× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বিনোদন
Cloud and sun play at cineplexes in three cities
google_news print-icon

তিন শহরের সিনেপ্লেক্সে ‘মেঘ রোদ্দুর খেলা’

তিন-শহরের-সিনেপ্লেক্সে-মেঘ-রোদ্দুর-খেলা
‘মেঘ রোদ্দুর খেলা’ সিনেমার শুটিংয়ে একদল কিশোর। ছবি: সংগৃহীত
সিনেমাটি নিয়ে নির্মাতা জানিয়েছে, মেঘ রোদ্দুর খেলা- মূলত উদ্ভাবনী মনের একদল কিশোরের রহস্য-রোমাঞ্চে ভরা দুঃসাহসী অভিযানের গল্প।

সরকারি অনুদানে নির্মিত আউয়াল রেজা পরিচালিত কিশোর চলচ্চিত্র ‘মেঘ রোদ্দুর খেলা’ মুক্তি পেল দেশের তিন শহরে।

ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও চট্টগ্রামের সবগুলো সিনেপ্লেক্সে শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটি।

আপাতত তিন শহরে মুক্তি পেলেও পরবর্তীতে দর্শক চাহিদার ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন জেলা শহরে সিনেমাটি মুক্তি দেয়া হয়ে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে সংশ্লিষ্টরা।

সম্প্রতি রাজধানীর সীমান্ত স্কয়ার স্টার সিনেপ্লেক্সে হয়েছে সিনেমাটির প্রিমিয়ার। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

নতুন প্রজন্মভিত্তিক চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য মেঘ রোদ্দুর খেলা-এর নির্মাতা অভিনেতা-অভিনেত্রী ও কলাকুশলীদের শুভেচ্ছা জানান প্রতিমন্ত্রী।

এদিকে সিনেমাটি নিয়ে নির্মাতা জানিয়েছে, মেঘ রোদ্দুর খেলা- মূলত উদ্ভাবনী মনের একদল কিশোরের রহস্য-রোমাঞ্চে ভরা দুঃসাহসী অভিযানের গল্প।

আরও পড়ুন:
দামাল: কোথাও ‘মোটামুটি’ কোথাও ‘হাউস ফুল’
‘জিদ আছে তো জিত আছে’
দর্শক চাহিদায় ‘দামাল’, শুরু অগ্রিম টিকিট বিক্রি
রাজ ক্যাপ্টেন, স্ট্রাইকে সিয়াম, গোলে সুমিত- সবাই মিলে ‘দামাল’
‘বীরত্ব’র শুরুটা ভালোই!

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বিনোদন
Dadasaheb Phalke in the crown of Mithila

মিথিলার মুকুটে ‘দাদাসাহেব ফালকে’

মিথিলার মুকুটে ‘দাদাসাহেব ফালকে’ অভিনেত্রী রফিয়াথ রশিদ মিথিলা। ছবি: সংগৃহীত
শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের গল্প ‘অভাগীর স্বর্গ’ অবলম্বনে তৈরি ‘ও অভাগী’ ছবিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন মিথিলা। আর এই ছবিতে প্রধান চরিত্রে অনবদ্য অভিনয়ের সুবাদে এবার ‘দাদাসাহেব ফালকে’ পুরস্কারে সম্মানিত করা হয়েছে তাকে।

জন্মভূমি বাংলাদেশে তো বটেই, প্রতিবেশী ভারতেও তার গুণমুগ্ধ ভক্তের সংখ্যা প্রচুর। রূপমাধুর্যের পাশাপাশি তার অনবদ্য অভিনয় মুগ্ধ করে চলেছে ভক্ত-অনুরাগীদের। তিনি হলেন রফিয়াথ রশিদ মিথিলা।

অনবদ্য অভিনয়ের সেই স্বীকৃতিই এবার পেলেনসৃজিত ঘরণি। তার মুকুটে যুক্ত হয়েছে নয়া পালক- ‘দাদাসাহেব ফালকে’।

সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে মিথিলা অভিনীত ছবি ‘ও অভাগী’। কথাশিল্পী শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের গল্প ‘অভাগীর স্বর্গ’ অবলম্বনে তৈরি এই ছবিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন মিথিলা। আর এই ছবিতে প্রধান চরিত্রে অনবদ্য অভিনয়ের সুবাদে এবার ‘দাদাসাহেব ফালকে’ পুরস্কারে সম্মানিত করা হয়েছে তাকে।

এক ভিডিও’র মাধ্যমে নিজেই ভাগ করে নিলেন সেই খবর।

‘ও অভাগী’ ছবিটি মুক্তি পাওয়ার পর থেকেই সবার মনজয় করেছেন মিথিলা। ছবিটি তৈরি করেছেন পরিচালক অনির্বাণ চক্রবর্তী। আর ছবিটির মুখ্য ভূমিকায় দেখা গেছে মিথিলাকে। এই চরিত্রটির জন্য তাকে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার দেয়া হয়েছে।

দিল্লিতে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন হলেও সেদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারেননি রফিয়াথ রশিদ মিথিলা। কারণ সে সময় তিনি বাংলাদেশে ছিলেন। তার হয়ে পুরস্কারটি গ্রহণ করেছেন ছবির পরিচালক-প্রযোজক।

এক ভিডিওবার্তায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে মিথিলা বলেন, “আমি অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে সবাইকে জানাতে চাই যে, দিল্লিতে অনুষ্ঠিত ১৪-তম দাদাসাহেব ফালকে ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ২০২৪-এ আমি সেরা অভিনেত্রীর সম্মানে ভূষিত হয়েছি। ‘ও অভাগী’ ছবিতে অভিনয়ের জন্যই এই পুরস্কার আমি পেয়েছি। আমি এজন্য আমাদের পরিচালক অনির্বাণ চক্রবর্তী ও প্রযোজক ড. প্রবীর ভৌমিক এবং আমাদের গোটা টিমকে অনেক অনেক ধন্যবাদ জানাতে চাই।’

মুক্তির পর থেকেই ছবিটি ঘিরে দর্শকদের মধ্যে আলাদা উন্মাদনা ছিল। ‘ও অভাগী’ ছবিতে একজন রসিকের চরিত্রে দেখা গেছে তাকে। শুধু তিনি নন, আরজে সায়নকে এবং জমিদারের চরিত্রে অভিনয় করেছেন বহু অভিনেতা-অভিনেত্রী। সুব্রত দত্তের অভিনয় নজর কেড়েছে সবার।

এছাড়াও অভিনয় করেছেন দেবযানী চট্টোপাধ্যায়, আরজে জিনিয়া, কৃষ্ণ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং সৌরভ হালদারের মতো অভিনেতারা। এ ছবিতে ফুটে উঠেছে এই সমাজের এক অন্য কাহিনী।

আরও পড়ুন:
কলকাতার থ্রিলারে মিথিলা
মিথিলার সঙ্গে বিচ্ছেদের খবর ভিত্তিহীন: সৃজিত
দম নেয়ার সময় আমার জীবনে নেই: মিথিলা
আলোয় আসছে কলকাতায় মিথিলার প্রথম সিনেমা ‘মায়া’
এসব পাত্তা দেয়ার সময় নাই: মিথিলা

মন্তব্য

বিনোদন
Bandhan at Calcutta Fair and Agali

কলকাতার ‘ফেয়ার অ‌্যান্ড আগলি’তে বাঁধন

কলকাতার ‘ফেয়ার অ‌্যান্ড আগলি’তে বাঁধন আজমেরী হক বাঁধন। ফাইল ছবি
কলকাতার ‘হইচই’-এর সিরিজ ‘রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি’তে বাঁধনের ‘মুশকান জুবেরি’ দর্শকের মনে রয়ে গেছে। বলিউডের ‘খুফিয়া’তেও তার অনবদ্য অভিনয় সবার নজর কাড়ে। এবার ‘ফেয়ার অ‌্যান্ড আগলি’ হতে চলেছে ভারতে তার তৃতীয় কাজ।

আজমেরী হক বাঁধন। মূলত লাক্স চ্যানেল আই প্ল্যাটফর্ম থেকেই শো-বিজে যার যাত্রা শুরু। ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে ব্যস্ত সময় কেটেছে নাটকে। একটা সময়ে এসে বিয়ে, পরবর্তীতে বিচ্ছেদ ও একমাত্র কন্যাকে নিয়ে নানা সমস্যায় অভিনয় জগত থেকে নিজেকে অনেকটা সরিয়ে নেন এই প্রতিভাধর অভিনেত্রী।

বহুল আলোচিত রেহানা মরিয়ম নূর সিনেমা দিয়ে ঘুরে দাঁড়ান এই লাক্স-কন্যা। এই সিনেমায় নাম ভূমিকায় অভিনয় করে কেবল সেরা অভিনেত্রীর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারই অর্জন করেননি, আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও মুগ্ধতা ছড়ান তিনি।

রেহানা মরিয়ম নূর সিনেমার সুবাদে টালিউড এমনকি বলিউডের সিনেমাতেও কাজ করার সুযোগ পেয়েছেন। তারই ধারাবাহিকতায় এবার কলকাতার আরেকটি সিনেমায় অভিনয়ের প্রস্তাব পেলেন আজমেরী হক বাঁধন।

সবকিছু পরিকল্পনামাফিক চললে বাঁধনকে শিগগিরই প্রসেনজিৎ বিশ্বাসের অ‌্যান্থোলজি ফিল্ম ‘ফেয়ার অ‌্যান্ড আগলি’র একটি গল্পের সিনেমায় দেখা যাবে। ইতোমধ্যে ছবিটিতে কাজ করার বিষয়ে ইচ্ছা পোষণ করেছেন। শুধু তাই নয়, সিনেমাটিতে নিজের চরিত্রের জন্য প্রস্তুতিও নিচ্ছেন বলে জানান বাঁধন।

ছবিটিতে বাঁধন ছাড়াও থাকছেন ‘ফারজি’, ‘ব্রহ্মাস্ত্র’-খ‌্যাত শাকিব আইয়ুব এবং দেবপ্রসাদ হালদার। চলতি মাসের মধ‌্যভাগে বাঁধনের শুটিং শুরু হওয়ার কথা।

জানা গেছে, পরিচালক প্রসেনজিতের অ‌্যান্থোলজিতে মোট ৫টি গল্প। কয়েকটির শুটিং ইতিমধ্যে হয়ে গেছে। বিভিন্ন গল্পে পার্নো, সম্রাট, ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, কৌশিক সেন, মুমতাজ, সায়ন মুন্সিরা শুট করেছেন।

২০১৮ সালে কলকাতার খ্যাতিমান নির্মাতা সৃজিত মুখোপাধ‌্যায় পরিচালিত ‘হইচই’-এর সিরিজ ‘রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনও খেতে আসেননি’তে বাঁধনের ‘মুশকান জুবেরি’ দর্শকের মনে রয়ে গেছে। গত বছর বিশাল ভরদ্বাজের ‘খুফিয়া’তে প্রথমবার বলিউডে কাজ করেন এই অভিনেত্রী। বাঁধন হিনা ওরফে অক্টোপাস-এর চরিত্রে অনবদ্য অভিনয় করে সবার নজর কাড়েন। তবে এরপর তাকে ভারতের আর কোনো সিরিজ বা ছবিতে পাওয়া যায়নি। সে ক্ষেত্রে বলা যায় ‘খুফিয়া’র পরে ‘ফেয়ার অ‌্যান্ড আগলি’ হতে চলেছে ভারতে তার তৃতীয় কাজ।

আরও পড়ুন:
বাঁধনের জন্ম ১৯৮৩তে, ‘জীবন শুরু ২০১৭ সালে’
‘অক্টোপাস’ বাঁধনের বর্ণনায় ‘খুফিয়া’র টিজার
ড্রাগ ডিলার সুলতানা হয়ে আসছেন বাঁধন
নেটফ্লিক্সে বাঁধনের ‘খুফিয়া’ ঝলক
বাঁধনের ছবি দেখে ভক্তের আসছে ‘কাঁপুনি জ্বর’

মন্তব্য

বিনোদন
Devs helicopter caught fire while campaigning

নির্বাচনি প্রচারে গিয়ে দেবের হেলিকপ্টারে আগুন

নির্বাচনি প্রচারে গিয়ে দেবের হেলিকপ্টারে আগুন ছবি: সংগৃহীত
দেবকে বহনকারী হেলিকপ্টারটিতে মালদহ হেলিপ্যাড থেকে ওড়ার পরই আগুন লাগে। পরে তৎক্ষণাৎ মালদহ হেলিপ্যাডেই জরুরি অবতরণ করেন এর পাইলট।

হেলিকপ্টারে চড়ে ভারতের চলমান লোকসভা নির্বাচনের প্রচারে গিয়েছিলেন টলিউড সুপারস্টার ও তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী দীপক অধিকারী ওরফে দেব। ওড়ার পরপরই হেলিকপ্টারটিতে আগুন লাগে। তবে এ ঘটনায় পুরোপুরি সুস্থ আছেন দেব।

শুক্রবার ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মালদহ (মালদা) জেলায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের খবরে বলা হয়, দেবকে বহনকারী হেলিকপ্টারটিতে মালদহ হেলিপ্যাড থেকে ওড়ার পরই আগুন লাগে। পরে তৎক্ষণাৎ মালদহ হেলিপ্যাডেই জরুরি অবতরণ করেন এর পাইলট।

দুর্ঘটনার হাত থেকে রেহাই পেয়েও থেমে থাকেননি তৃণমূলের তারকা প্রার্থী। বথুয়ায় তৃণমূলের নির্বাচনী জনসভায় যোগ দিয়েছেন তিনি।

এই মুহূর্তে ভোটের প্রচারে ব্যস্ত রয়েছেন পশ্চিম মেদেনীপুরের ঘাটালের দুবারের সংসদ সদস্য তথা এবারের প্রার্থী দেব। তৃণমূলের একনিষ্ঠ সৈনিকের মতোই ছুটে বেড়াচ্ছেন দলীয় কর্মসূচিতে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের নেত্রী মমতা ব্যানার্জি ফোনে দেবের খোঁজখবর নিয়েছেন।

আরও পড়ুন:
নতুন চমকে ‘বাঘা যতীন’ লুকে দেব
শুটিংয়ে কাঁটা ঢুকেছে দেবের চোখে

মন্তব্য

বিনোদন
Human chain in front of FDC to protest the attack on journalists

সাংবাদিকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে এফডিসির সামনে মানববন্ধন

সাংবাদিকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে এফডিসির সামনে মানববন্ধন সাংবাদিকদের ওপর হামলার প্রতিবাদ ও দোষীদের শাস্তি দাবিতে বুধবার এফডিসির সামনে মানববন্ধন করেন সাংবাদিকরা। ছবি: সংগৃহীত
মানববন্ধনে বক্তারা এফডিসিতে অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের ওপর হামলায় নেতৃত্ব দেয়া জয় চৌধুরী, শিবা শানু ও আলেকজান্ডার বোসহ এতে জড়িত সবাইকে শিল্পী সমিতির সদস্যপদ বাতিলসহ আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক জয় চৌধুরীর নেতৃত্বে গণমাধ্যমকর্মীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছেন সাংবাদিকরা।

টেলিভিশন ক্যামেরাম্যান জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের (টিসিএ) উদ্যোগে বুধবার দুপুরে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএফডিসি) সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন বিএফইউজে সভাপতি ওমর ফারুক, মহাসচিব দীপ আজাদ, ডিইউজে সভাপতি সাজ্জাদ আলম তপু ও সোহেল হায়দার চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মুজতবা ধ্রুব, বাচসাস সভাপতি রাজু আলীম, সাধারণ সম্পাদক রিমন মাহফুজ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান বাবু প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সাংবাদিকরা নানা ক্ষেত্রে আজ নির্যাতিত। তারা পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে নানাভাবে বাধার সম্মুখীন হচ্ছেন। চলচ্চিত্রে যারা অভিনয় করেন তাদেরকে আমরা মননশীল মনে করি। কিন্তু তারা যখন মাস্তানের ভূমিকায় অবতীর্ণ হন, তখন তারা সমাজে কী বার্তা দেন?

নারকীয় এই হামলায় নেতৃত্ব দেয়া জয় চৌধুরী, শিবা শানু ও আলেকজান্ডার বোসহ হামলায় জড়িত সবাইকে শিল্পী সমিতির সদস্যপদ বাতিলসহ আইনের আওতায় আনার দাবি জানান বক্তারা।

মানববন্ধনে আরও অংশ নেন বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত বিনোদন বিটের সাংবাদিকরা।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার বিকেলে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নবনির্বাচিত কমিটির শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান শেষে শিবা শানু, জয় চৌধুরী ও আলেকজান্ডার বোর নেতৃত্বে সাংবাদিকদের ওপর হামলা করা হয়। এতে প্রায় ২০ জন সাংবাদিক আহত হন। হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন চারজন।

তদন্ত কমিটি

এদিকে হামলার ঘটনা তদন্তে ১১ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এতে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি ও সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে পাঁচ জন করে রাখা হয়েছে। আর উপদেষ্টা হিসেবে আছেন প্রযোজক আরশাদ আদনান।

দশজনের তদন্ত কমিটিতে সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে লিমন আহমেদ, রাহাত সাইফুল, আহমেদ তৌকির, বুলবুল আহমেদ জয় ও আবুল কালাম এবং শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে মিশা সওদাগর, ডি এ তায়েব, নানাশাহ, রুবেল ও রত্না রয়েছেন।

আরও পড়ুন:
এফডিসিতে সাংবাদিকদের বেধড়ক পেটালেন শিল্পীরা

মন্তব্য

বিনোদন
Artists beat journalists at FDC

এফডিসিতে সাংবাদিকদের বেধড়ক পেটালেন শিল্পীরা

এফডিসিতে সাংবাদিকদের বেধড়ক পেটালেন শিল্পীরা এফডিসিতে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির লোকজনের মারধরে আহত সাংবাদিকরা। ছবি: সংগৃহীত
‘একজন শিল্পীর সাক্ষাৎকার নিচ্ছিলাম। এ সময় খল অভিনেতা শিবা শানু আমাকে জিজ্ঞেস করেন যে কেন সাক্ষাৎকার নিচ্ছি। এরপরই তিনি আমার ওপর হামলা চালান। তা দেখে কয়েকজন সাংবাদিক এগিয়ে এলে জয় চৌধুরী অশ্লীল গালি দিয়ে জুনিয়র শিল্পীদের নির্দেশ দেন সাংবাদিকদের ওপর চালানোর। জয় ও শিবা শানুর নেতৃত্বেই আমাদের ওপর হামলা হয়েছে।’

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নবনির্বাচিত কমিটির শপথ কভার করতে যাওয়া সাংবাদিকদের বেধড়ক পিটিয়েছে সংগঠনটির কয়েকজন সদস্য। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (এফডিসি) এই ন্যক্কারজনক হামলার ঘটনা ঘটেছে।

দৈনিক খবরের কাগজের বিনোদন প্রতিবেদক মিঠুন আল মামুন জানান, তার ক্যামেরাম্যানসহ বেশ কয়েকজন সাংবাদিক আহত হয়েছেন। আহতদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত বৈশাখী টিভির সাংবাদিক লিয়ন মীর জানান, শপথ গ্রহণ শেষে চিত্রনায়িকা ময়ূরীর মেয়ের সাক্ষাৎকার নিচ্ছিলেন এক রিপোর্টার। এসময় অভিনেতা শিবা শানু ওই সাংবাদিককে বেরিয়ে যেতে বলেন। না যেতে চাইলে তাকে ধাক্কা দিয়ে অফিস থেকে বের করে দেন তিনি।

কয়েকজন সাংবাদিক সেখানে উপস্থিত হয়ে শিবা শানুকে থামাতে চান। এরপর শিল্পী সমিতির আরেক নেতা চিত্রনায়ক জয় চৌধুরী ‘মার মার’ বলে তেড়ে যান সাংবাদিকদের দিকে। শুরু হয় সাংবাদিক ও শিল্পীদের মধ্যে তুমুল মারামারি। এরপরই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। রক্তাক্ত আহত হন কয়েকজন সাংবাদিক। মারামারিতে যোগ দেন আলেকজান্ডার বোসহ কয়েকজন জুনিয়রও।

মিঠুন আল মামুন ঘটনার বিষয়ে বলেন, ‘আমি একজন শিল্পীর সাক্ষাৎকার নিচ্ছিলাম। এ সময় খল অভিনেতা শিবা শানু আমাকে জিজ্ঞেস করেন যে কেন সাক্ষাৎকার নিচ্ছি। এরপরই তিনি আমার ওপর হামলা চালান।

‘এ সময় কয়েকজন সাংবাদিক এগিয়ে এলে জয় চৌধুরী অশ্লীল গালি দিয়ে জুনিয়র শিল্পীদের নির্দেশ দেন সাংবাদিকদের ওপর চালানোর। জয় ও শিবা শানুর নেতৃত্বেই আমাদের ওপর হামলা হয়েছে।’

এ ঘটনার পরপরই এফডিসিতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিএফডিসির খোলা প্রাঙ্গণে এর আগে বিকেল সাড়ে ৫টায় সভাপতি মিশা সওদাগরের নেতৃত্বে শপথ গ্রহণ করেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দ। এর আগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার খোরশেদ আলম খসরু মিশাকে শপথ পাঠ করান।

মন্তব্য

বিনোদন
Adam Directors body recovered from the flat

নিজ ফ্ল্যাটে ‘আদম’ পরিচালকের মরদেহ

নিজ ফ্ল্যাটে ‘আদম’ পরিচালকের মরদেহ গত বছরের ঈদুল ফিতরে মুক্তি পাওয়া ‘আদম’ সিনেমা নির্মাণ করে পরিচিতি পান আবু তাওহীদ হিরণ। কোলাজ: নিউজবাংলা
ভবনের বাসিন্দাদের বরাত দিয়ে রমনা থানার এসআই মো. হাবিবুর রহমান বলেন, ‘আজ সকাল ৬টার দিকে হিরণ বাড়ির দারোয়ানকে ফোন করে বলেন, তিনি স্ট্রোক করেছেন। দারোয়ানকে রুমে আসতে বলেন তিনি। দারোয়ান গিয়ে দরজায় নক করলেও ভেতর থেকে দরজা না খোলায় তিনি ফ্ল্যাটের অন্যান্য বাসিন্দাদের সহযোগিতায় দরজা ভেঙে ভেতরে তাকে পড়ে থাকতে দেখতে পান।’

তরুণ চলচ্চিত্র নির্মাতা আবু তাওহীদ হিরণ মারা গেছেন। গত বছরের ঈদুল ফিতরে মুক্তি পাওয়া ‘আদম’ সিনেমা নির্মাণ করে পরিচিতি পান তিনি।

রাজধানীর রমনার নিজ বাসা থেকে সোমবার সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

৩৭ বছর বয়সী হিরণ ‘ইএইচআর মিডিয়া হাউজ’ নামে একটি প্রতিষ্ঠানের মালিক। তিনি বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার পাদুরী শিবপুর গ্রামের সোহরাব হোসেন এর ছেলে। বর্তমানে রমনার ৩০ নম্বর নিউ ইস্কাটন রোডের একটি চতুর্থ তলা ভবনের দ্বিতীয় তলার ফ্লাটে একাই বসবাস করতেন তিনি। ওই ভবনেই তার মিডিয়া প্রতিষ্ঠানটি রয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন রমনা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. হাবিবুর রহমান।

ওই ভবনের বাসিন্দাদের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, ‘আজ সকাল ৬টার দিকে হিরণ বাড়ির দারোয়ানকে ফোন করে বলেন, তিনি স্ট্রোক করেছেন। দারোয়ানকে রুমে আসতে বলেন তিনি। দারোয়ান গিয়ে দরজায় নক করলেও ভেতর থেকে দরজা না খোলায় তিনি ফ্ল্যাটের অন্যান্য বাসিন্দাদের সহযোগিতায় দরজা ভেঙে ভেতরে ঢোকেন। এ সময় তারা দেখতে পান, প্রায় উলঙ্গ অবস্থায় তিনি উপুড় হয়ে মেঝেতে পড়ে আছেন।’

তিনি বলেন, ‘পরে পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।’

ইএইচআর মিডিয়া হাউজের ক্রিয়েটিভ পরিচালক ওমর ফারুক নয়ন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘খবর শুনে আমরা বাসায় গিয়ে তাকে মৃত অবস্থায় দেখতে পাই।’

তিনি বলেন, “তাওহিদ ভাই ভালো মানুষ ছিলেন। আদম-এর পর ‘রং রোড’ নামে তার আরেকটি ছবির কাজ শেষে হয়েছে। ছবিটি বর্তমানে মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে।’

মন্তব্য

বিনোদন
Pattu and Deadbody are not releasing on Eid

ঈদে মুক্তি পাচ্ছে না ‘পটু’ ও ‘ডেডবডি’

ঈদে মুক্তি পাচ্ছে না ‘পটু’ ও ‘ডেডবডি’ ছবি: সংগৃহীত
দুই সিনেমার পক্ষ থেকে সরে দাঁড়ানোর বিষয়ে দুটি ভিন্ন কারণ দেখানো হয়েছে।

শেষ মুহূর্তে এসে ঈদে মুক্তি থেকে সরে দাঁড়ালো আহমেদ হুমায়ুন নির্মিত ‘পটু’ ও মোহাম্মদ ইকবাল পরিচালিত ‘ডেডবডি’ সিনেমা দুটি। দুই সিনেমার পক্ষ থেকে সরে দাঁড়ানোর বিষয়ে দুটি ভিন্ন কারণ দেখানো হয়েছে।

‘পটু’ প্রযোজনা করেছে জাজ মাল্টিমিডিয়া। প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার আব্দুল আজিজ জানিয়েছেন, তাদের ছবিটির পোস্ট-প্রোডাকশনের কাজ এখনও শেষ হয়নি। তাই ঘোষণা দিয়েও সরে দাঁড়িয়েছেন তারা।

তবে এই ঈদে প্রতিষ্ঠানটির ‘মোনা: জ্বীন ২’ প্রেক্ষাগৃহে চলবে বলে জানানো হয়েছে।

অন্যদিকে ‘ডেডবডি’ নিয়ে সরে দাঁড়ানোর ব্যাপারে অনন্ত জলিলের পরামর্শ শুনেছেন পরিচালক-প্রযোজক ইকবাল।

জলিলকে উদ্দেশ করে ইকবাল বলেছেন, ‘ব্রাদার (অনন্ত জলিল) আপনাকে আমি ভালোবাসি। আপনি বলার সঙ্গে সঙ্গে (সিনেমাটি) আমি ঈদে রিলিজ না করে দুই সপ্তাহ পিছিয়েছি এবং হল মালিকদের চিঠি দিয়ে দুই সপ্তাহ পর প্রদর্শনের জন্য অনুরোধ করেছি।’

ইকবাল জানান, ঈদের পরিবর্তে ৩ মে দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে তার ছবিটি। ভৌতিক ধাঁচের গল্পে নির্মিত এই ছবিতে অভিনয় করেছেন ওমর সানী, রোশান, শ্যামল মাওলা, অন্বেষা রায় প্রমুখ।

মন্তব্য

p
উপরে