20201002104319.jpg
দেখতে কুমির কিন্তু ‘কুমির’ না

দেখতে কুমির কিন্তু ‘কুমির’ না

দেখে মনে হবে বড় আকারের কুমির ছানা, আবার খানিকটা অ্যালিগেটরের মতো।

আসলে এই দুটির একটিও না। এটি কেইমান প্রজাতির একটি প্রাণী।

পোল্যান্ডে পাওয়া এই প্রাণীটি কুমির ও অ্যালিগেটর দুই প্রাণীর বৈশিষ্ট্যের মিশ্রণে একটি সরীসৃপ।

এটি ল্যাবে তৈরি নয়, প্রাকৃতিকভাবেই প্রাণীটি এমন। এটি ক্রকোডিল্লা বর্গের, অ্যাল্লিগেটরিডে গোত্রের প্রাণী এবং কেইমানিনি উপগোত্রর প্রতিনিধি।

রোববার এই সরীসৃপটিকে দক্ষিণ পোল্যান্ডের ভ্রটস ভাফ ফরেস্টের একটি পুকুরে পাওয়া যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা পুলিশকে জানালে চিড়িয়াখানার একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে সরীসৃপটিকে ধরে আনে।

বর্তমানে চিড়িয়াখানাতেই এর দেখাশোনা হচ্ছে।

কর্তৃপক্ষ বলছে, প্রাণীটি একটি বামন কেইমান যা ১৫০ সেন্টিমিটার পর্যন্ত লম্বা হতে পারে।

চিড়িয়াখানার কর্তৃপক্ষ সন্দেহ করছে, সরীসৃপটি বাসায় লালিত পালিত হয়েছে। পরে এর মালিক হয়ত একে বনে ছেড়ে দেয়। যেখানে প্রাণীটির বেঁচে থাকার সম্ভাবনা কম ছিল।

ভ্রটস ভাফ চিড়িয়াখানার প্রেসিডেন্ট রাদোস্লাভ রাতাজচাক বলেন, ‘সরীসৃপটিকে যে অবস্থায় পাওয়া গেছে, তার তুলনায় এখন এটি ভালো আছে। ভাগ্য ভালো, আবহাওয়া এখনও তত ঠান্ডা হয়নি, যা এর জন্য বিপদজনক হতো।’

প্রাণীটিকে রেখে দেয়ার কোনো পরিকল্পনা অবশ্য চিড়িয়াখানাটির নেই। এর থাকার জায়গা হিসেবে অন্য একটি চিড়িয়াখানা খোঁজা হচ্ছে। সেখানে এর প্রদর্শন ও প্রজননের ব্যবস্থা করা হবে।

শেয়ার করুন