তির আর দরকার হবে না বলে জানান মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম।

সম্প্রতি বিকাশের সঙ্গে চুক্তির বিষয়ে অগ্রণী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ শামস-উল ইসলাম বলেন, ‘ছোট ছোট আমানত ও ঋণের কিস্তি মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে পরিশোধ করা গেলে অনেক গ্রাহককে আর ব্যাংকের শাখায় আসতে হবে না।

‘এতে একদিকে যেমন নগদ টাকার লেনদেন কমে আসবে, তেমনি করোনার মতো সংক্রামক রোগ থেকে কিছুটা হলেও দূরে থাকা যাবে।’

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, গত জুন পর্যন্ত দেশে বর্তমানে ৫৯টি ব্যাংকে ১১ কোটি ১৬ লাখ আমানতি হিসাব রয়েছে। এছাড়া গত আগস্ট পর্যন্ত ১৫টি মোবাইল ব্যাংকিং সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানে নিবন্ধিত গ্রাহকের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯ কোটি ২০ লাখ। এর মধ্যে চার কোটি হিসাব সক্রিয় ছিল।

বাংলাদেশ বাংকের মুখপাত্র আরো বলেন, ‘মোবাইল ব্যাংকিং হিসাব থেকে সরাসরি ব্যাংক হিসাবে টাকা জমা করা গেলে ক্যাশ আউটের খরচও কমে আসবে। এতে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের উপকার হবে এবং তারা মোবাইল ব্যাংকিংয়ে পণ্যের মূল্য সংগ্রহে আগ্রহী হবে।

‘এতে ভবিষ্যতে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের মোবাইল ব্যাংকিং লেনদেনের তথ্যের ভিত্তিতে তাদেরকে ঋণ দিতে সহজ হবে ব্যাংকগুলোর জন্য।’

বিকাশের করপোরেট কমিউনিকেশন্স প্রধান শামসুদ্দিন হায়দার ডালিম জানান, বর্তমানে মোবাইল ব্যাংকিং থেকে টাকা তুলতে এক হাজার টাকায় প্রায় ১৮ টাকা ৫০ পয়সা খরচ পড়ে। তবে মোবাইল ব্যাংকিং থেকে সরাসরি ব্যাংকে টাকা জমা করতে খরচ হবে এক হাজারে বড়জোর ১০ টাকা।

মন্তব্য

আরও পড়ুন

অর্থ-বাণিজ্য
Aziz Ahmeds ban not under visa policy Foreign Minister

আজিজ আহমেদের নিষেধাজ্ঞা ভিসা নী‌তির অধীনে নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আজিজ আহমেদের নিষেধাজ্ঞা ভিসা নী‌তির অধীনে নয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) আয়োজিত ‘মিট দ্য রিপোর্টার্স’ অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ছবি: ইউএনবি
দুর্নীতিতে জড়িত থাকার অভিযোগে সোমবার সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অফ.) আজিজ আহমেদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অফ স্টেট।

বাংলাদেশ সরকার দুর্নীতি দমনে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে এবং এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কাজ অব্যাহত থাকবে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘দুর্নীতি দমনে আমরা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কাজ করছি। আমরা একসঙ্গে কাজ করতে চাই এবং তা অব্যাহত রাখব।’

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) আয়োজিত ‘মিট দ্য রিপোর্টার্স’ অনুষ্ঠানে মঙ্গলবার তিনি এসব কথা বলেন। খবর ইউএনবির

এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অফ.) আজিজ আহমেদের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্ত ভিসা নীতির আওতায় নেয়া হয়নি, নেয়া হয়েছে ডিপার্টমেন্ট অফ স্টেট, ফরেন অপারেশন অ্যান্ড রিলেটেড প্রোগ্রামস অ্যাপ্রোপ্রিয়েশনস অ্যাক্টের ৭০৩১ (সি) ধারার আওতায়।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে এবং সন্ত্রাসবাদ, মানবপাচার ও অন্যান্য ইস্যুতে দুই দেশ একসঙ্গে কাজ করছে।

তিনি বলেন, সাবেক সেনাপ্রধানের বিষয়ে সিদ্ধান্ত প্রথমে ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ দূতাবাসকে জানানো হয়।

তবে বিষয়টি একজন সাবেক সেনাপ্রধানের সঙ্গে সম্পর্কিত হওয়ায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ বিষয়ে আর কোনো মন্তব্য করতে চাননি।

দুর্নীতিতে জড়িত থাকার অভিযোগে সোমবার সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অফ.) আজিজ আহমেদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অফ স্টেট।

এই পদক্ষেপের ফলে আজিজ ও তার পরিবারের সদস্যরা সাধারণত যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের অযোগ্য হয়ে পড়েন।

ডিপার্টমেন্ট অফ স্টেটের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলারের সংবাদ বিবৃতিতে বলা হয়, তার কর্মকাণ্ড বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলো এবং সরকারি প্রতিষ্ঠান ও প্রক্রিয়ার প্রতি জনগণের আস্থা ক্ষুণ্ন করতে ভূমিকা রেখেছে।

এতে আরও বলা হয়, ‘আজিজ আহমেদ তার ভাইকে বাংলাদেশে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের জন্য জবাবদিহি এড়াতে সহায়তা করে জনসাধারণের প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপের মাধ্যমে উল্লেখযোগ্য দুর্নীতিতে জড়িত ছিলেন।’

ডিপার্টমেন্ট অফ স্টেট দাবি করেছে, সামরিক চুক্তির অনুপযুক্ত প্রদান নিশ্চিত করতে আজিজ তার ভাইয়ের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করেছিলেন এবং তার ব্যক্তিগত সুবিধার জন্য সরকারি নিয়োগের বিনিময়ে ঘুষ গ্রহণ করেছিলেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘এর মাধ্যমে বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান ও আইনের শাসনকে শক্তিশালী করতে যুক্তরাষ্ট্রের অঙ্গীকারকে পুনর্ব্যক্ত করে।’

আরও পড়ুন:
রাজনীতিতে পরিত্যক্ত মানুষগুলোর আওয়াজই বড়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
বাংলাদেশের তিস্তা প্রকল্পে অর্থায়নে আগ্রহী ভারত: হাছান মাহমুদ
সীমান্ত হত্যা খুবই দুঃখজনক, আমরা এর বিপক্ষে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
বাংলাদেশের সঙ্গে ভিসা অব্যাহতি ও বাণিজ্য সম্প্রসারণে রাজি মিশর: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
গাম্বিয়ার সঙ্গে বাণিজ্য ও কৃষিতে সহযোগিতা বৃদ্ধির আশা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
17 percent turnout in four hours EC

চার ঘণ্টায় ভোট পড়েছে ১৭ শতাংশ: ইসি

চার ঘণ্টায় ভোট পড়েছে ১৭ শতাংশ: ইসি

জামালপুরের একটি উপজেলায় ভোট চলছে। ছবি: নিউজবাংলা
মঙ্গলবার দুপুরে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মো. জাহাংগীর আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

ষষ্ঠ উপজেলার পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপের ভোটে আধাবেলায় ভোট পড়েছে ১৭ শতাংশ।

মঙ্গলবার দুপুরে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মো. জাহাংগীর আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, বেলা ১২টা পর্যন্ত ১৫৬ উপজেলায় ভোট পড়েছে গড়ে ১৬ দশমিক ৯৪ শতাংশ। বড় ধরনের কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। তবে ১৮টি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটেছে।

ইসি সচিব বলেন, সাধারণত আমাদের দেশে দুপুরের পর ভোটার উপস্থিতি বাড়ে। আশা করি প্রথম ধাপের চেয়ে ভোটের হার বাড়বে।

এই ধাপে ২৪টি উপজেলায় ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হচ্ছে। বাকিগুলোতে সরাসরি ব্যালটে ভোট নেয়া হচ্ছে।

এ নির্বাচনে প্রতিনিধি বাছাইয়ে মত দেবেন তিন কোটি ৫২ লাখের বেশি ভোটার। ভোট উপলক্ষে সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলোতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

দ্বিতীয় ধাপে ১৫৭ উপজেলায় ভোটগ্রহণের কথা থাকলেও রোববার রাতে আদালতের নির্দেশে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার নির্বাচন স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ফলে এই ধাপে ১৫৬ উপজেলায় ভোটগ্রহণ হচ্ছে।

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
7 8 percent vote in two hours EC

দুই ঘণ্টায় ভোট পড়েছে ৭-৮ শতাংশ: ইসি

দুই ঘণ্টায় ভোট পড়েছে ৭-৮ শতাংশ: ইসি ভোট চলছে জামালপুরের একটি উপজেলায়। ছবি: নিউজবাংলা
অতিরিক্ত সচিব বলেন, এই ধাপের ১৫৬ উপজেলায় সকাল ৮টায় সুষ্ঠুভাবে ভোট শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার ঘটনা ঘটেনি। তবে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলায় এক আনসার সদস্য শারীরিক অসুস্থতায় হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছেন।

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপের ভোট চলছে ১৫৬টি উপজেলায়।

মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে ভোটের কার্যক্রম শুরু হয়েছে, যা নিরবচ্ছিন্নভাবে চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। ভোট শুরুর প্রথম দুই ঘণ্টায় অর্থ্যাৎ সকাল ৮টা থেকে ১০টা পর্যন্ত অঞ্চলভিত্তিক ৭-৮ শতাংশ ভোট পড়েছে।

সকাল ১১টার দিকে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অতিরিক্ত সচিব বলেন, এই ধাপের ১৫৬ উপজেলায় সকাল ৮টায় সুষ্ঠুভাবে ভোট শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার ঘটনা ঘটেনি। তবে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলায় এক আনসার সদস্য শারীরিক অসুস্থতায় হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছেন।

অশোক কুমার আরও বলেন, ভোট শুরু হয়েছে মাত্র দুই ঘণ্টা হয়েছে। বিভিন্ন জেলার প্রাপ্ত তথ্যে একেক অঞ্চলে বিভিন্ন হারে ভোট পড়ছে। কোথাও বেশি কোথাও কম। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে এই হার আরও বাড়বে।

মন্তব্য

বৃষ্টি হতে পারে

বৃষ্টি হতে পারে ফাইল ছবি
রংপুর, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগের অনেক জায়গায় এবং ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। পাশাপাশি, কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হতে পারে।

দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি হতে পারে।

মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে এ তথ্য জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

এতে বলা হয়, রংপুর, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগের অনেক জায়গায় এবং ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। পাশাপাশি, কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হতে পারে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, রংপুর ও রাজশাহী বিভাগে দিনের তাপমাত্রা ১-২ ডিগ্রি সেলসিয়াস হ্রাস পেতে পারে। এ ছাড়া দেশের অন্যত্র তা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। সারা দেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে।

আবহাওয়ার সার্বিক পর্যবেক্ষণে বলা হয়, লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ থেকে বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চল হয়ে উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে দক্ষিণপশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে। পরবর্তীতে এটি ঘনীভূত হতে পারে।

সোমবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয় বাগেরহাটের মোংলায় এবং মঙ্গলবারের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২২ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয় দিনাজপুরে। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত ১২১ মিলিলিটার রেকর্ড করা হয় পটুয়াখালীতে।

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
Babar Alis victory this time

এভারেস্ট জয়ের পর এবার লোৎসের চূড়ায় বাবর আলী

এভারেস্ট জয়ের পর এবার লোৎসের চূড়ায় বাবর আলী বাবর আলী। ছবি: ফেসবুক থেকে নেয়া
এর আগে রোববার পৃথিবীর সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ এভারেস্ট জয় করেন চট্টগ্রামের বাবর আলী। তার এ সাফল্যের মধ্য দিয়ে ১১ বছর পর ফের এভারেস্ট বিজয় হয় বাংলাদেশের।

এভারেস্ট জয়ের পর এবার প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে বিশ্বের চতুর্থ সর্বোচ্চ শৃঙ্গ লোৎসে জয় করলেন চট্টগ্রামের বাবর আলী।

নেপালের স্থানীয় সময় মঙ্গলবার ভোর ৫টা ৫০ মিনিট (বাংলাদেশ সময় ৬টা ৫ মিনিটে) বাবর আলী লোৎসে পৌঁছান।

‘ভার্টিক্যাল ড্রিমার’ নামের সংগঠনটি মঙ্গলবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানায়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এই প্রথমবারের মতো কোনো বাংলাদেশি পর্বতারোহী মাউন্ট লোৎসের শিখর স্পর্শ করলেন। মূলত বাবর আলী এ অভিযানে মাউন্ট এভারেস্টের পাশাপাশি মাউন্ট লোৎসের শীর্ষে যাওয়ার পরিকল্পনা নিয়েই এপ্রিলের শুরুতে দেশ ছাড়েন।

বাংলাদেশের পর্বতারোহীরা এর আগে মাউন্ট এভারেস্টের শীর্ষে সামিট করলেও একই অভিযানে দুইটি আট হাজারি পর্বত (এভারেস্ট ও লোৎসে) কোনো বাংলাদেশি সামিট করেননি।

অভিযানের প্রধান সমন্বয়ক ফরহান জামান বলেন, ‘লোৎসে সামিটের পর বাবর রেডিওতে সামিটের সংবাদ পাঠান বেজ ক্যাম্পে। বেজ ক্যাম্পের দায়িত্বশীলরা এ সংবাদ পৌঁছে দেন আমাদের কাছে।’

এর আগে রোববার পৃথিবীর সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ এভারেস্ট জয় করেন চট্টগ্রামের বাবর আলী। তার এ সাফল্যের মধ্য দিয়ে ১১ বছর পর ফের এভারেস্ট বিজয় হয় বাংলাদেশের।

স্থানীয় সময় রোববার সকাল সাড়ে আটটায় (বাংলাদেশের সময় পৌনে ৯টা) বাবর এভারেস্টের চূড়ায় পৌঁছান বলে জানায় ভার্টিক্যাল ড্রিমার।

আরও পড়ুন:
১১ বছর পর এভারেস্ট জয় আরেক বাংলাদেশি বাবর আলীর
এভারেস্টে রেকর্ড গড়তে চাওয়া ভারতীয় পর্বতারোহীর মৃত্যু
অক্সিজেন ছাড়াই এভারেস্ট জয়
মায়ের বানানো বিশেষ পতাকা নিয়ে এভারেস্টের চূড়ায়
আরেক বাঙালির এভারেস্ট জয়

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
US sanctions on former army chief Aziz and his family

সাবেক সেনাপ্রধান আজিজ ও তার পরিবারের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা

সাবেক সেনাপ্রধান আজিজ ও তার পরিবারের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের লোগো। ছবি: সংগৃহীত
বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নিষেধাজ্ঞার ফলে আজিজ আহমেদ এবং তার পরিবারের সদস্যরা সাধারণভাবে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের অযোগ্য বিবেচিত হবেন। 

সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ ও তার পরিবারের সদস্যদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

দুর্নীতিতে জড়িত থাকার অভিযোগে এই নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয় বলে স্থানীয় সময় সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের ওয়েবসাইটের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

দপ্তরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলারের দেয়া ওই সংবাদ বিবৃতির তথ্যানুযায়ী, এই পদক্ষেপের ফলে আজিজ ও তার পরিবারের সদস্যরা যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের অযোগ্য হয়ে পড়েছেন।

এতে বলা হয়েছে, তার কর্মকাণ্ড বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক ও সরকারি প্রতিষ্ঠান এবং প্রক্রিয়ার প্রতি জনগণের বিশ্বাসকে ক্ষুণ্ন করতে ভূমিকা রেখেছে। নিষেধাজ্ঞার ফলে আজিজ আহমেদ এবং তার পরিবারের সদস্যরা সাধারণভাবে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের অযোগ্য বিবেচিত হবেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, আজিজ আহমেদ তার ভাইকে বাংলাদেশে অপরাধমূলক কার্যকলাপের জন্য জবাবদিহিতা এড়াতে সাহায্য করার সময় জনসাধারণের প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ করে উল্লেখযোগ্য দুর্নীতিতে জড়িত ছিলেন।

এতে বলা হয়, অন্যায়ভাবে সামরিক চুক্তি নিশ্চিত করতে আজিজ তার ভাইয়ের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করেছিলেন এবং তার ব্যক্তিগত সুবিধার জন্য সরকারি নিয়োগের বিনিময়ে ঘুষ গ্রহণ করেছিলেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, আজিজ আহমেদের বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান ও আইনের শাসন শক্তিশালী করতে প্রতিশ্রুতিকে পুনর্ব্যক্ত করে। যুক্তরাষ্ট্র সরকারি সেবাগুলোকে আরও স্বচ্ছ এবং সাশ্রয়ী করতে, ব্যবসায়িক ও নিয়ন্ত্রক পরিবেশ উন্নত করতে এবং অর্থ পাচার এবং অন্যান্য আর্থিক অপরাধের তদন্ত ও বিচারে সক্ষমতা তৈরিতে সহায়তার মাধ্যমে বাংলাদেশে দুর্নীতিবিরোধী প্রচেষ্টাকে সমর্থন করে।

ডিপার্টমেন্ট অফ স্টেট, ফরেন অপারেশন অ্যান্ড রিলেটেড প্রোগ্রামস অ্যাপ্রোপ্রিয়েশনস অ্যাক্টের ৭০৩১ (সি) ধারার আওতায় পদক্ষেপ নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তর।

আরও পড়ুন:
‘যুক্তরাষ্ট্র নির্মিত ঘাট দিয়ে গাজায় ত্রাণ ঢুকছে’
র‌্যাবের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার প্রশ্নে কী বলল যুক্তরাষ্ট্র
যুক্তরাষ্ট্রে প্রবল ঝড়-বৃষ্টিতে ৪ প্রাণহানি
সাংবাদিক প্রবেশে কড়াকড়ি ইস্যুতে যা জানাল কেন্দ্রীয় ব্যাংক
সম্পর্ক জোরদারের উপায় খুঁজে বের করতে চাই: ডোনাল্ড লু

মন্তব্য

অর্থ-বাণিজ্য
Prime Minister orders to divide the area for battery operated rickshaws

ব্যাটারিচালিত রিকশা চলাচলে এলাকা ভাগ করে দিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

ব্যাটারিচালিত রিকশা চলাচলে এলাকা ভাগ করে দিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তার কার্যালয়ে সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ছবি: পিআইডি
মন্ত্রিপরিষদ সচিব মাহবুব হোসেন বলেন, ‘কিছু পণ্যে বাজারে জোগানের সমস্যা না থাকা সত্ত্বেও মূল্যবৃদ্ধির প্রবণতা দেখা গেছে। এজন্য প্রধানমন্ত্রী কঠোরভাবে বাজার মনিটরিং শুরু করার জন্য বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রীকে নির্দেশ দিয়েছেন।’

ব্যাটারিচালিত রিকশা চলাচলের জন্য নির্দিষ্ট এলাকা ভাগ করে দিতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চালকদের জীবিকার ব্যবস্থা না করে এই যান বন্ধের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত না নেয়ার নির্দেশনা দিয়ে তিনি বিধিমালা করে বিষয়টি নিয়ন্ত্রণের (রেগুলেট) নির্দেশনা দিয়েছেন।

সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনির্ধারিত আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী এসব নির্দেশনা দেন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত শেষে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বৈঠকের সিদ্ধান্ত জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মাহবুব হোসেন।

এর আগে ১৫ মে সড়ক পরিবহন উপদেষ্টা পরিষদের প্রথম বৈঠকে সড়কে শৃঙ্খলা আনতে রাজধানীতে ব্যাটারিচালিত রিকশা চলাচল বন্ধের সিদ্ধান্ত হয়। এরপর ঢাকায় ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধে অভিযানে নামে পুলিশ। এর প্রতিবাদে রোববার রাজধানীর মিরপুরে দিনভর সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার চালকরা।

মাহবুব হোসেন বলেন, ‘ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধের সিদ্ধান্ত প্রধানমন্ত্রী জানতেন না। এটা বন্ধ না করে ব্যাটারিচালিত রিকশার যন্ত্রের সঙ্গে উপযুক্ত কাঠামো বা মডেল করা যায় কিনা তা সংশ্লিষ্টদের দেখতে বলেছেন তিনি।

চালকদের রোববারের বিক্ষোভ প্রধানমন্ত্রীর নজরে এসেছে উল্লেখ করে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘সরকার প্রধান স্পষ্ট নির্দেশনা দিয়েছেন, তাদের জীবিকার বিষয়টি উপেক্ষা করে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া যাবে না। একটি বিধিমালার মাধ্যমে এটি রেগুলেট করতে হবে এবং তাদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।

‘তাদের নির্দিষ্ট এলাকা ভাগ করে দিতে হবে। এর বাইরে তারা যাবেন না। তবে কোনো অবস্থাতেই যেন মহাসড়ক বা বড় সড়কে না যান, সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সড়ক বিভাগ ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।’

ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব আরও জানান, বৈঠকে কঠোরভাবে বাজার মনিটরিং শুরু করতে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রীকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, কিছু পণ্যে বাজারে জোগানের সমস্যা না থাকা সত্ত্বেও মূল্যবৃদ্ধির প্রবণতা দেখা গেছে। এজন্য প্রধানমন্ত্রী কঠোরভাবে বাজার মনিটরিং শুরু করার জন্য বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রীকে নির্দেশ দেন।

আরও পড়ুন:
বঙ্গবন্ধুর নামে ‘শান্তি পদক’ দেবে সরকার
ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
পরিবেশবান্ধব শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ার তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর
ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে আওয়ামী লীগ দেশকে এগিয়ে নেবে: প্রধানমন্ত্রী
দেশের মাটি ও মানুষের কথা বিবেচনা করে পরিকল্পনা করুন: অর্থনীতিবিদদের প্রধানমন্ত্রী

মন্তব্য

p
উপরে