× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বিনোদন
Calcutta which is turbulent in Bangladesh demands freedom from India
hear-news
player
google_news print-icon

বাংলাদেশের ‘হাওয়া’য় উত্তাল কলকাতা, মুক্তির দাবি

বাংলাদেশের-হাওয়ায়-উত্তাল-কলকাতা-মুক্তির-দাবি
বাংলাদেশের ‘হাওয়া’য় উত্তাল কলকাতা। ছবি: নিউজবাংলা
দর্শক চাহিদা থাকার কারণে হাওয়া সিনেমার শো বাড়িয়েছেন আয়োজকরা। প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, ‘হওয়া সিনেমাটি কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবে দেখানোর চেষ্টা করা হবে।’

মেজবাউর রহমান সুমন পরিচালিত, চঞ্চল চৌধুরী অভিনীত হাওয়া সিনেমাটি কলকাতার নন্দন প্রেক্ষাগৃহে দেখার সুযোগ না পেয়ে হতাশ হয়েছেন বহু দর্শক। হতাশ দর্শকরা সিনেমাটি ভারতে মুক্তির দাবি তুলেছেন।

শনিবার নিউ গড়িয়া থেকে হাওয়া সিনেমা দেখতে এসেছিলেন অমল বারিক। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে, কাগজে রিভিউ পড়ে ৬টার শো দেখার জন্য নন্দনের লাইনে দাঁড়িয়েও হলে ঢুকতে পারেননি।

অমল বারিক নিউজবাংলাকে বলেন, ‘হাওয়া ভারতে রিলিজ করা জরুরি। কেননা আমরা যারা ভালো সিনেমা দেখতে ভালোবাসী, তাদের জন্য এই সুযোগ করে দেয়া হোক।’

কলকাতার গল্ফগ্রিন থেকে হাওয়া দেখতে নন্দনে এসেছিলেন জয় চ্যাটার্জী। দেখার সুযোগ না পেয়ে তিনি বলেন, ‘হাওয়ার ট্রেইলার দেখেছিলাম। তখনই ঠিক করেছিলাম, হলে বসে এই সিনেমা দেখব। কিন্তু লাইনে দাঁড়িয়েও হলে ঢোকার সুযোগ পেলাম না। বাণিজ্যিকভাবে এই সিনেমা কলকাতায় রিলিজ করলে আমাদের মতো দর্শকরা দেখার সুযোগ পায়।’

কলকাতা শহরের মানুষের মুখে মুখে ঘুরছে হাওয়া সিনেমার কথা। শনিবার রবীন্দ্রসদন প্রেক্ষাগৃহে চতুর্থ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সঞ্চালক প্রখ্যাত সংবাদ পাঠক, বাচিক শিল্পী সতীনাথ মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘কলকাতা এখন বাংলাদেশের হাওয়ায় ভাসছে। হাওয়া দেখতে উপচে পড়েছে নন্দন।’

প্রখ্যাত পরিচালক গৌতম ঘোষ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বলেন, ‘বাইরের ভিড় দেখে বোঝাই যায়, দর্শক এখনও বাংলা সিনেমা, ভালো সিনেমা দেখতে ভালোবাসেন। দুই বাংলার শিল্প সিনেমা শিল্পকে সংগঠিত করে বাংলা সিনেমার বাণিজ্য ক্ষেত্রকে আরও প্রসারিত করা দরকার।’

বিষয়টিতে সাহায্য সহযোগিতার ক্ষেত্রে সহমত পোষণ করেছেন বাংলাদেশের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী হাছান মাহমুদ এমপি এবং পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি ও পর্যটন দপ্তরের মন্ত্রী, সংগীত শিল্পী বাবুল সুপ্রিয়।

দর্শক চাহিদা থাকার কারণে হাওয়া সিনেমার শো বাড়িয়েছেন আয়োজকরা। প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, ‘হওয়া সিনেমাটি কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবে দেখানোর চেষ্টা করা হবে।’

সোমবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে জানা গেছে, ‘সাদা, সাদা, কালা কালা…। শনিবার কলকাতার নন্দন প্রাঙ্গণে কান পাতলে যেন শোনা যাচ্ছিল এই সুরই। থিক থিক করছে মাথা। পাঁচ হাজার মানুষ তো হবেই। শেষ হয় তো শ্রীভূমির দুর্গাপূঁজার প্যান্ডেলে এমন ভিড় দেখা গিয়েছিল। প্রতিমা দর্শনের উত্তেজনার পর মনে হয় এই চঞ্চল দর্শনের ভিড়। প্রদর্শিত হচ্ছে চঞ্চল চৌধুরীর ছবি হাওয়া।’

কলকাতার নন্দনে ২৯ অক্টোবর শুরু হয় চতুর্থ বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসব। ৫ দিনের এই উৎসব চলবে ২ নভেম্বর পর্যন্ত।

আরও পড়ুন:
সিত্রাং: মাদারীপুরে তলিয়েছে উঠতি আমনের ক্ষেত
সুপার সাইক্লোনের আশঙ্কা ছড়ানোয় কী ক্ষতি হলো?
ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং: মৃত বেড়ে ২০
সাধারণ শক্তি নিয়ে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং
খুলনায় আংশিক ভেঙেছে ১৬০০ ঘর, ক্ষতি কম মৎস্য-কৃষিতে

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বিনোদন
Black War This time the mission is not easy

ব্ল্যাক ওয়ার: এবারের মিশন সহজ নয়

ব্ল্যাক ওয়ার: এবারের মিশন সহজ নয় ব্ল্যাক ওয়ার সিনেমায় সিআরটি অফিসারের ভুমিকায় আরিফিন শুভ। ছবি: টিজার থেকে নেয়া
এবার তাদের মুখোমুখি হতে হবে অদৃশ্য শত্রুর। শত্রুর বিরুদ্ধে অভিযান এবার সীমানা টপকাবে। টিজারে তারই আভাস পাওয়া গেছে। মরুর দেশ দুবাইতে অভিযান পরিচালনা করতে দেখা যাবে শুভকে।

শুরু হয়ে গেছে ব্ল্যাক ওয়ার। যার আভাস এলো বুধবার সন্ধ্যায়। অনলাইনে খুব দ্রুতই ছড়িয়ে যাচ্ছে এ ওয়ারের কথা।

ব্ল্যাক ওয়ার মূলত কপ থ্রিলার সিনেমা মিশন এক্সট্রিমের সিক্যুয়াল। সিনেমাটির পুরো নাম ব্ল্যাক ওয়ার: মিশন এক্সট্রিম ২

৬ জানুয়ারি মুক্তি পাবে সিনেমাটি। বুধবার সন্ধ্যায় প্রকাশ পেয়েছে সিনেমাটির টিজার। নতুন মিশন আর নতুন অভিযানের নেতৃত্ব দেবেন সিআরটি অফিসার আরিফিন শুভ।

এবার তাদের মুখোমুখি হতে হবে অদৃশ্য শত্রুর। শত্রুর বিরুদ্ধে অভিযান এবার সীমানা টপকাবে। টিজারে তারই আভাস পাওয়া গেছে। মরুর দেশ দুবাইতে অভিযান পরিচালনা করতে দেখা যাবে শুভকে।

টিজারে শুভর কণ্ঠে শোনা যায়, ‘এই মিশন হয়তোবা সহজ হবে না। আমরা অনেকেই হয়তোবা এই মিশন থেকে ফিরে আসব না।’

মিশন এক্সট্রিম সিনেমার প্রায় সব অভিনেতাই থাকছেন ব্ল্যাক ওয়ারে। সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন সানী সানোয়ার ও ফয়সাল আহমেদ। বাংলাদেশে মুক্তির পাশাপাশি ব্ল্যাক ওয়ার ১৫টি দেশে মুক্তির কথা রয়েছে।

আরও পড়ুন:
জানুয়ারিতে আসছে ‘ব্ল্যাক ওয়ার: মিশন এক্সট্রিম ২’

মন্তব্য

বিনোদন
Kazi Hayat should no longer manage it

‘কাজী হায়াতের আর পরিচালনা না করাই ভালো’

‘কাজী হায়াতের আর পরিচালনা না করাই ভালো’ জয় বাংলা সিনেমার একটি দৃশ্য। ছবি: ট্রেইলার থেকে নেয়া
সিনেমার ট্রেইলার দেখে অনেকে পরিচালক, শিল্পী ও কলাকুশলীদের অভিনন্দন জানালেও অপছন্দের মন্তব্যের সংখ্যা চোখে পড়ার মতো।

দাঙ্গা, ত্রাস, চাঁদাবাজ, সিপাহী, দেশদ্রোহী, লুটতরাজ, তেজী, আম্মাজান-এর মতো জনপ্রিয় ও ব্যবসাসফল সিনেমার পরিচালক কাজী হায়াৎ। বুধবার প্রকাশ পেয়েছে তার ৫১তম সিনেমা জয় বাংলা-এর ট্রেইলার।

ইউটিউবে ট্রেইলারটি দেখে মন্তব্যের ঘরে এক দর্শকের মন্তব্য, ‘কাজী হায়াতের আর পরিচালনা না করাই ভালো’।

আগে বেশ কিছু ভালো সিনেমার জন্য কাজী হায়াতের নাম এমনিতেই দর্শকের হৃদয়ে গেঁথে থাকবে উল্লেখ করে সেই মন্তব্যকারী আরও লেখেন, ‘২০২২ এ এসেও এমন ট্রেইলার দেখতে হলো,,, তবুও মুক্তিযুদ্ধের সিনামায়। বারবার এরকম বস্তাপচা কুখাদ্য উপহার দিলে মানুষ তো মনে রাখবেই না উল্টো গালি দেবে।’

১৯৬৯ থেকে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়ের গল্পে গড়ে উঠেছে জয় বাংলা সিনেমার গল্প। ইতিহাসবিদ ও সাহিত্যিক মুনতাসীর মামুনের উপন্যাস ‘জয় বাংলা’ অবলম্বনে করা হয়েছে সিনেমাটির চিত্রনাট্য। এতে অভিনয় করেছেন বাপ্পী চৌধুরী ও জাহারা মিতু।

সিনেমার ট্রেইলার দেখে অনেকে পরিচালক, শিল্পী ও কলাকুশলীদের অভিনন্দন জানালেও অপছন্দের মন্তব্যের সংখ্যা চোখে পড়ার মতো।

জয় বাংলা সিনেমাটি সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত। বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে এক মন্তব্যকারী লিখেছেন, ‘এইভাবে সরকারি টাকার অপচয় না করলেই পারতো’।

ট্রেইলার দেখার পর আরও কিছু দর্শকদের মন্তব্য এমন-

‘সব্বোনাশ এগুলোই দেখার বাকি ছিলো আফসোস’।

‘অস্থির ট্রেইলার! স্যালুট বাংলাদেশের সিনেমা হর্তাকর্তাদের, যাদের সই-তে (স্বাক্ষরে) এই সিনেমা আলোর মুখ দেখলো। হাহা রিয়েক্টটা থাকলে খুব ভালো লাগতো’।

‘এটা নাটকের চেয়েও জঘন্য’।

‘২ মিনিট ২৬ সেকেন্ড ফিরিয়ে দেন আমার’।

‘এইসব মুভি প্রডিউসার কীভাবে টাকা উঠায়’।

‘অখাদ্য’।

ট্রেইলারের ৪৮ সেকেন্ডে দেখা যায় অভিনেতা বাপ্পী তার দুই সহশিল্পীকে নিয়ে কাঁচা রাস্তায় হাঁটছেন আর গাইছেন ‘গ্রামছাড়া ওই রাঙা মাটির পথ’ গানটি। এর ওপরে ব্যবহৃত ফুটেজে দেখা যাচ্ছে নদীর ওপর ব্রিজ বানানোর জন্য পিলার বানানো হয়েছে।

এমন দৃশ্য দেখে এক মন্তব্যকারী লিখেছেন, ’৭১ সালে পদ্মা ব্রিজ আসলো কোথা থেকে’।

টুঙ্গিপাড়া চলচ্চিত্রের ব্যানারে নির্মিত প্রথম এ সিনেমাটির প্রযোজক মিটু সিকদার। চলতি মাসেই সিনেমাটি মুক্তির কথা রয়েছে।

আরও পড়ুন:
ভারতীয় উৎসবে বাংলাদেশের সিনেমা দেখতে দর্শকের ভিড়
জগজা নেটপ্যাকে দেশের সিনেমা ‘আম-কাঁঠালের ছুটি’
চলচ্চিত্রকে সময়োপযোগী করতে ‘ক্রিয়েটিভ সামিট’-এর উদ্যোগ
সিনেমা-সংকটে সাময়িক বন্ধ হচ্ছে ‘মধুমিতা’
দৃশ্য কাটার শর্তে ‘জয়ল্যান্ড’-এর নিষেধাজ্ঞা তুলল পাকিস্তান

মন্তব্য

বিনোদন
Now Shah Rukhs son Aryan is just waiting for action

এখন শুধু অ্যাকশন বলার অপেক্ষায় শাহরুখপুত্র আরিয়ান

এখন শুধু অ্যাকশন বলার অপেক্ষায় শাহরুখপুত্র আরিয়ান বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান। ছবি: সংগৃহীত
আরিয়ানের সেই পোস্টের মন্তব্যে শাহরুখ খান লিখেছেন, ‘বাহ...ভাবছি...বিশ্বাস হচ্ছে...স্বপ্ন দেখছি, এখন সাহস করে এগিয়ে যাওয়া...শুভ কামনা। এটা সবসময়ই বিশেষ...।’  শাহরুখের এই মন্তব্যের পর শুরু হয় পিতা-পুত্রের মজার কথোপকথন।

গত বছরের অক্টোবরে মাদক মামলা নিয়ে তুমুল আলোচনায় ছিলেন বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান। এরই মধ্যে সেসব আলোচনা-সমালোচনা পার করেছেন এই তারকা সন্তান।

সেই ঘটনার ঠিক এক বছর পর চলতি বছরের অক্টোবরে জানা যায়, আরিয়ানের কর্মজীবনে যাত্রার কথা। ওয়েব সিরিজের জন্য গল্প লিখেছেন তিনি এবং চলতি বছরের শেষের দিকেই শুরু হবে এর শুটিং। এর পরিচালনাও করবেন তারকাপুত্র।

সিরিজটির সঙ্গে যুক্ত ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাত দিয়ে তখন ই-টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, ‘আরিয়ানের লেখা সিরিজটির জন্য কাস্টিং শুরু হয়েছে এবং সম্ভাব্য নামগুলো শিগগিরই ঠিক করা হতে পারে।

সেই সূত্র প্রকাশ জানিয়েছে, ‘একাধিক অভিনেতা সিরিজটির জন্য অডিশন দিচ্ছেন এবং যেভাবে কাজ শুরু হয়েছে তাতে বছরের শেষ নাগাদ এটি ফ্লোরে যেতে পারে।’

এবার সেই তথ্যের আপডেট জানালেন আরিয়ান নিজেই। মঙ্গলবার ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি করেছেন তিনি। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, শাহরুখের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান রেড চিলিস নাম লেখা একটি ক্ল্যাপারবোর্ড। রয়েছে একটি স্ক্রিপ্টের খাতা, যার উপর লেখা আরিয়ানের জন্য।

ছবি পোস্ট করে আরিয়ান লিখেছেন, ‘লেখা শেষ…অ্যাকশন বলার অপেক্ষা সইছে না।’

আরিয়ানের সেই পোস্টের মন্তব্যে শাহরুখ খান লিখেছেন, ‘বাহ...ভাবছি...বিশ্বাস হচ্ছে...স্বপ্ন দেখছি, এখন সাহস করে এগিয়ে যাওয়া...শুভ কামনা। এটা সবসময়ই বিশেষ...।’

শাহরুখের এই মন্তব্যের পর শুরু হয় পিতা-পুত্রের মজার কথোপকথন। এ মন্ত্যবের উত্তরে আরিয়ান লেখেন, ‘ধন্যবাদ! সেটে তোমার সারপ্রাইজ ভিজিটের জন্য অপেক্ষা করছি, হাহা।’

এর উত্তরে শাহরুখ লেখেন, ‘তাহলে বিকেলের শিফট রাখাই ভালো!! অনেক সকালে নয়...।’ এর জবাবে আরিয়ান আবার লেখেন, ‘অবশ্যই, শুধুমাত্র রাতের শটে।’

এখন শুধু অ্যাকশন বলার অপেক্ষায় শাহরুখপুত্র আরিয়ান
সেই পোস্টে পিতা-পুত্রের কথোপকথন। ছবি: সংগৃহীত

গৌরি খানও ছেলেন পোস্টে মন্তব্যে করেছেন। লেখেন, ‘দেখার তর সইছে না।’

আরিয়ানের পোস্টে মন্তব্য করেছেন বোন সোহানা খানও। লিখেছেন, ‘অপেক্ষা করতে পারছি না।’

এর আগে প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, আরিয়ানের সঙ্গে এই কাজটিতে যুক্ত রয়েছেন লেখক বিলাল সিদ্দিকী। যিনি নেটফ্লিক্স শো বার্ড অফ ব্লাড-এর সহলেখক।

আরিয়ানের এই পোস্টে মন্তব্য করেছেন তিনিও। বিলাল লেখেন, ‘সিরিজ আভি বাকি হ্যায় মেরে দোস্ত।’

এদিকে নতুন করে ই-টাইমস বলছে, ২০২৩ সালে শুটিং ফ্লোরে যাচ্ছে আরিয়ানের এই প্রজেক্ট।

আরও পড়ুন:
শাহরুখের ‘জওয়ান’-এর বিরুদ্ধে গল্প চুরির অভিযোগ
এবারও বুর্জ খলিফায় ভেসে উঠলেন শাহরুখ  
ভালোবাসার সমুদ্রে বেঁচে থাকাটা সুন্দর: শাহরুখ
জন্মদিনে এলো শাহরুখের ‘পাঠান’ ঝড়
জন্মদিনে বিশেষ উপহার পাচ্ছেন কিং খান

মন্তব্য

বিনোদন
Jaya shooting her first Hindi movie

নিজের প্রথম হিন্দি সিনেমার শুটিংয়ে জয়া

নিজের প্রথম হিন্দি সিনেমার শুটিংয়ে জয়া জয়া আহসানের সঙ্গে পঙ্কজ ত্রিপাঠী, সাঞ্জানা (বাঁয়ে) ও পার্বতী (ডানে)। ছবি: সংগৃহীত
জয়া বলেন, ‘একদিকে পরিচালক অনিরুদ্ধ রায়চৌধুরী আর সহ- অভিনেতা হিসেবে অন্যদিকে পঙ্কজ ত্রিপাঠী। আমি খুবই আগ্রহের সঙ্গে কাজটা করছি।’

প্রথমবারের মতো হিন্দি ভাষার সিনেমায় অভিনয় করছেন দেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দৈনিক অন্য সময় জানিয়েছে, সিনেমার শুটিং শুরু হয়েছে মুম্বাইয়ে।

এরই মধ্যে সহশিল্পীদের সঙ্গে জয়ার কিছু ছবিও প্রকাশ পেয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমও প্রকাশ করেছে ছবি।

সেখানে দেখা যাচ্ছে অভিনেত্রী জয়া আহসানের সঙ্গে দাঁড়িয়ে আছেন বলিউডের নামকরা অভিনেতা পঙ্কজ ত্রিপাঠি, সাঞ্জানা এবং দক্ষিণের অভিনেত্রী পার্বতী।

সিনেমাটি পরিচালনা করছেন পিঙ্ক, অন্তহীন, অনুরণন খ্যাত পরিচালক অনিরুদ্ধ রায়চৌধুরী। সিনেমাটির নাম এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে পরিচালক বলেছেন, ‘বিপদের মুখে পড়লে সকলে একজোট হয়ে কীভাবে কাজ করতে পারে, তারই এক বহুস্তরীয় গল্প বলবো এই সিনেমায়।’

প্রথম হিন্দি সিনেমায় অভিনয় নিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে জয়া বলেন, ‘একদিকে পরিচালক অনিরুদ্ধ রায়চৌধুরী আর সহ-অভিনেতা হিসেবে অন্যদিকে পঙ্কজ ত্রিপাঠি। আমি খুবই আগ্রহের সঙ্গে কাজটা করছি।’

আরও পড়ুন:
দুপুরের শোতে মেলেনি ভালো সাড়া
মেয়েরা সুপ্ত নারীবিদ্বেষী দানবদের বুড়ো আঙুল দেখিয়েছে: জয়া
আপাতত নতুন কাজে যুক্ত হচ্ছেন না জয়া
রক্তের ইতিহাসের সাক্ষ্য ‘বিউটি সার্কাস’
জয়া চরিত্রে জয়া

মন্তব্য

বিনোদন
Chanchal Chowdhury is going to be Srijits Mrinal Sen

সৃজিতের ‘মৃণাল সেন’ হতে যাচ্ছেন চঞ্চল চৌধুরী!

সৃজিতের ‘মৃণাল সেন’ হতে যাচ্ছেন চঞ্চল চৌধুরী! চঞ্চল চৌধরীকে দেখা যেতে পারে সৃজিতের সিনেমার। ছবি: সংগৃহীত
ঘোষণার পর থেকেই দর্শকদের মনে প্রশ্ন, পর্দায় কে হবেন মৃণাল সেন? ধারণা করা হচ্ছে, সৃজিতের কাছ থেকে শিগগিরই মিলবে সে জবাব।

বাংলা চলচ্চিত্রের অন্যতম প্রাণপুরুষ মৃণাল সেনের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ছিল গত মে মাসে। সেসময় পদাতিক নামের একটি বায়োপিক নির্মাণের ঘোষণা আসে।

মৃণাল সেনের ছেলে কুণাল সেনের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছিল, কৌশিক গাঙ্গুলি, অঞ্জন দত্ত ও সৃজিত মুখার্জি মিলে নির্মাণ করবেন তিনটি সিনেমা।

তিন পরিচালকের মধ্যে সৃজিতের সিনেমা নিয়ে পাওয়া গেছে নতুন কিছু তথ্য। ঘোষণার পর থেকেই দর্শকদের মনে প্রশ্ন, পর্দায় কে হবেন মৃণাল সেন? ধারণা করা হচ্ছে, সৃজিতের কাছ থেকে শিগগিরই মিলবে সে জবাব।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, মৃণালের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যেতে পারে কারাগার খ্যাত অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরীকে।

বুধবার প্রকাশিত প্রতিবেদনে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, চঞ্চল চৌধুরীকে পদাতিক-এ মৃণাল সেনের চরিত্রের জন্য প্রস্তাব দিয়েছেন সৃজিত।

প্রস্তাব পাওয়ার বিষয়টি চঞ্চল স্বীকার করেছেন নিউজবাংলার কাছে। বুধবার দুুপুরে চঞ্চল চৌধুরী নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমাদের আলোচনা চলছে, এখনও কিছু চূড়ান্ত হয়নি।’

আগামী বছর মৃণাল সেনের জন্মশতবার্ষিকীতে গুণী এ পরিচালককে সম্মান জানাতেই তিনটি সিনেমার কাজ চলছে টালিউডে।

আরও পড়ুন:
এক রাতে প্রসেনজিতের বাড়িতে
অস্কারে লড়বে ‘হাওয়া’
একে অপরকে কী নামে ডাকেন চঞ্চল-অনির্বাণ
‘পাতাল লোক’-এ চঞ্চল, ‘ডিজনি+হটস্টার’র খবর কি ভুয়া!
চঞ্চলকে নিয়ে ‘বড়’ কিছু করতে যাচ্ছে ডিজনি+হটস্টার

মন্তব্য

বিনোদন
Prison Part 2 trailer gives a glimpse of the beginning not the end

শেষ নয়, শুরুর আভাস দিল ‘কারাগার পার্ট ২’ ট্রেইলার

শেষ নয়, শুরুর আভাস দিল ‘কারাগার পার্ট ২’ ট্রেইলার কারাগার পার্ট ২ এর ট্রেইলারে দুটি চরিত্রে দেখা গেছে চঞ্চল চৌধুরীকে। ছবি: ট্রেইলার থেকে নেয়া
সিরিজের একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন শতাব্দী ওয়াদুদ। তার কণ্ঠে ট্রেইলারে শোনা যায়, ‘এই যুদ্ধ (মহান মুক্তিযুদ্ধ) কি জন্ম দিয়েছে? বাংলাদেশ। আর?’

দুই বাংলার তুমুল জনপ্রিয় ওয়েব সিরিজ কারাগার। পার্ট ১ এ যে রহস্য তৈরি করে সিরিজটি শেষ করা হয়েছিল, পার্ট ২ এ তা শেষ হবে বলেই ধারণা সবার।

মঙ্গলবার সিরিজটির পার্ট ২ এর ট্রেইলার প্রকাশ পেয়েছে। সেখানে চঞ্চল চৌধুরীর কণ্ঠে শোনা গেল, ‘কিসের শেষ? এটা তো মাত্র শুরু’।

কি হতে চলেছে কারাগার ওয়েব সিরিজে? ট্রেইলারে রহস্যটি জীবীত থাকলেও, ২২ ডিসেম্বর খুলবে সব জট। কারণ ওই দিন সিরিজটি মুক্তি পাবে হইচই ওটিটি প্ল্যাটফর্মে।

সিরিজের মূল চরিত্র চঞ্চল চৌধুরী। তাকে ঘিরে রহস্য আবর্তিত হয়েছে প্রথম পার্টে। দ্বিতীয় পার্টেও রহস্যকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন তিনি। ট্রেইলারে তাকে দুটি চরিত্রে দেখা গেছে।

নতুন লুকের চঞ্চলের কণ্ঠে ট্রেইলারে আরও শোনা গেছে, ‘আমি গল্প শোনাব। একটি ভালো গল্পের চেয়েও কোন বিষয়টি বেশি শক্তিশালী?’

ট্রেইলারে প্রথম পার্টের প্রায় সব চরিত্রকেই দেখা গেছে। নতুন চরিত্র হিসেবে তারিক আনাম খান ও দিব্য জ্যোতিকে দেখা যাবে দ্বিতীয় পার্টে।

সিরিজের একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন শতাব্দী ওয়াদুদ। তার কণ্ঠে ট্রেইলারে শোনা যায়, ‘এই যুদ্ধ (মহান মুক্তিযুদ্ধ) কি জন্ম দিয়েছে? বাংলাদেশ। আর?’ এখান থেকে ধারণা করা হচ্ছে মুক্তিযুদ্ধের কোনো বিষয় থাকতে পারে এ সিরজটিতে।

তবে সবকিছুই এখনও ধারণা। ২২ ডিসেম্বর সব পরিস্কার হবে দর্শকদের কাছে। সৈয়দ আহমেদ শাওকী পরিচালিত সিরিজটিতে অভিনয় করেছেন আফজাল হোসেন, ইন্তেখাব দিনার, বিজরী বরকতুল্লাহ, তাসনিয়া ফারিণ, এফএস নাঈমসহ আরও অনেকে।

কারাগারের প্রথম পর্বে দেখানো হয়েছিল আকাশনগর সেন্ট্রাল জেলের গল্প। যেখানে জেলটির ১৪৫ নম্বর সেলে আবির্ভাব হয়েছিল এক রহস্য মানবের। ১৪৫ নম্বর সেল এমন একটি কারাকক্ষ, যা গত ৫০ বছর ধরে তালাবন্ধ ছিল। সেই রহস্যমানবের রহস্য ঘণীভূত হয়ে এমন এক জায়গায় প্রথম পর্ব শেষ হয়েছিল, যেখানে তৈরি হয়েছিল অনেকগুলো প্রশ্নের। সেই প্রশ্ন গুলোর জবাব মেলার কথা কারাগারের দ্বিতীয় পর্বে।

মঙ্গলবার রাতে হইচই থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে চঞ্চল চৌধুরী বলেন, ‘কারাগার প্রথম পর্বের যে সাড়া আমরা পেয়েছি তা অভাবনীয়। দর্শকদের প্রতিক্রিয়া ও ভালোবাসায় আমাদের পুরো টিম সিক্ত হয়েছে। দ্বিতীয় পর্বে যা দেখানো হবে, ট্রেইলারে তার সামান্যই উঠে এসেছে। আমাকে সম্পূর্ণ ভিন্ন দুইটি রুপে এখানে দেখা যাবে। যদিও বিস্তারিত এখন কিছু বলা যাচ্ছে না। শুধু এটুকু বলতে পারি যে গল্পের গতিবিধি যেভাবে বিস্তার লাভ করেছে, দর্শক তাতে মুগ্ধ হবে।’

কারাগারের পরিচালক সৈয়দ আহমেদ শাওকী বিজ্ঞপ্তিতে বলেন, ‘কারাগারে আমি এমন একটি গল্প বলতে চেয়েছি যা আমাদের সামনে খুব বেশি উঠে আসেনি, কিন্তু গল্পের গভীরে একটি নির্মম সত্য আছে। দেশ-বিদেশের দর্শক যেভাবে কারাগারকে ভালবেসে গ্রহণ করেছে, তাতে আমি উদ্বেলিত। আমরা বিশ্বাস করি যে কারাগারের দ্বিতীয় পর্ব দর্শকদের প্রত্যাশার সঠিক মূল্যায়ন করবে।’

আরও পড়ুন:
‘কারাগার পার্ট ২’ আসছে ১৫ ডিসেম্বর
‘কারাগার পার্ট টু’ আসছে বছর শেষে

মন্তব্য

বিনোদন
Netri Movie Teaser Fan Made Anant

‘নেত্রী’ সিনেমার টিজারটি ফ্যানদের বানানো: অনন্ত

‘নেত্রী’ সিনেমার টিজারটি ফ্যানদের বানানো: অনন্ত নেত্রী দ্যা লিডার সিনেমার দৃশ্যে বর্ষা। ছবি: সংগৃহীত
অনন্ত-বর্ষা যৌথভাবে লিখেছেন, ‘বন্ধুরা, আপনাদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে নেত্রী দ্যা লিডারের যে টিজারটি আপনারা দেখেছেন তা অফিশিয়াল টিজার নয়।’

সম্প্রতি ফেসবুক ইউটিউবে ঘুরে বেড়াচ্ছে অনন্ত-বর্ষা অভিনীতি মুক্তি প্রতীক্ষিত নেত্রী দ্যা লিডার সিনেমার কিছু দৃশ্য। অনলাইনে ভিডিওগুলো প্রকাশ করা হয়েছে সিনেমাটির টিজার হিসেবে।

খুঁজে দেখা যায়, নেত্রী দ্যা লিডার অফিশিয়াল টিজার শিরোনামের একটি ভিডিও পাওয়া যাচ্ছে ফেসবুক ও ইউটিউবে। এ ছাড়াও আরও একটি ভিডিও আছে নেত্রী দ্যা লিডার অফিশিয়াল ট্রেইলার ২০২২ শিরোনামে।

ভিডিও দুটিতে অনন্ত-বর্ষাসহ সিনেমার বেশ কয়েকজন অভিনেতার ফুটেজ রয়েছে। তাই স্বাভাবিকভাবেই দর্শকদের মনে হতে পারে, এটিই মনে হয় সিনেমাটির টিজার বা ট্রেইলার।

কিন্তু না, ভিডিও দুটির কোনোটিই নেত্রী দ্যা লিডার সিনেমার অফিশিয়াল টিজার-ট্রেইলার না। সিনেমাটির অভিনেতা অনন্ত জলিল তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অনন্ত-বর্ষা যৌথভাবে লিখেছেন, ‘বন্ধুরা, আপনাদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে নেত্রী দ্যা লিডারের যে টিজারটি আপনারা দেখেছেন তা অফিশিয়াল টিজার নয়।

‘ফ্যানরা অতি উৎসাহে তা বানিয়েছে। শুটিং চলাকালীন সময়ে দর্শকদের মোবাইলে ধারণকৃত ও অন্যান্য মুভির ফুটেজ ব্যবহার করে টিজারটি বানিয়েছে।

নেত্রী দ্যা লিডারের টিজার প্রকাশ করার আগে অবশ্যই আমরা আমাদের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে জানাব।’

আরও পড়ুন:
বগুড়ায় অনন্ত-বর্ষা, শারীরিক প্রতিবন্ধী ভক্তকে চিকিৎসার প্রতিশ্রুতি
অনন্তর সঙ্গে কোন নায়িকা মানাবে প্রসঙ্গে বর্ষার ব্যক্তিগত আক্রমণ
‘নেত্রী- দ্য লিডার’ হতে পারে শেষ সিনেমা: কাঁদতে কাঁদতে বর্ষা
৮ বছর পর সিনেপ্লেক্সে অনন্ত, নার্ভাস বর্ষা
দিন- দ্য ডে: সিনেপ্লেক্সে ১২টি, ব্লকবাস্টারে শো ৮টি

মন্তব্য

p
উপরে