× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বিনোদন
FIFA World Cup Mataben Nora Fatehi
hear-news
player
google_news print-icon

ফিফা বিশ্বকাপ মাতাবেন নোরা ফাতেহি

ফিফা-বিশ্বকাপ-মাতাবেন-নোরা-ফাতেহি
বলিউড নৃত্যশিল্পী ও অভিনেত্রী নোরা ফাতেহি। ছবি: সংগৃহীত
ভারত ছাড়িয়ে নোরার পরিচিতি ছড়িয়ে গেছে এখন আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে। জেনিফার লোপেজ ও শাকিরার মতো ইন্টারন্যাশনাল সেলিব্রেটির পর এবার কাতার বিশ্বকাপ পারফর্ম করবেন মরোক্কান বংশোদ্ভূত বলিউড এই ডিভা।

বলিউডের আইটেম গার্ল হিসেবে তুমূল জনপ্রিয় নৃত্যশিল্পী ও অভিনেত্রী নোরা ফাতেহি। এবার নতুন পালক জুড়ছে তার মুকুটে। বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রীড়া আসর ফিফা বিশ্বকাপ ২০২২ –এ নেচে-গেয়ে মাতাবেন তিনি।

পিঙ্কভিলার প্রতিবেদন অনুসারে, ফিফা অ্যান্থেম বা মূল গানে নাচের পাশাপাশি কণ্ঠও মেলাবেন আবেদনময়ী এই নৃত্যশিল্পী।

ভারত ছাড়িয়ে নোরার পরিচিতি ছড়িয়ে গেছে এখন আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে। সে অর্থে জেনিফার লোপেজ ও শাকিরার মতো ইন্টারন্যাশনাল সেলিব্রেটির পর এবার কাতার বিশ্বকাপে পারফর্ম করবেন মরোক্কান বংশোদ্ভূত এই বলিউড ডিভা।

ফিফা বিশ্বকাপ মাতাবেন নোরা ফাতেহি
বলিউড ডিভা নোরা ফাতেহি। ছবি: সংগৃহীত

এই বিশ্বকাপ উপলক্ষে নোরার জন্য গান তৈরি করেছে মরোক্কান বিখ্যাত রেকর্ড প্রযোজক ও সংগীতশিল্পী রেড ওয়ান। যিনি শাকিরার ওয়াকা ওয়াকা এবং লা লা লা-এর মতো ফিফা সংগীতেও কাজ করেছেন।

আরও পড়ুন:
সুকেশের বিরুদ্ধে মুখ খুলবেন নোরা
‘বিএমডব্লিউ উপহার নিয়েছেন’ নোরা ফাতেহি 
নোরাকে বিলাসবহুল গাড়ি দিয়েছিলেন প্রতারণায় অভিযুক্ত সুকেশ
অর্থ প্রতারণার মামলায় এবার নোরাকে তলব   
এবার সিনেমায় বক্সিং করবেন নোরা

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বিনোদন
I refuse to accept this incident as an accident Farin

এই ঘটনাকে আমি দুর্ঘটনা মানতে নারাজ: ফারিণ

এই ঘটনাকে আমি দুর্ঘটনা মানতে নারাজ: ফারিণ অভিনেত্রী তাসনিয়া ফারিণ। ছবি: সংগৃহীত
ফারিণ লেখেন, ‘আজকে আমার বা অন্য কারো প্রাণ গেলেও তাদের কিছুই আশা যেত না। আমার সারা রাত ঘুম হয়নি। মেন্টালি ট্রমাটাইজড। আমার ভাই যদি আমার পেছনে আজকে না থাকত বা আমাকে ধরতে যদি একটু দেরি করে ফেলত তার পর কি হত আমি চিন্তাও করতে চাই না। আল্লাহ যাতে কাউকে জীবনে এই পরিস্থিতিতে না ফেলে।’

ভাই-বোন ও বাবার সঙ্গে শুক্রবার রাজধানীর যমুনা ফিউচার পার্কে গিয়েছিলেন ছোট পর্দার তুমুল জনপ্রিয় অভিনেত্রী তাসনিয়া ফারিণ। শপিং মলটির চলন্ত সিঁড়িতে ভয়াবহ দুর্ঘটনার কবলে পড়েন তিনি।

সেই ঘটনার বিস্তর বর্ণনা দিয়ে তিনি জানান, অল্পের জন্যে প্রাণে বেঁচেছেন। আর এটিকে কোনোভাবেই দুর্ঘটনা বলতে নারাজ এই অভিনেত্রী। তার মতে, এটি যমুনা ফিউচার পার্ক কর্তৃপক্ষের গাফিলতি।

এ নিয়ে শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে দীর্ঘ এক স্ট্যাটাসে ঘটনাটির বিস্তারিত বর্ণনা দিয়েছেন ফারিণ।

‘যমুনা ফিউচার পার্কে চলন্ত সিঁড়িতে দুর্ঘটনা’ শিরোনামে অভিনেত্রীর লেখা সেই স্ট্যাটাসটি নিউজবাংলার পাঠকদের জন্য হুবহু (বানান অপরিবর্তিত) তুলে ধরা হলো-

গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার আশে পাশে যমুনা ফিউচার পার্কের 1st floor থেকে ground floor এ নামার সময় গেট দিয়ে ঢুকেই যে মেইন escalator টা সেটায় আমার দুর্ঘটনা ঘটে। সিঁড়ির নিচে যে এলুমিনিয়ামের নাকি স্টিলের সেটা জানি না, সে পাত খুলে বের হয়ে ধারালো কোনা আমার পায়ে আঘাত করে। আমি সিঁড়ির ডান পাশে ছিলাম। আর ওইটা ছিল ঊর্ধমুখী। কলিসন হয় আমার পরনের প্যান্ট ছিঁড়ে যায় অনেকটুকু আর পায়ের বিভিন্ন স্থানে ছিলে যায় ও ডিপ কাট হয় যেটা পরবর্তীতে টের পাই। কিন্তু ঐ মুহূর্তের শুধু একটা ইমেজ আমার মাথায় ঘুরে ফিরে বারবার আসছে তা হল কিছু বোঝার আগে সবাই গগনবিদারী চিৎকার করে উঠল আর আমি দেখলাম ডান পা স্ক্র্যাচ করে পায়ের পাশ দিয়ে মাঝখান হয়ে বাম পায়ের উপরের দিকে একটা পাত ঢুকে যাচ্ছে আর চলন্ত সিঁড়িটিও আমাকে আরো সেদিকেই ঠেলে নিয়ে যাচ্ছে।

যদি গতকাল fraction of second এর মধ্যে আমাকে আমার ভাই পেছন থেকে টান দিয়ে না সরাত বা আমার বাবা যদি আমাদের দুই জনকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে না দিত আমি জানি না আজকে এই status লেখার জন্য আমি বেঁচে থাকতাম কিনা। হয়ত থাকতাম তবে আমার পা থাকত না বা আমি কখনো মা হতে পারতাম না। সে পরিস্থিতির ভয়াবহতা হয়ত লিখে বা বলে বোঝানো সম্ভব না। আমি নিচে নেমে দাঁড়ানোর কয়েক সেকেন্ডের কিছুই আমার মনে নেই। সমব্বেত ফেরার পর দেখি আমার হাঁটুর উপর থেকে প্যান্ট ছেড়া এবং পুরো পা ঝা ঝা করছে। ততক্ষনে অনেক লোক জড়ো হয়ে গেছে।

মজার ব্যাপার হল আমার এই ঘটনাকে আমি এক্সিডেন্ট মানতে নারাজ। কারন আমার এই ঘটনা ঘটার কমপক্ষে পনের মিনিট আগে আরেক ব্যক্তির সাথে একই ঘটনা ঘটে। তার পায়ের মাংস ভেদ করে ওই পাতের কোনা ঢুকে যায়। উনি নিজে অনেকক্ষন দাঁড়িয়ে লোকজন নাকি সাবধান করছিলেন এবং দায়িত্ববান কাউকে খুঁজছিলেন। শেষে কাউকে না পেয়ে help desk এ যান এবং এরমধ্যে আমার এই ঘটনা ঘটে সাথে আরো একজন ভুক্তোভুগীকে খুঁজে পাই। আমার চিৎকার চেঁচামেচিতে ফাইনালি একজন স্টাফ আসে এবং অনেকবার বলার পর ম্যানেজার কল করে। ততক্ষণে প্রচুর মানুষ জড়ো হয়ে যাচ্ছে আর ব্যথার চেয়ে বেশি ফিল হচ্ছিল হিউমিলিয়েশন। ওখানে কোনো scene create করার চেয়ে আমার মনে হয়েছে ঠান্ডা মাথায় এটার solution করা দরকার। তাই আমি বলার পর দুই জন কর্মচারী আমাদের তিন জন আহত ব্যক্তি ও তাদের সাথে যারা ছিল সবাইকে বেসমেন্ট ১ এ নিয়ে যায়। আমাদের ধারনা ছিল নিশ্চয়ই দ্রুত চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে।

আশ্চর্য বিষয় হল এতবড় মলে কোনো এম্বুলেন্স অথবা first responder তো দুরে থাক একটা first aid box নেই!! একটা first aid box! পনের বিশ মিনিট তারা শুধু এই ফার্মেসি সেই ফার্মেসি ফোন করল। কেউ নাকি দোকান ছেড়ে আসতে পারবে না। অবশেষে আধা ঘন্টা পর একজন আসে আর ওই দুই ব্যক্তির চিকিৎসা করে। কিন্তু ফিমেল ডক্টর ছাড়া আমার চিকিৎসা সম্ভব ছিল না। এর মধ্যে আমার ভাই কে পাঠালাম একটা ট্রাউসার কিনে আনার জন্য। যমুনা ফিউচার পার্কের কৃতপক্ষের মতে এই দূর্ঘটনা নাকি বেশি লোক ওঠার কারনে হয়েছে! তার মানে কি আপনারা আগে থেকেই জানতেন? নাকি ধারন ক্ষমতার বেশি লোড নিয়ে আগে থেকেই এই অবস্থায় ছিল তা আপনারা টেরই পান নি? আর একজনের সাথে এটা হওয়ার পরও কেনো কোনো একশন নেন নি আপনারা? এস্কেলেটর এর দায়িত্বে থাকা কাউকে ডাকতে বললে বলে সে আসেনি। আর আমার এই পরিস্থিতিতে তারা আমাকে চা কফি অফার করে যেখানে আমার বসার মত পরিস্থিতিতে নেই।

যা হোক কাপড় বদলে আমাদের গাড়ি করে এভারকেয়ারের ইমার্জেন্সিতে যাই। ড্রেসিং, স্টিচিং, এক্সরে, ইন্জেকসনের পর রাত ১২ টায় ছাড়া পাই। তাদের একজন কর্মকর্তা হসপিটাল পর্যন্ত আসে আমরা বলার কারনে এবং বিলের প্রসঙ্গ উঠতে বলে “আমি কেন দিব?” আপনাদের দুই চার টাকার আমার দরকারও নাই বাট মানবিকতাও নাই?! যেখানে আপনারা নিজে দোষ স্বীকার করেছেন এবং আপনার কাছে কোনো ক্ষতিপূরণ পর্যন্ত আমি চাই নি। একটা সামান্য ইমার্জেনসির বিল দেয়ার মানসিকতা আপনাদের নেই? উনাদের মতে এটার বিচার হচ্ছে তারা অভ্যন্তরীনভাবে সুষ্ঠ (!) তদন্ত করবেন।

আজকে আমার বা অন্য কারো প্রাণ গেলেও তাদের কিছুই আশা যেত না। আমার সারা রাত ঘুম হয়নি। মেন্টালি ট্রমাটাইজড। আমার ভাই যদি আমার পেছনে আজকে না থাকত বা আমাকে ধরতে যদি একটু দেরি করে ফেলত তার পর কি হত আমি চিন্তাও করতে চাই না। আল্লাহ যাতে কাউকে জীবনে এই পরিস্থিতিতে না ফেলে। আর আপনারা লিফট বা এসকেলেটর যাই ব্যবহার করেন না কেন নিজের সাবধানতা অবলম্বন করবেন।

আমি শারীরিকভাবে সুস্থ আছি। ডক্টর পাঁচ দিন বেড রেস্ট আর এন্টি বায়োটিক দিয়েছে। বোন ইনজুরি হয়নি। বসতে পারছি না আর ডান দিকে কাত হয়ে শুতে হচ্ছে। তবে মানসিক এই ট্রমা কি আদৌ কোনদিন কাটবে কিনা জানি না। সবচেয়ে বেশি ফিল হচ্ছে হতাশা। মরে গেলেই মানুষ কোনো বিচার পায় না। আমি তো বেঁচে আছি আমার আর কি বিচার হবে।

আরও পড়ুন:
যেভাবে কলকাতার সিনেমায় যুক্ত হলেন ফারিণ
কলকাতার সিনেমায় ফারিণ
‘মনে হয়েছিল ফারুকী ভাই আমাকে বাদ দিয়ে দেবেন’

মন্তব্য

বিনোদন
Nora Fatehi in the face of EDs interrogation again

আবারও ইডির জেরার মুখে নোরা ফাতেহি

আবারও ইডির জেরার মুখে নোরা ফাতেহি বলিউড অভিনেত্রী নোরা ফাতেহি। ছবি: সংগৃহীত
গত ১৫ সেপ্টেম্বর নোরাকে দিল্লি পুলিশের অর্থনৈতিক অপরাধ (ইওডব্লিউ) শাখা চার ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে। এ ছাড়াও গত বছর ১২ সেপ্টেম্বর ও ১৪ অক্টোবর প্রিভেনশন অফ মানি লন্ডারিং অ্যাক্টের (পিএমএলএ) ধারা ৫০-এর অধীনে নোরার বক্তব্য রেকর্ড করা হয়েছিল।

বহুল আলোচিত ২০০ কোটি রুপির একটি অর্থ পাচার মামলার বলিউড অভিনেত্রী নোরা ফাতেহিকে শুক্রবার আবারও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে ভারতের অর্থনৈতিক গোয়েন্দা সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)।

এ নিয়ে বার্তা সংস্থা এএনআইয়ের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, এদিন দিল্লিতে ইডির কার্যালয়ে হাজির হয়েছিলেন নোরা।

এর আগে গত ১৫ সেপ্টেম্বর নোরাকে দিল্লি পুলিশের অর্থনৈতিক অপরাধ (ইওডব্লিউ) শাখা চার ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে।

এ ছাড়াও গত বছর ১২ সেপ্টেম্বর ও ১৪ অক্টোবর প্রিভেনশন অফ মানি লন্ডারিং অ্যাক্টের (পিএমএলএ) ধারা ৫০-এর অধীনে নোরার বক্তব্য রেকর্ড করেছিল ইডি।

সে সময় তিনি বলেছিলেন, লীনা পাওলোস (মামলার মূল হোতা সুকেশের স্ত্রী) তাকে গুচির একটি ব্যাগ এবং একটি আইফোন উপহার দিয়েছিলেন।

নোরা আরও জানিয়েছিলেন, লীনার ফোনে লাউড স্পিকারে সুকেশ তাকে বলেছিলেন, তারা তার ভক্ত এবং ভালোবাসার প্রতীক হিসেবে তাকে একটি বিএমডাব্লিউ গাড়ি উপহার দিতে চান।

এই অর্থ পাচার মামলার মূল হোতা সুকেশ চন্দ্রশেখরের সঙ্গে বলিউড অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্দেজকে অভিযুক্ত করে গত ১৭ আগস্ট আদালতে চার্জশিট জমা দেয় ইডি।

এদিকে গত ১৫ নভেম্বর জ্যাকলিনকে দুই লাখ রুপির ব্যক্তিগত বন্ডে জামিন দেয় দিল্লির পাটিয়ালা আদালত।

আরও পড়ুন:
ঢাকায় অনুষ্ঠান আয়োজনে নোরা-বিপত্তি
ঢাকায় এসে যা করবেন নোরা ফাতেহি
এবারও ঢাকায় আসার অনুমতি পেলেন না নোরা
ফিফা বিশ্বকাপ মাতাবেন নোরা ফাতেহি
নোরাকে ৭ ঘণ্টা জেরা

মন্তব্য

বিনোদন
Raj Pari in Chittagong at the opening of Cineplex

সিনেপ্লেক্স উদ্বোধনে চট্টগ্রামে রাজ-পরী

সিনেপ্লেক্স উদ্বোধনে চট্টগ্রামে রাজ-পরী চট্টগ্রামে সিনেপ্লেক্সের নতুন শাখা উদ্বোধনে পরীমনি ও রাজ। ছবি: নিউজবাংলা
সিনেপ্লেক্সে নতুন শাখা চালু হওয়ার অনুভূতি জানিয়ে পরী বলেন, ‘কিছু আনন্দ ভাষায় প্রকাশ করা যায় না। সিনেপ্লেক্সের নতুন হল চালু হওয়ায় আমার সেইরকম অনুভূতি হচ্ছে।’

দেশের আধুনিক প্রেক্ষাগৃহ স্টার সিনেপ্লেক্স প্রথমবারের মতো ঢাকার বাইরে তাদের শাখা চালু করতে যাচ্ছে। চট্টগ্রাম শহরের চকবাজার এলাকায় (নবাব সিরাজ উদ্দিন রোড) বালি আর্কেড শপিং কমপ্লেক্সে নির্মিত হয়েছে প্রেক্ষাগৃহটির ষষ্ঠ শাখা।

এর উদ্বোধন আয়োজনে অংশ নিতে চট্টগ্রামে এসেছেন অভিনয়শিল্পী দম্পতি শরিফুল রাজ ও পরীমনি। শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে তারা অনুষ্ঠান স্থলে উপস্থিত হন।

সিনেপ্লেক্সে নতুন শাখা চালু হওয়ার অনুভূতি জানিয়ে পরী বলেন, ‘কিছু আনন্দ ভাষায় প্রকাশ করা যায় না। সিনেপ্লেক্সের নতুন হল চালু হওয়ায় আমার সেইরকম অনুভূতি হচ্ছে।’

সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুব রহমানের মালিকানাধীন প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শো মোশন পিকচার লিমিটেডের সিনেমা ন ডরাই এ কাজ করেছেন শরিফুল রাজ।

রাজ সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার তো খুবই ভালো লাগছে। আরও ভালো লাগবে যখন দেশের অনেক জায়গায় সিনেপ্লেক্সের শাখা হবে। মাহবুব রহমানকে ধন্যবাদ।’

৩ ডিসেম্বর থেকে দর্শকরা সিনেপ্লেক্সে সিনেমা দেখতে পারবেন। এখানে আছে তিনটি প্রেক্ষাগৃহ। আসন সংখ্যা যথাক্রমে ৮৬ (হল-১), ১৯৬ (হল-২) এবং ১২৫ (হল-৩)।

নান্দনিক পরিবেশ, সর্বাধুনিক প্রযুক্তির সাউন্ড সিস্টেম, জায়ান্ট স্ক্রিনসহ বিশ্বমানের সিনেমা হলের যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা থাকছে।

আরও পড়ুন:
২০০ মোটরসাইকেল নিয়ে রাজশাহীতে বগুড়ার নেতা-কর্মীরা
রাজশাহীতে বিএনপির সমাবেশ মঞ্চ প্রস্তুত হয়নি এখনও
বিশ্বকাপে আর না-ও দেখা যেতে পারে নেইমারকে
বাসের পর রাজশাহীতে অটোরিকশাও বন্ধ, ভোগান্তি চরমে
ব্রাজিলের সবচেয়ে বয়সী অধিনায়ক আলভেস

মন্তব্য

বিনোদন
May your unborn child live forever

‘তোমার গহীনের শিশু বেঁচে থাক আজীবন’

‘তোমার গহীনের শিশু বেঁচে থাক আজীবন’ সুবর্ণা মুস্তাফার বিভিন্ন সময়ের স্থিরচিত্র। ছবি: সংগৃহীত
হুমায়ূন আহমেদের লেখা ধারাবাহিক নাটক ‘কোথাও কেউ নেই’ ও ‘আজ রবিবার’-এ সুবর্ণার চরিত্র মুনা ও মীরা ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। ১৯৮০ সালে সৈয়দ সালাউদ্দিন জাকী পরিচালিত ঘুড্ডি সিনেমা দিয়ে বড় পর্দায় অভিষেক তার। সিনেমাটিকে তিনি ‘সময়ের আগে নির্মিত একটি ছবি’ বলে আখ্যা দিয়েছিলেন এক সাক্ষাৎকারে।

পাঁচ দশকের বেশি সময় ধরে সাংস্কৃতিক অঙ্গনের সঙ্গে যুক্ত বাংলা চলচ্চিত্র ও নাটকের তুমুল জনপ্রিয় মুখ সুবর্ণা মুস্তাফা। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত এ অভিনেত্রীর ৬৩তম জন্মদিন আজ।

দিনটিতে সোশ্যাল মিডিয়াই তারকা, ভক্ত-অনুরাগী ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের শুভেচ্ছায় ভাসছেন বর্ষীয়ান এ অভিনেত্রী।

তেমনই তাকে আদুরে শুভেচ্ছায় ভাসিয়েছেন তার স্বামী নির্মাতা বদরুল আনাম সৌদ। ফেসবুকে অভিনেত্রীর একটি ছবি পোস্ট দিয়ে তাকে ট্যাগ করে তিনি লেখেন, ‘শুভ জন্মদিন, তোমার গহীনের শিশু বেঁচে থাক আজীবন। ভালোবাসি তোমাকে।‘

১৯৫৯ সালের ২ ডিসেম্বর জন্ম সুবর্ণার। ক্যারিয়ার শুরু মঞ্চ নাটক দিয়ে। টেলিভিশন ও বড় পর্দার পাশাপাশি দীর্ঘ ২২ বছর মঞ্চে অভিনয় করেছেন তিনি।

হুমায়ূন আহমেদের লেখা ধারাবাহিক নাটক ‘কোথাও কেউ নেই’ ও ‘আজ রবিবার’-এ তার চরিত্র মুনা ও মীরা ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়।

১৯৮০ সালে সৈয়দ সালাউদ্দিন জাকী পরিচালিত ঘুড্ডি সিনেমা দিয়ে বড় পর্দায় অভিষেক সুবর্ণার। সিনেমাটিকে তিনি ‘সময়ের আগে নির্মিত একটি ছবি’ বলে আখ্যা দিয়েছিলেন এক সাক্ষাৎকারে।

১৯৮৩ সালে নতুন বউ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান, তবে সেই পুরস্কার তিনি নেননি। তার কারণ হিসেবে তিনি জানিয়েছিলেন, এ সিনেমায় তিনিই প্রধান চরিত্র।

সুবর্ণার জনপ্রিয় সিনেমাগুলোর মধ্যে রয়েছে ঘুড্ডি, নয়নের আলো, শঙ্খনীল কারাগার, পালাবি কোথায়গহীন বালুচর

টেলিভিশন নাটকে সুবর্ণা অত্যন্ত জনপ্রিয়। আফজাল হোসেন ও হুমায়ুন ফরিদীর সঙ্গে তার জুটি ছিল দর্শকনন্দিত। অভিনয়ের জন্য ২০১৯ সালে একুশে পদক পান এ অভিনেত্রী।

আরও পড়ুন:
একসাথে একসাথে শেষপর্যন্ত: বিবাহবার্ষিকীতে সৌদ
শপিংয়ে না যেতে সুবর্ণার আহ্বান
প্রয়োজনে কারফিউ চান সুবর্ণা
৬০ পেরিয়ে সুবর্ণা
সুবর্ণা কখনোই একা বাঁচতে চায়নি: সৌদ

মন্তব্য

বিনোদন
Vijay was interrogated for 12 hours by ED over the ligar

‘লাইগার’ নিয়ে বিজয়কে ১২ ঘণ্টা জেরা ইডির

‘লাইগার’ নিয়ে বিজয়কে ১২ ঘণ্টা জেরা ইডির ইডি কার্যালয় থেকে বেরিয়ে মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলছেন বিজয় দেবেরাকোন্ডা। ছবি: সংগৃহীত
জিজ্ঞাসাবাদের পর মিডিয়ার সঙ্গে আলাপে বিজয় দেবেরাকোন্ডা বলেন, ‘আমি আজ সকালে এখানে এসেছি। তাদের কিছু স্পষ্ট হওয়ার প্রয়োজন ছিল এবং আমি তাদের সব প্রশ্নের উত্তর দিয়েছি।’

লাইগার সিনেমার তহবিলের উৎসের তদন্তে তেলেগু সিনেমার সুপারস্টার বিজয় দেবেরাকোন্ডা ১২ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেছে ভারতের অর্থনৈতিক গোয়েন্দা সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, বুধবার হায়দরাবাদে ইডির কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হন এই তারকা।

জিজ্ঞাসাবাদের পর মিডিয়ার সঙ্গে আলাপে বিজয় দেবেরাকোন্ডা বলেন, ‘আমি আজ সকালে এখানে এসেছি। তাদের কিছু স্পষ্ট হওয়ার প্রয়োজন ছিল এবং আমি তাদের সব প্রশ্নের উত্তর দিয়েছি। আপনারা আমাকে অনেক ভালোবাসা দেন, সেই ভালবাসা আমাকে জনপ্রিয়তা এবং খ্যাতি দেয়। আর সেই জনপ্রিয়তা আসে কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে।

‘এই যেমন এটি একটি, কিন্তু এটা একটা অভিজ্ঞতা, এটাই জীবন এবং যখন আমাকে ডাকা হয়েছে তখন আমি আমার দায়িত্ব পালন করেছি। আমি এসে প্রশ্নের উত্তর দিলাম। কোনো অভিযোগ ছিল না, তাদের কিছু বিষয় স্পষ্ট হওয়ার দরকার ছিল।’

লাইগার-এ অভিনয়ের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বক্সিং লেজেন্ড মাইক টাইসনকে অর্থ প্রদানের বিষয়ে ফরেন এক্সচেঞ্জ ম্যানেজমেন্ট অ্যাক্টের (ফেমা) কোনো লঙ্ঘন হয়েছে কি না, তা জানতে এর আগে পরিচালক পুরী জগন্নাধ এবং অভিনেতা ও প্রযোজক চার্মি কৌরকেও জিজ্ঞাসাবাদ করে ইডি।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস বলছে, তেলেঙ্গানার ওয়ারাঙ্গলের কংগ্রেস নেতা বাক্কা জুডসন ইডিতে অভিযোগ করেছিলেন যে বেশ কয়েকজন রাজনীতিবিদ কালোটাকা সাদা করতে ১২৫ কোটি রুপি সিনেমায় বিনিয়োগ করেছেন।

জল্পনা আছে এ কারণে লাইগার-এর সঙ্গে যুক্ত অভিনেতা-অভিনেত্রীদের অর্থায়নের উৎস কোথায় তা জানতেই অনুসন্ধান করছে ইডি।

আরও পড়ুন:
প্রথম দিনেই বাজিমাত করল ‘লাইগার’
মুক্তির আগেই ‘লাইগার’-এর সিক্যুয়ালের কথা জানালেন বিজয়
বিজয়ের বিপরীতে অনন্যা নয়, পরিচালকের প্রথম পছন্দ ছিলেন জাহ্নবী
ট্রেইলারেই অপ্রতিরোধ্য ‘লাইগার’

মন্তব্য

বিনোদন
Just hearing the name of Messi the fairys chest is a goal

মেসির নাম শুনলেই পরীর বুকের মধ্যে একটা গোল হয়ে যায়

মেসির নাম শুনলেই পরীর বুকের মধ্যে একটা গোল হয়ে যায় পরীমনি ও মেসি। ছবি: সংগৃহীত
পোল্যান্ডকে দুই গোলে হারিয়ে গ্রুপপর্বের দ্বিতীয় জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। এদিন মেসি কোনো গোল না করলেও গোল দেয়ার পেছনে কম ভূমিকা ছিল না তার। মেসির পায়ে বল যাওয়া মানে দর্শকদের উল্লাস আর ধারাভাষ্যকারদের কমেন্ট্রিতে যেন গোল দেয়ার স্বাদ পায় ভক্তরা।

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরীমনির মেসি প্রেমের কথা কারো অজানা নেই। আর্জেন্টিনা সমর্থক এ নায়িকা মেসির চরম ভক্ত। ফিফা বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার ম্যাচ থাকলেই প্রকাশ পায় মেসির প্রতি তার ভালোবাসার কথা।

বুধবার রাতে পোল্যান্ডকে দুই গোলে হারিয়ে গ্রুপপর্বে চ্যাম্পিয়ন হয়ে নকআউট পর্বে পৌঁছে গেছে আর্জেন্টিনা। এ দিন মেসি কোনো গোল না করলেও গোল দেয়ার পেছনে কম ভূমিকা ছিল না তার।

মেসির পায়ে বল যাওয়া মানে দর্শকের উল্লাস আর ধারাভাষ্যকারদের কমেন্ট্রিতে যেন গোল দেয়ার স্বাদ পায় তার ভক্তরা।

তেমনই মেসি ভক্ত পরীমনি তার উচ্ছ্বাসের বহিঃপ্রকাশ করেছেন ফেসবুকে। এদিন রাতে তিনি লেখেন, ‘কমেন্ট্রি বক্সে মেসির নামটা বল্লেই আমার বুকের মধ্যে একটা গোল হয়ে যায়!’

এর আগে শনিবার রাতে মেক্সিকোকে হারিয়ে ফিফা বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার প্রথম জয়ের দিনেও উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে পরীমনি লিখেছিলেন, ‘আল্লাহ রে আমার ঘুম আসতেছে না! মেসি গো মেসি! আমার দুই চোক্ষে শুধুই মেসিইইইইইইই…’

শুধু এটাই না, আর্জেন্টিনা-মেক্সিকো খেলা শেষেও ফেসবুকে পোস্ট করে উল্লাস করেছেন এই অভিনেত্রী। একটি ভিডিও পোস্ট করে তিনি লিখেছেন, ‘মেসি একটা ভালোবাসা।’

আরও পড়ুন:
পরীর দু চোখে শুধুই মেসি
পরীর জন্য রাজের ‘জার্সি বদল’

মন্তব্য

বিনোদন
Kriti talks about love with Prabhas

প্রভাসের সঙ্গে প্রেম নিয়ে কথা বললেন কৃতি

প্রভাসের সঙ্গে প্রেম নিয়ে কথা বললেন কৃতি বলিউড অভিনেত্রী কৃতি শ্যানন। ছবি: অভিনেত্রীর ইনস্টাগ্রাম থেকে
এক প্রশ্নের জবাবে কৃতি বলেন, ‘আমি কার্তিকের সঙ্গে ফ্লার্ট করব, টাইগারকে ডেট করব এবং প্রভাসকে বিয়ে করব।’

বাহুবলি খ্যাত প্রভাসের সঙ্গে নাকি প্রেম করছেন বলিউড অভিনেত্রী কৃতি শ্যানন। এমন খবর ছড়িয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোতে। বুধবার বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন অভিনেত্রী।

কৃতি তার ইনস্টা স্টোরিতে স্পষ্ট করেছেন যে এগুলো সম্পূর্ণ গুঞ্জন। এমন কিছুই ঘটেনি।

কৃতি লেখেন, ‘এটা প্রেমও নয় আবার কোনো প্রচারের কোনো স্টান্ট নয়। রিয়্যালিটি শো-তে গিয়ে আমরা একটু বেশিই জংলি হয়ে উঠেছিল। সেই মজা গুঞ্জনে রূপ নিয়েছে।’

অভিনেত্রী আরও লেখেন, ‘কোনো সংবাদমাধ্যম আমার বিয়ের তারিখ ঘোষণা করার আগেই সবাইকে জানাতে চাই, খবরটি সম্পূর্ণ মিথ্যা।’

বেশ কিছুদিন ধরেই গুঞ্জন কৃতি ও প্রভাসের প্রেমের গুঞ্জন চলছিল। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে বরুণ-কৃতি অভিনীত সিনেমা ভেড়িয়া। তারই প্রচারে রিয়্যালিটি শো ‘ঝলক দিখলা জা’র মঞ্চে গিয়েছিলেন দুই তারকা।

প্রভাসের সঙ্গে প্রেম নিয়ে কথা বললেন কৃতি

সেই শোয়ে করণ জোহর বরুণকে প্রশ্ন করেন, কেন কৃতির নাম তালিকায় নেই।

জবাবে বরুণ বলেন, ‘কৃতির নাম নেই, কারণ কৃতির নাম একজনের মনে রয়েছে। সেই একজন এখন মুম্বাইয়ে নেই, এই মূহূর্তে তিনি দীপিকার সঙ্গে শুটিং করছেন।’

বরুণের এমন কথা শুনে হেসে ফেলেন কৃতিও। সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকে দাবি করেন, সেই ব্যক্তি প্রভাস ছাড়া আর কেউ হতে পারে না। কারণ প্রভাস এই মূহূর্তে দীপিকার সঙ্গে প্রজেক্ট কে এর সিনেমার শুটিং করছেন।

সম্প্রতি ইন্ডিয়া টুডের এক সাক্ষাৎকারে কৃতির কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল, কার্তিক আরিয়ান, টাইগার শ্রফ এবং প্রভাসের মধ্যে কাকে তিনি বিয়ে করবেন, ফ্লার্ট করবেন এবং ডেট করবেন।

জবাবে কৃতি বলেন, ‘আমি কার্তিকের সঙ্গে ফ্লার্ট করব, টাইগারকে ডেট করব এবং প্রভাসকে বিয়ে করব।’ সব মিলিয়ে দুই-দুইয়ে চার মিলিয়ে ফেলছেন নেটিজেনরা।

আরও পড়ুন:
‘আমি তো প্লাস্টিকের পুতুল নই’
কৃতিকে কি ‘লেডি আমির খান’ ডাকা যাবে
হাসতে হাসতে যুবককে ‘স্যরি’ বললেন কৃতি   
‘মিমি’র মুক্তি জন্মদিনের সেরা উপহার: কৃতি
সারোগেট মা হচ্ছেন কৃতি

মন্তব্য

p
উপরে